সম্পূর্ণ নিউজ সময়
খেলার সময়
১৫ টা ৫৩ মিঃ, ৭ মে, ২০২১

ফের অনিশ্চয়তায় টোকিও অলিম্পিক

মহামারি করোনার প্রকোপ এখনও নিয়ন্ত্রণে আসেনি জাপানে। তাই বাধ্য হয়ে লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিল দেশটির সরকার। প্রধানমন্ত্রী ইউশিহিদে সুগা শুক্রবার (৭ মে) ঘোষণা করলেন, ১১ মে’র পরও লকডাউনেই থাকবে দেশ। খবর আলজাজিরার।
খেলার সময় ডেস্ক

টোকিও, ওসাকা, হোগো ও কিওটোতে ১১ মে এ অবস্থা শেষ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এখন তা বাড়িয়ে মাসের শেষ পর্যন্ত করা হয়েছে। এতে অলিম্পিক ঘিরে আশঙ্কার কালো মেঘ আরও ঘনিয়ে উঠেছে।

আগামী ২৩ জুলাই দেশটিতে অলিম্পিক শুরু হওয়ার কথা। এতে ২০০টি দেশ ও অঞ্চল থেকে ১০ হাজারের বেশি খেলোয়াড়ের অংশ নেওয়ার কথা।

বিশ্লেষকদের মতে, মে মাসের পর যদি স্বাভাবিক হয় টোকিওর পরিস্থিতি, তাতেও কি হাতে যথেষ্ট সময় থাকবে, অলিম্পিকের মতো এত বড় একটা খেলা আয়োজন করার জন্য?

তবে আয়োজকদের পক্ষ থেকে এখনও আশ্বাস দেওয়া হচ্ছে, অলিম্পিক আয়োজন চলছে। লকডাউনের প্রভাব তাতে পড়েনি। গতবছর নির্ধারিত সময়ে হওয়ার কথা ছিল অলিম্পিক। সেই ডেটলাইন অনুযায়ী প্রায় সব কিছু তৈরি হয়ে রয়েছে। তাই অলিম্পিক নিয়ে দুশ্চিন্তার কোনো কারণ নেই।

কিন্তু পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করলে অলিম্পিকের সম্ভাবনা একটু একটু করে কমছে। বিদেশি দর্শক আগেই নিষিদ্ধ হয়েছে অলিম্পিকে। দেশি সমর্থকদেরও হয়তো সুরক্ষার কারণে স্টেডিয়ামে ঢোকার অনুমতি দেবে না আয়োজকরা। কিন্তু তাতেও করোনা ঠেকাতে পারবে কিনা আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

১০ হাজারেরও বেশি মানুষের নিরাপত্তার ভার নেওয়া অত্যন্ত কঠিন কাজ। একবার করোনা সুরক্ষা বলয় ভেদ করে ঢুকে পড়লে হুহু করে বাড়বে সংক্রমণ। এই দিকটা তুলে ধরেই অলিম্পিক আয়োজন করার ব্যাপারে এখনও তীব্র আপত্তি জানাচ্ছে দেশটির আমজনতা।

করোনার কারণে এক বছর পর অলিম্পিক গেমস হতে যাচ্ছে। কিন্তু সাম্প্রতিক সমীক্ষায় দেখা গেছে, জাপানের ৮০ শতাংশ মানুষ মনে করেন, অলিম্পিক গেমস হবে না বা হওয়া উচিত নয়। প্রধানমন্ত্রী অবশ্য চান, দেরিতে হলেও অলিম্পিক গেমস হোক।

© ২০২১ সময় টিভি মিডিয়া নেটওয়ার্ক
সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত
DMCA.com Protection Status
সময় মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন
Somoy Tv App PlayStore Somoy Tv App AppleStore
ফলো সামাজিক সময়