সম্পূর্ণ নিউজ সময়
শিক্ষা সময়
৩ টা ৪৩ মিঃ, ৬ মে, ২০২১

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে পুকুর খননের মাটি লুট করছে দুই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পুকুর খনন প্রকল্পে ইজারার শর্ত ভঙ্গ করে শত শত ট্রাক মাটি ইটভাটায় বিক্রি করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে দুই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বারবার সতর্ক করার পরও সংশ্লিষ্ট ঠিকাদাররা ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবশালী নেতা হওয়ায় বিধিবহির্ভূতভাবে দিনদুপুরে তারা মাটি বিক্রির কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। এ অবস্থায় ক্ষুব্ধ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমাজের প্রতিনিধিরা।
সাইফুর রহমান রকি

গত বছর মার্চে শহীদ শামসুজ্জোহা হলের পূর্বপাশে প্রায় ১০ বিঘা জমিতে পুকুর খননের টেন্ডার হয়। ১৭টি শর্ত প্রদান করে দরপত্র আহ্বান করলে সর্বোচ্চ দর হেঁকে চার বছরের জন্য প্রকল্পটির ইজারা পান মহানগর ও মতিহার থানা আওয়ামী লীগের দুই নেতা। শর্তে পাড় বাঁধাইয়ের পর পুকুরের মাটি সর্বোচ্চ ৩০০ গজ দূরে ফেলার পাশাপাশি অতিরিক্ত মাটি কৃষি প্রকল্পের আওতায় থাকবে বলে শর্ত জুড়ে দেয়া হয়। তবে ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবশালী নেতা হওয়ায় এসব নির্দেশ অমান্য করে এক মাসেরও বেশি সময় ধরে ট্রাক্টর লোড করে দিনে দুপুরে মাটি বিক্রি করছেন ইটভাটায়। যা উঠে এসেছে সময়ের টেলিভিশনের ক্যামেরায়। এতে ক্ষুব্ধ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমাজের দায়িত্বশীলরা।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) দুর্নীতিবিরোধী শিক্ষক সমাজের আহ্বায়ক প্রফেসর সুলতানুল ইসলাম টিপু বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্পদ চুরি ও লুট হওয়া সত্ত্বেও প্রশাসন কোনো আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। কেননা বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্পদ কারও ব্যক্তিগত সম্পদ নয়। এটা কোনোভাবে লুট হতে দেয়া যাবে না।

তবে ইজারাদার বিষয়টি অস্বীকার করলেও ক্যাম্পাস থেকে মাটি কেনার কথা স্বীকার করেন ইটভাটার ম্যানেজার। আর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের নির্দেশে মাটি বিক্রি হচ্ছে বলে জানান সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারের ভাই।

এদিকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর আনন্দ কুমার সাহা বলেন, বারবার সতর্ক করার পরও নির্দেশনা অমান্য করে এমনটা করছেন তারা।

বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঁচটি পুকুর খননের কাজ চলমান আছে।

 

© ২০২১ সময় টিভি মিডিয়া নেটওয়ার্ক
সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত
DMCA.com Protection Status
সময় মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন
Somoy Tv App PlayStore Somoy Tv App AppleStore
ফলো সামাজিক সময়