সম্পূর্ণ নিউজ সময়
প্রবাসে সময়
৪ টা ৫ মিঃ, ২৭ জানুয়ারী, ২০২১

মার্সেলোর বিজয়ে সহজ হতে পারে পর্তুগালের অভিবাসন নীতি

তারিকুল হাসান আশিক

দ্বিতীয় মেয়াদে প্রেসিডেন্ট মার্সেলোর নিরঙ্কুশ বিজয়ে আরও সহজ হতে পারে পর্তুগালের অভিবাসন নীতি এমনটাই মনে করছেন বাংলাদেশি পর্তুগিজসহ সাধারণ প্রবাসীরা। অন্যদিকে প্রথমবারের মতো কোনো নারী প্রেসিডেন্ট প্রার্থী দ্বিতীয় হওয়া বা আন্দ্রে ভেনতুরার মতো কট্টরপন্থি র‍্যাসিস্ট প্রার্থীর ১০ শতাংশের বেশি জনসমর্থন আলোচিত করেছে এবারের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে।

প্রত্যেক জেলার পাশাপাশি ৩০৮টি মিউনিসিপালিটির সবকটিতেই জয় নিয়ে পর্তুগালের ইতিহাসে রেকর্ড জনপ্রিয়তা নিয়ে দ্বিতীয় মেয়াদে প্রেসিডেন্ট বেলেম প্যালেসের বাসিন্দা সাবেক আইনের অধ্যাপক মার্সেলো রেবেলো ডি সউজা। বিজয়ী ভাষণে করোনা-পরবর্তী অর্থনীতি পুনরুদ্ধার ও ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য নিজের সবটুকু দিয়ে কাজ করার আশ্বাস দেন তিনি।

মার্সেলোর দ্বিতীয় মেয়াদে সহজ অভিবাসন নীতি ও পররাষ্ট্রনীতি আরও ফলপ্রসূ হবে বলে মনে করেন স্থানীয় রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

পর্তুগিজ সোশ্যালিস্ট মহানগর সদস্য শাহ আলম কাজল বলেন, ইমিগ্রেন্টদের ব্যাপারে তিনি সহানুভূতি আছে। তিনি প্রতিটি ক্ষেত্রে সরকারকে চাপ সৃষ্টি করে যেন বিদেশিরা বিশেষ করে অভিবাসীরা সমাধিকার নিয়ে থাকতে পারেন।

তবে নানা কটুবাক্য ও বর্ণবাদী আচরণের পরেও শেগা পার্টির নেতা আন্দ্রের ১২ শতাংশ ভোট পাওয়াকে নেতিবাচক বলছেন প্রবীণ কমিউনিটি নেতারা।

পর্তুগিজ সোশ্যালিস্ট কমিউনিটি নেতা রানা তসলিম উদ্দিন বলেন, এই মানুষটা সংসদে দাঁড়িয়ে বলেছেন, ইসলাম ধর্ম যারা পালন করেন তাদের বিরুদ্ধে নজরদারি রাখা দরকার। এমনও বলেছে আমি যদি ক্ষমতায় আসতে পারি তাহলে পাকিস্তানিদের এক টিকিটে দেশে পাঠিয়ে দেব।   

অন্যদিকে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা সোশ্যালিস্টের একাংশ সমর্থিত নারী প্রার্থী আনা গোমেজের ১৩ শতাংশ ভোট পাওয়াকেও মাইলফলক বলছেন বিশেষজ্ঞরা, যা পরবর্তীতে পর্তুগালের প্রথম নারী রাষ্ট্রপতি পাওয়ার ক্ষেত্রে রাখতে পারে বড় ভূমিকা।

 

© ২০২১ সময় টিভি মিডিয়া নেটওয়ার্ক
সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত
DMCA.com Protection Status
সময় মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন
Somoy Tv App PlayStore Somoy Tv App AppleStore
ফলো সামাজিক সময়