সম্পূর্ণ নিউজ সময়
শিক্ষা সময়
১৭ টা ১৮ মিঃ, ৯ মে, ২০২১

অসহায় মানুষের জন্য ‘এক টাকার দোকান’

স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে গঠিত সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘ছবিঘর’ এর উদ্যোগে রমজান মাসকে কেন্দ্র করে অসহায় মানুষের জন্য চলছে ‘এক টাকার দোকান’।
শিক্ষা সময় ডেস্ক

সেই শায়েস্তা খাঁর আমলে টাকায় ৮ মণ চাল পাওয়া যেত। বর্তমানে ১ টাকায় চাল পাওয়া যেনো দুঃস্বপ্ন। আর সেই দুঃস্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দিয়ে ১ টাকার বিনিময়ে চারজনের পরিবারের এক সপ্তাহের খাবার ও ইফতার সামগ্রী বিক্রি করছেন কিছু তরুণ। 

লোকলজ্জার ভয়ে ত্রাণ নিতে পারেন না এমন মানুষের জন্য সাভারে চালু করা হয়েছে ‘এক টাকার দোকান’ নামে ভ্রাম্যমাণ দোকান। 'ছবিঘর' নামে একটি সংগঠনসহ মোট ৫টি সংগঠন মিলে এমন মহতী উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।

একটি স্টল ও ৯টি ভ্রাম্যমাণ ভ্যানের মাধ্যমে সাভারের বিভিন্ন এলাকায় অসহায় পরিবারকে খাদ্য ও ইফতার সামগ্রী বিতরণ করছেন তারা।

মহামারি করোনা মোকাবিলায় ও দেশের মানুষের সুরক্ষার কথা চিন্তা করে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে লকডাউন বাস্তবায়ন করছে সরকার। এমন পরিস্থিতিতে অসহায় মানুষের কথা চিন্তা করে ছবিঘর, জিরো ফাউন্ডেশন, 'উই আর এসসিপিসসিয়ান' সাভার বন্ধুসভা ও পথে পথে পাঠ নামে ৫টি সংগঠন ১ টাকার বিনিময়ে বিতরণ শুরু করেছে খাদ্য।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এই রমজানে প্রতি শুক্রবার বিকেলে তারা এক টাকার বিনিময়ে খাদ্য কর্মসূচি চালিয়ে নিচ্ছেন। প্রথম দিনে তারা ২৭ কেজি চাল, ৬ কেজি ডাল ও ৫০০ পিস ডিমসহ মোট ১২ হাজার টাকার খাদ্য বিতরণ করেন। 

সাভার থানা রোডে তাদের একটি স্টলসহ রয়েছে ৯টি ভ্রাম্যমাণ ভ্যান। দিনে প্রায় ৫০০ মানুষের কাছে এক টাকার বিনিময়ে ইফতার পৌঁছে দিচ্ছেন।

'ছবিঘর'র সভাপতি হাসিবুল হাসান ইমু বলেন, অনেকেই ত্রাণ নিতে সংকোচ বোধ করেন। তাই উপকারভোগীরা যাতে মনে করেন ত্রাণ নয়, টাকার বিনিময়ে তারা পণ্য কিনে নিচ্ছেন- এই ধারণা থেকে এক টাকার দোকান নামে ভ্রাম্যমাণ দোকান চালু করা হয়। 

যে কেউ ওই দোকান থেকে এক টাকার বিনিময়ে চারজনের একটি পরিবারের জন্য এক সপ্তাহের খাদ্য ও ইফতার সামগ্রী কিনে নিতে পারবেন।

তিনি আরও বলেন, এর আগে ঈদের দিন মহল্লায় মহল্লায় ঘুরে ছিন্নমূল ও অসহায় পরিবারের মাঝে এক টাকার বিনিময়ে রান্না করা খাবার পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। করোনার প্রভাব যতদিন থাকবে ততদিন এই সহায়তা চালিয়ে নিয়ে যাওয়ার ইচ্ছে পোষণ করেন তিনি।

সহযোগী সংগঠন জিরো ফাউন্ডেশনের সভাপতি হিরন আচার্য জানান, ভাল কাজের সঙ্গে সব সময় আছেন। এক সঙ্গে অনেক মানুষকে সাহায্য করা যাবে এই ভেবেই তারা ছবিঘরের এক টাকার দোকানের সঙ্গে সামিল হয়েছেন। ঈদের আগে এমন পরিবারের মাঝে ঈদবস্ত্র দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

উই আর 'এসসিপিএসসিয়ান'র সদস্য তালহা সাংবাদিকদের জানান, ছবিঘরের এক টাকার দোকানের সঙ্গে থেকে এই মহৎ উদ্যোগকে সফল করতে পারায় খুশি এবং এভাবেই তারা সবার পাশে দাঁড়াতে চান। আর করোনা মহামারির জন্য অনেকে কাজ হারিয়েছেন। আমরা তাদের পাশে দাঁড়িয়েছি। একই সঙ্গে বিত্তবানদেরও অসহায় পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান করছি। 

সাভার পৌর এলাকার ব্যাংক কলোনির কলেজছাত্র প্রিন্স ঘোষ ও তার চার বন্ধু মিলে ২০১৮ সালে ছবিঘরের যাত্রা শুরু করেন। শুরু থেকে ছবি নিয়ে কাজ করলেও দেশে করোনার প্রাদুর্ভাব দেখা দেওয়ার পর থেকে প্রতিষ্ঠানটি অসহায় মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। 

নিজেদের হাত খরচ বাঁচানো অর্থসহ পরিবার ও প্রবাসে থাকা স্বজনদের চাঁদায় অসহায় ও কর্মহীন মানুষকে এক টাকার বিনিময়ে তারা খাদ্য সহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন। 

এক টাকায় 'এক বেলা ইচ্ছে পূরণ' নামে প্রথমে তাদের উদ্যোগ চালু হলেও পরবর্তীতে নাম পরিবর্তন করে 'এক টাকার দোকান' করা হয়। এই দোকান থেকে পুরো রমজান মাসে কয়েক হাজার অসহায় পরিবারকে খাদ্য ও ইফতার সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হবে।

শিমুল/

© ২০২১ সময় টিভি মিডিয়া নেটওয়ার্ক
সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত
DMCA.com Protection Status
সময় মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন
Somoy Tv App PlayStore Somoy Tv App AppleStore
ফলো সামাজিক সময়