মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
আন্তর্জাতিক সময় ডেস্ক
আপডেট
২৬-০৫-২০২০, ১৫:৩১

করোনা: রোগীদের উপসর্গ অবাক করছে চিকিৎসকদের

করোনা: রোগীদের উপসর্গ অবাক করছে চিকিৎসকদের
বিশ্বব্যাপী দাপিয়ে বেড়ানো করোনার থাবায় বিপর্যস্ত পুরো মানবসমাজ।  এ ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসা দিতে গিয়ে অনেকেই হয়েছেন হতবাক। বদলে গেছে চিকিৎসকদের চিন্তা ধারা।   

ব্রিটেনের  চিকিৎসকরা বলেন, এরকম কোনো কিছু আমরা জীবনে কখনো দেখিনি - কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দিতে গিয়ে যা দেখেছি।

ব্রিটেনের এই ডাক্তারদের অনেকেই হাসপাতালগুলোর ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে কাজ করেছেন। তারা কিন্তু চীন থেকে ছড়িয়ে পড়া এই নতুন ভাইরাসের কথা জানতেন। তাদের অনেকে চীন এবং ইতালিতে থাকা তাদের সহকর্মীদের অভিজ্ঞতা শুনেছেন, পড়েছেন।

তারা জানতেন যে এই রোগ ব্রিটেনে পৌঁছানো সময়ের ব্যাপার মাত্র। কিন্তু সত্যি যখন করোনাভাইরাস যুক্তরাজ্যে এলো, তখন কিন্তু আইসিইউর সবচেয়ে অভিজ্ঞ ডাক্তাররাও এই ভাইরাসের সম্মুখীন হয়ে আশ্চর্য হয়ে গিয়েছিলেন।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বেশির ভাগ রোগীরই উপসর্গ ছিল মৃদু। কারো কারো হয়তো কোনো উপসর্গই ছিল না। কিন্তু যে হাজার হাজার রোগীর অবস্থা সংকটজনক পর্যায়ে চলে গিয়েছিল –তাদের চিকিৎসা করতে গিয়ে ডাক্তাররা দেখলেন – কোভিড-১৯ আসলে বিস্ময়কর রকমের জটিল একটি ভাইরাস।

কোভিড -১৯ মানবদেহে কিভাবে আক্রমণ করে – এ ব্যাপারে ডাক্তাররা যা জানতে পেরেছেন এবং যা এখনও জানতে পারেননি – তারই বর্ণনা এখানে।

এটি শুধুই ভাইরাল নিউমোনিয়া নয় –তার চেয়েও ভয়ংকর জিনিস

প্যাডিংটনের সেন্ট মেরি‌’জ হাসপাতালের কনসালট্যান্ট অধ্যাপক এ্যান্টনি গর্ডন বলছিলেন, ডাক্তারদের অনেকেই মনে করেছিলেন এটা হবে শ্বাসতন্ত্র আক্রমণকারী ভাইরাস যা নিউমোনিয়া সৃষ্টি করে। মৌসুমী ফ্লুর মতোই কিন্তু যা আরো ব্যাপক আকারে ছড়াচ্ছে। কিন্তু খুব দ্রুতই এটা স্পষ্ট হয়ে গেল যে এ ভাইরাস শুধু রোগীদের শ্বাসতন্ত্র নয় আরো অনেক কিছু আক্রান্ত করছে।

‍প্রথমত: কোভিড-১৯এ অনেক বেশি লোক সংক্রমিত হচ্ছে। কিন্তু তা ছাড়াও এটা যে অসুস্থতা তৈরি করছে তা একেবারেই অন্যরকম। আমরা আগে কোন রোগীর মধ্যে এমন দেখিনি – বলছিলেন বার্মিংহ্যামের চিকিৎসক রন ডানিয়েলস।

তাছাড়া এই রোগে যারা সংকটাপন্ন অবস্থায় চলে যান তাদের ফুসফুসে এত তীব্র প্রদাহ এবং রক্ত জমাট বাধা শুরু হয়ে যায় যে তাতে অন্যান্য প্রত্যঙ্গগুলোও আক্রান্ত হয়, এবং রোগীর সারা দেহে জীবন বিপন্ন করার মতো সমস্যা দেখা দেয়।

একজন ডাক্তারের চোখে এটা এক ভয়াবহ পরিস্থিতি, কারণ আমাদের সামনে এত বেশি রোগীর মধ্যে এ অবস্থা ঘটতে দেখা যাচ্ছে। আমরা এখনো এই ভাইরাসটির আচরণ বুঝতে হিমশিম খাচ্ছি – বলছিলেন বেভারলি হান্ট, লন্ডনের একটি হাসপাতালের থ্রম্বোসিস বিশেষজ্ঞ।

অক্সিজেন
মার্চ মাস জুড়েই যুক্তরাজ্যের হাসপাতালগুলোতে এমন অনেক রোগী আসছিলেন যাদের শ্বাসকষ্ট ছিল, দেহে অক্সিজেনের পরিমাণ কমে গিয়েছিল। কিন্তু সবচেয়ে গুরুতর অসুস্থদের শুধু ফুসফুস নয়, অন্যান্য প্রত্যঙ্গেরও সমস্যা দেখা দিচ্ছিল।

তাদের দেহের রক্তে এমন কিছু ঘটছিল যার কোন ব্যাখ্যা মিলছে না।

উত্তর লন্ডনের হুইটিংটন হাসপাতালের অধ্যাপক হিউ মন্টগোমারি বলছেন, আমরা এখনো জানি না কেন কিছু রোগীর রক্তে অবিশ্বাস্য রকমের কম মাত্রায় অক্সিজেন থাকলেও তারা অসুস্থ বোধ করে না।

মানুষের রক্তের হিমোগ্লোবিন নামে যে কণিকা আছে –সেটাই অক্সিজেন বহন করে। কোন কোন কোভিড-১৯ রোগীর রক্তে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ ৮০ শতাংশ বা তারও নিচে নেমে যায়।

ডাক্তার অ্যান্টনি গর্ডন বলছেন, সম্ভবত: এর সাথে প্রদাহের একটা সম্পর্ক আছে –যার কারণে রক্তনালীর ওপর প্রভাব পড়ছে। এতে অক্সিজেন রক্তে মিশতে পারছে না কিন্তু ফুসফুসে হয়তো তেমন প্রভাব পড়ছে না –অন্তত প্রাথমিক স্তরে।

এটি হচ্ছে কোভিড-১৯এর অনেক রহস্যের একটা। এ নিয়ে জরুরিভাবে আরো গবেষণা দরকার।

এ কারণে অনেক ডাক্তার প্রশ্ন করছেন, করেনাভাইরাস রোগীদের ক্ষেত্রে ভেন্টিলেশন সবসময় সঠিক পন্থা কিনা। ভেন্টিলেটর দিতে হলে রোগীকে অজ্ঞান করতে হয় এবং তার শ্বাসনালীতে একটা নল ঢোকাতে হয়। এতে অনেক গুরুতর অসুস্থ কোভিড রোগীকে বাঁচানো সম্ভব হয়েছে।

কিন্তু কারো কারো ক্ষেত্রে ভেন্টিলেটর ভুল সময়ে ভুল চিকিৎসা হয়ে দাঁড়াতে পারে।

বারবারা মাইলস বলছেন, এই রোগ বিভিন্ন পর্যায়ের মধ্যে দিযে যায়, তাই কোন পর্যায়ে কিভাবে ভেন্টিলেটর ব্যবহার করতে হবে তা বুঝতে আমাদের আরো সময় লাগবে।

সাধারণত গুরুতর নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত রোগীকে এক সপ্তাহ ভেন্টিলেটর দিতে হয়। কিন্তু কোভিড রোগীদের অনেককে আরো অনেক বেশি সময় ধরে ভেন্টিলেটর দিতে হচ্ছে যার কারণ আমরা ঠিক জানি না – বলছিলেন বেলফাস্টের রয়াল ভিক্টোরিয়া হাসপাতালের অধ্যাপক ড্যানি ম্যাকলে।

প্রদাহ এবং রক্ত জমাট বেধে যাওয়া

সবাই বলছেন, ফুসফুস বা রক্তনালীর নজিরবিহীন প্রদাহ এটাকে একেবারেই ভিন্ন রকম এক রোগে পরিণত করেছে। এ কারণে রক্ত জমাট বেধে যাবার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। আর গুরুতর রোগীদের ২৫ শতাংশের দেহেই কোভিড-১৯ অবিশ্বাস্য রকমের ঘন এবং আঠালো রক্ত তৈরি করে, যা এক বিরাট সমস্যা - বলছেন হিউ মন্টগোমারি।

এর ফলে বিশেষত: রোগীর পায়ে রক্ত জমাট বেধে যেতে পারে, যাকে বলে ডিপ ভেইন থ্রমবোসিস, এবং এটা সারা শরীরে ঘুরে ফুসফুসে রক্ত সরবরাহ বন্ধ করে দিতে পারে – যার ফরে নিউমোনিয়া আরো গুরুতর চেহারা নেয় –বলেন বেভারলি হান্ট।

তা ছাড়া জমাট বাধা রক্ত মস্তিষ্ক বা হৃদপিন্ডে রক্ত সরবরাহ বন্ধ করে দিতে পারে –যার ফলে রোগীর হার্ট অ্যাটাক বা স্ট্রোক হতে পারে।

বেভারলি হান্ট বলছিলেন, রক্তে যে প্রোটিনটি জমাট বাধার সমস্যা সৃষ্টি করে তার নাম ফাইব্রিনোজেন। সাধারণত এক লিটার রক্তে এর পরিমাণ থাকে ২ থেকে ৪ গ্রাম।

কিন্তু কোভিড রোগীর রক্তে লিটার প্রতি ১০ থেকে ১৪ গ্রাম পর্যন্ত ফাইব্রিনোজেন পাওয়া গেছে –যা আমি ডাক্তার হিসেবে আমার জীবনে কখনো দেখিনি। রক্ত জমাট বাধার ঝুঁকি মাপার আরেকটি একক হলো ডি-ডাইমার নামে একটি প্রোটিন। স্বাস্থ্যবান রোগীর রক্তে এটা দশক থেকে শ‌’য়ের হিসেবে মাপা হয়।

কিন্তু কোভিড রোগীর দেহে এই স্তর ৬০, ৭০ বা ৮০,০০০ পর্যন্ত উঠতে দেখা গেছে - যা আমরা কখনা শুনিনি বলছেন হিউ মন্টগোমারি।

রোগপ্রতিরোধ ব্যবস্থা এবং অন্যান্য প্রত্যঙ্গ

কারো কারো ক্ষেত্রে কোভিড-১৯ সংক্রমণ এত তীব্র হতে পারে যে দেহের রোগ-প্রতিরোধ ব্যবস্থা বা ইমিউন সিস্টেমে অতিরিক্ত প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করে – যা খুবই বিপজ্জনক।

সংক্রমণ ঠেকানোর অংশ হিসেবে মানবদেহ সাইটোকিন নামে একধরণের অণু তৈরি করে যাকে বলা যায় – এক ধরণের রাসায়নিক সতর্ক সংকেত। এর ফলে শরীরে প্রদাহ সৃষ্টি হয় – যা একটা পর্যায় পর্যন্ত ক্ষতিকর নয়। কিন্তু কোন কোন রোগীর দেহে কোভিড সংক্রমণ সৃষ্টি করে একরকম ‘সাইটোকিন ঝড়।‘

বিপুল পরিমাণে সাইটোকিন শরীরে ছড়িয়ে পড়ে, আর তাতে আরো বেশি প্রদাহ সৃষ্টি হয়।

ফলে ইমিউন সিস্টেমের গুরুত্বপূর্ণ অংশ রক্তে টি সেলের পরিমাণ কমে যায়, দেখা দেয় শ্বাসকষ্ট, এবং শরীরের অন্যান্য প্রত্যঙ্গ ক্ষতিগ্রস্ত হয়, বলছেন অ্যান্টনি গর্ডন।

এ কারণে কোভিড-১৯ শরীরে ঢুকে কি করবে তা আগে থেকে বলা খুবই কঠিন। বিশেষজ্ঞরা একে বলছেন মাল্টি-সিস্টেম রোগ – যাতে রোগীর ফুসফুস, কিডনি, হৃদপিন্ড, লিভার এমনকি মস্তিষ্ক – যে কোন কিছু আক্রান্ত হতে পারে।

আইসিইউতে আসা দু'হাজারেরও বেশি কোভিড রোগীর ক্ষেত্রে কিডনি অকেজো হয়ে যাবার সমস্যা দেখা দিয়েছে।

অনেকের মস্তিষ্ক প্রদাহ দেখা দিয়েছে - তাদের মধ্যে বিভ্রান্তি বা উল্টোপাল্টা আচরণ করার সমস্যা দেখা গিয়েছে। অনেকের ভেন্টিলেটর খুলে নেবার পর ঠিক মত জ্ঞান ফিরছে না – বলছিলেন হিউ মন্টগোমারি।

বলা হয় যেসব রোগীর আগে থেকে স্বাস্থ্য সমস্যা থাকে তাদের ক্ষেত্রে কোভিড-১৯ সংক্রমণ বিপজ্জনক রূপ নিতে পারে। এর মধ্যে শুধু অ্যাজমা বা হাঁপানি নয়, উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস, হৃদরোগ, স্থুলতা, বৃদ্ধ বয়স, এমনকি রোগী পুরুষ না নারী – সবই রয়েছে।

এক হিসেবে দেখা গেছে, ইংল্যান্ড, ওয়েলস আর নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডে সংকটাপন্ন রোগীদের ৭০ ভাগই ছিলেন পুরুষ, ৭০ ভাগই ছিলেন মোটা বা ওজন বেশি, দু-তৃতীয়াংশের বয়স ছিল ৬০এর বেশি।

কেউ কেউ, সবাই নয়

কিন্তু তার পরও এটা ব্যাখ্যা করা যাচ্ছে না যে কেন বেশির ভাগ কোভিড সংক্রমিত লোকের দেহেই মৃদু উপসর্গ দেখা দেয়, এবং কেন কেউ কেউ দ্রুত গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন।

রন ড্যানিয়েলস বলছেন, আমরা এখনো এর কারণ বুঝতে পারছি না।

এ কারণে করোনাভাইরাস নিয়ে নানারকম তত্ত্ব ছড়াচ্ছে, আবার গবেষণাও চলছে।

ড্যানিয়েলসের মতে হয়তো কোন ব্যক্তির জিনগত গঠন, বা এশিয়ান ও কৃষ্ণাঙ্গদের জেনেটিক বৈশিষ্ট্য এতে একটা ভুমিকা রাখছে, - কিন্তু এটা নিশ্চিতভাবে বলা সম্ভব নয়।

অনেকে বলছেন, যাদের দেহকোষে এসিই-টু নামের একটি প্রোটিন – যা রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতে সহায়ক – বেশি থাকে তাদের কোভিড সংক্রমণের ফলে গুরুতর অসুস্থ হবার ঝুঁকি বেশি থাকে। দেখা গেছে, তাদের ক্ষেত্রে অন্ত্রের সমস্যা বা কিডনি অকেজো হয়ে যাবার ঘটনা বেশি ঘটেছে।

কিন্তু যত উত্তর পাওয়া যাচ্ছে - তার চেয়ে প্রশ্ন অনেক বেশি।

পরীক্ষামূলক চিকিৎসা

আইসিইউর ডাক্তাররা এখনো যেসব প্রশ্ন নিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন তা হলো:

১.কোভিড-১৯ রোগীদের ভেন্টিলেশন দেবার সঠিক সময় কখন?

২.এন্টি-ভাইরাল ওষুধগুলোর মধ্যে কোনটা সর্বোত্তম, অথবা প্রদাহ-রোধী এবং রোগপ্রতিরোধ ব্যবস্থাকে নিয়ন্ত্রণের আনার ওষুধগুলোর সঠিক মাত্রা কতটা?

৩.প্লাজমা বা সেরে-ওঠা রোগীদের রক্তের এন্টিবডি ব্যবহার কি এ সমস্যার সমাধান করতে পারে?

ডাক্তারদের মতে, আগামী কয়েক মাসে ব্যাপক পরিমাণ পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমেই শুধু এর উত্তর পাওয়া সম্ভব।

এ কারণে আইসিইউর ডাক্তাররা অনেক ক্ষেত্রেই তাদের আগেকার জ্ঞানের ভিত্তিতে কোভিড-১৯ রোগীদের ওষুধ দিতে পারছেন না – তাদেরকে বরং একেকজন রোগীর অবস্থা দেখে ঠিক করতে হচ্ছে, কি করবেন।

বেভারলি হান্ট বলছেন, তার ব্যাপারটাকে প্রায় ‘মধ্যযুগীয়’ অবস্থা বলে মনে হয়েছে।

অ্যান্টনি গর্ডন বলেন, তিনি ২০ বছর ধরে আইসিইউতে কাজ করছেন। কিন্তু কোভিড-১৯ রোগীদের চিকিৎসা করতে গিয়ে তার মনে হয়েছে, আজ তিনি হাসপাতালে যা করেছেন তা সঠিক ছিল কিনা – তা তিনি জানেন না। সূত্র: বিবিসি বাংলা।



DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ
করোনা ভাইরাস লাইভ আপডেট
আক্রান্ত চিকিৎসাধীন সুস্থ মৃত্যু
১৯০০৫৭ ৮৬৮৩০ ১০৩২২৭ ২৪২৪
বিস্তারিত
হেলিকপ্টারে ঢাকার পথে শাহেদ হেলিকপ্টারে ঢাকায় আনা হলো শাহেদকে যেভাবে গ্রেফতার হলেন শাহেদ রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান শাহেদ গ্রেফতার নেত্রকোনায় স্ত্রীকে হত্যা করে পুকুরে ফেলে দেয় হাসান ধলেশ্বরী থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার নেত্রকোনায় প্রতিবন্ধী ধর্ষণের ঘটনায় যুবক আটক ভৈরবে মেঘনা নদী থেকে অজ্ঞাত যুবকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার 'গুজব ঠেকাতে মূলধারার গণমাধ্যম গুরুত্বপূর্ণ' গাইবান্ধায় বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ঝুঁকিপূর্ণ মুন্সিগঞ্জে ১০৩ কোটি টাকার কারেন্ট জাল জব্দ জয়পুরহাটে এক কিশোরের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার ভৈরবে অবৈধভাবে কয়েল উৎপাদন, তিন কারখানাকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা বাংলাদেশসহ ১৩ দেশের নাগরিকদের ইতালি প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা সাংসদের গাড়ির দুই চালকের সঙ্গে পুলিশের ধস্তাধস্তি স্বাস্থ্যবিধি ভঙ্গ করায় বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সকে কোটি টাকা জরিমানা সাহারা খাতুন স্মরণে ফ্রান্স আওয়ামী লীগের দোয়া ও মিলাদ মাহফিল কথিত মানবাধিকার সংগঠনের নামে ‘কমিশন’ শব্দ ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত সীমান্ত পথে গবাদিপশুর অবৈধ অনুপ্রবেশ বন্ধে কঠোর ব্যবস্থা ভারতের বিপক্ষে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী তপু বর্মণ ফরিদপুরে সাদ পরিবহনের বাস চলাচলকে কেন্দ্র করে পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন মানবদেহে করোনার ভ্যাকসিন পরীক্ষা করবে আরব আমিরাত ইপিএলে মুখোমুখি লিভারপুলের-ম্যানসিটি, সিটিজেনদের প্রতিপক্ষ বোর্নমাউথ সেরা তিনে ওঠার সহজ সুযোগ হারাল ম্যানইউ ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করায় কলেজছাত্রকে এক বছরের কারাদণ্ড টোকিও অলিম্পিকসে থাকছে না চিরচেনা চোখ ধাঁধানো আয়োজন যশোর-৬ আসনে জয়ী আ. লীগের শাহীন চাকলাদার সৈকতে হরেক রকমের বিদেশি মদের বোতল শনিবার থেকে ব্যক্তিগত অনুশীলনে ফিরছেন ক্রিকেটাররা পঞ্চগড়ে আরও ৪ জনের করোনা শনাক্ত কোরআনের অনুবাদ পড়ানো হবে পাকিস্তানের সব বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্জ্যে আটকা পড়ে মারা গেল ৪০টির বেশি কচ্ছপ শুল্ক ফাঁকির অভিযোগে এনবিআরে শ্যুটারদের হাজিরা দেয়ার ঘটনায় বিস্মিত যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী তুরস্ক-মিশরের যাঁতাকলে পিষ্ট হওয়ার পথে লিবিয়া কোরবানির জন্য প্রস্তুত ‘কালা পাহাড়’ ৫০ লাখ বছরের পুরানো এই গুহায় মেঘ ভেসে বেড়ায়! করোনা রোগীদের জন্য অক্সিজেন সেবা দিল 'জাগ্রত মানবিকতা' বগুড়া-১ উপনির্বাচনে জয়ী আ’লীগের সাহাদারা মান্নান বালুর চাপে ধসে পড়ল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আন্তর্জাতিক সড়ক 'তিন দেশের পানিতে বাংলাদেশে বন্যা হচ্ছে' মুন্সিগঞ্জে পদ্মায় বালুভর্তি দুই নৌযান ডুবি, উদ্ধার ১০ কুমিল্লায় আরও ৫০ জনের করোনা শনাক্ত ডিএনসিসি'তে বসবে ৬টি পশুর হাট পুরান ঢাকায় বাল্ব কারখানায় আগুন প্রকল্প বাস্তবায়নে অপচয় রোধের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর শিশুর প্রাণ বাঁচাতে কক্সবাজার ডিসির মানবিক আবেদন স্বামী-সন্তান রেখে পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে ঘর বাঁধলেন স্কুল শিক্ষিকা মুখোমুখি জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে সাবরিনা-আরিফুলকে করোনার ভুয়া সনদে দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে: কাদের বাবাকে রাস্তায় ফেলে গেল সন্তান ফরিদপুরে ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে শিক্ষক হাজতে ভালো রুটি তৈরি হয়নি! তাই অন্তঃসত্ত্বা পুত্রবধূকে পুড়িয়ে মারলেন শাশুড়ি করোনা মুক্ত হলেন মাশরাফি পাবনায় ২ অস্ত্র ব্যবসায়ী আটক এই তিন রুট বাদে বিমানের ফ্লাইট বাতিলের সময় বৃদ্ধি ডিজির অনুরোধে চুক্তির অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলাম: স্বাস্থ্যমন্ত্রী তেঁতুলিয়ায় শ্বাসরোধে স্ত্রীকে হত্যা, স্বামী পলাতক বালিয়াকান্দিতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বসবে পশুরহাট মানিকছড়িতে সেনাবাহিনীর খাদ্যসামগ্রী বিতরণ ঈদের জামায়াত-কোরবানি নিয়ে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের বিশেষ নির্দেশনা নারায়ণগঞ্জে ২০০ বছরের রাস্তা বিলুপ্তের প্রতিবাদে মানববন্ধন ২০২৭ সালের মধ্যে হুয়াওয়েমুক্ত হতে চায় যুক্তরাজ্য রিজেন্টের এমডি গ্রেফতার ইট ভাঙছেন মা, শিকলবন্দী শিশু এফডিসিতে বয়কট জায়েদ খান মশা তাড়ান কয়েল বা স্প্রে ছাড়াই সুশান্তের সঙ্গে স্বস্তিকার ভিডিও ভাইরাল (ভিডিও) ছাগলের খোঁয়াড়ে আশ্রয় নিলো রয়েল বেঙ্গল টাইগার ইতালিতে বাংলাদেশিদের আজীবন নিষিদ্ধের দাবি কট্টরপন্থীদের ১৫২ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা ভোক্তা অধিদপ্তরের অমিতাভের পরিবারের জন্য ভক্তদের কাণ্ড সিনেমায় জুটি বাঁধবেন আসাদুজ্জামান নূর-তারানা হালিম! রান্নাঘরে ডিম বিস্ফোরণ, আহত ১ বিশ্ব পরিবেশ সুরক্ষা: ১০ বছর আগেই এসডিজি’র লক্ষ্য অর্জন পাকিস্তানের ব্রিটেনের ভুলে ১৫ বছর ভুগছেন বাংলাদেশি সাইফুল প্রকল্পের কাজে অনিয়মের অভিযোগে উপজেলা প্রকৌশলী বরখাস্ত লারাকে পেছনে ফেললেন হোল্ডার গ্যাংস্টার বিকাশ দুবের রোমাঞ্চকর প্রেম, হার মানায় সিনেমার গল্পকেও ধোনির কাছ থেকে ‘ভালো’ খেলোয়াড় পাননি কোহলি অবৈধ ভ্যাকসিন ও রক্ত রাখার দায়ে ব্যবসায়ীর কারাদণ্ড আয়ারল্যান্ডের করোনাযুদ্ধে বড় অবদান বাংলাদেশি চিকিৎসকদের করোনায় পাগল হচ্ছেন মিমি! শাহজাহান সিরাজের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি শোক একনেকে ১০ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন যুক্তরাষ্ট্রে করোনা ভয়াবহতার কারণ জানালেন ড. ফাউসি মার্কিন গুপ্তচরকে ফাঁসিতে ঝোলাল ইরান করোনার মধ্যেই বন্যার ধাক্কায় বিপর্যস্ত চীন ভেজাল খাদ্য কারখানা সিলগালা, জরিমানা বহু শিক্ষার্থীর জীবনও নষ্ট করেছেন প্রতারক শাহেদ ‘এবারের বন্যা দীর্ঘস্থায়ী হবে’ মৌলভীবাজারে বর্ষিয়ান সাংবাদিকদের সম্মাননা দিলো ইমজা স্বামী-স্ত্রীর ভয়াবহ কাণ্ডে স্থবির মুম্বাইয়ের রাস্তা!(ভিডিও) কুমিল্লায় বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ আটক ২ সগিরা হত্যায় মারুফ রেজার জামিন আবেদন নামঞ্জুর এনু-রুপমের ৯১ অ্যাকাউন্টে ২শ’ কোটি টাকা লেনদেন শাহেদকে খুঁজতে হোটেল রিসোর্টে তল্লাসী মেঘনায় মাছ ধরার ট্রলারডুবি, জেলে নিখোঁজ বৃহস্পতিবার থেকে পুরোপুরি লকডাউনে ভারতের বিহার তাহসানের সঙ্গে সাফা কবিরের বিটার লাভ স্টোরি
আরও সংবাদ...
ভারতের খয়রাতি বা ঋণের পরিমাণ কত? বিশ্বে প্রথম করোনার ভ্যাকসিন তৈরি করল চীন এবার দেশেই তৈরি প্রাইভেটকার! ৫ সমুদ্র বন্দরের মালিক হচ্ছে বাংলাদেশ বাংলাদেশে প্রথম করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কারের দাবি, বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলন পরীক্ষা ছাড়াই কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে পাসের সিদ্ধান্ত! ‘খয়রাতি’ বলায় নিঃশর্ত ক্ষমা চাইল ভারতীয় মিডিয়া ভারতের ইটের জবাব পাথরে দিল বাংলাদেশ চীনের সঙ্গে হেরে বাংলাদেশকে ‘খয়রাতি’ বলে কটাক্ষ ভারতীয় মিডিয়ার আরও ভয়ংকর ভাইরাস, ২ দিনেই ৮ কোটি মানুষের মৃত্যুর শঙ্কা! এক দিনে ৫০ বার ভূমিকম্প! হিরো আলমের আপত্তিকর ভিডিও ফাঁস দেশে পরীক্ষা ছাড়াই স্কুল-কলেজে পাসের ঘোষণা আসতে পারে চীনের করোনা ভ্যাকসিন প্রথমেই পাবে বাংলাদেশ মোহাম্মদ নাসিমকে নিয়ে অমানবিক স্ট্যাটাস, গ্রেফতার হলেন বেরোবি প্রভাষিকা লাদাখে উড়ছে ঝাঁকে ঝাঁকে চীনা ড্রোন চীনা শিবির গুড়িয়ে দিতে ক্ষেপণাস্ত্রসহ ৪৫ হাজার সেনা পাঠাল ভারত কালোজিরাতেই সেরে যাচ্ছে করোনা, মদিনার গবেষকদের বিস্ময়কর দাবি চীনের হামলায় ভারতের ২০ সেনা নিহত ফটোল্যাব ব্যবহারকারীর তথ্য চলে যাচ্ছে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থায়! ঢাকার যেসব এলাকা রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত ভারতীয় পণ্য বর্জন করলে বাংলাদেশের কী হবে? মোহাম্মদ নাসিম আর নেই করোনায় আক্রান্ত হলেন মাশরাফী ২৩ ঘন্টায় ৪ বার ভূ কম্পন, যেকোনো মুহূর্তে বড় ভূমিকম্পের শঙ্কা ভারতের বিস্তীর্ণ এলাকা দখলে নিয়েছে চীনা সেনারা রণপ্রস্তুতিতে এগিয়ে আসছে চীন! বিভিন্ন স্থানে রেড জোন ঘোষণা করে লকডাউনের প্রজ্ঞাপন আজই অফিস খোলা ও চলাচলে নতুন প্রজ্ঞাপন জারি বাংলাদেশিদের কাছে ইটের জবাবে পাথর খেয়ে পিছু হটেছে ভারতীয়রা! ঢাকার অনেক মানুষের শরীরে অ্যান্টিবডি চলে এসেছে: ড. বিজন শীল করোনায় বাংলাদেশে নতুন রোগ শনাক্ত মারা গেলেন এন্ড্রু কিশোর সর্বোচ্চ আক্রান্তের দিনে মৃত্যুরও রেকর্ড শাহেদ প্রতারণায় ছাড় দেননি পরিবারকেও, মুখ খুলেছেন স্ত্রী বাংলাদেশে আবিষ্কৃত করোনার ভ্যাকসিনের বিরাট অগ্রগতি, ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের উদ্যোগ ‘পানির নিচে’ ১৩ ঘণ্টা জীবিত থাকার ব্যাখা দিলেন বিশেষজ্ঞ ‘বাবা-মা করোনা এনেছে’ অজুহাতে ইঞ্জিনিয়ার স্বামীকে নির্মম নির্যাতন স্ত্রীর (ভিডিও) নিহত ভারতীয় সেনাদের বীভৎস ছবি প্রকাশ ভারতের ডেপসং দখলে ট্যাঙ্ক নিয়ে এগোচ্ছে চীনা বাহিনী চীন-ভারত সেনাদের মধ্যে আবারও সংঘর্ষ (ভিডিও) বাংলাদেশের পাওনা টাকা আটকে রেখেছেন কিম জং উন ছুঁয়েও দেখলেন না কোন ডাক্তার, বাবার কোলেই শিশুর করুণ মৃত্যু শরীর ঘেঁষে হাঁচি দেয়ায় পিস্তল নিয়ে তেড়ে এলেন এমপির দেহরক্ষী শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে ইন্টারনেট দেয়ার উদ্যোগ লকডাউনে রেড জোনে কাজ চলবে যেভাবে সরকারি হিসাবের চেয়ে করোনায় মৃত্যু লক্ষাধিক বেশি: বিবিসি দোকানপাট খোলা রাখার সময় বাড়ল চীনের কাছে মার খেয়ে পাকিস্তানে গোলা ফেলছে ভারত! ৭ হাজার টাকায় মিলছে করোনা নেগেটিভের সনদ!
আরও সংবাদ...

মেনে চলি

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TVEnglish DMCA.com Protection Status
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
উপরে