Close (x)
আন্তর্জাতিক সময় ডেস্ক
আপডেট
১৯-১০-২০২০, ১৭:৪২

‘উত্তর কোরিয়ায় বন্দিরা পশুর থেকেও মূল্যহীন’

‘উত্তর কোরিয়ায় বন্দিরা পশুর থেকেও মূল্যহীন’
উত্তর কোরিয়ায় বিচারের পূর্বে বন্দিশালায় নির্যাতন, অপমান-অপদস্ত, অনাহারে রেখে জোরপূর্বক স্বীকারোক্তি আদায় নিয়মিত ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। দেশটির সাবেক কর্মকর্তা এবং বন্দিদের সাক্ষাতকারের ভিত্তিতে সোমবার (১৯ অক্টোবর) মানবাধিক সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ (এইচআরডব্লিউ) এ তথ্য জানিয়েছে।

২০১১ সালে উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন ক্ষমতা গ্রহণের পরের সময়কার পরিস্থিতি নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।  

২০১৪ সালে জাতিসংঘ উত্তর কোরিয়ার ব্যাপক মানবাধিকার লঙ্ঘন এবং দেশটির বিচার ব্যবস্থার অস্বচ্ছতা নিয়ে বিস্তৃত প্রতিবেদন প্রকাশ করে। প্রতিবেদনে পদ্ধতিগত অচ্যাচার, অনাহারে রাখা এবং হত্যার নির্দেশ দেয়ার জন্য দেশটির সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন এবং নিরাপত্তা প্রধানকে বিচারের আওতায় আনার সুপারিশ করা হয়। পিয়ংইয়ংয়ের এসব কর্মকাণ্ডকে নাৎসী যুগের নৃশংসতার সঙ্গে তুলনা করা হয়। এইচআরডব্লিউ’র ৮৮ পৃষ্ঠার প্রতিবেদনে জাতিসংঘের অনুসন্ধানী তথ্য প্রমাণও সংযুক্ত করা হয়।

সাবেক ৮ কর্মকর্তা এবং ২২ জন বন্দির সাক্ষাতকার নিয়ে প্রতিবেদনটি তৈরি করে এইচআরডব্লিউ। তাদের একজন যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থাটিকে জানান, তারা বন্দিদের সঙ্গে এমন আচরণ করে যেনো আটককৃতরা পশুর চেয়ে মূলহীন। অত্যাচারে টিকে থাকা প্রায় অসম্ভব।

এইচআরডব্লিউ’এর এশিয়া বিষয়ক পরিচালক ব্র্যাড অ্যাডামস বলেন, উত্তর কোরিয়ার বিচারপূর্বক বন্দিশালা এবং তদন্ত পদ্ধতি বিধিবহির্ভুত, হিংস্র, নিষ্ঠুর এবং অবজ্ঞাপূর্ণ।

উত্তর কোরীয়োরা বলছেন, ‘বর্বর এ পদ্ধতির কারণে তারা সবসময় আতঙ্কে থাকেন। সেখানে যারা প্রসিকিউটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন তাদের খেয়াল খুশিই সব। যাকে ইচ্ছে দোষী সাব্যস্ত করতে পারেন। উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগসাজশ এবং ঘুষ ছাড়া পরিত্রাণের কোনো উপায় নেই।’ জানান এইচআরডব্লিউ’র এশিয়া বিষয়ক পরিচালক।

এইচআরডব্লিউকে সাক্ষাতকার দেয়া সাবেক বন্দিরা জানান, প্রতিদিন ৭ থেকে ৮ ঘণ্টা, কোন কোন দিন ১৩ থেকে ১৬ ঘণ্টা পর্যন্ত তাদের কখনো হাঁটু গেড়ে, কোমড়ে হাত দিয়ে পায়ের উপর ভর করে, মাথা নিচু করে, ফ্লোরের দিকে তাকিয়ে বসে বা দাঁড়িয়ে থাকতে বাধ্য করা হতো। কোন বন্দি নির্দেশ অমান্য করলে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিরা তাদের বেদম প্রহার করতো। কখনো কখনো সবার উপর নেমে আসতো সম্মিলিত অত্যাচার।

চোরাকারবার এবং দক্ষিণ কোরিয়ার পালানোর চেষ্টার অপরাধে বেশ কয়েকবার আটক হন উত্তর কোরিয়ার সাবেক এক কর্মকর্তা। এইচআরডব্লিউকে তিনি জানান, শাস্তিগুলোর মধ্যে অন্যতম ছিল, পেটে এবং বাহুতে ব্যাপক মারধর।

তিনি আরো বলেন, যখন বন্দিশালায় ছিলাম, কিছু নিরাপত্তারক্ষী আমাদের চোখে, আঙুলে লাঠি দিয়ে, বন্দুক দিয়ে আঘাত করেছে। তাদের মেজাজ খারাপ থাকলে ভেতরে ঢুকে আমাদের পেটাতো। এটা প্রতিদিনকার ঘটনা। যখন আমাদের সেলে নির্যাতন বন্ধ থাকতো তখন পাশের সেলে অত্যাচার চলতো। যার কারণে সবসময় আতঙ্কে থাকতাম। একটা সময় জীবনের আশা প্রায় ছেড়ে দিয়েছিলাম।

‘সীমাহীন যন্ত্রণা’

সাবেক এক নারী বন্দি জানান, স্থির হয়ে বসে থাকার নির্দেশ দেয়া আছে, এমন সময় কেউ অচেতনভাবে ঘুমিয়ে পড়লে, তাকে দাঁড় করিয়ে রাখা হতো। উঠবস করানো হতে অন্তত ১ হাজার বার। 

তিনি বলেন, আপনার কাছে মনে হতে পারে এটা অনেক বেশি। আপনি করতে পারবেন না। কিন্তু তারা তখন জোর খাটায় আপনি করতে বাধ্য। শরীরে এমন ব্যাথা হয়, মনে হবে আপনি মারা যাবেন, তারপরও আপনাকে তা করতে হয়।

৫০ বছর বয়সী সাবেক ব্যবসায়ী এ নারী জানান, এক তদন্তকারী তাকে ধর্ষণ করে। জিজ্ঞাসাবাদের সময় এক পুলিশ কর্মকর্তাও তাকে যৌন হয়রানি করে।

সাক্ষাতকারে অংশ নেয়া ব্যক্তিরা জানিয়েছেন, বিচারপূর্ব প্রশ্নোত্তরপর্ব এবং জিজ্ঞাসাবাদের প্রথম ধাপগুলোতে ব্যাপকহারে নির্যাতন, অত্যাচার করা হয়।

উত্তর কোরিয়া পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, বিধি অনুযায়ী প্রহার করা নিষিদ্ধ। কিন্তু তদন্ত এবং প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আমাদের সাক্ষ্য বা স্বীকারোক্তি আদায় করতে হয়। স্বীকারোক্তি আদায়ের জন্য বন্দিদের প্রহার করতে হয়। তখন লাঠি এবং বুট দিয়ে আঘাত করা হয়।

চোরাকারবারের দায়ে একলোক চারবার আটক হয়েছিলেন। তিনি এইচআরডব্লিউকে জানান, আমাকে এতো পরিমাণে প্রহার করা হয়েছিল যে, আমি বলতে বাধ্য হয়েছি, আমার ভুল হয়েছে।

ওই ব্যক্তির নাম কিম কেয়ুম চুল। তিনি জানিয়েছেন, কিভাবে ঘুষের মাধ্যমে তার চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। তদন্ত কর্মকর্তাকে তার বাবা ঘুষ দিয়ে কিভাবে শাস্তি কমিয়ে তিন মাসের মধ্যে তাকে মুক্ত করার ব্যবস্থা করেছিল। 

সাক্ষাতকারে অংশ নেয়া প্রত্যেকে জানিয়েছেন, নিরাপত্তারক্ষী এবং তদন্ত কর্মকর্তাদের চোখের দিকে তাকানোর অনুমতি নেই বন্দিদের। উত্তর কোরিয়ার সাবেক চার কর্মকর্তা এইচআরডব্লিউকে বলেন, বন্দিদের নামের পরিবর্তে নাম্বার দিয়ে চিহিৃত করা হয়। ওই নাম্বার ব্যবহার করে তাদের যাবতীয় কাজ চালানো হয়। দেশটির ক্ষমতাসীন ওয়ার্কার্স পার্টি বন্দিদের ‘নিকৃষ্ট মানব’ হিসেবে বিবেচনা করে।

সাবেক বন্দিরা এইচআরডব্লিউকে জানিয়েছেন, বন্দিশালার পরিবেশ অস্বাস্থ্যকর, খুব সামান্য খাবার দেয়া হয়, অনেক বন্দিকে একসাথে গাদাগাদি করে থাকতে হয়, শ্বাসপ্রশ্বাস ঠিক মতো নেয়া যায় না, কম্বল, সাবান এবং নারীদের পিরিয়ড চলাকালীন ব্যবহার্য জিনিসপত্রও দেয়া হয় না।

সাবেক এক বন্দি জানান, তার কাছে প্রহার করা অপমান-অপদস্ত হওয়া এবং সব অনিশ্চিয়তার চেয়ে ভয়ংকর মনে হয়েছে অনাহারে থাকা। বলেন, বিশেষ করে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের শুরুতে তারা আপনাকে অভুক্ত রাখবে, যাতে আপনি স্মৃতিশক্তি হারিয়ে ফেলেন। আপনি শুধু বেঁচে থাকবেন। ক্ষুধায় আপনার মধ্যে আর কোনো হিতাহিত জ্ঞান থাকবে না। পশুর মতো আচরণ করবেন। 

সাবেক এক পুলিশ কর্মকর্তা একসময় বন্দিশালায় দায়িত্ব পালন করেছেন। সেখানকার পরিস্থিতিকে অসহনীয় বলে বর্ণনা করেছেন তিনি। বলেন, বন্দিশালায় প্রচণ্ড দুর্গন্ধ। কারো পক্ষে সেখানে ঘুমানো সম্ভব না। বন্দিশালা ত্যাগ করার পরপরই সবসময় আমাকে জামা কাপড় পরিবর্তন করে ফেলতো হতো। না হয়, লোকজন অভিযোগ করতো তোমার ইউনিফর্ম থেকে দুর্গন্ধ বের হচ্ছে।

এইচআরডব্লিউ জানায়, উত্তর কোরিয়ার উচিৎ বিচার পূর্ব প্রক্রিয়ায় অত্যাচার, অবজ্ঞা, অপমান-অপদস্ত করা বন্ধ করে বন্দিদের জন্য বিশুদ্ধ পানি, স্বাস্থ্যসেবা, জামাকাপড়, পর্যাপ্ত আলো বাতাসে প্রয়োজনী থাকার জায়গার মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করা। 

অ্যাডামস বলেন, উত্তর কোরিয়ার উচিত পেশাদার পুলিশ বাহিনী এবং তদন্ত ব্যবস্থা গঠনে আন্তর্জাতিক সহায়তা নেয়া। যা অপরাধ সমাধানের জন্য নির্যাতনের পরিবর্তে প্রমাণের উপর নির্ভর করবে। অবসান হবে চলমান অন্ধকার যুগের।

মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে চরম সমালোচনার ‍মুখে পড়ে এর আগে জাতিসংঘে উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত মানবাধিকার কাউন্সিলের ভাষণে সমালোচনাকারীদের উদ্দেশ্যে বলেছিলেন, নিজের কাজে মনযোগ দেন আপনারা।



DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ
করোনা ভাইরাস লাইভ আপডেট
আক্রান্ত চিকিৎসাধীন সুস্থ মৃত্যু
৪৬৭২২৫ ৭৭৩০৬ ৩৮৩২৪৪ ৬৬৭৫
বিস্তারিত
ম্যারাডোনা শ্রদ্ধার যোগ্য নন! প্রবাসীদের সুখবর দিল কাতার ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন আজারবাইজানে পরমাণু হামলার আহ্বান জানায় আর্মেনিয়ার গণমাধ্যম সুবর্ণা মুস্তাফার জন্মদিন আজ সাপের জন্য সেতু! নিহত তালেবান যোদ্ধার কৃত্রিম পা দিয়ে মদ পান অস্ট্রেলীয় সেনার ধর্ম ও আধ্যাত্মিক কারণে সরে যাওয়া তারকারা মৃত্যু এবং শেষ ইচ্ছার কথা শেয়ার করলেন স্বস্তিকা ট্রাম্পের হার পাল্টে দেয়ার মতো কারচুপি পাওয়া যায়নি: অ্যাটর্নি বিয়ের কথা বলে অভিনেত্রীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক, কাস্টিং ডিরেক্টর আটক! পৃষ্ঠপোষক পেলেন বাংলাদেশের ২ ব্যাডমিন্টন চ্যাম্পিয়ন ফিলিস্তিনিদের ‘ভয়াবহ বাস্তবতায়’ শঙ্কিত জাতিসংঘ মহাসচিব পৃথিবীর নিঃসঙ্গতম হাতি পেল নতুন জীবন ‘রক্ষণাত্মক কৌশলে দল সাজাতে হবে বাংলাদেশের’ স্কোরিংয়ে জোর দিচ্ছে জীবনরা করোনাকালে যেসব খাবার ক্ষতিকর করোনায় আক্রান্ত এমপি এমিলি অবশেষে রাজনীতিতে আসছেন রজনীকান্ত অনলাইনে জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন করবেন যেভাবে কাশ্মীর ইস্যুতে আবারও উত্তপ্ত ভারত-পাকিস্তান বাংলাদেশের দারুণ প্রস্তুতি, জেমি ডে যাচ্ছেন কাতারে মশা তাড়ানোর তিনটি সহজ উপায় চট্টগ্রামের মুখোমুখি রাজশাহী পার্বত্য শান্তিচুক্তির ২৩তম বর্ষপূর্তি আজ এশিয়ার শীর্ষ ২০ ধনী পরিবার ডাকের ডিজির দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা চেয়ে চিঠি করদাতাদের জন্য সুখবর আজ বরিশালের বিপক্ষে মাঠে নামবে ঢাকা অন্তঃসত্ত্বা আনুশকাকে যোগব্যায়াম করাচ্ছেন কোহলি ইউরোপের বড় পর্যটন নগরী বার্সেলোনা এক যুবকের হাতেই ২৫ নারী খুন আবারও কমেছে সোনার দাম ওমানে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুই ভাইসহ তিন বাংলাদেশির মৃত্যু দুর্ভোগের কথা জানতে ‘নগর অ্যাপ’ চালু করছে ডিএনসিসি পাকিস্তানি সেনার গুলিতে বিএসএফ কর্মকর্তা নিহত ভোক্তা অধিদপ্তরের অভিযানে ৬১ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা ‘বিশ্বসুন্দরী’র দেখা মিলবে ১১ ডিসেম্বর আবার বাদ পড়লেন মেসি খুলনায় বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্রান্টের ক্যাম্পেইন আইসিডিডিআর,বি'র সাথে হিউম্যান ট্রায়ালের চুক্তি বাতিল করল গ্লোব বায়োটেক ৩০ কেজি ওজনের বাঘাইড়, দাম লাখ টাকা! গোপনে নববধূর গোসলের ভিডিও ধারণ করায় যুবক গ্রেফতার কুমিল্লায় বিকট আওয়াজে ছাদ থেকে পড়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর মৃত্যু বাকশাল নিয়ে অপপ্রচার বন্ধের আহ্বান ভৈরবে ৮ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতার প্রতিবাদে মালয়েশিয়ায় মানববন্ধন পৌর নির্বাচন: তৃতীয় লিঙ্গের প্রার্থীর মনোনয়নপত্র জমা ম্যারাডোনার মৃত্যুশোকে সাতদিন না খেয়ে, অবশেষে... ঢাকা-চট্টগ্রাম বুলেট ট্রেনের ভাড়া কত, কোথায় থামবে? শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলা: সাতক্ষীরায় ৩ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ তিন বছরে চীনের শিল্পোৎপাদন সর্বোচ্চ সস্ত্রীক করোনা আক্রান্ত তৌসিফ মাহবুব ময়মনসিংহে স্বাস্থ্য সহকারীদের কর্মবিরতি অব্যাহত জার্মানিতে পথচারীদের ওপর গাড়ি উঠিয়ে দেয়ায় নিহত ৪, আহত ১৫ ‘এবার যখন আমরা ধরব, ফাইনাল হয়ে যাবে’ হোয়াইটওয়াশের লজ্জার মুখে ভারত ২১৯ জনকে নিয়োগ দেবে রাজউক কাঁদলেন অপু বিশ্বাস! করোনার বন্ধে মণিরামপুরে ২০ মাদরাসাছাত্রীর বাল্যবিয়ে! কৃষক আন্দোলনের মুখে মোদির নরম সুর ভুল মাঠে প্রবেশ, অনুশীলন শেষ না করেই ফিরলেন মাশরাফী নতুন টেলিস্কোপে লাখ লাখ নতুন ছায়াপথের মানচিত্র ব্রিটেনের সামনে আরও একটি ধাক্কা চাঁদপুরে ইয়াবাসহ যুবক আটক পূজা দেওয়ার কথা বলে মন্দিরে চোর, স্বর্ণালঙ্কার চুরি ব্লগার অনন্ত হত্যা: সাক্ষ্য দিলেন অধ্যাপক আবুল কাশেম সপ্তাহে ৩ দিন ছুটি দেবে ইউনিলিভার এই মুহূর্তে বাংলাদেশ থেকে ওমরাহ করার সুযোগ নেই: প্রতিমন্ত্রী ১ কোটি ১০ লাখ অভিবাসীকে বৈধ করবেন বাইডেন ক্ষমা চাইবে না চীন টেকনাফে পৌঁছাল সাইক্লিং এক্সপিডিশন দল ভারতে অ্যামাজনকে জরিমানা! নায়িকার মৃত্যু রহস্যের জট খোলেনি ২৪ বছরেও বড়দিনের কেনাকাটায় স্বাস্থ্যবিধি মানছে না কেউ ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতার প্রতিবাদে বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ বঙ্গোপসাগরে তৈরি হচ্ছে ভয়ংকর ঘূর্ণিঝড় ‘বুরেভি’ মুন্সিগঞ্জে যুবলীগ সভাপতি কারাগারে বাংলাদেশ-কাতার ম্যাচে সাংবাদিক প্রবেশ নিষেধ অন্য দেশে এইডস রোগী বাড়ছে, আমাদের কমছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী সবুজ সংকেত পেল গ্লোব বায়োটেক ৯৯৯ তে কল, পাহাড়ে পা ভাঙা পর্যটক উদ্ধার খোঁজ মিলল বনের দুরন্ত মোগলির গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা হবে যে ১৯ বিশ্ববিদ্যালয়ে নরসিংদীতে পাঁচ ডাকাত গ্রেফতার প্যানেল থেকে প্রাথমিকে নিয়োগের কোনো সুযোগ নেই: ডিপিই বরিশাল-মৌলভীবাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান ফের আলোচনায় বুবলী! গ্রামীণফোনের ৫শ’ টাওয়ার নির্মাণের দায়িত্ব পেল ইডটকো মেয়েকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় মায়ের আঙুল কাটল বখাটেরা কৃষক বিক্ষোভ: ট্রুডোকে কড়া সতর্কবার্তা দিল ভারত দেশে নতুন ৬৫৮ এইডস রোগী শনাক্ত, মৃত্যু ১৪১ ১০ ডিসেম্বর ফরিদপুর পৌর নির্বাচন হতে বাধা নেই মাধবদীতে অজ্ঞাতপরিচয় নারীর বস্তাবন্দি মরদেহ উদ্ধার নোয়াখালীতে ইসলামী হাসপাতাল সিলগালা ‘লিবিয়ায় মানবপাচারে দুই বিদেশি এয়ারলাইন্স জড়িত’ চাকরি দিচ্ছে আর এফ এল রাজশাহীতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৭৪ জনের করোনা শনাক্ত আমরা গভীর উদ্বিগ্ন, ভারতের কৃষকদের পাশে আছি: ট্রুডো (ভিডিও) গোপনে বিয়ে সেরেছেন তারকা জুটি! ধর্মের অপব্যাখ্যাকারীদের সহ্য করা হবে না: শিক্ষামন্ত্রী
আরও সংবাদ...
বাংলাদেশিদের দেড় ঘণ্টার হামলায় ধরাশয়ী ফ্রান্সের সেই ওয়েবসাইট হেলিকপ্টারে বিয়ে করতে গেলেন রূপপুর বিদ্যুৎকেন্দ্রের প্রকৌশলী ফ্রান্সে হামলা চলছে, দেখুন লাইভ ভিডিও ২০২১ সালে যেসব জিমেইল অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যাবে ভোটে জিতেই স্ত্রী-কন্যাকে হারান বাইডেন রামপালের কাজ বুঝিয়ে দেয়ার আগেই দেউলিয়া ভারতীয় কোম্পানি চুপিসারেই মৌলানাকে বিয়ে করলেন অভিনেত্রী সানা! (ভিডিও) গুগল ম্যাপে ধরা পড়ল বাংলাদেশি সেই জাহাজ ‘ভালোবাসার কথা বলতে না পারা মানুষটাই জীবন সঙ্গিনী’ ধর্ষণের শিকার তরুণীকে বিয়ে করলেন ‘ছোটবেলার প্রেমিক’ টয়লেটের পানি দিয়ে ফুচকার টক বানানোর সময় বিক্রেতা ধরা ৩০০ টাকা নিয়ে শহরে এসে কোটি টাকার মালিক! নতুন চুল গজানোর ঘরোয়া উপায় শুধু ধর্ষণ নয়, কাটাছেঁড়া মৃতদেহের সঙ্গে সেলফি তুলতো মুন্না ফ্রান্সে কিছুক্ষণের মধ্যেই বড় হামলার ঘোষণা নায়িকা শ্রাব‌ন্তী‌কে কুপ্রস্তাব: রিমান্ডে যা বললেন সেই যুবক সেলফি তুলতে চাওয়ায় ভক্তের ফোন ছুড়ে মারলেন সাকিব অনূর্ধ্ব-১৯ দলের সাবেক ক্রিকেটার সজিবের আত্মহত্যা মুসলমানদের অনুভূতি বুঝতে পেরেছি: ম্যাক্রোঁ মেয়র লিটনের মেয়ে, ছাত্রলীগ নেত্রী অর্ণার বিয়ে মাছেও করোনাভাইরাস! বন্ধ হচ্ছে অবৈধ মোবাইল হ্যান্ডসেট নবম-দশম শ্রেণিতে কোনো বিভাগ থাকছে না: শিক্ষামন্ত্রী তৃতীয় স্বামীর সঙ্গেও থাকছেন না শ্রাবন্তী! এক দিনেই মুকেশ হারালেন ৬০ হাজার কোটি টাকা! মার্কিন নির্বাচনের চূড়ান্ত ফল প্রকাশে কত দূর? উচ্চশিক্ষার জন্য রাজধানীতে এসে লাশ হলেন মুন্না যে ৭ মানসিক ব্যাধি মানুষকে যৌন অপরাধী বানায় মুসলিমদের বড় সুখবর দিলেন বাইডেন চট্টগ্রামে বিরল শিশুর জন্ম সাকিবকে হুমকির ঘটনায় কঙ্গনার বিস্ফোরক মন্তব্য কাজলের প্রতিরাতে খরচ ৩৩ লাখ টাকা! অভিনেত্রী লীনা মারা গেছেন দেড় লাখ টাকার শাড়ি, ৯০০ বছর ধরে বুনছে এক পরিবার! অক্সফোর্ডের মুনজেরিন ঢাবিতেও প্রথম শ্রেণিতে প্রথম বাইডেনের ‘ভক্ত’ হয়ে গেছেন ফখরুল ‘সবকিছু শেষ হওয়ার পথে’ : বাইডেনের উপদেষ্টা অপুকে নিয়ে উড়াল দিলেন নিরব! নোটিশ প্রত্যাহার করে জনস্বাস্থ্য পরিচালকের দুঃখ প্রকাশ র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সরওয়ার আলমকে বদলি ছেলের পোস্টে ফের আলোচনায় শ্রাবন্তী জীবিত গরুর অণ্ডকোষ-ভুঁড়ি খেল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কিশোর! শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি আরও বাড়ল ‘আইসিইউ’তে ৯ তারকা! মিথিলাকে মণ্ডপে নিয়ে বিপাকে সৃজিত হাসপাতালের কর্মচারীদের মারধরে এএসপির মৃত্যু, ভিডিও প্রকাশ জিজ্ঞাসাবাদের পর গ্রেফতার ভারতী সিং সোনায় মোড়ানো আড়াই হাজার বছর আগের ১০০ কফিন উদ্ধার বাইডেনের সমর্থনে ৭ লাখ মানুষ হত্যা কানাডায় পাহাড় কিনলেন অক্ষয় কুমার
আরও সংবাদ...


মেনে চলি

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  EnglishLive TV DMCA.com Protection Status
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
উপরে
X