সম্পূর্ণ নিউজ সময়
মহানগর সময়
২ টা ১৯ মিঃ, ২১ ডিসেম্বর, ২০১৯

আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও সফল আ. লীগ সভাপতি

দেশের গণ্ডি ছাড়িয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও সফল এক রাজনীতিকের নাম শেখ হাসিনা। বাংলাদেশে দীর্ঘতম সময় ক্ষমতায় থাকা প্রধানমন্ত্রীই নন, প্রভাবশালী নারী প্রশাসক হিসেবেও তার খ্যাতি রয়েছে। টানা ৩৮ বছর ধরে আওয়ামী লীগের হাল ধরে আছেন তিনি। তবে জাতির জনককে সপরিবারে হত্যার পর রাজনীতিতে প্রতিষ্ঠা পাওয়ার পথটা নিষ্কণ্টক ছিল না বঙ্গবন্ধু কন্যার জন্য।
আজহার লিমন

বড় সন্তান হিসেবে জাতির জনকের স্নেহ যেমন পেয়েছেন, তেমনি পেয়েছেন বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামমুখর জীবনের সবচেয়ে বেশি সান্নিধ্য। তাই একজন মুজিবই তার রাজনীতির প্রধান দার্শনিক গুরু। ছাত্রজীবন থেকেই তার প্রেরণায় যুক্ত হন রাজনীতিতে। কিন্তু তখনও হয়তো ভাবেননি বাবার মতোই তারও হাল ধরতে হবে আওয়ামী লীগের। নিতে হবে দেশ শাসনের ভার।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির জনকের হত্যার পর আওয়ামী লীগের নির্ভরতার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হন শেখ হাসিনা। ৮০ সালে ব্রিটেন থেকে স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনের নেতৃত্ব দেন। জার্মানি, ভারতে ৬ বছরের দীর্ঘ নির্বাসন শেষে ফিরে আসেন দেশে ১৯৮১ সালে। তার অনুপস্থিতিতেই তাকে দলীয় কাউন্সিলে সভাপতি নির্বাচিত করা হয়েছিল। দায়িত্ব নিয়েই বহু ভাগে বিভক্ত আওয়ামী লীগকে সংগঠিত করেন তিনি।

একই সময়ে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের সংগ্রামে লিপ্ত হন শেখ হাসিনা। এর জন্য ১৯৮৩ থেকে ৯০ সাল পর্যন্ত কমপক্ষে ৭ বার তাকে গৃহবন্দি করা হয়। হত্যার উদ্দেশ্যে সশস্ত্র হামলা চালানো হয় কমপক্ষে ১৯ বার।

১৯৮৬ সালে প্রথমবারের মতো অংশ নিয়ে ৩টি সংসদীয় আসন থেকে জয়লাভ করেন বঙ্গবন্ধু কন্যা। বিরোধী দলীয় নেতা হিসেবে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন। নব্বইয়ে স্বৈরাচার পতনের গণআন্দোলনে তার নেতৃত্ব ও ভূমিকা ছিল অসামান্য।

৯১ এ পঞ্চম জাতীয় সংসদেও বিরোধী দলের নেতা ছিলেন তিনি। ৯৬ তে বিএনপির ভোটারবিহীন নির্বাচনের বিরুদ্ধে তার নেতৃত্বে আন্দোলন গড়ে তোলে আওয়ামী লীগ। আন্দোলনের মুখে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার পদত্যাগ এবং পুনরায় নির্বাচন শেখ হাসিনার রাজনৈতিক অর্জন।

প্রধানমন্ত্রী হিসেবে রাজনীতিক হাসিনার পথচলা শুরু ১৯৯৬ সাল থেকে। ভারতের সঙ্গে গঙ্গা পানি চুক্তি কিংবা পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তি আওয়ামী লীগের সোনালী অর্জন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে। তবে সামরিক শাসন শেষ হলেও বন্ধ থাকেনি শেখ হাসিনার ওপর হামলা নির্যাতন। তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা শুধু আওয়ামী লীগ নয়, পুরো জাতির জন্য এক লজ্জার ইতিহাস।

২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদে বিপুল ভোটে জয়ের পর শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দ্বিতীয় মেয়াদে সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগ। টানা এক দশক ধরে তার নেতৃত্বে চলছে বাংলাদেশের অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রা। শনিবার (২১ ডিসেম্বর) আওয়ামী লীগের ২১তম কাউন্সিলেও দেশটির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন তিনি।

© ২০২১ সময় টিভি মিডিয়া নেটওয়ার্ক
সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত
DMCA.com Protection Status
সময় মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন
Somoy Tv App PlayStore Somoy Tv App AppleStore
ফলো সামাজিক সময়