সম্পূর্ণ নিউজ সময়
খেলার সময়
৯ টা ৫২ মিঃ, ৬ জুলাই, ২০২০

করোনায় আর্থিক অনটনে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড

কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে ক্ষতির মুখে পড়েছে কম-বেশি সব দেশের ক্রিকেট বোর্ডই। বিশ্বের অন্যতম ধনী ক্রিকেট বোর্ড ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডও (বিসিসিআই) এর বাইরে নয়। একদিকে করোনাভাইরাসের থাবা, অন্যদিকে চীনের সঙ্গে সীমান্ত নিয়ে সংকট-সব মিলিয়ে দিশেহারা বিসিসিআই।
ওয়েব ডেস্ক

বর্তমান পরিস্থিতিতে বিশ্বব্যাপী শুরু হয়েছে অর্থনৈতিক মন্দা। এর প্রভাব পড়েছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডেও। তাই ভেবে-চিন্তে এগুতে হচ্ছে তাদের। পৃষ্ঠপোষকদের সঙ্গে চুক্তির জন্য দরপত্রের প্রত্যাশিত অর্থ না কমালে কঠিন হয়ে যাবে ধারণা বিসিসিআই কর্তাদের। 

এদিকে, আসছে সেপ্টেম্বরে ভারতীয় ক্রিকেট দলের জার্সি পৃষ্ঠপোষক নাইকির সঙ্গে চুক্তি শেষ হতে চলেছে বিসিসিআইয়ের। সংশয় দেখা দিয়েছে নতুন চুক্তি নিয়েও। এ চুক্তি অনুযায়ী ম্যাচ প্রতি বিসিসিআইকে ৮৫ লাখ রুপি দেওয়ার কথা নাইকির। মোট চুক্তি ৩৭০ কোটি রুপির। ম্যাচ প্রতি ৮৫ লাখ রুপির সঙ্গে রয়্যালটি আরও ৩০ কোটি রুপি। 

তবে কোভিড-১৯ এর কারণে নাইকির ব্যবসায়িক অবস্থা নাজুক। তাই এই পুরো টাকা কোনোভাবেই বিসিসিআইকে দিতে পারবে না বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। সে কারণে তারা চুক্তিটি শেষ করার জন্য সমঝোতায় যেতে চাচ্ছে।

নাইকি ছাড়াও বিসিসিআই বড় বিপদে আছে আইপিএলে চীনা প্রতিষ্ঠানের স্পন্সর চুক্তি নিয়ে। আইপিএলের টাইটেল স্পন্সর হিসেবে মোবাইল ফোন প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ভিভো ভারতীয় বোর্ডকে বছরে দেয় ৪৪০ কোটি রুপি। চলমান পরিস্থিতিতে আইপিএল আর না হলে ৪৪০ কোটি রুপি বিসিসিআই আর পাবে না। সব মিলিয়ে আর্থিক দিক দিয়ে সৌরভ গাঙ্গুলি যে কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে পড়তে যাচ্ছেন, সেটা একরকম অবধারিত বলাই যায়। 

করোনার কারণে সম্প্রচার চুক্তিও হুমকির মুখে আছে। এ বছর ভারতের মাটিতে ১২টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ হওয়ার কথা ছিল। সেই সঙ্গে ভারতের শ্রীলঙ্কা ও জিম্বাবুয়ে সফরের কথা ছিল। এই ১২টি ম্যাচ সম্প্রচার বাবদ বিশাল অঙ্কের অর্থ প্রাপ্তি ছিল বিসিসিআইয়ের, সেটিও তারা পাচ্ছে না। 

© ২০২১ সময় টিভি মিডিয়া নেটওয়ার্ক
সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত
DMCA.com Protection Status
সময় মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন
Somoy Tv App PlayStore Somoy Tv App AppleStore
ফলো সামাজিক সময়