সম্পূর্ণ নিউজ সময়
বাংলার সময়
১৯ টা ১ মিঃ, ৮ মে, ২০২১

টিকটক-লাইকিতে ‘আপত্তিকর’ ছবি দেওয়ায় স্ত্রীকে হত্যা

টিকটক ও লাইকি অ্যাপসে আপত্তিকর ছবি পোস্ট করায় স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে স্বামীর বিরুদ্ধে। শনিবার (৮ মে) সন্ধ্যায় বাগেরহাট শহরে দশানী উত্তরপাড়া এলাকায় এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। নিহতের নাম সোমা আক্তার (১৯)।
আলী আকবর টুটুল

বাগেরহাট সদর উপজেলার সিংড়াই গ্রামের আব্দুল করিম বকসের মেয়ে তিনি। বাগেরহাট সরকারি পিসি কলেজে ইংরেজি বিভাগে স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষে পড়াশুনা করতেন সোমা।

পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় রাত সাড়ে আটটার দিকে অভিযুক্ত স্বামী আব্দুল্লাহ আল নাইম ওরফে শান্ত (২৩) বাগেরহাট মডেল থানায় আত্মসমর্পণ করেছেন। শান্ত দশানী উত্তরপাড়া এলাকার গোলাম মোহাম্মাদের ছেলে। তিনি ঢাকায় একটি বায়িং হাউজে কাজ করতেন। ভালোবেসে গত ২০১৯ সালে নাইম ও সোমা বিয়ে করেছিলেন।

আব্দুল্লাহ আল নাইমের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, লাইকি অ্যাপস ও বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সোমার অ্যাকাউন্ট ছিল। সোমা সে সব অ্যাকাউন্টে আপত্তিকর ছবি পোস্ট করত। এ সব নিয়ে স্বামী নাইমের সঙ্গে তার ঝামেলা হচ্ছিল। শনিবার ঢাকা থেকে ফিরে সোমাকে ফোন করে। বিকেল তিনটার দিকে দশানীস্থ নাইমের বাড়িতে আসে সোমা। সেখানে সন্ধ্যার দিকে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে সোমাকে হত্যা করে নাইম। নাইমের বাবা-মা ঢাকায় থাকায় বাড়িতে শুধু তারা দুজন ছিল। সোমা পরকীয়ায় লিপ্ত ছিল বলে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন তার স্বামী।

সোমার ভাই রাসেল জানান, ছেলে বেকার কিছু করত না। আমার বোনকে খেতে পরতে দিত না। এ সব নিয়ে সংসারে ঝামেলা হতো। এ কারণে তাকে হত্যা করা হতে পারে।

বাগেরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম আজিজুল ইসলাম বলেন, আমরা মরদেহ উদ্ধার করে বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছি। হত্যাকারী আব্দুল্লাহ আল নাইম ওরফে শান্ত আমাদের হেফাজতে রয়েছে। সে হত্যার দায় ও কারণ পুলিশকে জানিয়েছে। হত্যার সঙ্গে অন্য কোনো বিষয় জড়িত আছে কিনা তা আমরা খতিয়ে দেখছি।

© ২০২১ সময় টিভি মিডিয়া নেটওয়ার্ক
সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত
DMCA.com Protection Status
সময় মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন
Somoy Tv App PlayStore Somoy Tv App AppleStore
ফলো সামাজিক সময়