ওয়েব ডেস্ক
আপডেট
০৩-১২-২০২০, ০৮:৩৬

ভারতে বিজেপির রাজনৈতিক সাফল্যের গোপন রহস্য

ভারতে বিজেপির রাজনৈতিক সাফল্যের গোপন রহস্য
কোনো সন্দেহ এখন আর নেই যে হিন্দু জাতীয়তাবাদী দল বিজেপি বর্তমানে ভারতের এক নম্বর প্রভাবশালী রাজনৈতিক দল যারা ২০১৪ সালে থেকে চ্যালেঞ্জ ছাড়াই ভারত শাসন করছে।

নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে বিজেপি পর পর দুটো সাধারণ নির্বাচন জিতেছে। শুধু জেতেইনি, বিপুল সমর্থন নিয়ে জিতেছে। কিছু রাজ্যে বিধান সভা নির্বাচনে হারলেও বিজেপি এখন সর্ব-ভারতীয় একটি দলের চেহারা নিচ্ছে।

অন্যদিকে, প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেস ক্রমান্বয়ে দুর্বল হচ্ছে। এক সময়কার মহা-প্রতাপশালী ও ভারতের স্বাধীনতার নেতৃত্ব দেওয়া এই দলটি যেন তাদের রাজনৈতিক শক্তি এবং সম্ভাবনার অনেকটাই নিঃশেষ করে ফেলেছে।

মোদিকে সত্যিকারের চ্যালেঞ্জ করার কোনো শক্তি যে তাদের অবশিষ্ট রয়েছে বা তৈরি হচ্ছে তার বিন্দুমাত্র কোনো লক্ষণ চোখে পড়ছে না।

রাষ্ট্রবিজ্ঞানী সুহাস পালশিকার বলছেন, কংগ্রেসের পর ভারতে বিজেপি দ্বিতীয় কোনো দল যারা ‘প্রভাবশালী একটি রাজনৈতিক দল ব্যবস্থা’ গড়ে তুলতে সমর্থ হয়েছে।

প্রথম ছিল ইন্দিরা গান্ধীর নেতৃত্বাধীন কংগ্রেস যারা ৫০ বছরেরও বেশি সময় ধরে ভারত শাসন করেছে। কিন্তু ১৯৮৪ সালে রাজীব গান্ধীর নেতৃত্বাধীন কংগ্রেসের পর বিজেপিই একমাত্র এবং প্রথম দল যারা নির্বাচনে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে।

পালশিকার বলছেন, ইন্দিরা গান্ধীর পর নরেন্দ্র মোদি ‘একমাত্র রাজনৈতিক নেতা যিনি সত্যিকার অর্থে প্রায় পুরোটা ভারত জুড়ে সাধারণ মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্য হতে পেরেছেন।’

মোদির ‘সম্মোহন’
বিজেপির নির্বাচনী সাফল্যের মূলেই রয়েছে মোদির সম্মোহনী ব্যক্তিত্ব এবং সেই সাথে ধর্মীয় মেরুকরণ ও কট্টর জাতীয়তাবাদী রাজনীতির প্রসার।

বিজেপির এই রাজনীতির প্রচার এবং প্রসারের পেছনে রয়েছে অক্লান্ত নিবেদিতপ্রাণ কর্মীর বিশাল এক নেটওয়ার্ক। এসব কর্মীর অনেকেই বিজেপির আদর্শিক পথ-প্রদর্শক কট্টর হিন্দু সংগঠন আরএসএস-এর (রাষ্ট্রীয় স্বয়ং-সেবক সংঘ) বা তাদের ‘জঙ্গি সহোদর’ বিশ্ব হিন্দু পরিষদের (ভিএইচপি) তৃণমূল স্তরের নেতা-কর্মী।

তহবিলের কোনো সঙ্কট নেই বিজেপির। সাম্প্রতিক বছরগুলোকে দলটি নানা সূত্র থেকে প্রচুর ‘অস্বচ্ছ’ তহবিল পাচ্ছে। সেইসাথে ভারতের মূলধারার সংবাদমাধ্যমের বড় একটি অংশের নিঃশর্ত সমর্থন পাচ্ছে তারা।

তবে রাষ্ট্রবিজ্ঞানী বিনয় সিতাপতি বলছেন, বিজেপি এবং সেই সাথে আরএসএস-এর এই রাজনৈতিক সাফল্যের রহস্য জানতে আরও পেছনে যেতে হবে।

অটল বিহারী বাজপেয়ী এবং লালকৃষ্ণ আদভানির মধ্যে মতভেদ ছিল। তবে তাতে বিজেপি ভেঙ্গে যায়নি।

হিন্দু ঐক্যের ওপর সদ্য প্রকাশিত ‘যুগলবন্দী: মোদীর আগের বিজেপি‘ শীর্ষক বইতে অশোকা ইউনিভার্সিটির রাষ্ট্রবিজ্ঞান এবং আইনের শিক্ষক সিতাপতি লিখেছেন, বিজেপির সাফল্যের কারণ তারা ‘ঐক্যকে’ বিশেষ প্রাধাণ্য দিয়েছে। ৯৫ বছরের কট্টর হিন্দু সংগঠন আরএসএসের ক্যাডারদের হিন্দু ধর্মের ইতিহাসের ‘অদ্ভুত বিকৃত’ ব্যাখ্যা শেখানো হয় যেখানে বলা হয় ‘মহান জাতি হয়েও হিন্দুরা পরাজিত হয় কারণ তারা এক অন্যের পিঠে ছুরি মারে, এবং তারা ঐক্যবদ্ধ নয়।’

ইতিহাসের খণ্ডিত অংশ তুলে ধরে ক্যাডারদের মনে এই ধরনের বিশ্বাস প্রথিত করা হয়। সেই সাথে শেখানো হয় জোটবদ্ধ শরীর-চর্চা। বেসরকারি বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে যেভাবে টিম-বিল্ডিং করা হয় অনেকটা সেই ধাঁচে আরএসএসের ক্যাডারদের একসাথে কুচকাওয়াজ করানো হয়, একজনের কাঁধে আরেকজন দাঁড়িয়ে পিরামিড তৈরি করানো হয় এবং নানা ধরণের জোটবদ্ধ খেলাধুলা করানো হয়।

‘এগুলো করে প্রধানত ক্যাডারদের মধ্যে ঐক্যের ধারণা এবং গুরুত্ব বোঝানো হয়। আরএসএসের মূলমন্ত্রই হচ্ছে হিন্দু ঐক্য এবং তার প্রতি বিশ্বাস। ঐক্যের এই মন্ত্র ক্যাডার-ভিত্তিক অন্যান্য দলের থেকে অনেকটাই আলাদা’, বলেন অধ্যাপক সিতাপতি।

হিন্দু ঐক্য
বিজেপির প্রধান লক্ষ্য ভারতের হিন্দুদের- যারা দেশের জনসংখ্যার ৮০ শতাংশ- ঐক্যবদ্ধ করা এবং তাদেরকে ঐক্যবদ্ধভাবে তাদের পক্ষে ভোট দেওয়ানো।

সে কারণে, বিজেপি হিন্দু ধর্মের ভেতর জাতপ্রথার বাস্তবতাকে চাপা দিয়ে রাখতে তৎপর, এবং সেই সাথে ‘ইসলাম বিদ্বেষকে’ উস্কানি দেওয়া, এবং একই সাথে, অধ্যাপক সিতাপতির মতে, প্রাচীন হিন্দু শাস্ত্রের গুরুত্ব প্রচার করা বিজেপির প্রধান কাজ।

তবে অন্য সব রাজনৈতিক দলের মত বিজেপির ভেতরেও বিভিন্ন নীতি-আদর্শ নিয়ে মতভেদ হয়েছে। দলের প্রতিষ্ঠাতা দুই নেতা অটল বিহারী বাজপেয়ী এবং লালকৃষ্ণ আদাভানির মধ্যে বিভিন্ন সময় যে টক্কর লেগেছে তার প্রমাণ রয়েছে।

যেমন, ২০০২ সালে গুজরাটে মুসলিম বিরোধী দাঙ্গার পরও ঐ রাজ্যের ক্ষমতায় নরেন্দ্র মোদির রয়ে যাওয়া নিয়ে তখনকার প্রধানমন্ত্রী বাজপেয়ী এবং তার মন্ত্রীসভার কিছু সদস্যের আপত্তি ছিল। কিন্তু তারপরও বিজেপিতে ঐক্য নষ্ট হয়নি।

‘এটা অনেকটা অসুখী কোনো পরিবারের মত যার সদস্যরা মতভেদ সত্ত্বেও একসাথে থাকে,’ বলছেন অধ্যাপক সিতাপতি।

যে কোনো রাজনৈতিক দলের ভেতর নানামুখী স্বার্থ কাজ করে, নানা উপদল থাকে এবং এই সব অন্তর্কলহ এবং কোন্দল সত্ত্বেও সম্মোহনী ব্যক্তিত্বের নেতা, আদর্শ এবং সাংগঠনিক শক্তির কারণে দল ঐক্যবদ্ধ থাকে। ভারতের ক্ষেত্রে আরেকটি উপাদান যোগ হয়- জাতপাত।

মতবিরোধ, নেতাদের ইগো এবং উপদলীয় কোন্দলে ভারতে অনেক রাজনৈতিক দলই বিভিন্ন সময়ে ভেঙ্গে গেছে। এমনকি কংগ্রেসের মত দল ভেঙ্গে রাজ্যস্তরে সফল আঞ্চলিক দল তৈরি হয়েছে। কিন্তু বিজেপির ক্ষেত্রে এখনও তেমনটি ঘটেনি।

বাজপেয়ী এবং আদভানির পর এখন দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন মোদি এবং অমিত শাহ। আরএসএসের সমর্থনপুষ্ট এই দল এখনও অটুট।

‘এটি গোপন কোনো বিষয় নয় যে অনেক বিজেপি নেতা মোদিকে পছন্দ করেন না। অনেক বিজেপি, ভিএইচপি এবং আরএসএসের নেতার আমি সাক্ষাৎকার নিয়েছি যারা আদর্শের প্রতি মোদীর আনুগত্য এবং তার নির্বাচনের জেতার ক্ষমতার প্রশংসা করেন। কিন্তু একইসাথে অনেকেই মনে করেন তিনি নিষ্ঠুর, আত্মপ্রচারলোভী এবং কিছুটা অসামাজিক,’ বলেন অধ্যাপক সিতাপতি।

‘অস্বাভাবিক রাজনৈতিক দল’
ওয়াশিংটনে গবেষণা সংস্থা কার্নেগী এনডাওমেন্ট ফর ইন্টারন্যাশনাল পিসের সিনিয়র ফেলো, রাষ্ট্রবিজ্ঞানী মিলন বৈষ্ণব তাই মনে করেন বিজেপি একটি ‘অস্বাভাবিক রাজনৈতিক দল।’

‘এটি আসলে আদর্শভিত্তিক অনেকগুলো হিন্দু জাতীয়তাবাদী সংগঠনের রাজনৈতিক শাখা। এই নেটওয়ার্ক ভিত্তিক মডেলের কারণে বিজেপি তাদের সাথে সম্পর্কিত তৃণমূল হিন্দু সংগঠনগুলোর কাছ থেকে প্রচুর সমর্থন ও শক্তি পায়। বিস্তৃত এই নেটওয়ার্কের কারণে দলের নেতা-কর্মী-সমর্থকরা শেষ পর্যন্ত তাঁবুর নীচেই থেকে যায়,’ বলছেন অধ্যাপক বৈষ্ণব।

তবে তার অর্থ এই নয় যে বিজেপির ভেতর কোনো ভিন্নমত অবশিষ্ট নেই।

ভারতীয় রাজনীতিতে আদর্শের ভূমিকা নিয়ে একটি বইয়ের অন্যতম লেখক রাষ্ট্রবিজ্ঞানী রাহুল ভার্মা বলছেন, ‘তবে মজার ব্যাপার হচ্ছে এই বিদ্রোহীরা বুঝতে পারে বেরিয়ে গেলে তাদের রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ অন্ধকার হয়ে যাবে। ফলে তারা আবার ফিরে আসে। এর প্রধান কারণ বিজেপির আদর্শিক ভিত্তি এতই শক্ত সেটাই আঠার মতো দলকে বেঁধে রাখছে।’

সম্ভাব্য বিপদ
তবে বিজেপির এই ঐক্য যে আজীবন অটুট থাকবে তা অনুমান করা এখনই কঠিন। অন্য দল থেকে বেরিয়ে আসা বা দুর্নাম বা অপরাধের কারণে বহিষ্কৃত রাজনীতিকদের চোখ বন্ধ করে বিজেপিতে নেওয়া হয়। এটাই তাদের নীতি।

রাহুল ভার্মা মনে করেন, এ কারণে এক সময় হয়ত দলের আদর্শিক ‘বিশুদ্ধতায়’ জং ধরবে। ‘কতদিন বিজেপি এই স্ববিরোধী নীতিকে সামলাতে পারবে?’ প্রশ্ন ভার্মার।

যতক্ষণ দল নির্বাচনে জিতছে ততক্ষণ যে পারবে তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। সে কারণেই নির্বাচন বিজেপির অস্তিত্বের জন্য অতীব গুরুত্বপূর্ণ।

ভার্মা বলছেন, বিজেপির সামাজিক ভিত্তি বিস্তৃত হচ্ছে, কিন্তু তাদের নেতৃত্ব এখনও প্রধানত উঁচু বর্ণের হিন্দুদের হাতে। তার মতে, এটি আরেকটি সমস্যা যেটা ভবিষ্যতে বিজেপিকে বিপদে ফেলতে পারে।

সমালোচকরা বলেন, বিজেপির নির্লজ্জ কুণ্ঠাহীন সংখ্যাগরিষ্ঠতার রাজনীতি ভারত রাষ্ট্রের মৌলিক ধারণার চরিত্র বদলে দিচ্ছে যে ধারণার ভিত্তি ছিল সহিষ্ণুতা এবং ধর্মনিরপেক্ষ মূল্যবোধ।

‘ভারত নিয়ে তাদের (বিজেপি, আরএসএস) ধারণারই বিজয় হয়েছে। কারণ তারা ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে গেছে।’ বলছেন অধ্যাপক সিতাপতি।

সূত্র: বিবিসি



DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ
করোনা ভাইরাস লাইভ আপডেট
আক্রান্ত চিকিৎসাধীন সুস্থ মৃত্যু
৫৩০২৭১ ৪৭২৩১ ৪৭৫০৭৪ ৭৯৬৬
বিস্তারিত
৪ বছরে ৩০ হাজার ৫৭৩টি মিথ্যা বলেছেন ট্রাম্প! যেভাবে আগুন লাগল সেরাম ইনস্টিটিউটে ফেসবুকে সম্পর্ক স্থাপন, কৌশলে প্রবাসীকে অপহরণ ফেব্রুয়ারিতে খুলছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বিচারকের সঙ্গে এসপির অসদাচরণ: পুলিশের ভয়ে ঘরছাড়া সরকারি কর্মকর্তা স্বামী-স্ত্রীর অন্তরঙ্গ ভিডিও ধারণ, ছাত্রলীগ নেতা কারাগারে ৩০ লাখ টাকা আত্মসাত, ইউপি চেয়ারম্যান বরখাস্ত সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে জুনে হতে পারে এসএসসি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিরোধের জেরে পাল্টাপাল্টি হত্যাকাণ্ডের অভিযোগ ভাগ্নিকে আটকে রেখে ধর্ষণ, সৎ মামা কারাগারে বাইডেন-কামালার শপথ অনুষ্ঠানের সাক্ষী হলেন প্রবাসীরাও বাংলাদেশে টিকা ট্রায়ালের অনুমতি চায় ভারত বায়োটেক চট্টগ্রামে অভিযোগ-পাল্টা অভিযোগে জমে উঠেছে নির্বাচনী প্রচারণা পিকনিকের আয়োজনে রোহিঙ্গা শিশুদের নাচ (ভিডিও) নীলফামারীতে একজনের মৃত্যুদণ্ড, ২ জনের যাবজ্জীবন সেরাম ইনস্টিটিউটে আগুন: ৫ মরদেহ উদ্ধার এক্সক্যাভেটরে মাটিতে মিশে গেল শতাধিক অবৈধ স্থাপনা বিমানবন্দরে চাকরি দেয়ার নামে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারকচক্র প্রথম করোনা ভ্যাকসিন নেওয়ার ঘোষণা অর্থমন্ত্রীর ১ কোটি টাকা দান করলেন গৌতম গম্ভীর ঋণ কেলেঙ্কারির ঘটনায় হাইকোর্টের নজিরবিহীন আদেশ ‘লবণনামা’ একটি ভিন্নধর্মী এবং সফল ক্যাম্পেইনের ইতিকথা সন্তান জন্মের পর আবার প্রকাশ্যে এলেন বিরাট-আনুশকা স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চেয়ে মাদক সম্রাটের আত্মসমর্পণ হোটেলে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা ১২ নারী-পুরুষ দেড় হাজার বোতল ফেনসিডিলসহ আটক ২ ১৮ ইঞ্চি গোঁফই তার পরিচয় ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল দেবাশীষ ভট্টাচার্যের পদত্যাগ নৌ-পর্যটনের উন্নয়নে কাজ করছে সরকার: পর্যটন প্রতিমন্ত্রী করোনায় সাংবাদিক আফজালের মৃত্যু মালয়েশিয়ায় ফের লকডাউন একদিনে করোনায় দ্বিগুণ মৃত্যু করোনা মহামারিতে জাপানের পর্যটনখাতে রেকর্ড ধস! নাটোরে আ.লীগের সভা ঘিরে ১৪৪ ধারা জারি করোনাকালে মোবাইল সেবার মান যাচাইয়ে নজরদারি শুরু মালিককে মারধর করে ইট ছিনিয়ে নিল স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতা! ভ্যাকসিন উৎপাদনকারী সেরাম ইনস্টিটিউটে আগুন ‘বারিধারায় অপর্যাপ্ততা, পূর্বাচলে যাচ্ছে কূটনৈতিক জোন’ বিএনপির মেয়রপ্রার্থীসহ পাঁচজন মামলার আসামি বিনা দোষে ৫ বছর কারাভোগ, মুক্তি পেল সেই আরমান পিএসসির নতুন সদস্য হলেন অধ্যাপক উত্তম কুমার ট্রাম্পের রেখে যাওয়া ‘গোপন’ চিঠিতে যা লেখা ছিল বাংলাদেশের সত্যিকারের বন্ধু ভারত: পররাষ্ট্রমন্ত্রী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলতে রিট রেললাইনে গৃহবধূর ক্ষত বিক্ষত মরদেহ শব্দদূষণ রোধে কাজ করছে সরকার: পরিবেশমন্ত্রী চট্টগ্রামে বিএনপি’র শতাধিক নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা সাকিব-তামিমদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ সাবেকরা ক্যাসিনোর আদলে মোবাইল অ্যাপসে জুয়া, হোতা গ্রেফতার ‘নামসর্বস্ব পত্রিকার ডিএফপি তালিকাভুক্তি বাতিলের দাবি’ ট্রাক কেড়ে নিল লিটন সরকারের প্রাণ কুষ্টিয়ার এসপির কাণ্ড: এবার প্রিজাইডিং অফিসারকে নিরাপত্তা দিতে নির্দেশ যানজটে ব্যাহত আমদানি-রফতানি, রাস্তা সম্প্রসারণের দাবি ব্যবসায়ীদের পদ্মা ক্রুজের পথচলা শুরু দুর্বল নিরাপত্তার বাসাগুলোতে চুরি-ডাকাতি করত তারা সার্চ ইঞ্জিন বানিয়ে তাক লাগাল অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী তিনটি ইটভাটা গুঁড়িয়ে দিল প্রশাসন সংবাদ সম্মেলনে কাঁদলেন ৩০ বছরের নির্বাচিত কাউন্সিলর পিকে হালদারের মেয়ে গ্রেফতার মোবাইল টাওয়ারের দাবিতে পঞ্চগড়ে মানববন্ধন ‘৫ কোটি টাকার দেওয়ানিতে যেতে হবে না হাইকোর্ট’ নির্বাচিত কাউন্সিলর হত্যা: প্রিজাইডিং অফিসারের রুমে ঢুকতে পুলিশের বাধার অভিযোগ নিজের নামে পদ্মা সেতু, বিরোধিতা করলেন শেখ হাসিনা করোনার টিকা ইপিআই সংরক্ষণাগারে কোভ্যাক্স আসছে ফেব্রুয়ারিতে, টিকা পাবেন সবাই তিন দফা দাবিতে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের মানববন্ধন শপথের পরই হোয়াইট হাউস কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করলেন বাইডেন সিলেটে তরুণ খুনের নেপথ্যে ত্রিভুজ প্রেম নাকি আইফোন বিক্রি! প্রতিক্রিয়াশীলতা বিএনপির রাজনৈতিক চরিত্র: কাদের কেন হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন আলিয়া? টুইটার প্রধানকে কঙ্গনার হুমকি কলকাতায় পর্দা উঠছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসবের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়ালেও ২০২০-এ চায়ের উৎপাদন কম মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে স্ত্রীকে হত্যার হুমকি, স্বামী গ্রেপ্তার কাঠের টুকরো দিয়ে সার্জেন্ট পেটানো সেই যুবক গ্রেফতার শিগগিরই পাস হচ্ছে এইচএসসির অটোপাসের তিন বিল টিভি সেলিব্রিটিদের ব্যর্থ যত প্রেম কাহিনী চাঁদপুরে দাম কমেছে সবজির ৮ ফেব্রুয়ারি করোনা টিকা দেয়া শুরু পল্লবীতে ডিএনসিসি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে হামলা, দফায় দফায় সংঘর্ষ শপথ নিয়েই টুইট করলেন বাইডেন-কামালা চাঁদের গাড়ি খাদে পড়ে নিহত ৩, আহত ৫ এভারেস্টের প্লাস্টিকের স্তূপ দিয়ে শিল্পকর্ম ঠান্ডায় পুকুর-জলাশ‌য়ে মাছ ধরতে নাম‌ছেন না জে‌লেরা, বেড়েছে দাম নৈশপ্রহরীকে বেঁধে দুর্ধর্ষ ডাকাতি বিদায়বেলায় চীনের রোষানলে ট্রাম্প প্রশাসন, ২৮ কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা পেঁয়াজের কেজি পৌনে তিন টাকা! সাভারে ৬ ফার্মেসিকে অর্থদণ্ড ভ্রাম্যমাণ আদালতের বাইডেনের শপথে চাঙা বিশ্ব শেয়ারবাজার শেষ বেলায়ও বিতর্ক, ৬ মাসের বাড়তি নিরাপত্তা পাবেন ট্রাম্প সন্তানরা বিয়ের পিঁড়িতে বসতে যাচ্ছেন নোবিতা ও শিজুকা পুলিশের পিকআপ-কোস্টগা‌র্ডের ট্রাকের মু‌খোমু‌খি সংঘর্ষ ক্ষমতার পালা বদলে উচ্ছ্বসিত প্রবাসী বাংলাদেশিরাও বাংলাদেশি ২০ জেলেকে পিটিয়ে ছেড়ে দিল মিয়ানমার ভোলা-ঢাকা নৌপথ: কচ্ছপ গতিতে চলছে লঞ্চ ভ্রমণের দরজা খুলল মুসলিমদের, নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলেন বাইডেন ভারতের উপহারের টিকা এলো বিশেষ বিমানে গৃহকর্ত্রীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনকারী সেই রেখা গ্রেফতার প্রাথমিকের সব শিক্ষক ১৩তম গ্রেডে: সম্মতি অর্থ মন্ত্রণালয়ের সুশান্তের জন্মদিনে মহাকাশপ্রেমীদের জন্য বৃত্তি ঘোষণা করলেন দিদি
আরও সংবাদ...
বাসা ফাঁকা পেলেই বান্ধবীদের নিয়ে ফুর্তি করত দিহান আনুশকার শরীরে ‘ফরেন বডি’র আলামত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলতে লিগ্যাল নোটিশ জন্ম তারিখ অনুযায়ী কেমন যাবে আগামী বছর, দেখে নিন ফুটপাতেই ১০ বছর ভিক্ষুক জীবন পুলিশের শুটারের! সমালোচকদের জবাব দিলেন ভাইরাল সেই টম ইমাম মেয়েদের যেসব অভ্যাস পুরুষদের আকৃষ্ট করে আবারও প্রভার ভিডিও ভাইরাল! জন্মতারিখ অনুযায়ী কেমন যাবে ২০২১ সাল বোনের গর্ভে জন্ম নিল আরেক বোন! ধর্ষণের উদ্দেশ্যে নয়, একান্তে সময় কাটাতে বাসায় ডেকেছিল: দিহানের মা অবশেষে বিক্রি হলো মাইকেল জ্যাকসনের সেই রাজকীয় বাড়ি ৭ বছর আগে মারা যাওয়া বাবাকে গুগলে খুঁজে পেলেন সন্তান! নববর্ষ উদযাপন করতে গিয়ে যুবকের করুণ মৃত্যু বিকৃত যৌনাচারের ‘ফরেন বডি’সহ নানা উপাদানে সয়লাব দেশের বাজার দিহানের বাসার সিসিটিভিতে যা পাওয়া গেল জীবনসঙ্গী থাকতেও অন্যের প্রতি আকর্ষণ যে ৪ কারণে মানুষের ভিতরে কেন এত যৌন কাম: এসপি আবিদা তৃতীয় সন্তানের বাবা হচ্ছেন সাকিব! অনুষ্ঠানে গান বাজালে জানাজা বা বিয়ে না পড়ানোর ঘোষণা যুবককে চেয়ারে বেঁধে শারীরিক সম্পর্ক তরুণীর, ফাঁস লেগে মৃত্যু! ভারতীয় ক্রিকেটারদের দিয়ে টয়লেট পরিষ্কার করাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া! গৃহবধূকে হত্যার পর চামড়া ছিলে লবণ লাগানোর বর্ণনা দিলেন স্বামী ঠোঁটের লিপস্টিক বলে দেবে নারীর চরিত্র পছন্দের পাত্র-পাত্রীকে বিয়েতে পরিবারকে রাজি করানোর ১০ উপায় দেওয়ানবাগী পীর মারা গেছেন ২৪ ঘণ্টার আগেই শেষ হচ্ছে দিন, তবে কি কেয়ামতের আলামত! নুসরাতের পোশাক বদলানোর ভিডিও ভাইরাল ধর্ষণকাণ্ড থেকেই নিখিলের সঙ্গে মন কষাকষি নুসরাতের! থার্টিফার্স্ট নাইটে বিমানবালাকে ১১ জনে ধর্ষণের পর হত্যা! (ভিডিও) আনুশকা-দিহানের সম্পর্ক দুইমাস আগে থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সময় জানালেন মন্ত্রী স্কুল-কলেজ ছাড়া কোথাও বাবার নাম নিও না, সন্তানদের উদ্দেশ্যে মাশরাফী ২০২১ সালে আসছে পুরুষের জন্মনিরোধক পিল! ঘটনার কিছুক্ষণ আগে বাবাকে ফোন করেছিল আনুশকা ডিএসপি মেয়েকে স্যালুট জানিয়ে ভাইরাল ইন্সপেক্টর বাবা বাংলাদেশেও করোনার নতুন ধরন শনাক্ত! ফজরের ওয়াক্তে মারা যাওয়ার ইচ্ছা পূরণ যুবকের, স্ট্যাটাস ভাইরাল লকডাউনে জন্মনিরোধক সামগ্রী বিক্রির হিড়িক নতুন ধরনের করোনা ভাইরাসে উচ্চহারে আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা অমরজিৎ পৃথিবীর 'সবচেয়ে কম বয়সী' সিরিয়াল কিলার বাংলাদেশে আসছে ‘রয়েল এনফিল্ড’! মেশিনে টুকরো টুকরো হয় ঘুমন্ত মেহেদীর দেহ স্কুলে ২০২১ সালের ছুটির তালিকা প্রকাশ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কবে খুলতে পারে জানালেন প্রধানমন্ত্রী আসছে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ, তাপমাত্রা নামবে ৪ ডিগ্রিতে নববর্ষে আতশবাজি, লাখ লাখ পাখির করুণ মৃত্যু ‘বিকৃত যৌনাচারের কারণে মারা যায় স্কুলছাত্রী’ প্রেমিকের আবদার মেটাতে ১৪ বছরের মেয়েকে ধর্ষণে সাহায্য মায়ের! আনুশকার দাফন সম্পন্ন
আরও সংবাদ...

মেনে চলি

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  EnglishLive TV DMCA.com Protection Status
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
উপরে