সম্পূর্ণ নিউজ সময়
বাংলার সময়
৭ টা ৫ মিঃ, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

ভারতে পাচার হওয়া পরশমনির বাংলাদেশে ফেরার আকুতি

ভারতের দক্ষিণ দিনাজপুরের চাইল্ড লাইনের হেফাজত থেকে ফিরতে চায় এক বাংলাদেশি কিশোরী। তার নাম পরশমনি আক্তার আলপনা (১৪)। বাড়ি সুনামগঞ্জ জেলার ধর্মপাশা থানার পাইকরহাট ইউনিয়নের রায়পুর গ্রামে। তাকে পাচার করে ভারতের বম্বে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল।
Somoy News
মাজেদুর রহমান


পরশমনি গেলো শুক্রবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বিকেলে সময় সংবাদকে জানান, ফেসবুকে পরিচয় হওয়ার পর দিনাজপুর জেলার চন্দাগড় এলাকার সাদিকুলের ছেলে দেলোয়ার হোসেন তাকে বিয়ে করে ২ দিন দিনাজপুরে রাখে। পরে দুজনেই মুম্বাই চাকরি করবে বলে পাচারের উদ্দেশে ভারতের দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার হিলি থানার লালপুরে ধরণি দাস ওরফে ধরর বাড়িতে নিয়ে যায় দেলোয়ার। ১ সেপ্টেম্বর দুপুরে তাকে রেখে খাবার আনতে যাবার কথা বলে বেরিয়ে পড়ে দেলোয়ার। রাতেও সে না ফিরলে মেয়েটি কান্নাকাটি শুরু করে। এরমধ্যেই মেয়েটির কাছ থেকে একটি দামী মোবাইল এবং ত্রিশ হাজার টাকা নিয়ে নেয় ভারতীয় দালাল ধরো।

বিষয়টি সেখানকার প্রতিবেশীরা জানতে পেরে ভারতের হিলি থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। মেয়েটি অপ্রাপ্ত বয়সের হওয়ায় পুলিশ চাইল্ড লাইন নামে একটি সংস্থার হেফাজতে দেয়। ইতোমধ্যে ভারতের দালালকে পুলিশ গ্রেফতার করে ১৫ হাজার টাকা উদ্ধার করেছে, কিন্তু কথিত স্বামীর কোনো খোঁজ মেলেনি।

চাইল্ড লাইনের কোঅর্ডিনেটর সুরজ দাস সময় সংবাদকে জানান, ‘নাবালিকাটির শরীরের বিভিন্ন জায়গায় মারধরের চিহ্ন পাওয়া গেছে। মেয়েটি তার বাড়ির ঠিকানা জানিয়েছে। তার বাবার নাম আব্দুল হান্নান মিয়া এবং মায়ের নাম আলেয়া খাতুন এবং অপর মার নাম দিলবানু। কথিত স্বামী দেলোয়ার হোসেন দিনাজপুর জেলা চান্দগড়। তার শ্বশুরের নাম সাদিকুল এবং শাশুড়ি আনোয়ারা।’

© ২০২১ সময় মিডিয়া লিমিটেড
সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত
DMCA.com Protection Status
সময় মোবাইল অ্যাপ ডাউনলোড করুন
Somoy Tv App PlayStore Somoy Tv App AppleStore
ফলো সামাজিক সময়