সম্পূর্ণ নিউজ সময়
আন্তর্জাতিক সময়
৬ টা ৪০ মিঃ, ১০ মে, ২০২১

করোনামুক্ত হয়েও ঘরে ঠাঁই হয়নি, ঘুপচি দোকানে দমবন্ধ হয়ে মৃত্যু!

করোনামুক্ত হয়ে ফেরার পরও ঘরে ঠাঁই হয়নি। না স্বামীর বাড়ি, না বাপের বাড়ি–অসুস্থ মহিলাকে আশ্রয় দিতে রাজি হয়নি কেউ। শেষে শাটার দেওয়া দোকানঘরে থাকার ব্যবস্থা হয় তার। মাত্র একদিন সেখানে কাটিয়েই মৃত্যুর মুখে ঢলে পড়েন মহিলা। অমানবিক এই ঘটনা ঘটে ভারতের নিউটাউনের গৌরাঙ্গনগর।
সংবাদ প্রতিদিন
আন্তর্জাতিক সময় ডেস্ক

ঘটনার শুরু গত ২৬ এপ্রিল। গৌরাঙ্গনগরের শ্রীকৃষ্ণ পল্লির বাসিন্দা দিনমজুরের স্ত্রীর জ্বর আসে। দরিদ্র পরিবারে ডাক্তার দেখানো বা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার মতো কেউ ছিল না। পরে সেখানকার বিদায়ী বিধায়ক তাপস চট্টোপাধ্যায়ের উদ্যোগে এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ২৯ তারিখ তার কোভিড পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এরপর কয়েক দিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। সুস্থ হওয়ার পর মহিলাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। তারপরই বাধে বিপত্তি।

সুস্থ হওয়ার পরও তার থেকে সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কা করছিলেন পরিবারের সদস্যরা। তাই শ্রীকৃষ্ণ পল্লির ছোট্ট এলাকায় একসঙ্গে ২৬ ঘরের বসতবাড়িতে থাকলে বিপদ বাড়বে, ভেবে স্বামী শংকর সর্দারও স্ত্রীকে ঘরে ফেরাতে দ্বন্দ্বে ভুগছিলেন। এখানে শৌচালয়ের সমস্যাও রয়েছে। প্রায় ৫৫ জন বাসিন্দার জন্য একটিই শৌচালয়। তাই বাকি প্রতিবেশীরা চাননি যে করোনামুক্ত হয়ে তিনি এখানে ফিরুক। 

আবার কাছেই মহিলার বাবার বাড়ি। রয়েছেন মা, ভাই। কিন্তু তারাও মেয়েকে ঘরে ফেরাতে চাননি। ঘটনা জানাজানি হতে হস্তক্ষেপ করে স্থানীয় পঞ্চায়েত। ২নং জ্যাংরা-হাতিয়াড়া পঞ্চায়েতের সদস্য শম্পা মহালদারের স্বামী তপন মহালদারের অভিযোগ, ‘বৈঠক করে সবাইকে বোঝানো হয়, মহিলাকে ঘরে রাখলে কোনও ঝুঁকি নেই। কিন্তু রাজি হননি কেউ।’

বাবার বাড়িতেও যখন আশ্রয় মিলছিল না, সে সময় মহিলার বোন এসে দাবি করেন, দিদির থাকা নিয়ে কাউকে ভাবতে হবে না। একটা নির্মাণাধীন ফ্ল্যাটে তার থাকার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। বাস্তবে দেখা যায়, যেখানে তাকে থাকতে দেওয়া হয়েছে, তা মূলত শাটার দেওয়া দোকানঘর। শ্রমিকরা থাকেন। ঠিক হয়, শাটারের অর্ধেকটা খোলা রেখে পর্দা দেওয়া হবে, যাতে আলো-বাতাস ঢুকতে পারে। কিন্তু ঘুপচি দোকানঘরে আর থাকতে পারেননি মহিলা। একদিন থাকার পরই মৃত্যু হয় তার। চিকিৎসকদের প্রাথমিক ধারণা, তীব্র গরমে শ্বাসকষ্ট হয়েই প্রাণ হারিয়েছেন তিনি।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন।

© ২০২১ সময় টিভি মিডিয়া নেটওয়ার্ক
সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত
DMCA.com Protection Status
সময় মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন
Somoy Tv App PlayStore Somoy Tv App AppleStore
ফলো সামাজিক সময়