সম্পূর্ণ নিউজ সময়
মহানগর সময়
২ টা ৫৬ মিঃ, ২৩ জুলাই, ২০২০

প্রেমিকার বাবার হাতে খুন নাকি বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মৃত্যু খায়রুলের?

পরিবার বলছে খুন, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট বিদ্যুতায়িত হয়ে মৃত্যু। রাজধানীর উত্তর বাড্ডা এলাকায় এক যুবকের মৃত্যুকে ঘিরে ধোঁয়াশা সৃষ্টি হয়েছে। প্রেমিকার বাবাই পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে দাবি করে মামলা করেছেন খায়রুলের বাবা। আর পুলিশ বলছে, তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
সাদাত রহমতুল্লাহ

একমাত্র সন্তানকে নিয়ে কত স্বপ্ন ছিল চা বিক্রেতা খায়রুলের। কিন্তু পুড়ে ছাই হয়ে গেছে সব। এখন কেবল চান বিচার।

বাবা আব্দুল কুদ্দুস বলেন, এই যে আমার ছেলে চলে গেছে, আর তো ফেরত আসবে না। আমি আমার ছেলের হত্যাকারীর শাস্তি চাই।

আরো পড়ুনঃ প্রেমিকের বুদ্ধিতে বাংলাদেশ থেকে ফিল্মি স্টাইলে আইরিস তরুণী উদ্ধার

মাইলস্টোন কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী নাজনিন আহম্মেদ নিথীর সাথে পাঁচ বছরের প্রেমের সম্পর্ক খায়রুলের। ২০ জুন বিকেলে নিথীর ফোন পেয়ে রাজধানীর উত্তর বাড্ডার রসুলবাগের বাসায় যান তিনি। রাতেই দগ্ধ খায়রুলকে হাসপাতালে নিয়ে যায় স্থানীয়রা। তিনদিন পর তার মৃত্যু হয়।

ময়নাতদন্ত রিপোর্ট বলছে, বিদ্যুতায়িত হয়ে মৃত্যু হয় খায়রুলের। তবে নিথির তিনতলা বাসার পাশ দিয়ে যাওয়া ১১ হাজার ভোল্টেজের তারের শকে মৃত্যু হওয়ার কথা। প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, আহত খায়রুল নিজেই টিনের চাল বেয়ে নেমে আসেন। জানান বাঁচার আকুতি।

আরো পড়ুনঃ গুগল ম্যাপ দেখে ভারত-পাকিস্তান সীমান্ত পাড়ি দিতে হাজির প্রেমিক!

এ ঘটনায় ১ জুলাই বাড্ডা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন আব্দুল কুদ্দুস। পুলিশ বলছে, তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

গুলশান থানার উপ-কমিশনার সুদীপ কুমার বলেন, নিথীর যে বাবা-মা তারা বাসায় এসে টের পেয়ে যায়। পরে সেখান থেকে পালাতে গিয়ে বৈদ্যুতিক ভোল্টেজে পড়ে যায় খায়রুল।   

এ ঘটনার সুরাহা চান মৃতের পরিবার।

© ২০২১ সময় টিভি মিডিয়া নেটওয়ার্ক
সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত
DMCA.com Protection Status
সময় মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন
Somoy Tv App PlayStore Somoy Tv App AppleStore
ফলো সামাজিক সময়