ফাইয়াজ আহমেদ
আপডেট
০১-১০-২০২০, ২০:৪০

‘ভারতে এতটা কোণঠাসা কখনোই ছিল না মুসলমানরা’

‘ভারতে এতটা কোণঠাসা কখনোই ছিল না মুসলমানরা’
প্রায় তিন দশক সময়, ৮৫০ জন সাক্ষী, স্থিরচিত্র, ভিডিওসহ ৭ হাজার প্রমাণাদি থাকার পরও পবিত্র শহর অযোধ্যায় হিন্দু উগ্রবাদীদের হামলায় ধ্বংস হয়ে যাওয়া ১৬ শতকের ঐতিহ্যবাদী বাবরি মসজিদ মালায় একজনকেও দোষী সাব্যস্ত করেনি ভারতীয় আদালত।

জীবিত ৩২ অভিযুক্তদের মধ্যে ভারতের সাবেক উপ-প্রধানমন্ত্রী ক্ষমতাসীন দলের জ্যেষ্ঠ নেতা কৃষ্ণ আদভানি রয়েছেন। বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) তিনিসহ অভিযুক্ত সবাইকে খালাস দিয়েছে আদালত।

আদালতের ভাষ্য, ১৯৯২ সালে সমাজবিরোধী নামপরিচয়হীন দুষ্কৃতিকারীরা মসজিদ ধ্বংস করেছে এবং তাতে পূর্বের কোনো পরিকল্পনা ছিল না। আদালতের পর্যবেক্ষণ দাঁড়ায়, দুর্ঘটনাবশত বাবরি মসজিদ ধ্বংস করা হয়েছে।

কয়েক ঘণ্টায় বাবরি মসজিদ গুঁড়িয়ে দেয়া হয়। তার আগে প্রকাশ্যে মহড়ায় অংশ নেয় উগ্রবাদীরা। সেখানে  স্থানীয় পুলিশের অনেক সদস্য উপস্থিত ছিল। হাজার হাজার মানুষ মসজিদ ভাঙার সে দৃশ্য দেখেছে। ওই ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীদের সাক্ষ্যও নিয়েছিল তদন্ত কমিশন। কিন্তু ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (সিবিআই) বিচারিক আদালত সবকিছুকে অস্বীকার করেছে।

গেলো বছর ভারতের সুপ্রিম কোর্ট স্বীকার করে বাবরি মসজিদ ভাঙা একটি পরিকল্পিত কর্মকাণ্ড। যা আইনের শাসনের ভয়াবহ লঙ্ঘন।

আরও পড়ুন: বাবরি মসজিদ মামলা: ভারতের আদালতের আরেকটি লজ্জাজনক রায়!

তাহলে খালাসকে আমরা কীভাবে ব্যাখ্যা করতে পারি?

সাধারণভাবে রায়কে ভারতের বিচার ব্যবস্থার নিস্ক্রিয়তা এবং বিশৃঙ্খলার আরেকটি কলঙ্কজনক উদাহরণ হিসেবে দেখা যায়। অনেকের শঙ্কা কয়েক দশক ধরে বিচার বিভাগের ওপর যেরকম নগ্ন রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ চলেছে, প্রয়োজনীয় তহবিল দেয়া হয়নি এবং এর সক্ষমতা দুর্বল করা হয়েছে, তাতে এটিকে আর সংস্কার করা সম্ভব নয়। আরো সুনির্দিষ্ট করে বললে, ভারতের ২০ কোটি মুসলমানকে যেভাবে কোনঠাসা করা হচ্ছে-প্রান্তিকরণ করা হচ্ছে সে প্রক্রিয়াকে এ রায়, আরো ত্বরান্বিত করবে।

নরেন্দ্র মোদির হিন্দুত্ববাদী বিজেপি সরকার মুসলমানদের একেবারে খাদের কিনারায় দাঁড় করিয়েছে। ১৯৪৭ সালে স্বাধীনতা অর্জনের পর থেকে ভারত নিজেকে বিশ্বের সবচেয়ে বড় গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র দাবি কর আসছে। ভারতের বহুত্ববাদী এবং অসাম্প্রদায়িকতা চর্চার ইতিহাসে কোনো শাসনামলেই মুসলমানরা এতটা কোণঠাসা হয়নি।

গরুর গোস্ত খাওয়া এবং গরু বহনকারীদের ওপর হিন্দু উগ্রবাদীরা হামলা চালিয়েছে। গরু সংখ্যাগরিষ্ঠ হিন্দুতে কাছে পবিত্র জিনিস বলে বিবেচিত। পার্শ্ববর্তী কয়েকটি দেশ থেকে ভারতে আশ্রয় নেয়া অমুসলমি শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেয়ার জন্য আইন সংশোধন করেছে। মুসলিম অধ্যুষিত জম্মু এবং কাশ্মীরের রাজ্যের মর্যাদা বাতিল করেছে মোদি সরকার। বাতিল করা হয়েছে রাজ্যের সাংবিধানিক স্বায়ত্বশাসনের অধিকার। রাজ্যটিকে ভেঙে কেন্দ্রে শাসিত আলাদা দুটি অঞ্চলে ভাগ করেছে বর্তমান ভারত সরকার। 

আরও পড়ুন: কাশ্মীরে ইসরাইলের ফিলিস্তিননীতি বাস্তবায়ন করছে ভারত

চলতি বছরের শুরুর দিকে দিল্লিতে মুসলমানদের একটি দলের ধর্মীয় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এ অনুষ্ঠান থেকে ভারতে করোনা ছড়িয়েছে বলে মুসলমানদের দায়ী করে ভারত। করোনা মহামারির মধ্যে ভারতে হিন্দুদের বিশাল বিশাল সমাবেশ হলেও সেগুলো নিয়ে রাজনৈতিক নেতারা, সাধারণ মানুষ কিংবা গণমাধ্যম কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি, নিন্দা জানায়নি, এড়িয়ে গেছে।

শুধু তাই নয়, গেলো শীতে দিল্লিতে বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় ছড়িয়ে পড়া বিক্ষোভে দাঙ্গা উস্কে দেয়ার অভিযোগে মুসলিম শিক্ষার্থী এবং সমাজকর্মীদের আটক করে জেলখানায় পুরে প্রশাসন। অথচ দাঙ্গা উস্কে দেয়ায় অভিযুক্ত বহু হিন্দুকে মুক্তি দেয়া হয়। বাবরির রায়কে অনেক মুসলমান মনে করছেন, তাদের ওপর চালানো ধারাবাহিক নিগৃহ, অপমান, অপদস্থের অংশ।

ভারতের মুসলমানদের অব্যাহতভাবে কোণঠাসা করা হচ্ছে। পক্ষান্তরে দেশটির প্রধান আদর্শ হিন্দুত্ববাদকে ধারাবাহিকভাবে সম্প্রসারণ করছে মোদি প্রশাসন। দেশটির জনপ্রিয় গণমাধ্যমগুলো সরাসরি মুসলমানদের বিরুদ্ধে ঘৃণা ছড়াচ্ছে; তাদের মন্দ বলছে। এক সময় আঞ্চলিক শক্তিশালী অনেক দল মুসলমানদের পক্ষ নিয়ে থাকলেও, এখন তারা সরে গেছে। প্রধানবিরোধী দল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তারা মুসলমানদের ভোট ব্যাংক হিসেবে ব্যবহার করলেও বিনিময়ে কিছুই দেয়নি। দেশটিতে মুসলমান পক্ষে কথা বলার মতো নেতার সংখ্যাও খুব কম। 

'রাষ্ট্র পরিচালনার পুরো পদ্ধতির ওপর থেকে মুসলমানদের আস্থা উঠে যাচ্ছে। রাজনৈতিক দল, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান এবং গণমাধ্যম তাদের দোষত্রুটি খুঁজছে। নিজেদের পরিত্যক্ত মনে করছেন মুসলমানরা। এ সম্প্রদায়ের মধ্যে অনেক হতাশা রয়েছে। বলেন, দিল্লি ভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি রিসার্চের সহযোগী গবেষক আসিম আলী। 

আরও পড়ুন: দিল্লিতে উগ্রহিন্দুদের সঙ্গে মুসলমানদের ওপর হামলা চালায় পুলিশও: অ্যামনেস্টি

'সত্য হচ্ছে ভারতের প্রান্তিক মুসলমানদের দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে। একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মুসলমানরা একইসেঙ্গ দেশবিরোধী এবং দেশপ্রেমিক। সমস্যা হচ্ছে যাদের দেশপ্রেমিক বলা হচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে বিষোদগার করছে হিন্দুত্ব জাতীয়তাবাদীরা। ভারতের আর্থ সামাজিক উন্নয়নে মুসলমানদের খুব একটা ফায়দা কখনোই হয়নি।' বলেন আসিম আলী।

এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ভারতের শহরতলীগুলোতে মুসলমানরা সংকুচিত পরিসরে বসবাস করছে। দেশটির কেন্দ্রীয় পুলিশ বাহিনীর কর্মকর্তা পর্যায়ে মুসলামনদের অংশ গ্রহণ ৩ শতাংশেরও কম। যদিও দেশটির মোট জনসংখ্যার ১৪ শতাংশ মুসলমান। 

প্রাথমিকে শিক্ষার্থী ভর্তির সংখ্যা অনেক হলেও মাধ্যমিকে গিয়ে অধিকাংশ মুসলিম শিক্ষার্থী ঝরে পরে। কারণ অর্থনৈতিক বৈষম্য। ভারতের পার্লামেন্টে মুসলমানদের প্রতিনিধিত্ব অব্যাহতভাবে অস্বীকার করা হচ্ছে। ১৯৮০ সালে পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে ৯ শতাংশ মুসলিম প্রতিনিধি থাকলেও বর্তমানে ৫ শতাংশেরও কম। ২০১৪ সালে বিজেপি যখন ক্ষমতায় আসে তখন তাদের দল থেকে নির্বাচিত কোনো মুসলমান জনপ্রতিনিধি ছিল না। যা দেশটির ইতিহাসে প্রথমবার।

আরও পড়ন: গণধর্ষণের শিকার ‘দলিত নারী’র মৃত্যু, ভারতজুড়ে ক্ষোভ

নরেন্দ্র মোদি এবং তার সহকর্মীরা বরাবরই বলে আসছেন, তাদের দল কোন ধর্মের বিরুদ্ধে বৈষম্য করে না। দেশটির প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, তাকে অনেক মুসলিম দেশ সমর্থন করে। তার সরকারের কল্যাণমুখী নানা সুবিধা ধর্ম-বর্ণ নির্বিষে প্রত্যেক দরিদ্র ভারতীয়র কাছে পৌঁছে যাচ্ছে বলে দাবি তার। কয়েক বছর ধরে বিজেপি, উদারপন্থী বিরোধী দলগুলোকে ভণ্ড ধর্মনিরপেক্ষ হিসেবে আখ্যা দিয়ে আসছে।

কেউ কেউ বিশ্বাস করেন যে এই অভিযোগের সত্যতা আছে। উদাহরণ হিসেবে তারা কমিউনিস্টদের দিকে ইঙ্গিত করেন। যারা তিন দশকেরও বেশি সময় পূর্ব ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য শাসন করেছিল। ব্যাপকভাবে ধর্মনিরপেক্ষতার চর্চা তারা করতো। মুসলমানদের সুরক্ষা নিশ্চিত করেছিল। পশ্চিমবঙ্গে মোট জনসংখ্যার এক চতুর্থাংশ মুসলমান।

ব্যতিক্রমও আছে। ধর্মীয় উত্তেজনা এবং সাম্প্রদায়িক রাজনীতির জন্য কুখ্যাত ভারতের গুজরাট। এক গবেষণায় দেখা গেছে, পশ্চিমবঙ্গের চেয়ে সেখানকার মানুষের আর্থিক পরিস্থিতি এবং মানবাধিকার রক্ষার সূচকে এগিয়ে গুজরাট। আলিগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক মির্জা আসমার বেগ বলেন, ভারতে বাজার ব্যবস্থাপনা ধর্মভিত্তিক নয়। তাই গুজরাটেরর মতো রাজ্যে হিন্দু ও মুসলমান উভয়ই ব্যবসায় উন্নতি করছে।

তবে বিশ্লেষকরা বলেছেন, বিজেপি’র ধর্মীয় নির্বাচনী প্রতিযোগিতার অনুশীলন মুসলমানদের অবনতির দিকে ঠেলে দিচ্ছে। ‘আপনি কীভাবে মেরুকরণ করবেন? অন্যকে আপনার পরিচয়ের জন্য হুমকি তৈরি করে।' বলেন, রাজনৈতিক বিজ্ঞানী ক্রিস্টোফ জাফ্রেলোট। তিনি বিশ্বাস করেন, ভারত জাতিগত গণতন্ত্রের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। জাতিগত গণতন্ত্র, জাতিগত জাতীয়করণের ফলে তৈরি। যা স্বকীয়তা এবং শ্রেষ্ঠত্বকে ধারণ করে।'

আরও পড়ুন: ভারতের মুসলিমবিরোধী নৃশংসতা, বিশ্ববাসীকে সতর্ক করলেন ইমরান খান

আলী বলেন, এখনো সব অন্ধকারে ডুবে যায়নি। ৪৭ এর দেশভাগের ভূত থেকে বেরিয়ে অনেক অল্প বয়স্ক মধ্যবিত্ত তরুণের উত্থান হয়েছে। নাগরিকত্ব সংশোধনের বিরুদ্ধে তারা বিক্ষোভ দেখিয়েছে। অনেক মুসলমান নারী-পুরুষ রাস্তায় নেমেছে। নির্বোধ সংখ্যালঘুদের ঘুম ভাঙিয়েছে। তারা নিজেদের শিক্ষিত করছে। প্রতিযোগিতামূলক সিভিল সার্ভিস পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। তিনি আরো বলেন, অনেক তরুণ পোষাকে ইতিবাচক উপায়ে নিজেদের পরিচয় প্রকাশ করছেন। মতামত জানাতে ভয় পায় না তারা।

তবে, শেষ পর্যন্ত খালাস প্রাপ্তরা ভারতের মুসলমানদের মধ্যে কেবল উদ্বেগ এবং অবিচারের বোধকে আরও গভীর করবে। বলছিলেন রাজনৈতিক বিজ্ঞানী জহির আলী। তিনি বলেন, অনেক উপায়ে মুসলমানরা ভারতে পরিত্যক্ত সম্প্রদায়। তারা নিজেদের ক্ষমতাহীনভাবে। হিন্দু, মুসলমান নির্বিশেষে সব দলের নেতারাই তাদের শোষণ করেছে। দরিদ্রতা সেই পরিস্থিতিকে আরো খারাপ করছে।

সূত্র: বিবিসি।



DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ
করোনা ভাইরাস লাইভ আপডেট
আক্রান্ত চিকিৎসাধীন সুস্থ মৃত্যু
৩৯৭৫০৭ ৭৮১৬৪ ৩১৩৫৬৩ ৫৭৮০
বিস্তারিত
রক্তাক্ত ক্যামেরুনের স্কুল, ‘চূড়ান্ত বর্বরতা’ বলল জাতিসংঘ সরকার জনগণকে বোকা বানাচ্ছে: মির্জা ফখরুল ভয়াবহ স্মৃতি নিয়ে দেশে ফিরলেন ১১০ নাবিক দুর্নীতির বিরুদ্ধে রিপোর্ট সরকারকে ব্যবস্থা নিতে সহায়তা করে: প্রধানমন্ত্রী চাঁদপুরে পুলিশের গাড়িতে ডাকাতি! কেটেছে নিম্নচাপ, কমেছে বৃষ্টি অল্প পুঁজিতেও জয় পেল পাঞ্জাব বাগেরহাটে বর্ষণে ভেসে গেছে সাড়ে ৯ হাজার মৎস্য ঘের গোমূত্র খেয়ে সুস্থ আছেন অক্ষয় পেঁয়াজের দাম কমেছে ২০ টাকা আমরণ অনশনে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্যানেল চকলেট উৎপাদনে শ্রম দেয় আফ্রিকার ১৫ লাখ শিশু বসানো হলো পদ্মা সেতুর ৩৪তম স্প্যান সোশ্যাল মিডিয়া জোয়ার: আমরা কি ভাসছি, না ডুবছি? শালকেকে উড়িয়ে দিল ডর্টমুন্ড জয়ের ধারায় ফিরল অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ জলাবদ্ধতার অভিশাপ থেকে মুক্ত হলো ২ হাজার ১০০ একর জমি কেজিতে ৩০ টাকা বেড়েছে মাছের দাম কারওয়ান বাজারে বিডিবিএল ভবনের আগুন নিয়ন্ত্রণে অঞ্জলি দিয়ে আইনি নোটিশ পাচ্ছেন সৃজিত-মিথিলা ফাইনাল মহারণে রিয়াদ-শান্ত বৈরুত বিস্ফোরণে ক্ষতিগ্রস্ত জাহাজটি ফিরেছে চট্টগ্রামে ২০২১ সালের সরকারি ছুটির খসড়া চূড়ান্ত কয়রায় সাংবাদিককে প্রাণনাশের হুমকি রেকর্ড গড়লেন ‘বিস্ময় বালক’ আনসু ফাতি ২০০ ব্রান্ডকে বিদায় দিচ্ছে কোকাকোলা রোববারের বৈশ্বিক করোনা পরিস্থিতি করোনা-পরবর্তীতেও খাবারের সংকট মোকাবিলায় রয়েছে শস্যভাণ্ডার বেড়েছে সবজির দাম দক্ষিণ এশিয়ার নতুন ধনী ‘বাংলাদেশ’ মাদারীপুরে ২০০১ সালে প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে নির্মিত ঘরগুলো এখনও মেরামত হয়নি ঢাকার যেসব স্থানে রোববার যাবেন না স্ত্রীর সঙ্গে মিথুনের মনোমালিন্য, পড়াশোনা ভালো যাবে কন্যার পঞ্চগড়ে মাইক্রোবাস-ট্রাক্টর সংঘর্ষে নিহত ২ অচল ৯টি বিমান বিক্রির উদ্যোগ সিভিল অ্যাভিয়েশনের শিশু প্রতিবন্ধী নাকি সুস্থ, জেনে নিন ৪ সপ্তাহের পরীক্ষাতেই ইতিহাসের এই দিনে টিভিতে আজকের খেলা ঢাকায় খাল আছে ২৬টি, যার কোনোটিরই নেই অস্তিত্ব এমবাপ্পে-কিনের জোড়া গোলে জয়রথ ধরে রাখলো পিএসজি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ২ মোংলায় বিদেশি জাহাজে প্রকৌশলীর মৃত্যু প্রত্যাশিত জয় পেলো লিভারপুল শুরু হচ্ছে বিএসপিএ স্পোর্টস কার্নিভাল যন্ত্রণাদায়ক নখকুনির প্রতিকার ঘরের মাঠে জয়বঞ্চিত ম্যান ইউ কনুইয়ের জোরে নওগাঁয় ঐতিহ্যবাহী পাঞ্জা লড়াই লেওয়ানডস্কির দুর্দান্ত হ্যাটট্রিকে জয়ী বায়ার্ন মিউনিখ অলিম্পিককে সামনে রেখে টোকিওতে অ্যাকুয়াটিক্স সেন্টার দারুণ জয় পেল কলকাতা নাইট রাইডার্স ৭৫ বছর বয়সেও খেলছেন পেশাদার ফুটবল! ট্রফির লড়াইয়ে মুখোমুখি মাহমুদুল্লাহ-শান্ত মার্কিন নির্বাচনে আগাম ভোট দিলেন ট্রাম্প ‘পুলিশ বা জনগণ কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নয়’ ফরিদপুরে হোটেলের বিছানায় পড়েছিল তরুণীর মরদেহ শিপিং কর্পোরেশনে চাকরির সুযোগ ঢাকায় মার্কিন উপমন্ত্রীর মন্তব্যে ক্ষোভ বেইজিংয়ের আরও বাড়ল মেসির অপেক্ষা স্টিল মিলে বিস্ফোরণ: দুই ব্যবস্থাপকসহ ৪ কর্মকর্তা গ্রেফতার এল ক্ল্যাসিকোতে হারল বার্সা ‘ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক করতে চায় আরো ৫ আরব দেশ’ ফ্লোরিডায় পাওয়া গেল দুই মাথাওয়ালা সাপ চাঁদপুরে ভাইদের দ্বন্দ্বে খুন হয় কিশোর ইয়াসিন প্রতিদিন ১৬ লাখ প্লাস্টিক কণা ঢুকছে পেটে, বলছে গবেষণা খুন হতে পারেন সৌদি ক্রাউন প্রিন্স! আগরতলায় বাংলাদেশের নতুন সহকারী হাইকমিশনার জোবায়েদ তেঁতুলিয়ায় মাইক্রোবাস-ট্রাক্টর সংঘর্ষে নিহত ২ মা-ছেলের প্রাণ কেড়ে নিল ট্রাক স্কুলছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার, মৃত্যু নাকি আত্মহত্যা? তৃতীয় প্রান্তিকে আইএজি’র ক্ষতি ১৩০ কোটি ইউরো জমজ বাছুর জন্ম দেয়ার প্রযুক্তি বাংলাদেশে ‘পানিপড়া’ পান করিয়ে ধর্ষণ করল কবিরাজ বিয়ে করলেন নেহা (ভিডিও) হত্যা মামলার আসামি ডালিম চেয়ারম্যানের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন হাতিয়ায় ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করায় দুই যুবকের কারাদণ্ড মিথ্যা বলেছেন নায়লা নাঈম, প্রতিশ্রুতিও রাখেননি নওয়াজকে ফেরাতে মরিয়া ইমরান হাঁটছে ৮৫ বছরের পুরনো বহুতল ভবন! (ভিডিও) মাঠে ফিরছেন মাশরাফী পুলিশও কোনো অপরাধ করে ছাড় পাবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পদ্মাসেতুতে বসেনি ৩৪তম স্প্যান,পাহারায় সেনাবাহিনী মুক্তির আগেই দেশে ফিরছেন সাকিব তিনদিন মর্গে পড়ে থাকার পর অজ্ঞাতপরিচয় বৃদ্ধের দাফন রায়হান হত্যা: কনস্টেবল হারুন ৫ দিনের রিমান্ডে বিকাশ অ্যাকাউন্ট ব্লক হলে নতুন পিন রিসেট করবেন যেভাবে গ্যাস সিলিন্ডার থেকে একই পরিবারের ৯ জন দগ্ধ করোনায় প্লাজমা চিকিৎসা কার্যকর নয়: ব্রিটিশ জার্নাল জলঢাকায় দলিল লেখক সমিতির বিরুদ্ধে চাঁদা আদায়ের অভিযোগ পঙ্গপালে দিশেহারা ইথিওপিয়া, খাদ্য সংকটে লাখ লাখ মানুষ পি কে হালদার দেশে ফিরছেন না ভারতে রুশ ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি রোহিঙ্গা গণহত্যার পূর্ণাঙ্গ নথি আইসিজে’তে পটুয়াখালী‌তে স্পিড‌বোট দুর্ঘটনায় মে‌রিন কো‌র্টে মামলা পদ্মায় ইলিশ ধরায় ১২ জেলের জেল-জরিমানা কোলকাতায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে অঞ্জলি দিলেন ভক্তরা বড়াইগ্রামে ধর্ষণের অভিযোগে মাদ্রাসা সুপার আটক ভাড়া কমছে শহরের অ্যাপার্টমেন্টে পুকুর খননে মিলল গ্রেনেড মেঘ-বৃষ্টি কাটলেই শীত আবারও সেন্টমার্টিনকে মানচিত্রভুক্ত করেছে মিয়ানমার!
আরও সংবাদ...
দেশে বেড়েছে করোনায় আক্রান্ত, কমেছে মৃত্যু চেতনানাশক খাইয়ে ১৫ দিন ছাত্রকে বলাৎকার, মাদ্রাসাশিক্ষক আটক কমলো পেঁয়াজের দাম শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক ছুটি ২ দিন করোনার ভ্যাকসিন বানাতে প্রাণ যাবে লাখ লাখ হাঙরের নোয়াখালীতে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন, ভিডিও ভাইরাল বিশ্বে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ১১ লাখ ছুঁই ছুঁই ৫২ কেজির ভোলা ভেটকি ধরে রাতারাতি ধনী বৃদ্ধা! ফাঁসির রায়ের পর টাকা চাইলেন রিফাত, হাসলেনও দেশে টিকটক-লাইকি ঘিরে সুইমিং পার্টি, আড়ালে দেহ ব্যবসা (ভিডিও) তিন টাকায় ১ জিবি ইন্টারনেট! চার শিশুর বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা! বিকাশে ১০০০ টাকা ক্যাশব্যাক পাবেন যেভাবে! ৪০ বছরেও যোগ্য বর না পাওয়ার কষ্টে নায়িকা পপি নামাজরত মাকে কুপিয়ে হত্যা করল ছেলে আবারো বিয়ে করলেন শমী কায়সার যুবকের পেটের ভেতর আস্ত মোবাইল! বখাটেদের পায়ে ধরে ‘বড় ভাই’ ডেকেও রক্ষা পাননি তরুণী (ভিডিও) চেক লেনদেনের নতুন নিয়ম সবচেয়ে কম দামে স্মার্টফোন আনল স্যামসাং কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের পর ছবি ফেসবুকে সকল কলেজ ক্যাম্পাসের জন্য নতুন নির্দেশনা জারি শাহরুখকে টপকে গেলেন এরতুগ্রুল! সমুদ্রে জীবিত মিলল দুবছর আগে হারিয়ে যাওয়া নারী (ভিডিও) তিশা-ইরফানসহ ৪ জনকে আইনি নোটিশ রায় শুনে যা করলেন পাপিয়া রোববার গ্যাস থাকবে না যেসব এলাকায় ‘মগজ-খেকো’ প্রাণী ধেয়ে আসছে যুক্তরাষ্ট্রে, ৮ শহরে সতর্কতা শমী কায়সারের স্বামীর পরিচয় ১২টি তালা ভেঙে সন্তানসহ গৃহবধূকে উদ্ধার ওএসডি হলেন সেই ইউএনও ওয়াহিদা, স্বামীকেও বদলি পাক-ভারত সীমান্তে তুমুল লড়াই চলছে বিমানেই প্রসব, ফ্রি যাতায়াতের সুবিধা আজীবন দাঁতে পানের দাগ পড়েছে, মিনিটেই হবে ঝকঝকে ধর্ষণ মামলা: ‘মেয়েটির সঙ্গে মাত্র একবার কথা হয়েছিল’, বললেন ভিপি নুর ধর্ষণ করেন মামুন, সহায়তাকারী নুর: ঢাবি ছাত্রী নর্দমায় আটকে থাকা দৈত্যাকার ইঁদুর উদ্ধার! (ভিডিও) মুমূর্ষু স্বামীর জন্য রক্ত দেয়ার কথা বলে স্ত্রীকে ধর্ষণ এইচএসসি নিয়ে মন্ত্রীর কাছে ১৩ লাখ শিক্ষার্থীর পক্ষে নিবেদন আল্লামা শফীর জানাজার সময় ও স্থান মিন্নির ২১ যুক্তি মা হচ্ছেন পিয়া আনুশকাকে রশিদ খানের স্ত্রী দেখাচ্ছে গুগল! আমার চলচ্চিত্রের ক্যারিয়ার ধ্বংস করেছেন অপু বিশ্বাস: মারুফ অভিনেতা দিলদারের মেয়ের বিয়ের ভিডিও ভাইরাল ধর্ষণের ভিডিও করে জিম্মি: ‘যখন ডাকব তখনই আসতে হবে’ কুটনামি না থাকায় বন্ধ হচ্ছে 'কাদম্বিনী' সিরিয়াল দেশের প্রথম ডিজিটাল রোডক্রস মিরপুরে এবার সুশান্তের বিরুদ্ধেই অভিযোগ তুললেন রিয়া দেশে ভাইরাল বিদেশি যুগলের ছবি
আরও সংবাদ...


মেনে চলি

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  EnglishLive TV DMCA.com Protection Status
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
উপরে