মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
ওয়েব ডেস্ক
আপডেট
০১-০৪-২০২০, ১৬:৪১

করোনা-যুদ্ধে মানুষই তো জয়ী হবে, নাকি

করোনা-যুদ্ধে মানুষই তো জয়ী হবে, নাকি
পৃথিবী করোনার মতো দুর্যোগ দেখেনি কখনো। অস্ত্রবাজ পৃথিবীর দু-দুটো বিশ্বযুদ্ধের অভিজ্ঞতা থাকলেও করোনার মতো দুর্যোগের অভিজ্ঞতা নেই। তবে এ অভিজ্ঞতায় পৃথিবীকে আবারও পড়তে হবে কিংবা করোনার চেয়েও ভয়ঙ্কর দুর্যোগের সঙ্গে লড়তে হবে, যদি তা না পৃথিবী করোনা দুর্যোগের অভিজ্ঞতাকে কাজে না লাগায়। করোনার এই আঘাত পৃথিবীর জন্য বড় একটা বার্তা, এই বার্তাকে পৃথিবী যদি আমলে নেয়, তা হলে ভালোই। আর যদি আমলে না নেয় তা হলে পৃথিবীর সমূহ ধ্বংস হয়তো হয়ে উঠবে অনিবার্য।

করোনা-যুদ্ধে মানুষই তো জয়ী হবে, নাকি? এই প্রশ্নের নৈর্ব্যক্তিক উত্তর দেওয়া দুরূহ। কারণ এই উত্তরের সঙ্গে যদি, তবে, কিন্তু জড়িত আছে। এই লেখায় আমরা ইতিহাস, সভ্যতার অভিঘাত ও মানুষের বুদ্ধিবৃত্তিক কতিপয় বৈশিষ্ট্যের আলোকে দেখার চেষ্টা করব করোনা-যুদ্ধে কে জয়ী হবে, কার জয়ী হওয়া উচিত আর জয়ী না হলে কী হবে?

০১. চীনে করোনার উৎপত্তি হলেও তা আর চীনের ভেতরে সীমাবদ্ধ নেই। এখন পর্যন্ত ১৯৭টা দেশে করোনা তার আঘাত হেনেছে। চীনের আক্রান্ত সংখ্যা, মৃত্যুর হার সবকিছু ছাড়িয়ে যাচ্ছে। চীনের পর ইতালি, স্পেন এবং এখন আমেরিকা হচ্ছে করোনার আঘাতে সবচেয়ে বিপর্যস্ত ও বিধ্বস্ত। চীনে যখন করোনা তার তা-ব চালাচ্ছিল, তখন এই ভাইরাসটি যে সারাবিশ্বের জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়াবে এবং দাঁড়াচ্ছে তা কিন্তু উচ্চারিত হয়েছে বারবার।

কিন্তু দুঃখজনক হলো, কেউ আমলে নেয়নি। কোনো রাষ্ট্রই এই ভাইরাস রোধে কী করা যেতে পারে, কী করণীয় হতে পারে তা নিয়ে মোটেই বিচলিত যেমন হয়নি, এটাকে মোকাবিলা করার জন্য সামান্যতম পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি।


০২. এমনকি চীন থেকে করোনা যখন ইউরোপে তার ঘাঁটি গেড়েছে তখনো ট্রাম্প প্রশাসন এটাকে তেমন গুরুত্বের সঙ্গে নেয়নি। এখন সেই আমেরিকা করোনার আঘাতে সবচেয়ে বেশি বিপর্যস্ত, বিশেষ করে আমেরিকার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ শহর নিউইয়র্কের অবস্থা একেবারেই করুণ। যে আমেরিকা সারা পৃথিবীর কোথায় কী হবে আর কী হবে না তাই নিয়ে মাথা ঘামায় সর্বক্ষণ। এমনকি পৃথিবী নামের গ্রহের বাইরেও কোথায় কী হচ্ছে, আর কী হচ্ছে না তা জানতে সর্বদা বজ্র আঁটুনির পর্যবেক্ষণে ব্যতিব্যস্ত। তারা পর্যন্ত করোনা সম্পর্কে ন্যূনতম সচেতনতার পরিচয় দিতে পারেনি। ইতালি, স্পেনের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগায়নি। করোনা যদি বাস্তবিকই তাদের দেশে আঘাত করে তা হলে তারা কী করবে, তার কোনো রোডম্যাপ ছিল না তাদের কাছে, এখনো যে আছে তাও খুব একটা জোর দিয়ে বলা যায় না।

পিপিইর সংকটে রয়েছে তারা এবং আমাদের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ভাষ্য অনুযায়ী, তারা এখন পিপিইর জন্য দ্বারস্থ হয়েছে বাংলাদেশের কাছেও। অর্থাৎ করোনা-পরবর্তী আমেরিকাকে নতুন করে ভাবতে হবে তারা যদি বিশ্বের মোড়লিপনা বজায় রাখতে চায়, তা হলে সেখানেও আনতে হবে আমূল পরিবর্তন। পারমাণবিক যুদ্ধাস্ত্র দিয়ে পৃথিবীর মোড়লিপনার দিন বোধ করি শেষ করে দিল করোনা ভাইরাস।

০৩. প্রথম ও দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ বস্তুত পৃথিবীর ব্যাপক ধ্বংসযজ্ঞ ঘটালেও শিল্প-সাহিত্য-সংস্কৃতির যে পৃথিবী তাতে ব্যাপক পরিবর্তন ঘটায়। নব-নব ইজম, নব-নব আন্দোলন মনন ও সৃজনবিশ্বকে পাল্টিয়ে দেয় অনেকখানি। এ কারণে ক্ষেত্র বিশেষে এমনও বলা হয়, যুদ্ধ শুধু অনিবার্য বিনাশ ঘটায় না, নতুন বিন্যাসকেও আমন্ত্রণ জানায়। তবে যুদ্ধ কখনই কাম্য নয়। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ-পরবর্তী ও পূর্ববর্তী পৃথিবীর দিকে যদি আমরা একটু গভীরভাবে লক্ষ করি তা হলে কী দেখা যায়?


জাতিসংঘের মতো আন্তর্জাতিক সংস্থার জন্ম হয়েছে এ রকম একটা বিশ্বযুদ্ধের ধ্বংসলীলার ওপর। জাতিসংঘ কতটা কার্যকর আর কতটা কার্যকর নয় সেই বিতর্ক পৃথক ও স্বতন্ত্র। ঔপনিবেশিক পৃথিবী যে পাততাড়ি গোটাল, ব্রিটিশ যে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে এক প্রকার আপসের ভেতরেই স্বাধীনতা দিয়ে সটকে পড়ল তা তো ওই দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের অভিজ্ঞতা থেকেই। তাই যুদ্ধও কখনো কখনো মঙ্গলের বারতা ডেকে আনে, কিছু অভিজ্ঞতা তো সেটাই বলে, নাকি?

০৪. প্রথম ও দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের অভিজ্ঞতা তো পরোক্ষ। প্রত্যক্ষ অভিজ্ঞতা কি নেই? বেশিদূরে যাওয়ার দরকার নেই। সম্রাট অশোকের কথা স্মরণ করা যেতে পারে। কলিঙ্গ যুদ্ধেও অভিজ্ঞতা পুরোটাই পাল্টে দেয় সম্রাটকে। কলিঙ্গ যুদ্ধের হানাহানি, রক্তপাত, ধ্বংসলীলা আর মানবতার বিপর্যয় দেখে এক সময় তিনি উপলব্ধি করেন, যুদ্ধ কোনো সমাধান নয়। তার ভেতরে জেগে ওঠে মানবিকতার জয়গান। তিনি উপলব্ধি করেন, খুনোখুনি নয়, হিংসা নয়, বিদ্বেষ নয়, শুধু ভালোবাসা দিয়ে মানুষের বিবেককে জাগ্রত করতে হয়। আর ক্ষমা করে জয় করতে হয় শত্রুর মন। আর হিংসায় হিংসা বাড়ায়, রক্ত, রক্তপাত ডেকে আনে। এই উপলব্ধি পাল্টে দেয় অশোককে। বাকি জীবন তিনি হয়ে যান অন্য এক মানুষ। মহাত্মা গান্ধীর অহিংস নীতির সূতিকাগার তো মহামতি অশোকের কলিঙ্গ যুদ্ধ-পরবর্তী বাস্তবতা।

০৫. করোনা ভাইরাসের দুর্যোগ সবেমাত্র শুরু হয়েছে, এর প্রভাব থাকবে বেশকিছু দিন। যে কোনো দুর্যোগ, মহামারীর বাস্তবতা হলো, এটা যখন থেমে যায় কিংবা কমে আসে তখন শুরু হয় গভীরতর সংকট। মহামারী ডেকে নিয়ে আসে মন্বন্তর, দেখা দেয় দীর্ঘমেয়াদি দুর্ভিক্ষ। উন্নত বিশ্ব এই সংকট নিজেদের সামর্থ্যে কাটিয়ে উঠলেও তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলো সম্পদের অপ্রতুলতা ও ব্যবস্থাপনার দুর্বলতার কারণে এই সংকট কাটিয়ে উঠতে হিমশিম খায়। এবং এই হিমশিম খাওয়া অবস্থাকে আড়াল করতে তারা নানা টালবাহানার আশ্রয় নেয়, আমলাতন্ত্র নিজেদের ব্যর্থতা ও অযোগ্যতাকে আড়াল করতে পুরো পরিস্থিতিকে গোয়েবলসের থিওরির আলোকে মোকাবিলা করতে চান। আর এসবের মধ্য দিয়ে মানুষের ভাগ্যে ঘটে ভয়ঙ্কর ট্র্যাজেডি। এসব থেকে কীভাবে উত্তরণ সম্ভব তা ভেবে দেখার এখনই সময়।

০৬. বিজ্ঞান নানামুখী আবিষ্কারের মধ্য দিয়ে পৃথিবীকে যেমন হাতের মুঠোয় বন্দি করেছে, তেমনি অজানাকে করেছে জ্ঞেয়। কিন্তু এসবই যে মামুলি তা বোধ করি করোনা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল। প্রতিবছর বিস্ময়কর সব আবিষ্কারের জন্য নোবেল পুরস্কার পাচ্ছেন অনেকেই। অথচ জনস্বাস্থ্যের বিষয়টা কতখানি উপেক্ষিত তা বোধ করি অজানাই থেকে যেত করোনার প্রাদুর্ভাব না দেখা দিলে। স্বাস্থ্যই সম্পদ কথাটা একাডেমিকভাবেই শুধু বিশ্বাস করা হয়, নাকি? পৃথিবীর দেশে দেশে চিকিৎসা সরঞ্জামাদির অপ্রতুলতা এত বেশি? চন্দ্রজয়ী আমেরিকার পিপিই পর্যন্ত নেই, ভেন্টিলেটর নেই। এগুলো একটু বেশি থাকলে কী এমন ক্ষতি?

০৭. খেয়ালিপনার দিন শেষ। করোনা ভাইরাস বলছে, পৃথিবীকে আরও সতর্ক হতে হবে। পৃথিবীকে সবার বাসযোগ্য করে তুলতে হবে। লেখার শুরুতে বলেছিলাম, বিশ্বযুদ্ধের অভিজ্ঞতা থাকলেও পৃথিবীর এ রকম দুর্যোগ দেখার কোনো অভিজ্ঞতা নেই। কারণ প্রথম বিশ্বযুদ্ধ বলি আর দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ বলি তাতে যুক্ত হয়েছিল হাতেগোনা কয়েকটা দেশ। প্রতি শতাব্দে নিদেনপক্ষে একটা করে যে মহামারীর কথা আমরা জানি, তা তো দেখা যায়, তার প্রভাব গোটা বিশ্বে পড়েনি। মহামারী রাষ্ট্রের প্রধানকে ছোবল দেয়নি, করোনা যেমনটা দিয়েছে, ক্ষমতাধর দেশ য্ক্তুরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে, কাঁদছে কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো, আকাশের কাছে আশ্রয় খুঁজছেন ইতালির সরকারপ্রধান। তাই বলার অপেক্ষা রাখে না, করোনার অভিঘাত এত তীব্র, মারাত্মক ও ভয়াবহ যে, পৃথিবীর সব দুর্যোগকে ছাড়িয়ে গেছে সে। করোনার আঘাত যেমন, তার শিক্ষাটাও তেমন হওয়া উচিত। নিউটনের তৃতীয় সূত্র তো সেটাই বলে, পৃথিবীর প্রত্যেকটা ক্রিয়ার একটা সমান ও বিপরীত প্রতিক্রিয়া আছে। করোনার আঘাতে পর্যুদস্ত পৃথিবী জেগে উঠবে সেভাবেই, এই প্রত্যাশা এ কারণে মোটেই অমূলক নয়।

০৮. করোনা কি পাল্টে দেব পৃথিবীর খোলনলচে? পৃথিবীর রাজনীতি-অর্থনীতি-সমাজনীতি-সংস্কৃতিনীতি কি বদলে যাবে? পৃথিবীর মানুষ কি কখনই ভাবতে পেরেছিল পুরো বিশ্ব লকডাউন হয়ে যেতে পারে? মানুষের মৃত্যু হবে স্বজনহীন অবস্থায়? ভাবতে পারেনি নিশ্চয়। কিন্তু বাস্তবে সেটাই হলো, সেটাই হচ্ছে। আমরাও হয়তো ভাবতে পারছি না, যুদ্ধবাজ পৃথিবী কীভাবে বদলাবে? খেয়ালি রাষ্ট্রপ্রধানরা সব খেয়াল ছেড়ে মনোযোগ দেবে বাসযোগ্য পৃথিবী গড়ার দিকে, যার কেন্দ্রে থাকবে মানুষ। জলবায়ু পরিবর্তন হচ্ছে জেনেও, ফি বছর জলবায়ু সম্মেলন হওয়ার পরও, জলবায়ু চুক্তিতে স্বাক্ষর করার পরও কার্বন নির্গমন হ্রাসে একটা দেশও পালন করেনি ইতিবাচক ভূমিকা। সেসব দেশের রাষ্ট্রপ্রধানরা কী ভাবছেন এখন, এই করোনা ভাইরাসের কালে?

০৯. ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির উত্থান-পতন কি আমরা ভুলে গেছি? ব্যবসা করতে এসে দেশ করায়ত্ত করার হীন মানসিকতা আখেরে যে ভালো হয়নি, তার সাক্ষ্য দেয় ইতিহাস। অন্যদিকে নেসলে পৃথিবীর দেশে দেশে যার প্রডাক্টের দাপট একচেটিয়া। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পর নেসলে তাদের ব্যবসার নীতিনির্ধারণে বড় রকমের পরিবর্তন আনে, যাতে এ রকম যুদ্ধকালীন পরিস্থিতিকেও সামলে উঠতে পারে। বাস্তবে হয়েছেও তাই। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে তারা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সংকটকে সামলিয়ে নিয়েছিল।

পৃথিবীর গভীর, গভীরতর অসুখ আজ। জীবনানন্দ দাশ বলেছিলেন যেমনটা। পৃথিবীর গভীরতর অসুখে এখন পরবর্তী করণীয় ভাবাটা জরুরি। মানুষ বড় কাঁদছে, তুমি মানুষ হয়ে পাশে দাঁড়াও। শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের কবিতার এই পঙ্্ক্তি এখন মানবতায় উদ্বুদ্ধ সব মানুষের প্রার্থনা, ধ্যান-জ্ঞান সব কিছু। করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে চলমান এই যুদ্ধ দীর্ঘমেয়াদি এক যুদ্ধ। এই যুদ্ধ কোনো একক মানুষের, একক পরিবার, একক সমাজ, একক ধর্ম, একক রাষ্ট্র, একক মহাদেশের যুদ্ধ নয়। এ যুদ্ধ পুরো পৃথিবীর যুদ্ধ। এই যুদ্ধে জয়ী হওয়া জরুরি। কারণ এই যুদ্ধে জিতলে জিতবে সবাই, আর হারলেও সবাই-ই হারবে। ট্রাম্প থেকে টাকলু আক্কাচ, করোনা-যুদ্ধে সবারই জয়ী হওয়া অবশ্যম্ভাবী।

লেখক: ড. কাজল রশীদ শাহীন : সাংবাদিক, লেখক ও গবেষক




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ
করোনা ভাইরাস লাইভ আপডেট
আক্রান্ত চিকিৎসাধীন সুস্থ মৃত্যু কোয়া:
৫৭৫৬৩ ৩৪৬২৩ ১২১৬১ ৭৮১ ৪২৫২৯
বিস্তারিত
পেরুতেও করোনার তাণ্ডব পুনঃপ্রক্রিয়াজাত সাবান থেকে নিম্নআয়ের মানুষের সুরক্ষা সামগ্রী যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভে গ্রেফতার ছাড়াল ১০ হাজার করোনায় আক্রান্ত নাসিমের হঠাৎ স্ট্রোক, অস্ত্রোপচার চলছে সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ হচ্ছে সংসদ ভবন এলাকায় বেকারত্বের সঙ্গে ট্রিলিয়ন ডলারের ঋণের মুখে পড়তে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র করোনায়ও বন্ড বিক্রি বাড়িয়েছে ইউরোপের কেন্দ্রীয় ব্যাংক দেশে একাই চড়া যাবে এক বিমানে করোনায় বিপর্যস্ত এভিয়েশন-পর্যটন খাত শ্বাসকষ্টে ভুগছেন জাফরুল্লাহ, অবস্থার অবনতি তাবলিগ জামাতের ২৫৫০ সদস্য ১০ বছর নিষিদ্ধ লকডাউনে মানবপাচার বেড়েছে যুক্তরাজ্যে সুনামগঞ্জে নিয়ম মেনে চলছে ধান সংগ্রহ, কৃষকের মুখে হাসি পর্যটকশূন্য কক্সবাজারের প্রকৃতিতে ফিরেছে প্রাণ মিথুনের দাম্পত্য কলহের দিনে কুম্ভ সাবধান আম্পানের ২ সপ্তাহ পরও শত শত মানুষ খোলা আকাশের নিচে বিক্ষোভে উত্তাল গোটা যুক্তরাষ্ট্র স্বাভাবিক হচ্ছে সৌদির জনজীবন স্ত্রীকে ন্যাড়া-বিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণের অভিযোগ ৫০ এমপিকে সংসদে যেতে মানা চট্টগ্রামে চিকিৎসক সংকটে ভেঙে পড়েছে সেবা কার্যক্রম বজ্রপাতে সারাদেশে ১৬ জনের মৃত্যু টালিউডে সিরিয়ালের শুটিং ১০ জুন, অপেক্ষায় সিনেমা-ওয়েব সিরিজ বিশ্বে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত এক লাখ ১৯ হাজারের বেশি করোনায় বিশ্বে একদিনেই ৫ হাজার মৃত্যু লাখ লাখ প্রবাসীকে ফেরত পাঠাবে কুয়েত প্লাজমা পরীক্ষায় ৭৬ শতাংশ রোগীর উন্নতি যুক্তরাষ্ট্রে ১৫০ ভেন্টিলেটর নিয়ে রাশিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বিমান করোনা দুর্যোগে সেবা নয়, ব্যবসাকেই বেছে নিচ্ছে বেসরকারি হাসপাতালগুলো করোনার তাণ্ডবের মাঝে ক্রিকেট ফিরিয়ে এনে চমক দেখালো থ্রি লায়নরা জেনে নিন বাংলায় ফুটবলের যাত্রা শুরুর ইতিহাস বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট জয় অবিশ্বাস্য ছিল: রশিদ খান গাইডলাইন মেনে ক্রিকেটারদের অনুশীলনের ব্যবস্থা করবে বিসিবি করোনা পরিস্থিতিতে লালা নাকি ঘাম: বলে কি ব্যবহার করবেন ক্রিকেটাররা! তুচ্ছ ঘটনায় সংঘর্ষ, নারীসহ আহত ১২ নীলফামারীতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের উপর হামলায় পুলিশ আহত সাতক্ষীরায় কন্যা শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে ধর্ষক সোহাগ গ্রেফতার নেত্রকোনার বারহাট্টায় ফিশারিতে মাছ দেখতে গিয়ে স্কুল শিক্ষকের মৃত্যু ফরিদপুরে মাস্ক ব্যবহার না করায় ১৪ জনকে জরিমানা বগুড়ায় বজ্রপাতে নিহত ৪ ঝিনাইদহে আ.লীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা উচ্চহারে তামাকপণ্যের কর বৃদ্ধির দাবিতে এসিডির অনলাইন মানববন্ধন দেড় মাসে কৃষকের লোকসান ৫৬ হাজার কোটি টাকা : ব্র্যাক চট্টগ্রামে সেবা না দেয়া ক্লিনিকের বিরুদ্ধে অ্যাকশনে যাওয়ার হুমকি ছাত্রলীগের বেনাপোল বন্দরে ভুয়া কাস্টমস নিলাম কর্মকর্তা গ্রেফতার হ্বজযাত্রীদের মানসিকভাবে প্রস্তুত থাকতে বলেছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী কিশোরগঞ্জে করোনার উপসর্গ নিয়ে প্রাণ গেল তিনজনের মাত্র ৩ লাখ টাকায় পারিবারিক ভ্রমণে ভাড়া পাবেন আস্ত একটা বিমান! বেনাপোলে ৬ ব্যবসায়ীকে ৬৭ হাজার টাকা জরিমানা পরিবহন সেক্টরে চাঁদাবাজি বন্ধে কঠোর হওয়ার নির্দেশ বাবার বিয়ের দু’বছর আগে মেয়ের জন্ম! শুটিং করতে আপত্তি নেই: আইরিন করোনা: সৌদি আরবে আশঙ্কাজনক হারে কেন মারা যাচ্ছে বাংলাদেশি শ্রমিকরা? 'চীনের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করছে ব্রিটেন' আরো বৈরি হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র-চীন সম্পর্ক চাঞ্চল্যকর জাকিরুল ইসলাম হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন র‍্যাব কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে অমানুষিক নির্যাতনের অভিযোগ পরিবহন মালিকদের সরকার নির্ধারিত ভাড়া আদায়ের নির্দেশ লকডাউনে বাড়ছে গর্ভধারণ চলচ্চিত্র শিল্পীদের অনুদানের বিষয়টি ভিত্তিহীন: জায়েদ খান বছরের দ্বিতীয় চন্দ্রগ্রহণ শুক্রবার অনলাইন লার্নিং: সন্তুষ্ট ৯১ ভাগ অভিভাবক সেই দিন আমি বাংকারে লুকাইনি: ট্রাম্প সাড়ে সাত হাজার পরিবারকে খাদ্য ও আর্থিক সহায়তা দিলো এডুকো উত্তর কোরিয়ায় আর ‘বেলুনবার্তা’ পাঠাবে না দক্ষিণ কোরিয়া বাংলামোটরের দুর্ঘটনা: প্রত্যক্ষদর্শীদের লোমহর্ষক বর্ণনা করোনা ঝুঁকি নির্ণয়ে কনট্যাক্ট ট্রেসিং অ্যাপের উদ্বোধন পুকুরে ভেসে উঠলো প্রতিবন্ধী কিশোরের লাশ অপর‌ণের তিন ‌দিন পর ক‌লেজ ছাত্রী‌কে উদ্ধার আম পরিবহনে বিশেষ ট্রেন সেচ পাম্পের ঘরে দুই নারীর লাশ, পুলিশের ধারণা ধর্ষণের পর হত্যা বিক্ষোভে সমর্থন যুক্তরাষ্ট্রের ৪ প্রেসিডেন্টের 'এত ভাড়া দেবো কীভাবে' নীতিমালা অবশ্যই অনুসরণ করতে হবে: নৌ প্রতিমন্ত্রী আজ থেকে নওগাঁয় নামছে যেসব আম ৬০ থেকে ৭০ হাজার শ্রমিক ছাটাই হয়েছে: শ্রমিক নেত্রী লিবিয়ায় পাচারকারীদের হাতে আরো বাংলাদেশি বন্দী থাকার শঙ্কা ত্রাণে অনিয়মের দায়ে আরো এক ইউপি চেয়ারম্যান ও এক সদস্য বরখাস্ত নারায়ণগঞ্জে করোনার উপসর্গ নিয়ে বিএনপি নেতার মৃত্যু আইনমন্ত্রী করোনায় আক্রান্ত নন রাঙামাটিতে ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড়ি এলাকায় সাইনবোর্ড স্থাপন চলতি মাস থেকেই পোশাক শ্রমিক ছাঁটাই হবে : রুবানা হক অবশেষে ইরানের সেই বিজ্ঞানীকে মুক্তি দিলো যুক্তরাষ্ট্র চুয়াডাঙ্গায় মৃদু তাপদাহ টিউবওয়েলে গোসল করতে গিয়ে বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু জনগণ এখন তাদের গবেষণার গিনিপিগ: রিজভী স্বেচ্ছায় আইসিইউতে সেবা দিতে আসা চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত ভারতে 'আনলক-ওয়ান' এ করোনা পরিস্থিতির উন্নতি নেই অভ্যন্তরীণ রুটে চার্টার্ড ফ্লাইট চালু হচ্ছে 'বিশ্বকাপে ভারত ইচ্ছা করে ম্যাচ হেরেছে', আইসিসির কাছে শাস্তি দাবি হাতি হত্যার বিচারের দাবিতে উত্তাল বলিউড ব্রাজিলে করোনায় একদিনে রেকর্ড মৃত্যু মহড়ায় ‘গুলিবিদ্ধ’ ইসরায়েলি লেফটেন্যান্ট কর্নেল! মাদ্রাসার অফিস সহকারীকে জুতার মালা পরিয়ে হেনস্তা প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিলে ২৬ প্রতিষ্ঠানের অনুদান বাগেরহাটে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ৩৭ মামলা, ৩৬ হাজার টাকা জরিমানা করোনায় রানা প্লাজার মালিকের মৃত্যু লিবিয়া ট্রাজেডি: আরো ৯ জন আটক, প্রয়োজনে ইন্টারপোলের মাধ্যমে রেড অ্যালার্ট কলেজ কর্তৃপক্ষের গাফিলতিতে সরকারি প্রণোদনা বঞ্চিত ১৬ শিক্ষক কর্মচারী রিপোর্ট নেগেটিভ আসলেও মরদেহ নিচ্ছে না পরিবার, ৪৩ দিন ধরে হিমঘরে
আরও সংবাদ...
সাধারণ ছুটি আর বাড়ছে না করোনায় আক্রান্ত ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী 'লকডাউনে' যাচ্ছে সূর্য, সতর্কতা জারি নাসার দেশের সব মসজিদ খুলে দেয়া হচ্ছে যে ওষুধে ‘করোনায় সুস্থের হার বাড়ছে’ বাংলাদেশে ভারতকে নেপালের 'হুমকি', সীমান্তে সেনা মোতায়েন শনাক্ত মৃত্যুতে নতুন রেকর্ড আজ দেশে প্লাজমা থেরাপিতে একদিনেই বিস্ময়কর সাফল্য অফিস খোলার প্রথম দিনেই সর্বোচ্চ মৃত্যু, শনাক্ত আড়াই হাজারের বেশি ৩৬ দিন রোজা হবে ২০৩০ সালে! ৯ বছরের সংসার ভাঙল অভিনেতা অপূর্ব-অদিতির শাশুড়ির জন্য ১৫ বছর পর নাচলেন মিথিলা! (ভিডিও) দাজ্জালের সঙ্গে ইহুদিদের যোগাযোগ শুরু! ভুল নম্বরে টাকা চলে গেলে ফেরত পাবেন যেভাবে কোনো হাসপাতাল নিল না, কুর্মিটোলায় ভর্তির পর অতিরিক্ত সচিবের মৃত্যু সহকর্মীরাই হত্যা করেন গাজীপুরের সেই প্রকৌশলীকে 'পদত্যাগ করলেন' বিদ্যানন্দের প্রতিষ্ঠাতা পরিস্থিতি অনুকূল না হলে এইচএসসি পরীক্ষা নেয়া সম্ভব না: শিক্ষামন্ত্রী দেশে সর্বোচ্চ আক্রান্তের দিনে ১৪ জনের মৃত্যু চারদিনেই সারবে করোনা, গবেষণায় সাফল্যের দাবি বাংলাদেশের আজও শনাক্ত সহস্রাধিক, মৃত্যু ২১ জনের দেশে করোনা ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল হতে পারে জুনে সাধারণ ছুটি আরও বাড়ছে সীমিত পরিসরে চলবে গণপরিবহন শনাক্ত দেড় সহস্রাধিক, মৃত্যু ২২ জনের এসএসসি’র ফল-এইচএসসি পরীক্ষার বিষয়ে যা বললেন শিক্ষামন্ত্রী দেশের ৮০ শতাংশ লোকের করোনা হবে: ড. বিজন শনাক্তের সব রেকর্ড ভাঙল আজ আম্পানের পর আসছে ঘূর্ণিঝড় 'নিসর্গ' নতুন আরো ৭০৬ জন করোনায় আক্রান্ত একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্ত, মৃত্যু ১৪ জনের আক্রান্ত ছাড়াল ১৮ হাজার, মৃত্যু বেড়ে ২৮৩ শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তায় ধাপে ধাপে খোলা হবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান: প্রধানমন্ত্রী একদিনে রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত, মৃত্যু বেড়ে ১৮৬ রেকর্ড শনাক্তের দিন ২০ জনের মৃত্যু একদিনে বাংলাদেশে করোনা শনাক্তের রেকর্ড ৭৮৬ একদিনে আক্রান্ত ৯৬৯, মোট মৃত্যু ২৫০ করোনায় মৃতের সংখ্যা ৩০০ ছাড়াল বাংলাদেশে, নতুন আক্রান্ত ৯৩০ ঢাকায় যেসব মার্কেট খোলা থাকবে আক্রান্ত ছাড়াল ১০ হাজার, মৃত্যু বেড়ে ১৮২ কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই চরম আকার ধারণ করবে ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পান’ করোনা সন্দেহে ছাদ থেকে লাফিয়ে কনস্টেবলের আত্মহত্যা মধ্যরাতে করোনা রোগীকে মারধর করে তাড়িয়ে দিল বাড়িওয়ালা ভ্যাকসিন ট্রায়ালের উদ্যোগ নিল বাংলাদেশ দেশে আবারো সর্বোচ্চ আক্রান্ত, মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩৮৬ শনাক্ত ছাড়াল ৪০ হাজার, নতুন মৃত্যু ১৫ জনের কম যাত্রী নিয়ে বাস চালাতে রাজি নয় পরিবহন কর্তৃপক্ষ দেশে শনাক্তের সব রেকর্ড ভাঙল আজ করোনা নিয়ন্ত্রণে ৫ বছর লাগবে: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বাংলাদেশে প্রথম করোনার জিনোম সিকোয়েন্স
আরও সংবাদ...


মেনে চলি

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TVEnglish DMCA.com Protection Status
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
উপরে