সম্পূর্ণ নিউজ সময়
বাংলার সময়
১৪ টা ২৫ মিঃ, ১৯ জুন, ২০১৯

ক্লাবফুট আক্রান্ত শিশুদের পাশে শজিমেক

জন্মগত প্রতিবন্ধিতার মধ্যে অন্যতম ক্লাবফুট বা মুগুর পা। এমন পা নিয়ে জন্ম নেয়া শিশুদের পরিবার ও সমাজে গ্রহণযোগ্যতার জন্য প্রতিনিয়ত লড়াই করতে। এসব শিশুদের সুন্দর ভবিষ্যৎ গড়ার সুযোগ করে দিচ্ছেন বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজের একদল চিকিৎসক। একটি বেসরকারি সেবা সংস্থার সহায়তায় বিনা পয়সায় সেবা দিচ্ছেন তারা ।
Somoy News
মাজেদুর রহমান

ক্লাবফুট নিয়ে জন্ম নেওয়া সানজিত আহম্মেদ-এর বাবা চয়ন প্রামানিক বলেন, আমার সন্তান এখন অনেক সুস্থ। হাঁটতে পারছে, চলতে পারছে। 

সানজিদকে নিয়ে চয়ন-লাকী দম্পতির মতো আরো অনেক বাবা মার চোখে মুখে হতাশা ছিল এমন প্রতিবন্ধিতা নিয়ে। ক্লাবফুট বা মুগুড় পা শিশুর পরিবারকে কটুক্তি শুনতে হয়েছে অনেক। চিকিৎসা নিয়ে স্বাভাবিক চলাফেরায় এখন হতাশা থেকে মুক্তি পেয়েছেন তারা।

বেশ কয়েকজন অভিভাবক জানান, অপারেশন করার পর তাদের বাচ্চারা অনেক ভাল আছে।

চিকিৎসার মাধ্যমে সুস্থ হয়ে ওঠা এক শিশু বলে, এখন আর বন্ধুরা আমাকে অবহেলা করে না। আমি ওদের সাথে খেলতে পারি।  

প্রতিবছর প্রায় ৪ হাজার ক্লাবফুট শিশু জন্ম নেয় বাংলাদেশে। এসব শিশুদের বিনা পয়সায় চিৎিসাসেবা দিতে কাজ করছে দি গ্লেনকো ফাউন্ডেশন ওয়াক ফর লাইফ প্রকল্প। ২০২১ সালের মধ্যে প্রতিটি ক্লাবফুট শিশুকে তারা স্বাভাবিক করে গড়ে তুলতে চায় বলে জানান সংস্থার কর্মকর্তা। 

ক্লিনিক ম্যানেজার মমতাজ সুলতানা বলেন, যে ক্লাবফুট শিশুরা এরমধ্যেই জন্ম নিয়ে ফেলেছে, তারা কেউ যেন প্রতিবন্দী হয়ে পড়ে না থাকে, বাংলাদেশে যেন পঙ্গুত্ব না বৃদ্ধি পায়, তাদেরকে যেন আমাদের মতো একটা সুস্থ জীবন ফিরিয়ে দিতে পারি, সেজন্য তাদের সবাইকে চিকিৎসার আওতায় নিয়ে আসা।

বাঁকা পা-য়ে মাত্র কয়েকবার প্লাষ্টার, আউটডোর অপারেশন এবং বিশেষ জুতা ব্যবহারের মাধ্যমে চার থেকে পাঁচ বছরের মধ্যে শিশুদের স্বাভাবিক অবস্থায় ফেরানো সম্ভব। 

বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজের অর্থো-সার্জারির বিভাগীয় প্রধান ডা. রেজাউল আলম জুয়েল বলেন,  তিনবছর বয়স পর্যন্ত বাচ্চাদের চিকিৎসা করালে এটি ভাল। এক সপ্তাহ পর পর প্লাস্টার দেয়া হয়। প্লাস্টারের পর ছোট্ট একটা অপারেশন করা হয়। তাদের চার বছর বয়স পর্যন্ত এই ব্রেসটা তাদের দেয়া হয়।

দি গ্লেনকো ফাউন্ডেশেন ,ওয়াক ফর লাইফ এর  সহয়তায় ২০১২ সাল থেকে বগুড়ায় চিকিৎসা সেবা শুরু করে। এ পর্যন্ত ৭শ’ ৩ জন শিশুকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে এনেছে তারা।  

© ২০২১ সময় মিডিয়া লিমিটেড
সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত
DMCA.com Protection Status
সময় মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন
Somoy Tv App PlayStore Somoy Tv App AppleStore
ফলো সামাজিক সময়