সম্পূর্ণ নিউজ সময়
স্বাস্থ্য
১২ টা ৫৬ মিঃ, ২৮ মে, ২০২০

দেশে করোনা চিকিৎসায় আলো দেখাচ্ছে ফেভিপিরাভি

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) চিকিৎসায় আশার আলো দেখাচ্ছে বীকন ফার্মাসিটিক্যালস লিমিটেডের ঔষধ ফেভিপিরাভি। বৃহস্পতিবার (২৮ মে) বিকেলে রাজধানীর একটি হোটেলে এই বিষয়ে অভিজ্ঞতা বিনিময় করেন বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর প্রধান চিকিৎসা মেজর জেনারেল আজিজুল ইসলাম।
Somoy News
স্বাস্থ্য সময় ডেস্ক

অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, এরইমধ্যে বিএমআরসি এবং ওষুধ প্রশাসন কর্তৃক অনুমোদিত প্রটোকল দিয়ে ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল করেছি। যেখানে ৩০ জন করোনা আক্রান্ত এয়ার ফোর্সের মিশনগামী অফিসারদের ফেভিপিরাভি খাওয়ানোর আট দিনের মধ্যে ২৮ জনের নেগেটিভ ফল এসেছে। সশস্ত্র বাহিনীর করোনা চিকিৎসায় প্রথম এই ফেভিপিরাভি ব্যবহার শুরু করেন।

এ ঔষুধ আশার আলো দেখাচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, এই ওষুধ ৯১.৬ শতাংশ পর্যন্ত কাজ করছে।

তিনি আরও বলেন, করোনা ভয় নয়, নিয়ম মেনে চিকিৎসা নিলে এই রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

এদিকে, দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ২ হাজার ২৯ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া এই সময়ের মধ্যে মারা গেছেন ১৫ জন। করোনাভাইরাস নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত অনলাইন বুলেটিনে বৃহস্পতিবার (২৮ মে) দুপুরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বুলেটিনে অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, দেশে নতুন দুইটি ল্যাবসহ মোট ৪৯টি ল্যাবে বর্তমানে করোনাভাইরাসের পরীক্ষা হচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় এসব ল্যাবে মোট ৯ হাজার ২৬৭টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে আগের দিনের নমুনাসহ পরীক্ষা হয়েছে ৯ হাজার ৩১০টি।

তিনি বলেন, পরীক্ষাকৃত এসব নমুনায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ২৯ জনের শরীরে। এছাড়া এই সময়ে মারা গেছেন ১৫ জন। এ নিয়ে দেশে মোট শনাক্ত হলেন ৪০ হাজার ৩২১ জন এবং মারা গেলেন ৫৫৯ জন।

এছাড়া নতুন করে ৫০০ জন সুস্থ হয়েছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

এর আগে বুধবার দেশে দেড় সহস্রাধিক করোনা রোগী শনাক্ত ও ২২ জনের মৃত্যুর তথ্য দিয়েছিল অধিদপ্তর।

গেল কিছুদিন ধরে দেশে প্রায় প্রতিদিনই দেড় সহস্রাধিক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হলেও সাধারণ ছুটি আর না বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। বৃহস্পতিবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপনও জারি করেছে। ৩১ তারিখ থেকে সরকারি সব অফিস-আদালত খুলে দিলেও গণপরিবহন চলাচল সীমিত রাখারই সিদ্ধান্ত হয়েছে। এছাড়া অফিস করার ক্ষেত্রেও স্বাস্থ্যবিধিগুলো মেনে চলার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

অন্যদিকে বিশ্বে ৫৮ লাখ ৩ হাজার ৯৯ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে ৩ লাখ ৫৭ হাজার ৬৯১ জন মারা গেছেন। অন্যদিকে সুস্থ হয়ে ঘরে ফিরেছেন ২৫ লাখ ৮ হাজার ৫৯১ জন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন ২৯ লাখ ৩৬ হাজার ৮১৭ জনের মধ্যে ৫২ হাজার ৯৭০ জনের অবস্থা গুরুতর।

© ২০২১ সময় মিডিয়া লিমিটেড
সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত
DMCA.com Protection Status
সময় মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন
Somoy Tv App PlayStore Somoy Tv App AppleStore
ফলো সামাজিক সময়