সম্পূর্ণ নিউজ সময়
স্বাস্থ্য
২৩ টা ৩৯ মিঃ, ২৮ অক্টোবর, ২০১৯

গ্রামীণ জিসি চক্ষু হাসপাতালের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ

বগুড়ায় গ্রামীণ জিসি চক্ষু হাসপাতালের চিকিৎসা নিয়ে নানা অভিযোগ উঠেছে। দীর্ঘদিন চিকিৎসার পরও চোখ ভালো না হওয়া, অপারেশনের পর অনেকে অন্ধ হয়ে যাওয়া, হাসপাতাল থেকে ওষুধ, চশমা কিনতে বাধ্য করাসহ নানা অভিযোগ ভুক্তভোগীদের। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছেন সব চিকিৎসায় শতভাগ সফল হয় না, তারা সাধ্যমতো ভালো চিকিৎসা দিচ্ছেন। আর সিভিল সার্জন বলছেন, কোনো লিখিত অভিযোগ আসেনি। অনিয়ম হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
Somoy News
মাজেদুর রহমান

গ্রামীণ ব্যাংকের সহযোগী সংস্থা গ্রামীণ হেলথ কেয়ার সার্ভিসের অধীন বগুড়া গ্রামীণ জিসি চক্ষু হাসপাতাল। এ হাসপাতালে তিন শ্রেণি বিন্যাসে চিকিৎসা দেয়া হয়। ধনী, সাধারণ মানুষ এবং শিশুদের জন্য। ফিসও তাই আলাদা। সাধারণ এবং শিশু ক্যাটাগরিতে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন হেলথ অ্যাসিস্টেন্ট এবং নবাগত ডাক্তার। ধনীদের জন্য দেখছেন অপেক্ষাকৃত ভালো ডাক্তার। সাধারণ ক্যাটাগরি এবং শিশু ক্যাটাগরিতে চিকিৎসা নিয়ে অনেক রোগী এখন চোখ নিয়ে নানা জটিলতায় ভুগছেন।

হাসপাতাল ব্যবস্থাপক বলছেন, শতভাগ আপারেশনই যে সফল হবে এমন নয়। তবে ভালো সেবা দেওয়ার চেষ্টা রয়েছে তাদের।

বগুড়ার গ্রামীণ জিসি চক্ষু হাসপাতালের ম্যানেজার মিরাজুর রহমান বলেন, চিকিৎসায় সফলতা-ব্যর্থতা থাকবেই। তবে সমস্যা হলে আমরা চেষ্টা করি সিনিয়রদের পরামর্শ নিয়ে ভালো সেবা দেয়ার।

জেলার শীর্ষ স্বাস্থ্য কর্মকর্তা বলছেন, এখনো ওই হাসপাতালে যেতে পারেননি তিনি। লিখিত অভিযোগ এলে এবং অনিয়ম হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বগুড়ার সিভিল সার্জন ডা. মো. গওসুল আজিম চৌধুরী বলেন, অভিযোগটি আমরা তদন্ত করে দেখব। এর সত্যতা পাওয়া গেলে প্রচলিত নিয়মানুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জেলার শাজাহানপুর উপজেলার বেতগাড়ীতে ২০০৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় হাসপাতালটি। অপারেশন প্যাকেজ ভেদে নেয়া হয় ৫ হাজার থেকে ৯৫ হাজার টাকা পর্যন্ত। হাসপাতালে ডাক্তার রয়েছেন আটজন।

© ২০২১ সময় মিডিয়া লিমিটেড
সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত
DMCA.com Protection Status
সময় মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন
Somoy Tv App PlayStore Somoy Tv App AppleStore
ফলো সামাজিক সময়