সম্পূর্ণ নিউজ সময়
বাংলার সময়
১৫ টা ৫৩ মিঃ, ৬ মে, ২০২১

সরকারি সার কারখানার বিষাক্ত পানি পানে ১২ মহিষের মৃত্যু

চট্টগ্রাম ব্যুরো

চট্টগ্রামের আনোয়ারায় রাষ্ট্রায়ত্ত্ব সার কারখানা চিটাগাং ইউরিয়া ফার্টিলাইজার লিমিটেডের (সিইউএফএল) বিষাক্ত অ্যামোনিয়া গ্যাস মিশ্রিত পানি পানে অন্তত ১২টি মহিষ মারা গেছে। ক্ষতিগ্রস্তদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে বিষক্রিয়ার বিষয়টি প্রমাণিত হলে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। 

সরেজমিনে দেখা যায়, সারি সারি পড়ে রয়েছে মৃত মহিষগুলো। এক একটি ফুলে ফেঁপে উঠেছে গ্যাসের বিষক্রিয়ায়। বের হচ্ছে নাক দিয়ে বিষাক্ত পানি।

চট্টগ্রামের আনোয়ারায় সার কারখানা সিইউএফএরের আ্যমোনিয়া গ্যাস মিশ্রিত পানি পান করেই মৃত্যু হয়েছে এ রকম অসংখ্য মহিষের। এতে ক্ষতিপুরণ দাবি করেছেন খামারিরা।

ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, সার কারখানার বিষাক্ত পানি খালে ফেলার কারণে তা পান করে মহিষগুলোর মৃত্যু হয়েছে। এভাবে বিষাক্ত অ্যামোনিয়া মিশ্রিত পানি খালে ছেড়ে দেওয়ার কারণে বিগত কয়েক বছর ধরে সেখানকার অধিকাংশ মাছের জাতও বিলুপ্ত হয়েছে বলে অভিযোগ তাদের।

বৃহস্পতিবার (৬ মে) সকাল ৮টার দিকে ছোট খাল দিয়ে গ্যাস মিশ্রিত বিষাক্ত পানি ছাড়ে সিইউএফএল কর্তৃপক্ষ। এ সময় মাজের চরে চরতে থাকা ১৫ লাখ টাকার মূল্যের ১২টি মহিষ এ পানি খেয়ে মারা যায়। স্থানীয় জনপ্রতিনিধির দাবি কর্তৃপক্ষের গাফিলতির কারণেই বারবার প্রাণী হত্যার ঘটনা ঘটছে।

উপজেলার ২ নম্বর বরশত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম এ কাইয়ুম শাহ বলেন, সিইউএফএলসহ তিন সার কোম্পানি যেন তাদের এই বিষাক্ত পানি রিসাইকিলিং করে ছেড়ে দেওয়ার আগের দিন আশাপাশের এলাকায় মাইকিং করে জানিয়ে দেয়। 

এদিকে প্রমাণিত হলে তালিকা করে ক্ষতিপূরণ দেয়ার আশ্বাস দিয়েছে সিইউএফএল কর্তৃপক্ষ।

সিইউএফএল এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুর রহিম বলেন, যদি আমাদের কারণে তাদের (খামারি) ক্ষতি হয় তাহলে তারা ক্ষতিপূরণ পাবে না কেনো? যদি প্রমানিত হয় আমাদের কারণে ক্ষতি হয়েছে তাহলে অবশ্যই ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে।

২০০৪ সালে গ্যাস বিষক্রিয়ায় ৭০ থেকে ৮০টি আর গত দু'বছরে মারা যায় ১১টি মহিষ।

© ২০২১ সময় টিভি মিডিয়া নেটওয়ার্ক
সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত
DMCA.com Protection Status
সময় মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন
Somoy Tv App PlayStore Somoy Tv App AppleStore
ফলো সামাজিক সময়