মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
মোঃ তৌহিদুল ইসলাম
আপডেট
২৪-০৫-২০২০, ১৪:৩১

হালদায় রেকর্ড পরিমাণ ডিম আহরণের নেপথ্যে এক কর্মকর্তার নিরন্তর ছুটে চলা

হালদায় রেকর্ড পরিমাণ ডিম আহরণের নেপথ্যে এক কর্মকর্তার নিরন্তর ছুটে চলা
হালদা নদীর জীব-বৈচিত্র্য ও প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষায় প্রশাসন এবং হালদা রিসার্চ ল্যাবরেটরি এবং সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোর সমন্বিত কার্যক্রমের সুফল মিলছে ২০২০ সালে।

চট্টগ্রামের বর্তমান জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেনের নির্দেশনায়  ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বর থেকেই হাটহাজারীর ইউএনও রুহুল আমিনের তত্ত্বাবধানে হালদা নদীর জীব-বৈচিত্র্য রক্ষায় নানাবিধ উদ্ভাবনী উদ্যোগ গৃহীত হয়। বিভিন্ন কারিগরি বিষয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের হালদা রিসার্চ ল্যাবরেটরির প্রধান অধ্যাপক ড. মনজুরুল কিবরিয়া স্যার বিভিন্ন মূল্যবান পরামর্শ দিয়েছেন, যা প্রশাসন সংশ্লিষ্ট সকলকে নিয়ে বাস্তবায়নের জন্য কার্যকরী পদক্ষেপ নিয়েছেন।

হালদা নদীর জীব-বৈচিত্র্য ও প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষায় স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সর্বদা বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রচারের মাধ্যমে হালদা নদী সংক্রান্ত গৃহীত কার্যকরী উদ্যোগগুলোকে জনগণের নিকট তুলে ধরেছেন।

হালদা থেকে গত ২২ মে ২০২০ খ্রি. তারিখে ২৫ হাজার ৫৩৬ কেজি মাছের ডিম সংগ্রহ হয়েছে, যা গতবছরের চেয়ে প্রায় চারগুণ বেশি। ২৮০ টি নৌকায় ৬১৫ জন মিলে এই ডিম সংগ্রহ করেছেন। গত ১২ বছরে সবচেয়ে বেশি ডিম এবার পাওয়া গেছে। মাঠ প্রশাসন ; গবেষক এবং স্থানীয় সচেতন নাগরিক মহলের সমন্বিত কার্যক্রমেই হালদা নদী থেকে ডিম আহরণে এবছরের রেকর্ড অর্জিত হয়েছে।

প্রায় ৯৮ কিলোমিটার দীর্ঘ বাংলাদেশের অন্যতম কার্প জাতীয় মাছের (রুই,কাতল,মৃগেল, কালিবাউশ) প্রাকৃতিক প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদী। খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার মানিকছড়ি উপজেলার বাটনাতলী ইউনিয়নের একটি  পাহাড়ি গ্রামের নাম সালদা। এই গ্রামের ঝর্ণা থেকে নেমে আসা ছড়া সালদা থেকেই হালদা নামকরণ করা হয়। হালদাছড়া মানিকছড়ি উপজেলার মানিকছড়ি খালের সাথে মিলিত হয়ে প্রথমে  হালদা খাল এবং পরবর্তীতে ফটিকছড়ির ধুরং খালের সাথে মিলিত হয়ে হালদা নদীতে পরিণত হয়েছে। এই নদী  চট্টগ্রাম জেলার ফটিকছড়ি, রাউজান এবং হাটহাজারী উপজেলার মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হয়ে চট্টগ্রাম মহানগরের চান্দগাও থানার কালুরঘাট নামক স্থানে কর্ণফুলী নদীর সাথে মিলিত হয়েছে। এটিই বিশ্বের একমাত্র জোয়ার ভাটার নদী।হালদার দুই পাড়ের মানুষ প্রাকৃতিক এই প্রজনন ক্ষেত্র থেকে প্রতি বছর উৎসব মুখর পরিবেশে নিষিক্ত ডিম  সংগ্রহ করে। ডিম আহরণের এই রেওয়াজ যুগ যুগ ধরে বংশ পরম্পরায় চলে আসছে। হালদা নদী এবং নদীর পানির কিছু বিশেষ বৈশিষ্ট্যের জন্য এখানে মাছ ডিম ছাড়তে আসে যা বাংলাদেশের অন্যান্য নদী থেকে ভিন্নতর। এ বৈশিষ্ট্যগুলো ভৌতিক, রাসায়নিক এবং জৈবিক।

হালদা নদীর জীব-বৈচিত্র্য ও প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষায় হাটহাজারি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা যেসকল চ্যালেঞ্জিং কার্যক্রম সফলভাবে মোকাবেলা করেছেন এর মধ্যে ২০১৯ সালের একটা ঘটনার প্রসঙ্গে বলতে হয় যেটা হালদা নদীকে ব্যাপক দূষণের হাত থেকে রাত রক্ষা করেছে।
২০১৯ সালের ২৯ এপ্রিল তারিখে চট্টগ্রাম-নাজিরহাট রেল সড়কে ফার্নেস তেলবাহী একটি ট্রেন দুর্ঘটনার কবলে পড়ে স্থানীয় মরাছড়া খালের রেল সেতু ভেঙ্গে ০১টি ওয়াগন সম্পূর্ণভাবে ছড়ায় পতিত হয়। ফার্নেস তেল মুহূর্তেই ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে, যার শেষ গন্তব্য ছিল প্রাকৃতিক জীন ব্যাংক খ্যাত হালদা নদী। হালদা দূষণ রোধ এবং মাছ ও জীব বৈচিত্র্য রক্ষায় তড়িৎ পদক্ষেপের মাধ্যমে ফার্নেস তেলের ছড়িয়ে পড়া রোধে চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেনের তাৎক্ষণিক পরামর্শে  হাটহাজারীর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মাদ রুহুল আমীন স্থানীয় উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে  আড়াই কিলোমিটার খালের মধ্যে ১২টি বাঁধ নির্মাণ করে টানা পাঁচ দিন কাজ করে প্রায় শতভাগ তেল অপসারণ করে। ফলে হালদা নদী ভয়াবহ দূষণ থেকে রক্ষা পায়। উল্লেখ্য, হালদা নদী থেকেই চট্টগ্রাম ওয়াসা নগরে বসবাসকারী ৬০ লক্ষ লোককে পানি সরবরাহ করে। হালদা নদীর পানিতে ফার্নেস তেল দূষণ ছড়িয়ে পড়লে তা থেকে  চট্টগ্রাম মহানগরীতে বসবাসরত জনগণের বিশুদ্ধ পানি সরবরাহে গভীর সংকট তৈরি হতো এবং জনস্বাস্থ্যের ক্ষতি করতো। এছাড়া সময়টাও ছিল হালদায় ডিম ছাড়ার পূর্ব মুহুর্ত। এমন অতি গুরুত্বপূর্ণ সময়ে হালদা নদীর অনতিদূরে হাটহাজারীর মরা ছড়ায় রেলওয়ের ফার্নেস তেলবাহী ওয়াগন দুর্ঘটনার শিকার হয়। পতিত ওয়াগনে ছিল ২৫ হাজার লিটার ফার্নেস তেল যার সিংহভাগই ছড়ায় পড়ে। উপজেলা প্রশাসনের প্রাণান্তকর চেষ্টায় হালদা নদী পর্যন্ত গড়াতে পারেনি তেল। নদীতে তেল পড়া ঠেকাতে ১২টি বাঁধ দিয়ে দিনরাত কাজ করে অপসারণ করা হয় ২০ হাজার লিটার তেল।

হালদা নদীর সাথে সংযুক্ত হাটহাজারী পৌর এলাকার প্রধান খাল ‘কামাল পাড়া খালের’ মুখে উপজেলা নির্বাহী অফিসার, হাটহাজারী রুহুল আমিনের উদ্যোগে লোহার গ্রীল বসিয়ে, তাতে আটকে যাওয়া ময়লা আবর্জনা প্রতি সপ্তাহেই পরিষ্কারের উদ্যোগ নেয়ার ফলে হাটহাজারী পৌর এলাকার বিভিন্ন নালা-নর্দমা থেকে আসা ময়লা-আবর্জনা আর পড়ছে না হালদা নদীতে। প্রতি সপ্তাহে গ্রীল পরিষ্কার করে ময়লা-আবর্জনা তুলে ফেলা হচ্ছে যার মাধ্যমে হালদা নদী মুখী ২ টন বর্জ্য অপসারণ করা হচ্ছে। হালদা নদীর জীব-বৈচিত্র্য ও প্রাকৃতিক পরিবেশ সংরক্ষণে  প্রশাসনের এ ধরণের মনিটরিং এবং কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ নজিরবিহীন। হালদা নদীর জীব-বৈচিত্র্য ও প্রাকৃতিক পরিবেশ সংরক্ষণে  চট্টগ্রামের বর্তমান জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেনের নির্দেশনায় হাটহাজারীর ইউএনও রুহুল আমিনের তত্ত্বাবধানে এ সমন্বিত কার্যক্রমে  চট্টগ্রামের সর্বস্তরের জনগণ, পরিবেশবিদ এবং নদী গবেষকগণ সন্তোষ ও স্বস্তি প্রকাশ করেছেন।

পৃথিবীর একমাত্র মিঠা পানির মাছ প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদীর দখল ও দূষণ প্রতিরোধ; নদী কেন্দ্রিক জীব-বৈচিত্র্য ও প্রাকৃতিক পরিবেশ সংরক্ষণ এবং মৎস্য সম্পদ আহরণ বৃদ্ধি কার্যক্রম বাস্তবায়নে নানামুখী উদ্যোগ গ্রহণ করার ফলে নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল এবং বিষ প্রয়োগ করে মা মাছ শিকারের প্রবণতা হ্রাস পেয়েছে প্রায় নব্বই শতাংশ।

দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম বড় প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র চট্টগ্রামের হালদা নদীতে এবার  ২০২০ সালে কার্প জাতের মা মাছ রেকর্ড পরিমাণ ডিম ছেড়েছে। দূষণ-বালু উত্তোলন, চোরা শিকার প্রায় বন্ধ হওয়ায় এবার গত একযুগে সর্বোচ্চ ডিম সংগ্রহ হয়েছে বলে জানিয়েছেন গবেষকরা।

হালদা গবেষক অধ্যাপক মনজুরুল কিবরিয়ার মতে, কারখানা বন্ধ করে দূষণ ঠেকানো, বিদ্যুৎ কেন্দ্র বন্ধ করা, মানিকছড়ি পাহাড়ে তামাক চাষ বন্ধ করা, বছরব্যাপী চোরা শিকারি ও বালু উত্তোলনকারীদের তৎপরতা বন্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া এবং কোভিড-১৯ এর কারণে লকডাউনের ফলে পরিবেশের ভারসাম্য ঠিক থাকায় এই সুফল এসেছে।

জেলা প্রশাসক চট্টগ্রাম এর সার্বিক নির্দেশনায় হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিনের স্থানীয় উদ্যোগের মাধ্যমে প্রেরিত রিপোর্টের ভিত্তিতে পরিবেশ অধিদপ্তর  কর্তৃক এশিয়ান পেপার মিল ও ১০০ মেগাওয়াট পিকিং পাওয়ার প্ল্যান্ট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। গত একবছরে ১০৯ বার হালদা নদীতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালানো হয়েছে।গত একবছরে হালদার অভিযানে ২ লাখ ২১ হাজার মিটার ঘেরাজাল জব্দ করা হয়েছে, যেগুলো দিয়ে মা মাছ শিকার করা হচ্ছিল। বালু উত্তোলনকারী ৯টি ড্রেজার ও ১৫টি ইঞ্জিনচালিত নৌকা ধ্বংস করা হয়েছে। সাড়ে তিন কিলোমিটারেরও বেশি বালু উত্তোলনে ব্যবহৃত পাইপ ধ্বংস করা হয়েছে। জব্দ করা হয়েছে ১ লাখ ১৫ হাজার ঘনফুট বালু।

চট্টগ্রাম জেলার বর্তমান জেলা প্রশাসক  মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেনের নির্দেশনায়  ২০১৯ সালের শুরু থেকেই  হাটহাজারী উপজেলা প্রশাসনের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনায়  হ্যাচারিগুলোতে ডিম পরিস্ফুটনের কাজ অত্যন্ত সুন্দর ও শৃঙ্খলার সাথে সম্পন্ন হয়েছে। হাটহাজারী উপজেলার ডিম পরিস্ফুটনের জন্য নির্মিত তিনটি হ্যাচারির প্রায় ৭০ ভাগ কুয়া (আয়তকার চৌবাচ্চা যা ডিম হতে রেণু উৎপাদনের কাজে ব্যবহৃত হয়) গত ৫ বছর ধরে পরিত্যক্ত ছিল।

২০১৯ সালে ডিম ছাড়ার প্রায় দুই মাস পূর্বে শতভাগ কুয়া ব্যবহার উপযোগী করে গড়ে তোলে হাটহাজারী উপজেলা প্রশাসন। নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ এবং পানি সরবরাহ নিশ্চিত করা হয়।স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করে কাজের তত্ত্বাবধান করা হয়। নিয়োগ দেয়া হয় কেয়ারটেকার, সার্বক্ষণিক গ্রাম পুলিশ মোতায়েন করে ডিম সংগ্রহকারীদের দেয়া হয় আস্থার পরিবেশ। ১৪১ টি মাটির তৈরি কুয়া এবং সরকারি ৫ হ্যাচারির ১৩১ টি কুয়ায় ডিম পরিস্ফুটন করা হয়।

২০১৮ সালের বিবেচনায় ২০১৯ সালে রেণু উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ১১৭ কেজি। কিন্তু যথাযথ হ্যাচারি ব্যবস্থাপনা ও সংস্কারের কারণে গত বিছর ২০১৯ সালে প্রায় ২০০ কেজি রেণু উৎপাদিত হয়। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও প্রায় ৮০ কেজি বেশি ছিল। প্রতি কেজি রেণুর বাজার মূল্য ৮০ হাজার টাকা হারে এ বছর হাটহাজারীর স্থানীয় ডিম আহরণকারীরা গত বছরের তুলনায় প্রায় ৬৪ লাখ টাকা বেশি মুনাফা করেছেন। চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের উদ্যোগের ফলে এ বছর কোনো ডিম নষ্ট হয়নি।

২০১৮ সালের তুলনায় ২০১৯ সালে ডিম ফুটানোর সরকারি কুয়ার সংখ্যা বেড়েছে তিনগুণ। কুয়া কম থাকায় গতবছর নির্ধারিত পরিমাণের তিনগুণ ডিম একটা কুয়াতে তারা ফুটানোর চেষ্টা করেছেন, ফলশ্রুতিতে প্রচুর ডিম নষ্ট হয় যা দেশের মৎস্য সম্পদের জন্য ছিল অপূরণীয় ক্ষতি।

২০১৯ সাল থেকে কুয়ার সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় প্রতি কুয়ায় ডিমের পরিমাণ নির্দিষ্ট করে দেয় উপজেলা প্রশাসন ফলে ডিম নষ্ট হবার ঝুঁকি বা সম্ভাবনা ছিল না।

২০২০ সালে বিগত ১২ বছরে রেকর্ড পরিমাণ ডিম আহরণ হওয়ায় এবার রেণু উৎপাদনের ক্ষেত্রেও আশা করা যায় একটি মাইলফলক সৃষ্টি হবে। রেণু থেকে কার্প জাতীয় মাছের দেশজ উৎপাদনের ক্ষেত্রেও একটি রেকর্ড হবে। মৎস্য উৎপাদনের ক্ষেত্রে হালদা নদীর সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার সুফল ভোগ করবে দেশের মৎস্যজীবীরা এবং দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে বলে দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করছি।

হালদা নদী থেকে সংগ্রহ করা ডিম পাড়ে সরকারি ও ব্যক্তিগত উদ্যোগে প্রস্তুত বিভিন্ন কুয়ায় রাখা হচ্ছে। সেখান থেকে প্রথমে রেণু ফোটানো হবে এবং পরে রেণু থেকে পোনা হবে।

২০১৯ সালে প্রায় সাত হাজার কেজি ডিম সংগ্রহ করা হয়েছিল। ২০১৮ সালে স্থানীয়রা ডিম সংগ্রহ করেছিলেন ২২ হাজার ৬৮০ কেজি। এর আগে ২০১৭ সালে মাত্র ১ হাজার ৬৮০ কেজি, ২০১৬ সালে ৭৩৫ কেজি, ২০১৫ সালে ২ হাজার ৮০০ কেজি এবং ২০১৪ সালে ১৬ হাজার ৫০০ কেজি ডিম সংগ্রহ করা হয়।

হালদা নদী থেকে শুধুমাত্র  রুই বা কার্প জাতীয় (রুই, কাতলা, মৃগেল এবং কালিবাউশ) মাছের  ডিম সংগ্রহ, রেণু উৎপাদন, পোনা বিক্রি ও মাছ বিক্রি করে বছরে আয় হয় প্রায় প্রায় ৮২১ কোটি টাকা, যা ওই সময়ের দেশের মোট মৎস্য উৎপাদনের ৬ শতাংশ। নদী হিসেবে এককভাবে আমাদের জাতীয় অর্থনীতিতে মৎস্যক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি অবদান রাখছে হালদা নদী। আর এই নদীর বালি উত্তোলন, চট্টগ্রাম ওয়াসার খাবার পানি সংগ্রহ, নদীর উভয় পাড়ের মানুষের কৃষিকার্য, জীবন-জীবিকা প্রভৃতি মিলিয়ে বছরে প্রায় ১০ হাজার ৭৩৫ কোটি টাকা আয় হয় এই নদীকে ঘিরে।

এছাড়া প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে এবং পরিবেশগত মূল্যে হয়তো আরও বাড়তে পারে। জেলা প্রশাসন,চট্টগ্রাম হালদা নদীর সুষ্ঠু ও পরিকল্পিতভাবে সংরক্ষণ ও ব্যবস্থাপনার নিমিত্ত সহায়ক সরকারি-বেসরকারি সংস্থাসমূহকে সম্পৃক্ত করে   জাতীয় অর্থনীতিতে হালদা নদীর অবদানের পরিমাণ অনেক গুণ বৃদ্ধির পথকে  নিয়ত মসৃণ করছে।

লেখক পরিচিতি:
মোঃ তৌহিদুল ইসলাম
সহকারী কমিশনার (ভূমি), কাট্টলী সার্কেল ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট,
জেলা প্রশাসন, চট্টগ্রাম।
ই-মেইলঃ towhid17817@gmail.com



DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ
করোনা ভাইরাস লাইভ আপডেট
আক্রান্ত চিকিৎসাধীন সুস্থ মৃত্যু
১৮১১২৯ ৮৯৪৬৯ ৯১৬৬০ ২৩০৫
বিস্তারিত
হট গার্ল বিপাশার ছবি ভাইরাল, চমকে গেলেন স্বামী চমেকে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপে দফায় দফায় সংঘর্ষ নতুন দুই মডেলের ভেসপার স্কুটার বাজারে গাইবান্ধায় বাড়ছে পানি, ভয়াবহ বন্যার শঙ্কা ‘বাংকারদের অনুরোধ করছি, ধৈর্য সহকারে শোনার জন্য’ করোনা এখনও ছোবল বসাতে পারেনি যেখানে ই-নথিতে শীর্ষস্থানে শিল্প মন্ত্রণালয় টেকনাফে বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদকপাচারকারী নিহত করোনাকালে বন্ধ হয়ে গেল ২৭৫ পত্রিকা ইতালিতে ফের করোনার থাবা, দুষছে বাংলাদেশিদের দেশের ২০ অঞ্চলে ঝড়-বৃষ্টির পূর্বাভাস মশা মারতে টাকা নেয়া অযৌক্তিক বগুড়ায় চালু হচ্ছে অনলাইনে পশু বিক্রির অ্যাপ স্বামীকে নিয়ে ‘বিপত্তিতে’ মোনালি চমেকের চিকিৎসা সেবা নিয়ে অভিযোগের অন্ত নেই রোগীদের কুমেকে করোনায় পাঁচ জনের মৃত্যু মুরাদনগরে করোনাজয়ী ৮ পুলিশ সদস্যকে ফুলেল শুভেচ্ছা প্রতারকদের নতুন ফাঁদ মাস্ক পরতেই হলো ট্রাম্পকে করোনা কি শক্তি হারাচ্ছে? যা বললেন ভারতের চিকিৎসকরা দ্বিতীয় দফা বন্যায় চরম দুর্ভোগে লাখ লাখ মানুষ করোনার টিকা কবে আসছে, সেই সুখবর দিলেন গবেষকরা প্রতারক শাহেদের পাসপোর্ট জব্দ আজীবন যৌবন ধরে রাখে যেসব খাবার সাতসকালে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যাত্রীবাহী বাস খালে করোনার তথ্য লুকিয়ে ছিল চীন, বিস্ফোরক অভিযোগ গবেষকের লিভারপুলকে হতাশ করল বার্নলি বৃষের দুশ্চিন্তার দিনে কর্কটের ক্ষমতা বৃদ্ধি মনোবিদ আলি খানের দ্বারস্থ বিসিবি বিশ্বকাপ আয়োজন নিয়ে কোন দ্বিধা নেই: ইনফান্তিনো 'আমি হতাশ, ক্ষুব্ধ এবং অসহায়' 'টি-টোয়েন্টি ও টেস্টে এক্স ফ্যাক্টর হবেন স্পিনাররা' প্রবাসীদের নিরাপত্তা চাইলো ২১ সংগঠন করোনা চিকিৎসায় 'নেগেটিভ প্রেশার আইসোলেশন ক্যানোপি' উদ্ভাবন বেনাপোলে ৬৭ কোটি টাকা রাজস্ব আদায় কবর থেকে আওয়াজ আসছে, 'আমি এখনও বেঁচে আছি...’ প্রবাসীদের বিবস্ত্র করে হাতমুখ বেঁধে বেত্রাঘাতে চামড়া তুলে ফেলা হয় বাবার পর এবার ছেলে করোনায় আক্রান্ত দক্ষিণবঙ্গের সবচেয়ে বড় পশুর হাটে ক্রেতা শূন্য পাপুল কাণ্ডে এবার কুয়েতের সেনা কর্মকর্তা গ্রেফতার করোনায় আক্রান্ত অমিতাভ বচ্চন হাসপাতালে ভর্তি অমিতাভ বচ্চন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পোলিও মনিটরিং বোর্ডের সদস্য হলেন ড. সেঁজুতি ফরিদপুরে আক্রান্তের নতুন রেকর্ড কফির উপকার ও অপকারিতা বিমানের দুবাই-আবুধাবিগামী যাত্রীদের ভ্রমণে সতর্ক বার্তা মুনাফা অর্জনে লক্ষ্যমাত্রা ছাড়াল মোংলা বন্দর এনএসআই'র অভিযানে বের হলো শিশুখাদ্যের ভেজাল পঞ্চগড়ে নতুন করে আরও ছয়জন করোনা শনাক্ত গাইবান্ধায় পৃথক ঘটনায় দুই শিশুর মৃত্যু আজ করোনা পরীক্ষাই করাননি মাশরাফী ফরাসি পণ্যে ২৫ শতাংশ শুল্ক আরোপ করলেন ট্রাম্প বাংলাদেশে ভারতের নতুন হাইকমিশনার হচ্ছেন বিক্রম দোড়াইস্বামী জিকেজিকাণ্ডে যা বলছেন বিশেষজ্ঞরা সবকিছু জেনেও চুপ ছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর! কুড়িগ্রামে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ফরিদপুরে স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির বিরুদ্ধে অপপ্রচারের অভিযোগ অনলাইন কেনাকাটায় সতর্কতা ও করণীয় ময়মনসিংহে 'রাজিপুর পরিবারে'র শিক্ষা উপকরণ ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ ফেডারেশনের সঙ্গে দূরত্ব বাড়ছে ফুটবলারদের! সুনামগঞ্জে বানের পানিতে ডুবছে হাওর, লোকালয় মুন্সিগঞ্জে আরও ৩০ জনের করোনা শনাক্ত করোনা আক্রান্ত তমা মির্জার শারীরিক অবস্থার অবনতি নওগাঁর আত্রাই নদের পানিতে প্লাবিত নিম্নাঞ্চল বাংলাদেশিদের নিয়ে ইতালির প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের খবরে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতি বাংলাদেশিদের আটকাতে পারল না ইতালি! সাবরিনা-জেকেজিকাণ্ডে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রেস বিজ্ঞপ্তি কুড়িগ্রামে আবারও বন্যা বাসা ভাড়া নিয়ে সখ্যতা গড়ে অপহরণ করেন তারা নেতাকে হত্যার প্রতিবাদে সিলেটে ট্যাঙ্ক লরি শ্রমিক ইউনিয়নের প্রতিবাদ সৌদি থেকে ফিরলেন ৪১২ বাংলাদেশি পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু, হাওরে নিখোঁজ দুই পর্যটক রাতে মাঠে নামছে বার্সা সাতক্ষীরা মেডিকেলে করোনা চিকিৎসক ও সংশ্লিষ্টদের মতবিনিময় সভা বাগেরহাটে করোনায় বাবা-ছেলের মৃত্যু উদ্বোধনের পরই ‘ডিজিটাল হাট’ থেকে গরু কিনলেন ৩ মন্ত্রী সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনাদের তেল চুরির ভিডিও ফাঁস! 'করোনাকালেও স্বাস্থ্যখাতের সকল স্তরে সমান সেবা অব্যাহত রাখতে হবে' মানুষের রক্ত নিতে একের পর ছিন্ন মাথা? করোনার ভয়াবহতার মধ্যে জো বাইডেনকে কটাক্ষ ট্রাম্পের সেনাবাহিনীর এমএমসিতে চাকরির সুযোগ ড্রাগন ফলে লাভবান জামাল মুন্সী দেশের প্রথম ভার্চুয়াল জব ফেস্টে চাকরি পেলেন ৬ শতাধিক প্রার্থী চার হটস্পট সিটিতে পশুর হাট না বসানোর সুপারিশ সম্পর্কে জানে না মন্ত্রণালয় হাওরে ঘুরতে গিয়ে লাশ হল স্কুলছাত্র লোকসমাগম কমিয়ে কুরবানির পশুর হাট আয়োজনের আহ্বান এলজিআরডি মন্ত্রীর মার্কিন সরকারের বিরুদ্ধে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মামলা বসনিয়ার মুসলমান গণহত্যা দিবস পালিত বান্দরবানে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নারী নিহত, আহত ৭ বছরের মেয়ে ফরিদপুরে করোনা উপসর্গ নিয়ে ব্যবসায়ীর মৃত্যু দর্শনার্থীদের জন্য খুললো ডিজনিল্যান্ড কুমিল্লা মেডিকেলে প্লাজমা থেরাপি কার্যক্রম শুরু আফগানিস্তানে ৬ বার মোতায়েন করা মার্কিন সেনার আত্মহত্যা! ঝিনাইদহে নিখোঁজের ৮ দিন পর গৃহবধূর লাশ উদ্ধার ভোক্তা অধিদপ্তরের অভিযানে ৮৬ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা আম্পান কবলিত কয়রায় নগদ অর্থ সহায়তা চিংড়ি আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা চীনের কোরবানির অনুপযুক্ত পশু বিক্রি বন্ধে মেডিকেল টিম বলিউডে স্বজনপ্রীতির উদাহরণ হতে যাচ্ছেন অমিতাভের নাতি? ইতালিতে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়ছে জরুরি অবস্থা
আরও সংবাদ...
ভারতের খয়রাতি বা ঋণের পরিমাণ কত? বিশ্বে প্রথম করোনার ভ্যাকসিন তৈরি করল চীন এবার দেশেই তৈরি প্রাইভেটকার! ৫ সমুদ্র বন্দরের মালিক হচ্ছে বাংলাদেশ বাংলাদেশে প্রথম করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কারের দাবি, বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলন পরীক্ষা ছাড়াই কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে পাসের সিদ্ধান্ত! ‘খয়রাতি’ বলায় নিঃশর্ত ক্ষমা চাইল ভারতীয় মিডিয়া ভারতের ইটের জবাব পাথরে দিল বাংলাদেশ চীনের সঙ্গে হেরে বাংলাদেশকে ‘খয়রাতি’ বলে কটাক্ষ ভারতীয় মিডিয়ার আরও ভয়ংকর ভাইরাস, ২ দিনেই ৮ কোটি মানুষের মৃত্যুর শঙ্কা! এক দিনে ৫০ বার ভূমিকম্প! হিরো আলমের আপত্তিকর ভিডিও ফাঁস দেশে পরীক্ষা ছাড়াই স্কুল-কলেজে পাসের ঘোষণা আসতে পারে চীনের করোনা ভ্যাকসিন প্রথমেই পাবে বাংলাদেশ মোহাম্মদ নাসিমকে নিয়ে অমানবিক স্ট্যাটাস, গ্রেফতার হলেন বেরোবি প্রভাষিকা লাদাখে উড়ছে ঝাঁকে ঝাঁকে চীনা ড্রোন চীনা শিবির গুড়িয়ে দিতে ক্ষেপণাস্ত্রসহ ৪৫ হাজার সেনা পাঠাল ভারত কালোজিরাতেই সেরে যাচ্ছে করোনা, মদিনার গবেষকদের বিস্ময়কর দাবি চীনের হামলায় ভারতের ২০ সেনা নিহত ফটোল্যাব ব্যবহারকারীর তথ্য চলে যাচ্ছে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থায়! ঢাকার যেসব এলাকা রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত ভারতীয় পণ্য বর্জন করলে বাংলাদেশের কী হবে? মোহাম্মদ নাসিম আর নেই করোনায় আক্রান্ত হলেন মাশরাফী ২৩ ঘন্টায় ৪ বার ভূ কম্পন, যেকোনো মুহূর্তে বড় ভূমিকম্পের শঙ্কা ভারতের বিস্তীর্ণ এলাকা দখলে নিয়েছে চীনা সেনারা রণপ্রস্তুতিতে এগিয়ে আসছে চীন! বিভিন্ন স্থানে রেড জোন ঘোষণা করে লকডাউনের প্রজ্ঞাপন আজই অফিস খোলা ও চলাচলে নতুন প্রজ্ঞাপন জারি বাংলাদেশিদের কাছে ইটের জবাবে পাথর খেয়ে পিছু হটেছে ভারতীয়রা! ঢাকার অনেক মানুষের শরীরে অ্যান্টিবডি চলে এসেছে: ড. বিজন শীল করোনায় বাংলাদেশে নতুন রোগ শনাক্ত মারা গেলেন এন্ড্রু কিশোর সর্বোচ্চ আক্রান্তের দিনে মৃত্যুরও রেকর্ড শাহেদ প্রতারণায় ছাড় দেননি পরিবারকেও, মুখ খুলেছেন স্ত্রী বাংলাদেশে আবিষ্কৃত করোনার ভ্যাকসিনের বিরাট অগ্রগতি, ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের উদ্যোগ ‘পানির নিচে’ ১৩ ঘণ্টা জীবিত থাকার ব্যাখা দিলেন বিশেষজ্ঞ ‘বাবা-মা করোনা এনেছে’ অজুহাতে ইঞ্জিনিয়ার স্বামীকে নির্মম নির্যাতন স্ত্রীর (ভিডিও) নিহত ভারতীয় সেনাদের বীভৎস ছবি প্রকাশ ভারতের ডেপসং দখলে ট্যাঙ্ক নিয়ে এগোচ্ছে চীনা বাহিনী চীন-ভারত সেনাদের মধ্যে আবারও সংঘর্ষ (ভিডিও) বাংলাদেশের পাওনা টাকা আটকে রেখেছেন কিম জং উন ছুঁয়েও দেখলেন না কোন ডাক্তার, বাবার কোলেই শিশুর করুণ মৃত্যু শরীর ঘেঁষে হাঁচি দেয়ায় পিস্তল নিয়ে তেড়ে এলেন এমপির দেহরক্ষী শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে ইন্টারনেট দেয়ার উদ্যোগ লকডাউনে রেড জোনে কাজ চলবে যেভাবে সরকারি হিসাবের চেয়ে করোনায় মৃত্যু লক্ষাধিক বেশি: বিবিসি দোকানপাট খোলা রাখার সময় বাড়ল চীনের কাছে মার খেয়ে পাকিস্তানে গোলা ফেলছে ভারত! ৭ হাজার টাকায় মিলছে করোনা নেগেটিভের সনদ!
আরও সংবাদ...

মেনে চলি

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TVEnglish DMCA.com Protection Status
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
উপরে