মেহেদী হাসান
আপডেট
২৭-১০-২০১৮, ১৪:২৫

মৃত্যুশয্যায় কিডনি হারানো সেই মা, মীমাংসায় টাকা অফার চিকিৎসকের!

মৃত্যুশয্যায় কিডনি হারানো সেই মা, মীমাংসায় টাকা অফার চিকিৎসকের!
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে একটি কিডনির অপারেশনে দুটি কিডনিই হারানো রওশন আরা বেগম এখন গভীর কোমায়।চিকিৎসাশাস্ত্রের ভাষায় বিষয়টিকে ‘ডিপ কোমা’ বলে আখ্যা দেয়া হলেও ভুক্তভোগীর ছেলের দাবি তার মা ‘ক্লিনিক্যালি ডেড’।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত চিকিৎসক ওই সময় রোগীর কিডনি উধাওয়ের ঘটনা অস্বীকার করলেও পরবর্তীতে বিষয়টি সংবাদমাধ্যমে প্রচার হওয়ায় এবং রোগীর ছেলের পক্ষ থেকে আইনি নোটিশ পাঠানোর পর তাড়াহুড়ো করে ক্ষতিপূরণ দিয়ে কিডনি প্রতিস্থাপনের চুক্তিনামা করেছিলেন। স্ট্যাম্পে করা ওই চুক্তিনামায় চিকিৎসক কর্তৃক অনাকাঙ্ক্ষিভাবে কিডনি হারানোর কারণেই ক্ষতিপূরণ দেয়ার কথা উল্লেখ থাকলেও অভিযুক্তের দাবি, তিনি রোগীকে ছোটবোন মনে করেই ওই টাকা দিতে সম্মত হয়েছিলেন।

কিডনি জটিলতার কারণে গেল ৫ সেপ্টেম্বর রাজধানীর বিএসএমএমইউ হাসপাতালে চলচ্চিত্র পরিচালক রফিক সিকদারের মা রওশন আরা’র অস্ত্রোপচার করেন হাসপাতালের কিডনি ট্রান্সপ্ল্যান্ট বিভাগের প্রধান হাবিবুর রহমান দুলাল। কিন্তু অস্ত্রোপচারের পর রোগীর দেহে জটিলতা সৃষ্টি হওয়ায় অন্য চিকিৎসককে দেখিয়ে এবং পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে রফিক শিকদার এটা নিশ্চিত হন যে, অস্ত্রোপচারে তার মায়ের বাম কিডনিটি ফেলে দেয়ার কথা থাকলেও অস্ত্রোপচারের পর থেকে ডান কিডনিটিও অনুপস্থিত।

বিষয়টি নিয়ে তখন হাবিবুর রহমান দুলালের সঙ্গে একাধিকবার কথা বলা হলেও তিনি দাবি করেন, রওশন আরা’র একটি কিডনিই ফেলে দেয়া হয়েছে এবং তার অপর কিডনিটি এখনও দেহেই আছে। তবে অপারেশনের পর নন ভিজ্যুয়ালাইজ (দেখা না যাওয়া) হওয়ায় মনে হচ্ছে দেহে কিডনিটি নেই। তবে ডান কিডনি তার দেহেই রয়েছে। এ ঘটনায় হাসপাতালের পক্ষ থেকে সাত সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি ও ছয় সদস্যের একটি মেডিকেল বোর্ডও গঠন করা হয়।


তবে হাবিবুর রহমান ভুল বোঝাচ্ছেন বলে দাবি করে যাচ্ছিলেন রফিক সিকদার। হাবিবুর রহমানের দেয়া যুক্তির সঙ্গে এক মত ছিলেন না অন্য চিকিৎসকরাও। পরবর্তীতে রফিক শিকদার বিষয়টি নিয়ে আদালতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। এর প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে ২৯ সেপ্টেম্বর রফিক সিকদার আইন ও সালিশ কেন্দ্রের মাধ্যমে অভিযুক্ত চিকিৎসক হাবিবুর রহমানকে একটি আইনি নোটিশ পাঠান। ওই নোটিশে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বিষয়টির সুরাহা করার কথা উল্লেখ ছিল।

এ বিষয়ে রফিক সিকদার সময় নিউজকে বলেন, হাবিবুর রহমান আইনি নোটিশ পাওয়ার পরপরই পরিচালক সমিতির সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করেন। তিনি নিজের দোষ স্বীকার করেন এবং আমার মায়ের কিডনি ট্রান্সপ্ল্যান্টের সব খরচ বহনসহ যিনি কিডনি দেবেন তাকে আট লাখ টাকা দিতে সম্মত হন।

বিষয়টি নিয়ে অক্টোবরের ১ তারিখ ১০০ টাকার তিনটি স্ট্যাম্পে একটি চুক্তিনামা হয়। চুক্তিনামায় উল্লেখ থাকা দুই পক্ষের মধ্যে রোগীর হয়ে সেখানে সই করেন রফিক সিকদার এবং অপরপক্ষ হাবিবুর রহমান দুলাল।



রোগীর সন্তান রফিক সিকদারের সঙ্গে অভিযুক্ত চিকিৎসক হাবিবুর রহমান দুলালের চুক্তিনামা

ওই চুক্তিনামায় উল্লেখ করা হয়, উভয়পক্ষের সম্মতিতে প্রথমপক্ষ চিত্রপরিচালক রফিক সিকদার এর মাতা রওশন আরা বেগম, স্বামী- মো. ওয়াজেদ আলী সিকদার, ঠিকানা. গ্রাম-আহাম্মদপুর, থানা- আমিনপুর, জেলা-পাবনা এর চিকিৎসা ক্ষেত্রে তাহার বাম কিডনি অপারেশন করার পর চিকিৎসক কর্তৃক অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে উভয় কিডনি হারানো রোগীকে (রওশন আরা বেগম) নিয়ে সৃষ্ট জটিলতা নিরসনের জন্য উভয়পক্ষের সম্মতিক্রমে নিম্নবর্ণিত শর্ত সাপেক্ষে এই চুক্তিপত্র সম্পাদিত হইল।

সেখানে দুটি শর্তের কথা উল্লেখ করা হয়। প্রথম শর্তে বলা হয়, চিত্রপরিচালক রফিক সিকদারের খালা মোসাম্মৎ জায়েদা বেগম এর স্বেচ্ছায় বোনের জন্য কিডনি প্রদানের সম্মতিক্রমে প্রথমপক্ষ রফিক সিকদার এর মাতার পরবর্তী চিকিৎসা প্রদান (কিডনি প্রতিস্থাপন) বাবদ যাবতীয় খরচাদি দ্বিতীয়পক্ষ বহন করিতে বাধ্য থাকিবে। এখানে উল্লেখ থাকে থাকে যে, অত্র চুক্তিপত্রের সময়কাল হতে রোগীর কিডনি প্রতিস্থাপন’সহ এর পরবর্তী সকল চিকিৎসার ব্যয়ভার দ্বিতীয়পক্ষ বহন করিতে বাধ্য থাকিবে। এখানে কোনোভাবে দ্বিতীয়পক্ষ ওজর আপত্তি করিতে পারিবেন না। এখানে আরও উল্লেখ থাকে যে, কিডনি প্রদানকারী জায়েদা বেগম, (রোগীর ছোটবোন)’কে নগদ ৮ লাখ টাকা প্রদানসহ অপারেশন পরবর্তীতে তাহার সম্পূর্ণরূপে সুস্থ না হওয়া পর্যন্ত চিকিৎসা সংক্রান্ত যাবতীয় খরচাদি দ্বিতীয়পক্ষ বহন করিবে।

দ্বিতীয় শর্তে বলা হয়, রোগীর সন্তান প্রথমপক্ষ চিত্রপরিচালক রফিক সিকদার দ্বিতীয়পক্ষ প্রফেসর হাবিবুর রহমান দুলালকে মানসিক ও শারীরিকভাবে সহযোগিতা প্রদান করিবেন।

রফিক সিকদার জানান, এই শর্তের পর হাবিবুর রহমান দুলাল পরিচালক সমিতির কাছে ৮ লাখ টাকার একটি চেক প্রদান করেন। তবে ওই চেক ক্যাশ করতে নিষেধ করে দেন এবং বলেন, তিনি বলার পরই যেন টাকাটা ক্যাশ করা হয়। ওই চুক্তিনামার পর থেকেই হাবিবুর রহমান দুলাল বিভিন্ন টালবাহানা শুরু করেন। তিনি কিডনি প্রতিস্থাপনের জন্য সময়ক্ষেপণ করতে থাকেন। বিষয়টি নিয়ে তাকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, অস্ত্রোপচারের জন্য দরকারি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে সিরিয়াল পাওয়া যাচ্ছে না।

রফিক সিকদার আরও বলেন, যখন হাবিবুর রহমান আমাকে সিরিয়াল না পাওয়ার দোহাই দিচ্ছিলেন তখন আমি তাকে বলি, দরকার হয় আপনি বেসরকারি হাসপাতালে কিডনি প্রতিস্থাপন করেন, যা খরচ হয় সব আমিই দেব। কিন্তু তিনি তাতেও রাজি হননি। এদিকে আমার মায়ের অবস্থা ক্রমাগত খারাপ হতে থাকে। গত বুধবার দিবাগত রাত থেকে তার কোনো হুঁশ নেই। তিনি ক্লিনিক্যালি ডেড।

বিষয়টি নিয়ে অভিযুক্ত হাবিবর রহমান দুলাল বলেন, অস্ত্রোপচারের পর আমি মনে করেছিলাম তার কিডনি দেহেই রয়েছে, কিন্তু নন-ফাংশনাল হয়ে আছে। কিন্তু সপ্তাহখানেক পর নিশ্চিত হই তার দেহে কিডনি অনুপস্থিত। তবে অস্ত্রোপচারের আগের রিপোর্টে তার দেহে দুটি কিডনিই রয়েছে বলে দেখা গেছে।

তবে দুটি কিডনিই অনুপস্থিত এটি জানার পর প্রতিস্থাপনে দেরি কেন? এর ব্যাখ্যায় হাবিবুর রহমান বলেন, রাতারাতি কারও কিডনি প্রতিস্থাপন করা সম্ভব নয়। ডোনার পরীক্ষাসহ আমরা সব ধরনের পরীক্ষা সম্পন্ন করেছিলাম। সবকিছু শেষে কিডনি প্রতিস্থাপনে তিন সপ্তাহ সময় গণনা শুরু হয়েছিল। সেই সময়ের দুইদিন যেতেই রোগী খুব অসুস্থ হয়ে পড়েন। এখন তিনি ডিপ কোমায় রয়েছেন।

কিডনি উধাও হওয়ার ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে হাবিবুর রহমান দুলাল বলেন, জন্মগতভাবেই তার দুটি কিডনি একসঙ্গে ছিল। সেটা হাসপাতালে ভর্তির পূর্বে রফিক সিকদারের করানো একটি পরীক্ষায় ধরা পড়লেও সেটি আমরা দেখিনি। সেটা আগে না জানলে অস্ত্রোপচারের সময় বোঝা যায় না।

তবে নিজের ভুল না থাকলেও কেন টাকা দিতে চেয়ে চুক্তিনামা? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, রফিক সিকদারের খালার সন্তানরা তার দেখাশোনা করেন না। আর তাদের আর্থিক অবস্থা খারাপ হওয়ায় আমি নিজে থেকেই টাকা দিতে সম্মত হয়েছি। আমি তাকে নিজের ছোট বোনের মতো ভেবেছি।

এ বিষয়ে বিএসএমএমইউ’র উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া সময় নিউজকে বলেন, এ ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটির প্রধান হারুনুর রশিদ দেশের বাইরে আছেন। তিনি দেশে ফিরে প্রতিবেদন জমা দিলে সেখানে কোনো গাফিলতি পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে। দায় স্বীকার করে হাবিবুর রহমান কোনো চুক্তিনামা করেছেন বলে আমার জানা নেই। তবে কেবলমাত্র তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে গাফিলতির প্রমাণ পাওয়া গেলেই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

রোগীর সর্বশেষ অবস্থা সম্পর্কে তিনি বলেন, রওশন আরা’র একটি স্ট্রোক হয়েছে বলে জেনেছি। তার চিকিৎসায় সকালে একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। তিনি আইসিইউ’তে আছেন।

তবে তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন প্রকাশ পাওয়ার আগেই প্রতিবেদনের ফল নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন রফিক সিকদার। তিনি বলেন, মানবদেহের অর্গান প্রতিস্থাপন সংস্থার প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন তদন্ত কমিটির প্রধান হারুনুর রশিদ। ওই সংস্থারই সেক্রেটারি হিসেবে আছেন হাবিবুর রহমান দুলাল। সুতরাং এ তদন্ত প্রতিবেদন ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা হতে পারে বলে আমি মনে করছি।

রফিক বলেন, হাবিবুর রহমান ইচ্ছা করেই আমার মায়ের কিডনি সরিয়েছেন। আরও অনেক রোগীর সঙ্গেই হয়তো এমন ঘটনা ঘটেছে। প্রকাশ্যে না আসায় এমন অনেক ঘটনাই হয়তো ধামাচাপা পড়ে যাচ্ছে। তার কারণে আমার মা আজ মৃত্যুশয্যায়। আর কোনো মা’কে যাতে চিকিৎসকদের কারণে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়তে না হয় সেজন্য আমি আন্দোলন করব।



DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ
করোনা ভাইরাস লাইভ আপডেট
আক্রান্ত চিকিৎসাধীন সুস্থ মৃত্যু
৩৫৬৭৬৭ ৮৯৭৪৩ ২৬৭০২৪ ৫০৯৩
বিস্তারিত
এই দিনে ভূমিকম্পে এক লাখ লোক মারা যান চীনে আগস্টে চীনের শিল্পখাতের মুনাফা বেড়েছে ১৯ শতাংশ ‘খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার অবনতি, খেতে-হাঁটতে পারছেন না’ দেয়াল চাপা পড়ে দুই সন্তানসহ স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু কন্যার মনে কষ্টের দিনে স্ত্রীর কাজে হতভম্ব মেষ জয় দিয়ে মৌসুম শুরু ইন্টার মিলানের রামোসের পেনাল্টিতে রিয়ালের কষ্টার্জিত জয় ৩ গোলে পিছিয়ে থেকেও হার এড়ালো চেলসি প্রথম জয় পেল কলকাতা নাইট রাইডার্স হিন্দু ভাইয়ের মুখাগ্নি করলেন মুসলিম বোন জলবায়ু রক্ষায় 'ফ্রাইডে ফর ফিউচার' করোনার রেশ কাটাতে খেলাধুলায় ঝুঁকছেন আমিরাতের প্রবাসী বাংলাদেশিরা সিংহের লেজ নিয়ে নাড়াচাড়া করবেন না: ট্রাম্পকে ইরানের হুঁশিয়ারি আশুগঞ্জে ব্যাংকের নিরাপত্তাকর্মীর হাত পা বাধা রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার নির্বাচনী ডামাডোল, প্রান্তিক পর্যায়ে প্রচারণা শেষে ঢাকায় মতবিনিময় ফুটবল বিশ্বকাপে ৫০টি দেশ খেলানো হবে প্রেমিকার অন্যত্র বিয়ে হওয়ায় তরুণের আত্মহত্যা শেষ হলো শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক অনলাইন দাবা প্রতিযোগিতা রাদ-৫০০ মিসাইল প্রদর্শন করলো ইরান মেয়াদোত্তীর্ণ আকামাধারীরা কুয়েতে প্রবেশ করতে পারবেন না সুপার সানডেতে লেস্টার সিটির প্রতিপক্ষ ম্যানসিটি সংগীত পরিচালক শওকত আলী ইমন গ্রেফতার ৪ নয় ৩ বছরে ইতালিয়ান পাসপোর্ট! ৩৮০ কোটি টাকা জিততে কোর্টে নামছেন টেনিস তারকারা কক্সবাজারের ৮ থানায় নতুন ওসি নিয়োগ শুটিংয়ের ফাঁকে মাদক সেবন করতেন সুশান্ত: দাবি সারা-শ্রদ্ধার কোম্পানীগঞ্জে গৃহবধূকে ছুরিকাঘাতে হত্যা টিম হোটেল ছাড়ছেন ক্রিকেটাররা ভাসুরের বিরুদ্ধে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা কোদাল দিয়ে চুল কেটে দিলো কিশোরকে, রাতভর নির্যাতন! (ভিডিও) দেশে শুরু হচ্ছে ক্রিকেট আমির খানের দেহরক্ষী ছিলেন ‘আদালতে’র কেডি পাঠক বদলে যাচ্ছে উইকিপিডিয়া ঝিনাইদহে সহস্রাধিক ইয়াবাসহ ২ নারী আটক নোয়াখালীতে ভুয়া এনএসআই কর্মকর্তা আটক জামানত ছাড়াই পাবেন ৫০ হাজার টাকা ঋণ! ঠাকুরগাঁওয়ে বজ্রপাতে দুইজনের মৃত্যু করোনা ভ্যাকসিনকে বৈশ্বিক সম্পদ বিবেচনা করা প্রয়োজন: শেখ হাসিনা ফরিদপুর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মাসুম গ্রেফতার ভারতের ভ্যাকসিন সমগ্র মানবজাতির জন্য: মোদি আইএস কে অর্থ সরবরাহ করেছিল ডয়েচ ব্যাংক? বিভিন্ন অপরাধে ২৮টি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা ২০১৯ সালে বাংলাদেশে ৮ হাজার কোটি সিগারেট বিক্রি! ৮ অক্টোবর থেকে ইতালির সঙ্গে বিমান চলাচল করোনায় মৃত্যুঝুঁকি কমায় ভিটামিন ডি, দাবি গবেষকদের নাটকীয় জয় পেল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড মেসিকে পাল্টা জবাব দিলেন কোম্যান জিহাদি বইসহ ওলামা মাশায়েখের দুই সদস্য আটক এমসি কলেজে ধর্ষণের ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার বন্ধে চালু হয়েছিল ‘ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ’ টিকেট দেড়শ’, অপেক্ষায় কয়েক হাজার সৌদি যাত্রী! ফতুল্লায় কিশোর গ্যাংয়ের ২০ সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা ৩২ সৌদি প্রবাসীকে রেখেই উড়ল উড়োজাহাজ! কুমিল্লায় ৪ প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল করোনা রোধে কার্যকর রেশম কাপড়ের মাস্ক, দাবি গবেষকদের সমুদ্র সৈকতে অর্ধগলিত লাশ সৌদিতে আরও একটি বিশেষ ফ্লাইটের ঘোষণা আনুষ্ঠানিকভাবে সুয়ারেজ এখন অ্যাতলেটিকোর ফেসবুকে অ্যাক্টিভ ধর্ষণের আসামিরা, খুঁজে পাচ্ছে না পুলিশ! কৃষি কর্মকর্তার ঘুষ নেওয়ার ভিডিও ভাইরাল ‘ডুব’ নিয়ে এনসিবি’কে কী জানালেন রাকুলপ্রীত ‘গণধর্ষণ যারা ঘটিয়েছে তারা ছাত্রলীগের নেতা না’ ধনকুবের থেকে পথে বসার উপক্রম ‘অনিল আম্বানি’র চীনের অস্ত্র পাকিস্তান ড্রোনের মাধ্যমে ছড়িয়ে দিচ্ছে কাশ্মীরে! ‘ইসরাইলের সঙ্গে চুক্তি ইসলামের ক্ষতিসাধনের হাতিয়ার’ দুর্গাপুরে বজ্রপাতে শিক্ষার্থীর মৃত্যু প্রেমিকের বাড়িতে অনশনে স্কুলছাত্রী সুন্দরব‌নের অভয়ারণ্য থে‌কে ৫ জেলে আটক মাদক মামালায় জিজ্ঞাসাবাদে কী বললেন শ্রদ্ধা কাপুর? মুমূর্ষু স্বামীর জন্য রক্ত দেয়ার কথা বলে স্ত্রীকে ধর্ষণ মাত্র ৭ দিনে করোনা সংক্রমণ বেড়েছে ৬.৮ শতাংশ! রইলেন কেবল মেসি! দফায়-দফায় বন্যায় নিঃস্ব লালমনিরহাট-কুড়িগ্রাম বাংলাদেশকে ২০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক ভারতের মুসলিমবিরোধী নৃশংসতা, বিশ্ববাসীকে সতর্ক করলেন ইমরান খান খুলনার পথে পথে মাইকেল জ্যাকসন! নারী-শিশুসহ ৬২ জনকে হত্যা করল হাউথিরা জিভে জল আনবে ইলিশের কোরমা সময় ৩ ঘণ্টা, করোনা নেগেটিভ সনদ নিয়েই দৌড়! শ্রীবরদীতে গৃহকর্মী নির্যাতন, আ.লীগ নেতার স্ত্রী গ্রেফতার পদ্মায় নৌকাডুবির ঘটনায় ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা পরিবেশ রক্ষায় জার্মানিতে 'ফ্রাইডে ফর ফিউচার' সমাবেশ তরুণীকে গণধর্ষণ: এমসি কলেজে বিক্ষোভ শিক্ষার্থীদের গণফোরামে ভাঙন! কাকলী প্রধানের ১০০ নদীর উন্মুক্ত আলোকচিত্র প্রদর্শনী রোববার সংসারের খরচ কমানোর ১৫ উপায় মিশরে সরকার পতনের দাবির মিছিলে পুলিশের গুলি নীলা হত্যাকাণ্ডে আসামি মিজানুর ৭ দিনের রিমান্ডে কুকুর অপসারণের বিরোধিতা করে রাজধানীতে মানববন্ধন নেত্রকোনায় পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু গ্যাসের ব্যথা-না হার্টের, বুঝবেন যেভাবে মৌলভীবাজার জেলা পরিষদ উপ-নির্বাচনে দু’জনেরই প্রার্থিতা বৈধ প্যারিসে ছুরি হামলায় পাকিস্তানি তরুণসহ আটক ৭ চাকরি হারাচ্ছেন মাদকসক্ত ২৬ পুলিশ ‘মাদকে জড়িত’ মেয়ে সারার পাশে আছেন সাইফ হালিমার শেষ সম্বলটুকুও কেড়ে নিল যমুনা কৃষি সংস্কার বিলের বিরুদ্ধে ভারতজুড়ে কৃষক বিক্ষোভ রাজশাহীতে আরও ৫৬ জনের করোনা শনাক্ত অবশেষে মাদকের বিষয়ে মুখ খুললেন করণ জোহর গোপালগঞ্জে অজ্ঞাতপরিচয় নারীর মরদেহ উদ্ধার
আরও সংবাদ...
ভিসা ছাড়াই বাংলাদেশি নাগরিকরা ভ্রমণ করতে পারবেন যে ৪১ দেশ ভারত থেকে লন্ডন যেতে বাস সার্ভিস চালু ৩০ মিনিটে এনআইডির অসুন্দর ছবি বদলে ফেলুন বাংলাদেশকে ১৬ আনাই ফাঁকি দিয়েছে ভারত! ডাচ্-বাংলা-আইবিএলসহ ৫ ব্যাংকে লেনদেন সীমিত করা হয়েছে ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলমকে নোটিশ মোবাইল কিনতে শিক্ষার্থীদের ১০ হাজার টাকা করে ঋণ দেয়ার সিদ্ধান্ত বাইকার ফারহানা ‘নববধূ’ নয়, বিয়ে তিন বছর আগে, রয়েছে সন্তানও ‘দুই আর দুই পাঁচ’ বলছেন শাহেদ ডাল-আলু ভর্তা খেয়ে মাকে টাকা পাঠান সৌদি প্রবাসী কিশোর (ভিডিও) দেখা মিলল বিশ্বের সবচেয়ে বড় নীল তিমির (ভিডিও) ওয়াইফাই ইন্টারনেটের গতি বাড়ানোর কৌশল আল বুখারি বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর হলেন ড. ইউনূস দু'বোনের মারামারিতে দেরিতে ছাড়ল বিমান (ভিডিও) শিক্ষার্থীদের এক হাজার করে টাকা দেবে সরকার চেয়ার ছেড়ে পালালেন জায়েদ খান! মিয়া খলিফাকে খুঁজছে মার্কিন সেনারা (ভিডিও) সুশান্তের মৃত্যু: ‘আওয়াজ আসলেই তালা ভাঙা বন্ধ করে দিও’ (ভিডিও) মসজিদের একটি এসিও বিস্ফোরিত হয়নি এক সপ্তাহ পরেই বদলে যাচ্ছে ফেসবুক, বাধ্যতামূলক নতুন ডিজাইন ঘুষের ৫০ হাজার টাকা না দেয়ায় ঝরল ১৮ প্রাণ, শঙ্কা আরো! গ্রিসের ছয়টি যুদ্ধবিমানকে তুরস্কের ধাওয়া (ভিডিও) খোঁজ মিলেছে অভিনেতা শুভর মেসি-বার্সা ইস্যুতে নাটকীয় মোড়! পৃথিবীর সবচেয়ে বিষাক্ত সাপের দেখা মিলল সমুদ্রে জয়কে সাতদিনের আলটিমেটাম, নিঃশর্ত ক্ষমা না চাইলে মামলা এবার ভারতের প্রদেশের মালিকানা দাবি করল চীন মেয়েসহ দেশ ছাড়লেন মিথিলা গভীর রাতে বাসভবনে ঢুকে ইউএনওকে হাতুড়ি পেটা জাদুকরি পরিবর্তন ঘটে সকালে কুসুম গরম লেবু পানিতে দেশে পাঁচ রকম করোনা ভাইরাসের সন্ধান চাঁদে পড়ছে মরচে! বাংলাদেশি ভ্যাকসিন কবে আসবে জানালেন আসিফ মাহমুদ লাইভ কনসার্টে টাকা ছুঁড়লেন দর্শক, উচিৎ শিক্ষা দিলেন অরিজিৎ (ভিডিও) দেশে বিমান তৈরি শুরু হবে ২০২১ সালে (ভিডিও) তুরস্ককে চারদিকে ঘিরে ফেলছে ফ্রান্স? পছন্দের রঙ বলে দেয় ব্যক্তিত্ব কেমন আড়াইহাজারে এশিয়ার সবচেয়ে বড় বিদেশি বিনিয়োগ! মোবাইল কিনতে ‘ঋণ’ দিচ্ছে রবি ইসরায়েল-আমিরাতের চুক্তি, মুখ খুললো সৌদি শোক দিবসে তারকাদের আচরণে সমালোচনার ঝড় সময় টিভিতে তিন ক্যাটাগরিতে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি সুশান্ত হত্যায় নাম জড়াল ভারতীয় খেলোয়াড়ের! নতুন নিয়মে ট্রেনের টিকিট-ভ্রমণ করবেন যেভাবে রিয়াকে জড়িয়ে ধরা মহেশ ভাটের ভিডিও ভাইরাল দেশে আরো একটি গাধার জন্ম সুশান্তের মৃত্যু: সন্দীপের সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট প্রকাশ তুরস্কের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় গ্যাস ক্ষেত্রের সন্ধান এসি বিস্ফোরণের কারণ ও রক্ষা পেতে যা করবেন প্রাথমিক বিদ্যালয় খোলার প্রস্তুতির নির্দেশ
আরও সংবাদ...


মেনে চলি

Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  EnglishLive TV DMCA.com Protection Status
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
উপরে