সম্পূর্ণ নিউজ সময়
বাংলার সময়
১৬ টা ২৩ মিঃ, ১৯ জানুয়ারী, ২০২১

গ্রাম্য সালিশে পিটিয়ে বাদীর দাঁত ভেঙে দিলেন ইউপি সদস্য

নওগাঁর ধামইরহাটে গ্রাম্য সালিশে বাদীকে পিটিয়ে দাঁত ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় সোমবার (১৮ জানুয়ারি) মামলা করা হয়। 
এম আর রকি

ধামইরহাট থানার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, জমিতে পানি দেওয়া নিয়ে উমার ইউপির ৯ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য নুরনবী চঞ্চল (৩৬) এর সাথে ছোট চকগোপাল (খয়েরবাড়ী) গ্রামের কৃষক মোসাদ্দত হোসেনের ছেলে নুর ইসলামের বাকবিতণ্ডার সৃষ্টি হয়। 

বিষয়টি নিয়ে গত ১৫ জানুয়ারি একটি বৈঠক বসান ইউপি সদস্য নুরনবী চঞ্চল। বৈঠকে ইউপি সদস্য গ্রামবাসীদের নিয়ে আলোচনাকালে ক্ষিপ্ত হয়ে নুর ইসলামকে এলোপাতাড়িভাবে মারপিট করে, একপর্যায়ে ইউপি সদস্য নুরনবী চঞ্চল ভুক্তভোগী নুর ইসলামের মুখে সজোরে ঘুষি মারে। এতে নুর ইসলামের মুখের তিনটি দাঁত পড়ে যায়।
স্থানীয়রা তাকে ধামইরহাট হাসপাতালে ভর্তি করে দেন। 

তবে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য নুরনবী চঞ্চল বলেন, আমি তার কলার ধরে শাসিয়েছি, তবে দাঁত ভাঙি নাই, আগে থেকে তার দাঁত ভাঙা ছিল, পরে নুর ইসলামকে চিকিৎসার জন্য এ বিষয়ে গণ্যমান্যদের পরামর্শে চার হাজার টাকা পাঠিয়েছি।’

নুর ইসলামের দাঁত ভাঙার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে তদন্তকারী কর্মকর্তা সহকারী উপ পুলিশ পরিদর্শক রাসেল বলেন, অভিযোগ পেয়ে ওসি স্যারের নির্দেশে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি, বাদী চাইলে নিয়মিত মামলা রুজু করা হবে। 

সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান জানান, ‘বিচার বৈঠকে ইউপি সদস্য কর্তৃক বাদীকে মারপিট ন্যাক্কারজনক ঘটনা, ইতিপূর্বেও ইউপি সদস্য নুরনবী চঞ্চল জনগণের দ্বারা একাধিকবার লাঞ্ছিত হয়ে আমার ইউনিয়নের মান ক্ষুন্ন করেছে, আমি আইনের সঠিক প্রয়োগ চাই।’ 

ধামইরগাট থানার ওসি বলেন,‘ তদন্ত চলমান, বাদী আপসের চেষ্টার কথা শুনেছি, তবে বাদীর এজাহার সাপেক্ষেই মামলা রেকর্ড করা হবে।’

ধামইরহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গণপতি রায় বলেন, একজন জনপ্রতিনিধি হয়ে বিচার বৈঠকে বিবাদীর বিচার না করে দাঁত ভেঙে গর্হিত অপরাধ করেছেন, যা কাম্য নয়।

© ২০২১ সময় টিভি মিডিয়া নেটওয়ার্ক
সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত
DMCA.com Protection Status
সময় মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন
Somoy Tv App PlayStore Somoy Tv App AppleStore
ফলো সামাজিক সময়