মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
ফাতেমা এ্যানি
আপডেট
০১-১১-২০১৯, ০৬:৫৪

সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ : কোন অপরাধে কী শাস্তি বিস্তারিত

সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ :  কোন অপরাধে কী শাস্তি বিস্তারিত
সর্বোচ্চ ৫ বছর জেল ও ৫ লাখ টাকা জরিমানার বিধান রেখে শুক্রবার (১ নভেম্বর) থেকে কার্যকর হচ্ছে বহুল আলোচিত সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮। নিয়ম লঙ্ঘনে নতুন আইনের প্রায় সব ধারায় বাড়ানো হয়েছে চালক ও পথচারীদের জেল-জরিমানার পরিমাণ। নতুন আইনে সব ধারায় আগের চেয়ে সাজা বাড়ানো হয়েছে। ফলে আইনটি কার্যকর হলে সড়কে বিশৃঙ্খলা ও দুর্ঘটনা কমে আসবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, আইনে আপাতত কোনো পরিবর্তন বা সংশোধন নেই। সংশোধনের বিষয়টি পরে বিবেচনায় নেওয়া হতে পারে। তবে প্রজ্ঞাপনে সংশোধনের সুযোগ রাখায় আইন কার্যকর নিয়ে সাধারণ মানুষ সন্দিহান রয়েছে। তারা বলছেন, এ সুযোগ রেখে আইন সংশোধন করার পথ রেখে দিল সরকার।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, আইনটি কার্যকর করতে শুক্রবার থেকে মাঠে থাকবে ভ্রাম্যমাণ আদালত। পাশাপাশি গাড়ির কাগজপত্র ও ড্রাইভিং লাইসেন্সসহ অন্য সব কাগজপত্র যাচাইয়ে পুলিশেরও তৎপরতা আগের চেয়ে বাড়ানো হবে।

সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮  যে অপরাধে, যে শাস্তি :


ড্রাইভিং লাইসেন্স ব্যতীত মোটরযান ও গণপরিবহন চালনার বিধি-নিষেধ সংক্রান্ত ধারা ৪ এবং ৫ এর লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪ এবং ৫ এর বিধান লঙ্ঘন করেন এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ ছয় মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয়দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

ড্রাইভিং লাইসেন্স হস্তান্তর সংক্রান্ত ধারা ৬ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৬ এর উপ-ধারা (৫) এর বিধান লঙ্ঘন করেন এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয়দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

বিদেশি নাগরিকের এ আইন, বিধি বা প্রবিধানের কোনো বিধান বা লাইসেন্সে প্রদত্ত শর্ত অমান্য সংক্রান্ত ধারা ৯ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো বিদেশি নাগরিক ধারা ৯ এর উপ-ধারা (৩) এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ ৩০ হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

কর্তৃপক্ষ ছাড়া ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রস্তুত, প্রদান বা নবায়নে বিধি-নিষেধ সংক্রান্ত ধারা ১০ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ১০ এর বিধান লঙ্ঘন করলে সর্বোচ্চ দুই বছর তবে কমপক্ষে ছয় মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ পাঁচ লাখ টাকা তবে কমপক্ষে এক লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয়দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।


ড্রাইভিং লাইসেন্স স্থগিত, প্রত্যাহার বা বাতিল করা হলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির মোটরযান চালানোর ওপর বিধি-নিষেধ সংক্রান্ত ধারা ১২ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ১২ এর উপ-ধারা (৩) এর বিধান লঙ্ঘন করেন তাহলে তিনি সর্বোচ্চ তিন মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

কন্ডাক্টর লাইসেন্স ছাড়া কোনো গণপরিবহণে কন্ডাক্টর হিসেবে দায়িত্ব পালন সংক্রান্ত ধারা ১৪ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ১৪ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

মোটরযান রেজিস্ট্রেশন ছাড়া মোটরযান চালনা সংক্রান্ত ধারা ১৬ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ১৬ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ ছয় মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

ভুয়া রেজিস্ট্রেশন নম্বর ব্যবহার ও প্রদর্শনে বিধি-নিষেধ সংক্রান্ত ধারা ১৭ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ১৭ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ দুই বছর তবে কমপক্ষে ছয় মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ পাঁচ লাখ টাকা তবে কমপক্ষে এক লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

মোটরযানের মালিকানা পরিবর্তন বা হস্তান্তরের কারণে হস্তান্তর গ্রহীতার রেজিস্ট্রেশন সংক্রান্ত ধারা ২১ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো হস্তান্তর গ্রহীতা ধারা ২১ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক মাস কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

মোটরযানের ফিটনেস সনদ ছাড়া বা মেয়াদোত্তীর্ণ ফিটনেস সনদ ব্যবহার করে বা ইকোনমিক লাইফ অতিক্রান্ত বা ফিটনেসের অনুপযোগী, ঝুঁকিপূর্ণ মোটরযান চালনা সংক্রান্ত ধারা ২৫ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ২৫ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ ছয় মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

ট্যাক্স-টোকেন ছাড়া বা মেয়াদোত্তীর্ণ ট্যাক্স-টোকেন ব্যবহার করে মোটরযান চালনা সংক্রান্ত ধারা ২৬ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ২৬ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

রুট পারমিট ছাড়া পাবলিক প্লেসে পরিবহন যান ব্যবহার সংক্রান্ত ধারা ২৮ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ২৮ এর উপ-ধারা (১) এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

বিদেশি নাগরিকের বাংলাদেশে প্রবেশের ক্ষেত্রে নিজ দেশের মোটরযান/গণপরিবহণের রুট পারমিট গ্রহণ না করা সংক্রান্ত ধারা ২৯ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো বিদেশি নাগরিক ধারা ২৯ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এজন্য তিনি সর্বোচ্চ ৩০ হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

মোটরযানের বাণিজ্যিক ব্যবহার সংক্রান্ত ধারা ৩১ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৩১ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

গণপরিবহনে ভাড়ার চার্ট প্রদর্শন ও নির্ধারিত ভাড়ার অতিরিক্ত ভাড়া দাবি বা আদায় সংক্রান্ত ধারা ৩৪ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৩৪ এর উপ-ধারা (৩) ও (৪) এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

কনট্রাক্ট ক্যারিজের মিটার অবৈধভাবে পরিবর্তন বা অতিরিক্ত ভাড়া দাবি বা আদায় সংক্রান্ত ধারা ৩৫ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৩৫ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ ছয় মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

মহাসড়কের পার্শ্ববর্তী অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ তাৎক্ষণিক অপসারণ সংক্রান্ত ধারা ৩৭ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৩৭ এর উপ-ধারা (১) এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ দুই বছরের কারাদণ্ড, বা স্থায়ী স্থাপনার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ পাঁচ লাখ টাকা এবং অস্থায়ী স্থাপনার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

চাঁদাবাজি নিষিদ্ধকরণ সংক্রান্ত ধারা ৩৮ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৩৮ এর উপ-ধারা (৩) এর বিধান লঙ্ঘন করেন, তা হলে ওই অপরাধ পেনাল কোড, ১৮৬০ (অ্যাক্ট নম্বর এক্সএলভি অব ১৮৬০) এর অধ্যায়-১৭ এর অধীন চাঁদাবাজি সংক্রান্ত শাস্তিযোগ্য অপরাধ বলে গণ্য হবে।

কর্তৃপক্ষের নির্ধারিত কোনো মোটরযানের কারিগরি বিনির্দেশ অমান্য সংক্রান্ত ধারা ৪০ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪০ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন বছরের কারাদণ্ড তবে কমপক্ষে এক বছর বা সর্বোচ্চ তিন লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

ট্রাফিক সাইন ও সংকেতের ব্যবহার মেনে চলা সংক্রান্ত ধারা ৪২ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪২ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এজন্য তিনি সর্বোচ্চ ১ মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসাবে দোষসূচক ১ (এক) পয়েন্ট কাটা হবে।

অতিরিক্ত ওজন বহন করে মোটরযান চালানো সংক্রান্ত ধারা ৪৩ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪৩ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক বছরের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ এক লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসাবে দোষসূচক ২ পয়েন্ট কাটা হবে।

মোটরযানের গতিসীমা নিয়ন্ত্রণ সংক্রান্ত ধারা ৪৪ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪৪ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

নির্ধারিত শব্দমাত্রার অতিরিক্ত উচ্চমাত্রার কোনোরূপ শব্দ সৃষ্টি বা হর্ন বাজানো বা কোনো যন্ত্র, যন্ত্রাংশ বা হর্ন মোটরযানে স্থাপন সংক্রান্ত ধারা ৪৫ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪৫ এর উপ-ধারা (২), (৩) ও (৪) এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসাবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

পরিবেশ দূষণকারী, ঝুঁকিপূর্ণ ইত্যাদি মোটরযান চালনার বিধি-নিষেধ সংক্রান্ত ধারা ৪৬ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪৬ এর উপ-ধারা (২) ও (৩) এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪৬ এর উপ-ধারা (৪) এর বিধান লঙ্ঘন (ত্রুটি, ঝুঁকিপূর্ণ ও নিষিদ্ধ যানচালানো) করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

মোটরযান পার্কিং এবং যাত্রী বা পণ্য ওঠানামার নির্ধারিত স্থান ব্যবহার সংক্রান্ত ধারা ৪৭ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪৭ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

দ্রুতগতির মোটরযান প্রবেশের ক্ষেত্রে মহাসড়কের ব্যবহার সংক্রান্ত ধারা ৪৮ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪৮ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

মোটরযান চলাচলের সাধারণ নির্দেশাবলি সংক্রান্ত ধারা ৪৯ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪৯ এর উপ-ধারা (১) এ উল্লিখিত সাধারণ নির্দেশাবলির প্রথম অংশের কোনো বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে, অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৪৯ এর উপ-ধারা (১) এ উল্লিখিত সাধারণ নির্দেশাবলির দ্বিতীয় অংশের কোনো বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

বিস্ফোরক বা দাহ্য পদার্থ মোটরযানে পরিবহন সংক্রান্ত ধারা ৫১ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৫১ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

মোটরযানের মালিক বা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক আর্থিক সহায়তা তহবিলে বাৎসরিক বা এককালীন চাঁদা প্রদানের বাধ্যবাধকতা সংক্রান্ত ধারা ৫৩ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৫৩ এর উপ-ধারা (৩) এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য কর্তৃপক্ষ তার গণপরিবহণ চালনার অনুমতিপত্র ও রুট পারমিট বাতিল করিতে বা ক্ষেত্রমতে রেজিস্ট্রেশন, ফিটনেস সনদ বা উহার নবায়ন করিতে অস্বীকৃতি জ্ঞাপন করতে পারবে এবং তদোতিরিক্ত নির্ধারিত হারে জরিমানা আরোপ করা যাবে।

সড়ক দুর্ঘটনায় আঘাতপ্রাপ্ত ব্যক্তির চিকিৎসা সংক্রান্ত ধারা ৬২ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৬২ এর উপ-ধারা (১) এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং চালকের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত হিসেবে দোষসূচক ১ পয়েন্ট কাটা হবে।

মোটর ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ স্কুল প্রতিষ্ঠা বা পরিচালনা সংক্রান্ত ধারা ৬৩ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৬৩ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক লাখ টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং কর্তৃপক্ষ তাৎক্ষণিকভাবে ওই ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ স্কুল বন্ধ করিতে পারিবে।

মোটরযান মেরামত কারখানা স্থাপন বা পরিচালনা সংক্রান্ত ধারা ৬৪ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ৬৪ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি কমপক্ষে ২৫ হাজার টাকা এবং সর্বোচ্চ এক লাখ টাকা অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবেন এবং কর্তৃপক্ষ তাৎক্ষণিকভাবে ওই মোটরযান মেরামত কারখানা সিলগালা করে বন্ধ করতে পারবে।

ওভারলোডিং বা নিয়ন্ত্রণহীনভাবে মোটরযান চালনার ফলে দুর্ঘটনায় জীবন ও সম্পত্তির ক্ষতিসাধনের দণ্ড- যদি নির্ধারিত গতিসীমার অতিরিক্ত গতিতে বা বেপরোয়াভাবে বা ঝুঁকিপূর্ণ ওভারটেকিং বা ওভারলোডিং বা নিয়ন্ত্রণহীনভাবে মোটরযান চালনার ফলে কোনো দুর্ঘটনায় জীবন ও সম্পত্তির ক্ষতিসাধিত হয়, তা হলে সংশ্লিষ্ট মোটরযানের চালক বা কন্ডাক্টর বা সহায়তাকারী ব্যক্তির অনুরূপ মোটরযান চালনা হবে একটি অপরাধ, এবং এজন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন বছর কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ তিন লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন। আদালত অর্থদণ্ডের সম্পূর্ণ বা অংশবিশেষ ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিকে দেয়ার নির্দেশ দিতে পারবেন।

অপরাধ সংঘটনে সহায়তা, প্ররোচনা ও ষড়যন্ত্রের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি এই আইনের অধীন কোনো অপরাধ সংঘটনে সহায়তা করেন বা প্ররোচনা প্রদান করেন বা ষড়যন্ত্র করেন এবং যার ফলে সংশ্লিষ্ট অপরাধটি সংঘটিত হয়, তা হলে ওই সহায়তাকারী, যড়যন্ত্রকারী বা প্ররোচনা প্রদানকারী ব্যক্তি ওই অপরাধ সংঘটনের জন্য নির্ধারিত দণ্ডের সমপরিমাণ দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

একই অপরাধ আবার করার দণ্ড- এই আইনে উল্লিখিত কোনো অপরাধের জন্য দণ্ডভোগকারী একই অপরাধের পুনরাবৃত্তি করলে, ওই ব্যক্তিকে সংঘটিত অপরাধের জন্য নির্ধারিত সর্বোচ্চ দণ্ডের দ্বিগুণ দণ্ডে দণ্ডিত করা যাবে এবং এটা কোনোক্রমে আগে দেয়া দণ্ডের দ্বিগুণের কম হবে না।

পরিদর্শনে বাধা প্রদান বা প্রদত্ত নির্দেশনা অমান্য সংক্রান্ত ধারা ১১৬ এর উপ-ধারা (২) এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ১১৬ এর উপ-ধারা (২) এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

আদেশ পালন ও তথ্য প্রদানে বাধ্যবাধকতা সংক্রান্ত ধারা ১১৮ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ১১৮ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

আক্রমণাত্মক আচরণ ও জনরোষ নিয়ন্ত্রণ সংক্রান্ত ধারা ১১৯ এর বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ১১৯ এর বিধান লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ এক মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

সরকারের দেয়া আদেশ ও নির্দেশনা সংক্রান্ত ধারা ১২৪ এর অধীন প্রণীত বিধান লঙ্ঘনের দণ্ড- যদি কোনো ব্যক্তি ধারা ১২৪ এর অধীন সরকারের দেয়া কোনো আদেশ বা নির্দেশনা এবং প্রণীত নীতিমালায় দেয়া নির্দেশনা লঙ্ঘন করেন, এ জন্য তিনি সর্বোচ্চ তিন মাসের কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

দুর্ঘটনা সংক্রান্ত অপরাধ- এই আইনে যাহা কিছুই থাকুক না কেন, মোটরযান চালনাজনিত কোনো দুর্ঘটনায় গুরুতরভাবে কোনো ব্যক্তি আহত হলে বা তার প্রাণহানি ঘটিলে, তৎসংক্রান্ত অপরাধসমূহ পেনাল কোড, ১৮৬০ এর এ সংশ্লিষ্ট বিধান অনুযায়ী অপরাধ বলে গণ্য হবে-

তবে শর্ত থাকে যে, পেনাল কোড, ১৮৬০ এর ধারা ৩০৪-বি এ যাহা কিছুই থাকুক না কেন, কোনো ব্যক্তির বেপরোয়া বা অবহেলাজনিত মোটরযান চালনার কারণে সংঘটিত দুর্ঘটনায় কোনো ব্যক্তি গুরুতরভাবে আহত হলে বা তার প্রাণহানি ঘটলে, ওই ব্যক্তি সর্বোচ্চ পাঁচ বছর কারাদণ্ড বা সর্বোচ্চ পাঁচ লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

কোম্পানি অপরাধ সংঘটন- কোনো কোম্পানি এই আইনের অধীন কোনো অপরাধ করলে ওই অপরাধের সঙ্গে প্রত্যক্ষ সংশ্লিষ্টতা রয়েছে ওই কোম্পানির এমন মালিক, পরিচালক, নির্বাহী কর্মকর্তা, ব্যবস্থাপক, সচিব, অন্য যেকোনো কর্মকর্তা বা কর্মচারী ওই অপরাধ সংঘটন করেছেন বলে গণ্য হবেন। যদি না তিনি প্রমাণ করিতে পারেন যে, ওই অপরাধ তার অজ্ঞাতসারে হয়েছে এবং এটা রোধ করার জন্য তিনি যথাসাধ্য চেষ্টা করেছেন।




DMCA.com Protection Status

সময় সংবাদের লেখক হতে পারেন আপনিও। আপনার আশপাশে ঘটে যাওয়া যেকোনো ঘটনা, ভ্রমণ অভিজ্ঞতা, ক্যাম্পাসের খবর, তথ্যপ্রযুক্তি, বিনোদন, শিল্প-সংস্কৃতি ইত্যাদি বিষয়ে লেখা পাঠান: somoytvweb@gmail.com ই-মেইলে।
এই বিভাগের সকল সংবাদ
ভোরে ঘরে ঢুকে হাতির তাণ্ডব, নারীর মৃত্যু অস্ট্রেলিয়ায় তৈরি হলো করোনা ভাইরাসের জীবাণু (ভিডিও) চট্টগ্রামে পুলিশের ওপর হামলা, ছাত্রদলের নেতাসহ আটক ৫ চীন থেকে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীর ফেসবুক লাইভ (ভিডিও) ঝালকাঠিতে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিতে বেড়েছে শীত চীনে করোনা ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৩২ তাপসের ইশতেহার আজ নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে চীনা শ্রমিকদের নিজ দেশে ফিরতে ময়মনসিংহ আদালতে ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার চুয়াডাঙ্গায় গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি সুন্দরবন সুরক্ষায় সহযোগিতার আগ্রহ মার্কিন রাষ্ট্রদূতের ইমিগ্রেশনগুলোতে নেই করোনা শনাক্তের পর্যাপ্ত লোকবল-যন্ত্রপাতি চীনে শঙ্কায় বাংলাদেশিরা, দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান আকাশ মেঘলা, ঝরতে পারে বৃষ্টি কিউবা-জ্যামাইকাতে ৭.৭ মাত্রার ভয়ঙ্কর ভূমিকম্প বহুল প্রতীক্ষিত মধ্যপ্রাচ্য শান্তি পরিকল্পনা প্রকাশ ট্রাম্পের শীতে বিপর্যস্ত পঞ্চগড়ের জনজীবন তুরস্কে ধর্ষণের পর বিয়ে করলে সাজা মাফের নতুন আইন দাঁড়িয়ে থাকা ভেকুতে মোটরসাইকেলের ধাক্কা, প্রাণ গেল ৩ আরোহীর ভারতে করোনা ভাইরাসে থাই তরুণীর মৃত্যু ৯৯৯-এ ফোন পেয়ে আত্মহত্যা করতে যাওয়া যুবককে বাঁচাল পুলিশ শিশুকে বক্সখাটের ভেতরে রেখে পালালেন মা, বাবা পেলেন মরদেহ দুই মাসের কন্যাকে খুন করে অপহরণের নাটক সাজালেন মা! ১৮২ তরুণীর গোপন ভিডিও ধারণ, অতঃপর... দাম্পত্য সুখ সিংহের, তুলার বাড়িতে অতিথি সমাগম ই-পাসপোর্ট আবেদনে ব্যাপক সাড়া দিনাজপুরে গড়ে উঠেছে বিষমুক্ত সবজি গ্রাম বঙ্গবন্ধু মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ‘রহস্যজনক’ নিখোঁজ যানজটের আরেক নাম শাহ-আমানত সেতুর টোল প্লাজা সুলতান মেলায় ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা সময়টা বেশ ভালোই যাচ্ছে পিএসজি’র কোবি ব্রায়ান্টের দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে নেমেছে এফবিআই অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে আলো ছড়াচ্ছেন সোফিয়া কেনিন সাবেক ফুটবলারদের কোন পক্ষ নেই, থাকাও উচিৎ নয় সফলতা এলেও সুযোগ-সুবিধা মেলেনি তায়কোয়ান্দো খেলোয়াড়দের প্রথম কোয়ার্টার ফাইনালে জয় পেয়েছে ইন্ডিয়ান যুবারা মৃত্তুঞ্জয়-শামীমের ইনজুরিতে চিন্তায় ইয়াং টাইগাররা বিসিএলে ম্যাচ কমিয়ে ফেলায় অসন্তুষ্ট ক্রিকেটাররা পাকিস্তান সফরে নিরাপত্তা নিয়ে সন্তুষ্ট সরকার পা কাটা জিনের বাদশা গ্রেফতার আতিকুলের পক্ষে নৌকায় ভোট চাইলেন শমসের মবিন ‘খালেদার মুক্তিতে আন্দোলন করতে দেয়নি তারেক রহমান’ ‘সিটি নির্বাচনে বিএনপি জিতলে তারেকের হস্তক্ষেপ কমে যাবে’ ভাইরাসের নাম কেন করোনা? বুধবার বৃষ্টির সম্ভাবনা বান্দরবানে আবারো ৫ একর পপিক্ষেত ধ্বংস করলো সেনাবাহিনী পর্দা উঠল কলকাতা আন্তর্জাতিক পুস্তক মেলার করোনা নিয়ে ড. বি. চৌধুরীর পরামর্শ (ভিডিও) জানা আছে মাস্ক ব্যবহারের সঠিক নিয়ম? ইশরাকের ১৬ দফায় যা আছে সিনবাদ বিক্রি হবে ভাগে পুলিশের আতঙ্কে পুরুষশূন্য ভজনপুর শিশু কিশোরদের সঙ্গে আড্ডা দিলেন জয়া চাকমা বাংলাদেশের হজ ব্যবস্থা বিভিন্ন দেশে প্রশংসিত: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী কৃষিঋণ আত্মসাৎ মামলায় ৭ জনের কারাদণ্ড স্প্রে-মলম দিয়ে অজ্ঞান করে ছিনতাই করতেন এরা রাজধানীতে দুই বাসের প্রতিযোগিতায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত খনিজ সম্পদ দেশের মানুষের জন্যই ব্যবহার হবে: প্রধানমন্ত্রী আয় বেড়েছে গ্রামীণফোনের টাঙ্গাইলে তিন ছাত্রীকে গণধর্ষণ, দুই বখাটের দায় স্বীকার জালিয়াতি করে ভর্তি হওয়া ঢাবির ৬৩ শিক্ষার্থী বহিষ্কার ছাত্র ধর্ষণ মামলায় আওয়ামী লীগ নেতাসহ রিমান্ডে ২ বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রে ৪০ হাজার বই দিলো বিকাশ করোনা : অভিজ্ঞতা নিতে এখনই কাউকে চীনে পাঠানো হচ্ছে না ব্রাজিলে বন্যা-ভূমিধসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫৩ মালয়েশিয়ায় আ’লীগের প্রাদেশিক শাখার অভিষেক রেলস্টেশনে পড়ে থাকা মৃতপ্রায় বৃদ্ধা এখন হাসপাতালে সাকিবকে নিয়ে সংসদে আলোচনা ‘সুন্দরবনের জীববৈচিত্র্য সুরক্ষায় কাজ করতে আগ্রহী যুক্তরাষ্ট্র’ পাকিস্তানের কাছে হারায় সংসদে ক্ষোভ বাইরে থেকে লোক এনে পরিস্থিতির অবনতি ঘটানো হতে পারে : অতিরিক্ত কমিশনার কাতার প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ, নতুন প্রধানমন্ত্রী শেখ খালিদ গাইবান্ধায় অপহৃত গৃহবধূ উদ্ধার, আটক ১ জিয়াউর রহমানই দেশে মদ-জুয়া-ক্যাসিনো শুরু করেছেন : মতিয়া চৌধুরী বাঁচতে চায় ক্যান্সার আক্রান্ত ছোট্ট নাঈম প্রেমে ব্যর্থ হয়ে নারীকর্মীদের গোপন ভিডিও ধারণ করতেন সজীব অপারেশন থিয়েটারে বালিশ-চাদর-খাবার, জরিমানা সোলাইমানি হত্যার কারিগর অ্যান্ড্রুর স্ত্রী ভারতীয় বংশোদ্ভুত মুসলিম ‘জুলাইয়ের মধ্যেই বসবে পদ্মা সেতুর সব স্প্যান’ বিদ্রোহী প্রার্থীদের বিষয়ে সাংবাদিকদের ‘লিমিট ক্রস’ না করতে বললেন কাদের বায়ু দূষণের অপরাধে ৬টি পরিবহনকে জরিমানা সোলাইমানি হত্যার কারিগর মাইকেল অ্যান্ড্রু কে ছিলেন? জমি থেকে আর ঘরে ফেরা হলো না নাসিরের পা রাখতেই বাবার দেখানো পথ শেষ জিয়ান্নির! ঝালকাঠি সরকারি কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে দুদকের অভিযান সিনি কেয়ার-এর আউটলেট উদ্বোধন করলেন মিম মৌলভীবাজারে অটোরিকশা-পিকআপ সংঘর্ষে নিহত ২ ইরানের স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন ইশরাকের গণসংযোগে হামলা: বিএনপির ২৫ জনের জামিন নাটোরে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের ২ সদস্য রিমান্ডে বন্ধুর মোটরসাইকেল চালাতে গিয়ে স্কুলছাত্র নিহত গোপালগঞ্জে ট্রেনের ধাক্কায় তিন স্কুলছাত্র নিহত রোমান সানাকে ল্যান্স নায়েক করলো বাংলাদেশ আনসার ক্রীড়াঙ্গনে জুয়াসহ অবৈধ ব্যবসা নিয়ে আদালতের উদ্বেগ আজহারীকে নিয়ে যা বললেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী করোনা রোধে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে সতর্ক মেডিকেল টিম স্কুলছাত্রী সীমা হত্যায় ৮ আসামির মৃত্যুদণ্ড বহাল আড়ংয়ের কর্মীদের পোশাক পরিবর্তনের ৩৬ ভিডিও উদ্ধার খালেদার জামিনের মেয়াদ বাড়ল ১ বছর চট্টগ্রামে কাপ্তাইগামী বাস খাদে
আরও সংবাদ...
শিশুকে ধর্ষণ, ধর্ষককে প্রকাশ্যে পুড়িয়ে মারল গ্রামবাসী! (ভিডিও) বাঙালী মেয়েকে বিয়ে করলেন মার্কিন তরুণী ফেসবুক তৈরি করাটাই ছিল ‘ভয়ংকর ভুল’: জাকারবার্গ ইরানের পক্ষে যুক্তরাষ্ট্রকে কড়া হুঁশিয়ারি রাশিয়ার এবার দুবাইয়ে হামলা করবে ইরান! ৭২ ঘণ্টার মধ্যে কুয়েত ছাড়ছে মার্কিন সেনাবাহিনী ঘুম থেকে তুলে নিয়ে হাত-পা বেঁধে শিশুকে নির্মম নির্যাতন প্রথম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে ৪র্থ শ্রেণির ছাত্র গ্রেফতার বিয়ে করে পপির দায়িত্ব নিতে চান হিরো আলম! মার্কিন ঘাঁটিতে ইরানের হামলায় ১১ দেশের প্রতিক্রিয়া শিক্ষার্থীকে আটকে রেখে গণর্ধষণ: ছাত্রলীগের সহ-সভাপতিসহ গ্রেফতার ৩ কক্সবাজারে উচ্চমাত্রায় ইউরেনিয়ামের সন্ধান! ব্যাপক হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে ইরান, যুদ্ধের দামামা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ধর্ষণের শিকার ইরান সীমান্তবর্তী আফগান প্রদেশে যুক্তরাষ্ট্রের হামলা, নিহত ৬০ সিলেটে ওয়াজ নিষিদ্ধে যা বললেন আজহারী সোলাইমানিকে হত্যার ঘটনার ভিডিও প্রকাশ যেসব ফোনে বন্ধ হচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপ সিলেটে আজহারীর ওয়াজ নিষিদ্ধ মায়ের সামনেই তরুণীর ওড়না ধরে টানলেন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সভাপতি অস্ট্রেলিয়ায় ১০ হাজারেরও বেশি উট গুলি করে মারার সিদ্ধান্ত এইডস আক্রান্ত তরুণীকে গণধর্ষণ, পুলিশ হেফাজতে আতঙ্কিত আসামিরা গ্রেফতার ব্যক্তিই ‘ধর্ষক’, শনাক্ত সেই ঢাবি শিক্ষার্থীর অপহরণের পর পিস্তল ঠেকিয়ে যুবককে বিয়ে করলেন তরুণী শিক্ষার্থী ধর্ষণের সিসিটিভি ফুটেজ পাওয়া গেছে : ডিসি গুলশান জোন মাদ্রাসার বাথরুমে সুপারের 'ধর্ষণে' অন্তঃসত্ত্বা ছাত্রী স্নাইপার দিয়ে ট্রাম্পকে হত্যার চেষ্টা, ভিডিও প্রকাশ মার্কিন ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কোনো কাজেই আসেনি শ্রাবন্তীর গোপন ভিডিও ফাঁস করলেন স্বামী (ভিডিও) বরফে পিছলে পাকিস্তানে চলে গেলেন ভারতীয় সেনা! যেকোনো পরিস্থিতিতে ইরানের পাশে আছে তুরস্ক: এরদোয়ান ইরানের পক্ষে-বিপক্ষে যেসব দেশ মিসাইল হামলায় ৮০ মার্কিন সেনা হত্যার দাবি ইরানের কক্সবাজারে রোহিঙ্গাদের গুলিতে র‌্যাবের ২ সদস্য গুলিবিদ্ধ ইরা‌নি হামলা নি‌য়ে সংবাদ স‌ম্মেল‌নে ট্রা‌ম্পের গলা কাঁপ‌ছি‌লো! ইরানের আকাশে যুদ্ধবিমানের মহড়া, যুদ্ধের প্রস্তুতি জিয়াউর রহমানকে নিয়ে ভিপি নুরের স্ট্যাটাস খতনার ভয়ে বাড়ির ছাদে শিশু, ডাক্তার করলেন ছবি পোস্ট ট্রাম্পকে হত্যা করলেই মিলবে ৮০ মিলিয়ন ডলার! আংটিতে শনাক্ত হন সোলাইমানি (ভিডিও) ইরানে ১৮০ যাত্রী নিয়ে উড্ডয়নের পর বিমান বিধ্বস্ত ইরাকে মার্কিন দূতাবাসে রকেট হামলা ফেসবুকের মেসেঞ্জারে ডিজিটাল বিপদ! বিয়ের আগেই কনের মাকে নিয়ে পালালেন বরের বাবা বাংলাদেশে এসেছিলেন জঙ্গিদের সহায়তায় গ্রেফতার ভারতীয় পুলিশকর্তা সোলাইমানি হত্যায় পাকিস্তানের প্রতিক্রিয়া মার্কিন সেনাঘাঁটিতে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলার ভিডিও প্রকাশ দুই যুগ পর খোঁজ মিলল সেই লিমার মোগাদিসুতে গাড়িবোমা হামলায় নিহত ৭৬ মাহাথিরকেও হত্যা করতে পারে যুক্তরাষ্ট্র!
আরও সংবাদ...


Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TVEnglish DMCA.com Protection Status
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
উপরে