ফাতেমা এ্যানি
আপডেট
০১-১১-২০১৯, ০৬:৫৪

সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ : কোন অপরাধে কী শাস্তি বিস্তারিত

সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ :  কোন অপরাধে কী শাস্তি বিস্তারিত
সর্বোচ্চ ৫ বছর জেল ও ৫ লাখ টাকা জরিমানার বিধান রেখে শুক্রবার (১ নভেম্বর) থেকে কার্যকর হচ্ছে বহুল আলোচিত সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮। নিয়ম লঙ্ঘনে নতুন আইনের প্রায় সব ধারায় বাড়ানো হয়েছে চালক ও পথচারীদের জেল-জরিমানার পরিমাণ। নতুন আইনে সব ধারায় আগের চেয়ে সাজা বাড়ানো হয়েছে। ফলে আইনটি কার্যকর হলে সড়কে বিশৃঙ্খলা ও দুর্ঘটনা কমে আসবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, আইনে আপাতত কোনো পরিবর্তন বা সংশোধন নেই। সংশোধনের বিষয়টি পরে বিবেচনায় নেওয়া হতে পারে। তবে প্রজ্ঞাপনে সংশোধনের সুযোগ রাখায় আইন কার্যকর নিয়ে সাধারণ মানুষ সন্দিহান রয়েছে। তারা বলছেন, এ সুযোগ রেখে আইন সংশোধন করার পথ রেখে দিল সরকার।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, আইনটি কার্যকর করতে শুক্রবার থেকে মাঠে থাকবে ভ্রাম্যমাণ আদালত। পাশাপাশি গাড়ির কাগজপত্র ও ড্রাইভিং লাইসেন্সসহ অন্য সব কাগজপত্র যাচাইয়ে পুলিশেরও তৎপরতা আগের চেয়ে বাড়ানো হবে।

সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮  যে অপরাধে, যে শাস্তি :


ড্রাইভিং লাইসেন্স ব্যতীত মোটরযান ও গণপরিবহন চালনার বিধি-নিষেধ সংক্রান্ত ধারা ৪ এবং ৫ এর লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪ এবং ৫ এর বিধান লঙ্ঘন করেন এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ ছয় মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয়দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

ড্রাইভিং লাইসেন্স হস্তান্তর সংক্রান্ত ধারা ৬ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৬ এর উপ-ধারা (৫) এর বিধান লঙ্ঘন করেন এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয়দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

বিদেশি নাগরিকের এ আইন, বিধি বা প্রবিধানের কোনো বিধান বা লাইসেন্সে প্রদত্ত শর্ত অমান্য সংক্রান্ত ধারা ৯ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো বিদেশি নাগরিক ধারা ৯ এর উপ-ধারা (৩) এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ ৩০ হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

কর্তৃপক্ষ ছাড়া ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রস্তুত, প্রদান বা নবায়নে বিধি-নিষেধ সংক্রান্ত ধারা ১০ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ১০ এর বিধান লঙ্ঘন করলে সর্বোচ্চ দুই বছর তবে কমপক্ষে ছয় মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ পাঁচ লাখ টাকা তবে কমপক্ষে এক লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয়দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

ড্রাইভিং লাইসেন্স স্থগিত, প্রত্যাহার বা বাতিল করা হলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির মোটরযান চালানোর ওপর বিধি-নিষেধ সংক্রান্ত ধারা ১২ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ১২ এর উপ-ধারা (৩) এর বিধান লঙ্ঘন করেন তাহলে তিনি সর্বোচ্চ তিন মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

কন্ডাক্টর লাইসেন্স ছাড়া কোনো গণপরিবহণে কন্ডাক্টর হিসেবে দায়িত্ব পালন সংক্রান্ত ধারা ১৪ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ১৪ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

মোটরযান রেজিস্ট্রেশন ছাড়া মোটরযান চালনা সংক্রান্ত ধারা ১৬ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ১৬ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ ছয় মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

ভুয়া রেজিস্ট্রেশন নম্বর ব্যবহার ও প্রদর্শনে বিধি-নিষেধ সংক্রান্ত ধারা ১৭ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ১৭ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ দুই বছর তবে কমপক্ষে ছয় মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ পাঁচ লাখ টাকা তবে কমপক্ষে এক লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

মোটরযানের মালিকানা পরিবর্তন বা হস্তান্তরের কারণে হস্তান্তর গ্রহীতার রেজিস্ট্রেশন সংক্রান্ত ধারা ২১ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো হস্তান্তর গ্রহীতা ধারা ২১ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক মাস কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

মোটরযানের ফিটনেস সনদ ছাড়া বা মেয়াদোত্তীর্ণ ফিটনেস সনদ ব্যবহার করে বা ইকোনমিক লাইফ অতিক্রান্ত বা ফিটনেসের অনুপযোগী, ঝুঁকিপূর্ণ মোটরযান চালনা সংক্রান্ত ধারা ২৫ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ২৫ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ ছয় মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

ট্যাক্স-টোকেন ছাড়া বা মেয়াদোত্তীর্ণ ট্যাক্স-টোকেন ব্যবহার করে মোটরযান চালনা সংক্রান্ত ধারা ২৬ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ২৬ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

রুট পারমিট ছাড়া পাবলিক প্লেসে পরিবহন যান ব্যবহার সংক্রান্ত ধারা ২৮ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ২৮ এর উপ-ধারা (১) এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

বিদেশি নাগরিকের বাংলাদেশে প্রবেশের ক্ষেত্রে নিজ দেশের মোটরযান/গণপরিবহণের রুট পারমিট গ্রহণ না করা সংক্রান্ত ধারা ২৯ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো বিদেশি নাগরিক ধারা ২৯ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এজন্য তিনি সর্বোচ্চ ৩০ হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

মোটরযানের বাণিজ্যিক ব্যবহার সংক্রান্ত ধারা ৩১ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৩১ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

গণপরিবহনে ভাড়ার চার্ট প্রদর্শন ও নির্ধারিত ভাড়ার অতিরিক্ত ভাড়া দাবি বা আদায় সংক্রান্ত ধারা ৩৪ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৩৪ এর উপ-ধারা (৩) ও (৪) এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

কনট্রাক্ট ক্যারিজের মিটার অবৈধভাবে পরিবর্তন বা অতিরিক্ত ভাড়া দাবি বা আদায় সংক্রান্ত ধারা ৩৫ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৩৫ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ ছয় মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

মহাসড়কের পার্শ্ববর্তী অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ তাৎক্ষণিক অপসারণ সংক্রান্ত ধারা ৩৭ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৩৭ এর উপ-ধারা (১) এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ দুই বছরের কারাদণ্ড, বা স্থায়ী স্থাপনার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ পাঁচ লাখ টাকা এবং অস্থায়ী স্থাপনার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

চাঁদাবাজি নিষিদ্ধকরণ সংক্রান্ত ধারা ৩৮ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৩৮ এর উপ-ধারা (৩) এর বিধান লঙ্ঘন করেন, তা হলে ওই অপরাধ পেনাল কোড, ১৮৬০ (অ্যাক্ট নম্বর এক্সএলভি অব ১৮৬০) এর অধ্যায়-১৭ এর অধীন চাঁদাবাজি সংক্রান্ত শাস্তিযোগ্য অপরাধ বলে গণ্য হবে।

কর্তৃপক্ষের নির্ধারিত কোনো মোটরযানের কারিগরি বিনির্দেশ অমান্য সংক্রান্ত ধারা ৪০ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪০ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন বছরের কারাদণ্ড তবে কমপক্ষে এক বছর বা সর্বোচ্চ তিন লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

ট্রাফিক সাইন ও সংকেতের ব্যবহার মেনে চলা সংক্রান্ত ধারা ৪২ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪২ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এজন্য তিনি সর্বোচ্চ ১ মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসাবে দোষসূচক ১ (এক) পয়েন্ট কাটা হবে।

অতিরিক্ত ওজন বহন করে মোটরযান চালানো সংক্রান্ত ধারা ৪৩ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪৩ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক বছরের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ এক লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসাবে দোষসূচক ২ পয়েন্ট কাটা হবে।

মোটরযানের গতিসীমা নিয়ন্ত্রণ সংক্রান্ত ধারা ৪৪ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪৪ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

নির্ধারিত শব্দমাত্রার অতিরিক্ত উচ্চমাত্রার কোনোরূপ শব্দ সৃষ্টি বা হর্ন বাজানো বা কোনো যন্ত্র, যন্ত্রাংশ বা হর্ন মোটরযানে স্থাপন সংক্রান্ত ধারা ৪৫ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪৫ এর উপ-ধারা (২), (৩) ও (৪) এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসাবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

পরিবেশ দূষণকারী, ঝুঁকিপূর্ণ ইত্যাদি মোটরযান চালনার বিধি-নিষেধ সংক্রান্ত ধারা ৪৬ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪৬ এর উপ-ধারা (২) ও (৩) এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪৬ এর উপ-ধারা (৪) এর বিধান লঙ্ঘন (ত্রুটি, ঝুঁকিপূর্ণ ও নিষিদ্ধ যানচালানো) করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

মোটরযান পার্কিং এবং যাত্রী বা পণ্য ওঠানামার নির্ধারিত স্থান ব্যবহার সংক্রান্ত ধারা ৪৭ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪৭ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

দ্রুতগতির মোটরযান প্রবেশের ক্ষেত্রে মহাসড়কের ব্যবহার সংক্রান্ত ধারা ৪৮ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪৮ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

মোটরযান চলাচলের সাধারণ নির্দেশাবলি সংক্রান্ত ধারা ৪৯ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪৯ এর উপ-ধারা (১) এ উল্লিখিত সাধারণ নির্দেশাবলির প্রথম অংশের কোনো বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে, অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪৯ এর উপ-ধারা (১) এ উল্লিখিত সাধারণ নির্দেশাবলির দ্বিতীয় অংশের কোনো বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

বিস্ফোরক বা দাহ্য পদার্থ মোটরযানে পরিবহন সংক্রান্ত ধারা ৫১ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৫১ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

মোটরযানের মালিক বা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক আর্থিক সহায়তা তহবিলে বাৎসরিক বা এককালীন চাঁদা প্রদানের বাধ্যবাধকতা সংক্রান্ত ধারা ৫৩ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৫৩ এর উপ-ধারা (৩) এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য কর্তৃপক্ষ তার গণপরিবহণ চালনার অনুমতিপত্র ও রুট পারমিট বাতিল করিতে বা ক্ষেত্রমতে রেজিস্ট্রেশন, ফিটনেস সনদ বা উহার নবায়ন করিতে অস্বীকৃতি জ্ঞাপন করতে পারবে এবং তদোতিরিক্ত নির্ধারিত হারে জরিমানা আরোপ করা যাবে।

সড়ক দুর্ঘটনায় আঘাতপ্রাপ্ত ব্যক্তির চিকিৎসা সংক্রান্ত ধারা ৬২ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৬২ এর উপ-ধারা (১) এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

মোটর ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ স্কুল প্রতিষ্ঠা বা পরিচালনা সংক্রান্ত ধারা ৬৩ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৬৩ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক লাখ টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং কর্তৃপক্ষ তাৎক্ষণিকভাবে ওই ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ স্কুল বন্ধ করিতে পারিবে।

মোটরযান মেরামত কারখানা স্থাপন বা পরিচালনা সংক্রান্ত ধারা ৬৪ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৬৪ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি কমপক্ষে ২৫ হাজার টাকা এবং সর্বোচ্চ এক লাখ টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং কর্তৃপক্ষ তাৎক্ষণিকভাবে ওই মোটরযান মেরামত কারখানা সিলগালা করে বন্ধ করতে পারবে।

ওভারলোডিং বা নিয়ন্ত্রণহীনভাবে মোটরযান চালনার ফলে দুর্ঘটনায় জীবন ও সম্পত্তির ক্ষতিসাধনের দণ্ড- যদি নির্ধারিত গতিসীমার অতিরিক্ত গতিতে বা বেপরোয়াভাবে বা ঝুঁকিপূর্ণ ওভারটেকিং বা ওভারলোডিং বা নিয়ন্ত্রণহীনভাবে মোটরযান চালনার ফলে কোনো দুর্ঘটনায় জীবন ও সম্পত্তির ক্ষতিসাধিত হয়, তা হলে সংশ্লিষ্ট মোটরযানের চালক বা কন্ডাক্টর বা সহায়তাকারী ব্যক্তির অনুরূপ মোটরযান চালনা হবে একটি অপরাধ, এবং এজন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন বছর কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ তিন লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন। আদালত অর্থদণ্ডের সম্পূর্ণ বা অংশবিশেষ ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিকে দেয়ার নির্দেশ দিতে পারবেন।

অপরাধ সংঘটনে সহায়তা, প্ররোচনা ও ষড়যন্ত্রের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি এই আইনের অধীন কোনো অপরাধ সংঘটনে সহায়তা করেন বা প্ররোচনা প্রদান করেন বা ষড়যন্ত্র করেন এবং যার ফলে সংশ্লিষ্ট অপরাধটি সংঘটিত হয়, তা হলে ওই সহায়তাকারী, যড়যন্ত্রকারী বা প্ররোচনা প্রদানকারী ব্যক্তি ওই অপরাধ সংঘটনের জন্য নির্ধারিত দণ্ডের সমপরিমাণ দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

একই অপরাধ আবার করার দণ্ড- এই আইনে উল্লিখিত কোনো অপরাধের জন্য দণ্ডভোগকারী একই অপরাধের পুনরাবৃত্তি করলে, ওই ব্যক্তিকে সংঘটিত অপরাধের জন্য নির্ধারিত সর্বোচ্চ দণ্ডের দ্বিগুণ দণ্ডে দণ্ডিত করা যাবে এবং এটা কোনোক্রমে আগে দেয়া দণ্ডের দ্বিগুণের কম হবে না।

পরিদর্শনে বাধা প্রদান বা প্রদত্ত নির্দেশনা অমান্য সংক্রান্ত ধারা ১১৬ এর উপ-ধারা (২) এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ১১৬ এর উপ-ধারা (২) এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

আদেশ পালন ও তথ্য প্রদানে বাধ্যবাধকতা সংক্রান্ত ধারা ১১৮ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ১১৮ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

আক্রমণাত্মক আচরণ ও জনরোষ নিয়ন্ত্রণ সংক্রান্ত ধারা ১১৯ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ১১৯ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

সরকারের দেয়া আদেশ ও নির্দেশনা সংক্রান্ত ধারা ১২৪ এর অধীন প্রণীত বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ১২৪ এর অধীন সরকারের দেয়া কোনো আদেশ বা নির্দেশনা এবং প্রণীত নীতিমালায় দেয়া নির্দেশনা লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

দুর্ঘটনা সংক্রান্ত অপরাধ- এই আইনে যাহা কিছুই থাকুক না কেন, মোটরযান চালনাজনিত কোনো দুর্ঘটনায় গুরুতরভাবে কোনো ব্যক্তি আহত হলে বা তার প্রাণহানি ঘটিলে, তৎসংক্রান্ত অপরাধসমূহ পেনাল কোড, ১৮৬০ এর এ সংশ্লিষ্ট বিধান অনুযায়ী অপরাধ বলে গণ্য হবে-

তবে শর্ত থাকে যে, পেনাল কোড, ১৮৬০ এর ধারা ৩০৪-বি এ যাহা কিছুই থাকুক না কেন, কোনো ব্যক্তির বেপরোয়া বা অবহেলাজনিত মোটরযান চালনার কারণে সংঘটিত দুর্ঘটনায় কোনো ব্যক্তি গুরুতরভাবে আহত হলে বা তার প্রাণহানি ঘটলে, ওই ব্যক্তি সর্বোচ্চ পাঁচ বছর কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ পাঁচ লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

কোম্পানি অপরাধ সংঘটন- কোনো কোম্পানি এই আইনের অধীন কোনো অপরাধ করলে ওই অপরাধের সঙ্গে প্রত্যক্ষ সংশ্লিষ্টতা রয়েছে ওই কোম্পানির এমন মালিক, পরিচালক, নির্বাহী কর্মকর্তা, ব্যবস্থাপক, সচিব, অন্য যেকোনো কর্মকর্তা বা কর্মচারী ওই অপরাধ সংঘটন করেছেন বলে গণ্য হবেন। যদি না তিনি প্রমাণ করিতে পারেন যে, ওই অপরাধ তার অজ্ঞাতসারে হয়েছে এবং এটা রোধ করার জন্য তিনি যথাসাধ্য চেষ্টা করেছেন।



DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ
করোনা ভাইরাস লাইভ আপডেট
আক্রান্ত চিকিৎসাধীন সুস্থ মৃত্যু
৫২৭০৬৩ ৪৭৪১৫ ৪৭১৭৬৫ ৭৮৮৩
বিস্তারিত
উইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে দল ঘোষণা সঠিক সংবাদ প্রচারের অনুরোধ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর রাজধানীর তেজগাঁওয়ে ভয়াবহ বিস্ফোরণ, দগ্ধ ৭ ভোট শেষ, চলছে গণনা সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট এখন ‘গণতান্ত্রিক ছাত্র কাউন্সিল’ ভাসমান নৌকায় আগু‌নের ঘটনায় আরও একজ‌নের মৃত্যু অল্পের জন্য রক্ষা পেল ৯৭টি বিড়াল রাস্তায় পলিটেকনিক শিক্ষার্থীরা ভোট চলছে, চার পৌরসভায় বিচ্ছিন্ন সংঘর্ষ সর্বাধিক ব্যবহৃত ১০ অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ উচ্ছ্বসিত ভোটাররা আহমদ শফী 'হত্যায়' জড়িতের শাস্তি চাইল হেফাজতের একাংশ ‘সিনিয়র ক্রিকেটার না থাকায় সুযোগ কাজে লাগাতে চাই’ ক্ষমা চেয়ে সুযোগ চাইলেন নোবেল! ভোটারদের জন্য রান্না করা খাবার নিয়ে গেল প্রশাসন! দুই মেয়রের দ্বন্দ্ব নিয়ে যা না বললেন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী লন্ডনে করোনায় একই দিনে বাংলাদেশি দুই ভাইয়ের মৃত্যু বাইডেনের শপথ, অভাবনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা ওয়াশিংটনে চলে গেলেন হার্দিক পান্ডিয়ার বাবা কুলিয়ারচরে বিএনপি প্রার্থীর নির্বাচন বর্জন ফাইভজি কভারেজে প্রথম দেশ বাহরাইন করোনা টিকার অ্যাপস তৈরিতে এক টাকাও দাবি করিনি: পলক নতুন বান্ধবী প্রকাশ্যে আনলেন শ্রাবন্তীর তৃতীয় স্বামী! রাজধানীতে চাঁদাবাজ চক্রের প্রধানসহ আটক ৬ আবারও বাড়ল করোনায় মৃত্যু, কমল আক্রান্ত অমরজিৎ পৃথিবীর 'সবচেয়ে কম বয়সী' সিরিয়াল কিলার সীমান্তে শক্তি বাড়াতে ১৮ হাজার কোটি টাকার অস্ত্র কিনছে ভারত বাবাকে ভোট দিতে পারলেন না ‘মৃত’ মানিক সাকিবের একাডেমির ভর্তি ফরম নিতে পারবেন যে কেউ ভেঙে পড়ল মহিষকাটা ব্রিজ, প্রাণ গেল মাদ্রাসা সুপারের মার্কিন স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ আপনার সাহায্য বাঁচাতে পারে ইয়াকিনকে একাধিক সহকর্মীকে যৌন নির্যাতন করেছেন আলি জাফর! চান্দিনায় ২ প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ ছেলেকে ‘হত্যা করে’ পালাতে গিয়ে ধরা তিমির পেটে বাচ্চার আল্ট্রাসনোগ্রামের ভিডিও ভাইরাল! ব্র্যান্ড নিউ মোটরসাইকেল ৪৯ হাজার টাকায়! কাদের মির্জার পৌরসভায় ৫ ঘণ্টায় ২৯ শতাংশ ভোট দাম কমল ভিভো ভি২০এসই স্মার্টফোনের নুসরাতের সঙ্গে বন্ধুত্ব অবশ্যই থাকবে: যশ গাছের ডাল মাথায় পড়ে প্রাণ গেল যুবদল নেতার হবিগঞ্জে নির্বাচনের রাতে তুমুল সংঘর্ষ, আ.লীগ প্রার্থীসহ আহত ৭ যুক্তরাষ্ট্রে তাণ্ডব চালাবে করোনার নতুন ধরন, সতর্কবার্তা ৩ পদে ২৬ জনকে নিয়োগ দেবে বিআরটিসি শিশু পর্নোগ্রাফিতে জড়িত অভিযোগে ৩ জন আটক লাল দুর্গের লড়াইয়ে ম্যানইউ-লিভারপুল মোংলায় ১৫ প্রার্থীর ভোট বর্জন আজ ‘কিছু না’ দিবস হোয়াটসঅ্যাপের প্রাইভেসি আপডেট নিয়ে ভাইবার সিইওর ক্ষোভ আরিচা আড়তে বেড়েছে বড় বড় মাছের সরবরাহ, দামও কম এসএমইউর অধীনে প্রথম পরীক্ষা শনিবার আবারও পেছাল আয়ারল্যান্ড-আমিরাত ম্যাচ কিশোরগঞ্জে হাটবাজারে কমেছে সবজির দাম, লোকসানে কৃষকরা শীত থাকবে আরো ২ দিন, ঠান্ডা পড়েছে ঢাকায়ও কেন্দ্রে হঠাৎ ককটেল বিস্ফোরণ ২১ বছরে উইকিপিডিয়া হাইটেক খামারে গাভির কানে বিশেষ সেন্সর মেশিন, জানিয়ে দিচ্ছে তথ্য চাপের মুখে পিছু হটল হোয়াটসঅ্যাপ সামরিক শক্তিতে সেরা মুসলিম দেশগুলো করোনার টিকা দেয়া শুরু করল ভারত পিছিয়ে গেল বার্সেলোনার নির্বাচন, অনিশ্চিত মেসির ভবিষ্যৎ নওগাঁয় সারের অতিরিক্ত দাম নেওয়ার অভিযোগ কোথায় গেল ১৬২ কোটি টাকা, উত্তর নেই সাঈদ খোকনের পিকের সঙ্গী ৮৩ জন, অর্থ গেছে সিঙ্গাপুর-কানাডা-ভারতে সাতক্ষীরায় প্রকল্পে দেড় কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ এরদোয়ান-ম্যাক্রোঁর ‌‘প্রেমপত্র’ তিন কোটি ডোজ টিকার কোন বিভাগ কত পাবে? এ বছর সামরিক শক্তিতে শীর্ষ ১০ দেশ সাগর নদী আর সবুজ বনঘেরা মনপুরার দখিনা হাওয়া সি-বিচ মিউজিকে বেঁচে যায় ২ হাজার তিমির প্রাণ! নাসার মতো প্রতিষ্ঠান হচ্ছে বাংলাদেশে! আয়ারল্যান্ডে দীর্ঘদিন স্কুল বন্ধ, অনলাইন গেমসে আসক্ত শিশুরা ছাগলের দড়িতে ভ্যান উল্টে প্রাণ গেল নারীর 'কারা আসবে ভ্যাকসিনের আওতায় সেটা নির্ধারণই বড় চ্যালেঞ্জ' অনলাইন নিলামে উঠছে ১১শ’ টন পেঁয়াজ! যুক্তরাজ্যে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি সামরিক শক্তিতে বাংলাদেশ ৪৫তম সবার আগে ভোট দিলেন কাদের মির্জা করোনায় বিশ্বে একদিনে ১৪ হাজারের বেশি প্রাণহানি দ্বিতীয় ধাপে ৬০ পৌরসভায় ভোট চলছে ১৬ জানুয়ারি: ইতিহাসের এই দিনে যা ঘটেছিল সিংহের চরম অর্থকষ্টের দিনে পরকীয়ার তছনছ মিথুনের সংসার শনিবার ঢাকার যেসব এলাকায় না যাওয়ায় ভালো চাল আমদানির উদ্যোগে উধাও মিলারদের ধান সংকট, কমছে দামও দলকে শিরোপা উপহার দিতে বদ্ধ পরিকর রাশফোর্ড দুঃসময় পেছনে ফেলার লক্ষ্যে মাঠে নামবে চেলসি এমন উচ্চতার নারী হাই জাম্পার আগে দেখেনি বাংলাদেশ পেস আক্রমণেই ভরসা রাখতে চায় উইন্ডিজ সিনিয়রদের অনুপস্থিতিতে দলে জায়গা পাকা করতে চান সুনিল আমব্রিস উইন্ডিজের বিপক্ষে অভিজ্ঞদের পাশাপাশি তরুণদের সুযোগের তাগিদ এসএসসি ০৬ ও এইচএসসি ০৮ ব্যাচের শিক্ষার্থীদের জন্ম জয়ন্তী উদযাপন বরিশালে মেয়র ও প্রতিমন্ত্রীর পাল্টাপাল্টি অভিযোগ! করোনা যেসব পণ্যকে করেছে নিত্যসঙ্গী সামরিক শক্তিতে অগ্রগতি বাংলাদেশের কাদের মির্জার পৌরসভায় ভোট পর্যবেক্ষণে এত সাংবাদিক! কোমায় থাকা রোগীর খাওয়ার পানির বিল ৯ লাখ টাকা! করোনার ছুটিতে শিক্ষার্থীদের বাসায় থাকার নির্দেশ দেশের দ্রুততম মানবী শিরিন, মানব ইসমাইল কাটল বাফুফের ভেন্যু জটিলতা বাফুফের চাপের মুখে আর্চারির আত্মসমর্পণ
আরও সংবাদ...
জন্ম তারিখ অনুযায়ী কেমন যাবে আগামী বছর, দেখে নিন মেদভুঁড়ি বাড়ে যে কারণে সমালোচকদের জবাব দিলেন ভাইরাল সেই টম ইমাম আল্লামা শফিকে হত্যার অভিযোগে মামুনুলের বিরুদ্ধে মামলা ফর্সা হওয়ার ক্রিম মাখলেই সর্বনাশ! আবারও প্রভার ভিডিও ভাইরাল! বিয়ের নামে প্রতারণা করে ২০ কোটি টাকার মালিক জান্নাত! জন্মতারিখ অনুযায়ী কেমন যাবে ২০২১ সাল বোনের গর্ভে জন্ম নিল আরেক বোন! মেয়েদের যেসব অভ্যাস পুরুষদের আকৃষ্ট করে অবশেষে বিক্রি হলো মাইকেল জ্যাকসনের সেই রাজকীয় বাড়ি বিমান উড়ার আগ মুহূর্তে পাখায় উঠে পড়লেন এক ব্যক্তি (ভিডিও) ফুটপাতেই ১০ বছর ভিক্ষুক জীবন পুলিশের শুটারের! জাঙ্গিয়া নিয়ে অসতর্ক হলে পুরুষত্ব হারানোর ঝুঁকি নববর্ষ উদযাপন করতে গিয়ে যুবকের করুণ মৃত্যু বিজয় দিবসে বিজিবির মিষ্টি নিয়ে লাশ দিল বিএসএফ তৃতীয় সন্তানের বাবা হচ্ছেন সাকিব! পদ্মা সেতুতে টোল দিতে থামাতে হবে না গাড়ি অনুষ্ঠানে গান বাজালে জানাজা বা বিয়ে না পড়ানোর ঘোষণা নরমাল ডেলিভারির পরও জোর করে সিজার! ‘ভ্যাকসিন নিলে ছেলেরা মেয়ে কণ্ঠে কথা বলবে, মেয়েদের দাড়িও উঠবে’ কিনতে হবে না, ভাড়ায় স্মার্টফোন দেবে স্যামসাং! হার্ট অ্যাটাকের ১ মাস আগেই দেহে এই ৫টি সিগনাল দেয়! স্কুল-কলেজে ছুটি বাড়ছে কোহলিকে ঢাকায় আশ্রয় দিতে চান ভক্তরা গৃহবধূকে হত্যার পর চামড়া ছিলে লবণ লাগানোর বর্ণনা দিলেন স্বামী মা-বাবার সামনেই কিশোরীকে পালাক্রমে ধর্ষণ শ্বশুর হারালেন সাকিব নববধূ তাসলিমার স্বপ্ন ভেসে গেল মেঘনায়! দেওয়ানবাগী পীর মারা গেছেন পছন্দের পাত্র-পাত্রীকে বিয়েতে পরিবারকে রাজি করানোর ১০ উপায় মৃত অভিনেত্রীর দেহে মিলল ২ লিটার মদ নুসরাতের পোশাক বদলানোর ভিডিও ভাইরাল গুরুতর অসুস্থ তামিম ইকবাল গ্রামীণের গ্রাহকদের জন্য সুখবর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সময় জানালেন মন্ত্রী পরকীয়ায় শাশুড়ি, জানলেন স্ত্রী, কোপালেন স্বামী! নিউজিল্যান্ডে সরকারি-ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে যৌন সহিংসতার ভয়ঙ্কর তথ্য ১১ মাসে করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যু দেখল বিশ্ব ‘সুন্নতের জন্য যদি আমার ফাঁসি হয় তাতে খুশি’ সংসার ভাঙছে ‘মোহর’-এর! প্রভাসের ‘সিক্রেট ক্রাশ’ ৪০ বছরের রাভিনা! গুগলের ভুলে রাস্তা হারিয়ে বরফে জমে তরুণের মৃত্যু বাংলাদেশেও করোনার নতুন ধরন শনাক্ত! ইউটিউবে আজহারী, ভিডিও না দিয়েও সাবস্ক্রাইবারের ঢল হেফাজত মহাসচিব কাসেমী মারা গেছেন লকডাউনে জন্মনিরোধক সামগ্রী বিক্রির হিড়িক কাদাজলে নেমে মাছ ধরলেন নায়ক সাইমন নতুন ধরনের করোনা ভাইরাসে উচ্চহারে আক্রান্ত হচ্ছে শিশুরা দেশে তৈরি প্রথম গাড়ি আনল পিএইচপি
আরও সংবাদ...

মেনে চলি

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  EnglishLive TV DMCA.com Protection Status
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
উপরে