মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
শাশ্বত সত্য
আপডেট
২৩-০৪-২০১৮, ১৪:০৮

ধান ক্ষেতে মাছ চাষ, দুই ফসলেই অর্থপ্রাপ্তি

ধান ক্ষেতে মাছ চাষ, দুই ফসলেই অর্থপ্রাপ্তি
কৃষি প্রযুক্তি দিন দিন উন্নত হচ্ছে। এখন কেউ এক ফসল ঘরে তোলে না। সাথী ফসল চাষ করে দুই ফসল বা তিন ফসলের লাভ পায় কৃষকেরা। ঠিক তেমনই একটি নতুন পদ্ধতি ধান ক্ষেতে মাছ চাষ। জমিতে ধান চাষ করতে গেলে পানি লাগেই। আর এই পানি ব্যবহার করে মাছ চাষ সম্ভব। শুধু মানতে কিছু নিয়ম। আর এই প্রতিবেদনটি তাদের জন্যে যারা ধানের পাশাপাশি মাছ চাষ করে বাড়তি আয় করতে চান। সেই সঙ্গে নিজের মাছ উৎপাদন করার ভাল লাগাটায় আলাদা কিছু। আমন ও বোরো মৌসুমে ধানের সাথে কার্প জাতীয় মাছ ও গলদা চিংড়ি চাষ করা যায়। বছরে এ চাষ দুইবার করা সম্ভব। হাওড় অথবা নিচু জমিতে বোরো মৌসুমে ধানের সাথে মাছ চাষের যথেষ্ট সুযোগ আছে। সেচ ব্যবস্থা থাকলে উঁচু জমিতেও ধানের সাথে চাষ করা যায়। 
 


জমি নির্বাচন : যেসব জমিতে সারা বছর কিংবা কমপক্ষে ৪ থেকে ৬ মাস পানি থাকে বা ধরে রাখা যায় সেসব জমিতে ধানের সাথে অথবা ধানের পরে মাছ চাষের উপযোগী। জমির অংশ বিশেষ একটু বেশি নিচু অথবা জমির ভেতরে নালা কিংবা গর্ত আছে সেসব জমি গলদা চাষের জন্য বেশি উপযোগী। এঁটেল বা দো-আঁশ মাটির ধানক্ষেত সবচেয়ে ভালো। জমি বন্যামুক্ত হতে হবে। ধানক্ষেতের কাছাকাছি পানি সরবরাহ ও নির্গমন ব্যবস্থা থাকতে হবে। 


 জমির আইল তৈরি বা মেরামত : জমির আইল শক্ত, মজবুত ও উঁচু করতে হবে। আগে থেকে আইল বাঁধা থাকলে তা মেরামত করে নিতে হবে। জমির-তলা সমতল করতে হবে। সাধারণ বন্যায় যে পরিমাণ পানি হয় তার চেয়ে ৫০-৬০ সেন্টিমিটার উঁচু করে আইল তৈরি করা উচিত। মাছ ও গলদা চাষের জন্য পানির গভীরতা চাষ এলাকায় কমপক্ষে ১ মিটার হলে ভালো হয়। আইলের পাশে গোড়ার দিকে ৫০ সেন্টিমিটার এবং ওপরের দিকে ৩০ সেন্টিমিটার।


গর্ত বা নালা বা খাল খনন : ধানক্ষেতে মাছ ও গলদা চাষের জন্য আইল বা বাঁধের চারপাশে ভেতরের দিকে খাল অথবা সুবিধাজনক স্থানে এক বা একাধিক ডোবা বা গর্ত নির্মাণ করতে হবে।
 

জমির ঢালুর দিকে গর্ত বা ডোবা খনন করা উত্তম। মোট জমির শতকরা ১৫ ভাগ এলাকায় ডোবা ও নালা করতে হয়। ডোবা বা নালার গভীরতা ৫০-৬০ সেন্টিমিটার হলে ভালো হয়। ডোবার সাথে নালার সংযোগ থাকতে হবে। আইল থেকে নালা ১২০ সেন্টিমিটার দূরে থাকবে। নালা প্রশস্থ এবং হেলানোভাবে/ঢালু করে কাটতে হবে। মাছ বেশিরভাগ সময় এসব নিচু এলাকায় থাকবে এবং রাতে খাদ্য গ্রহণকালে কম পানি এলাকায় চলে আসবে। এ সব নিচু এলাকায় বা খালে পর্যাপ্ত পরিমাণে আশ্রয় স্থান তৈরি করে দিতে হবে। বর্ষার সময় ক্ষেত থেকে অতিরিক্ত পানি বের করার জন্য আইলের এক বা একাধিক স্থানে নির্গমন নালা রাখতে হবে। তলা থেকে ৩৫ সেন্টিমিটার উঁচুতে এ নালা করলে ক্ষেতে প্রয়োজন পরিমাণ পানি থাকবে। নির্গমন নালায় ৫ ইঞ্চি প্লাস্টিকের পাইপ বসিয়ে পাইপের মুখে তারের জাল দিতে হবে যাতে মাছ ও চিংড়ি বের না হতে পারে। 


৪. জমি তৈরি মাছের জন্য : ধানক্ষেতের উঁচু এলাকা ধানের জন্য এবং নিচু এলাকা গলদার জন্য উপযুক্তভাবে তৈরি করতে হবে। ধানের পরে গলদা চাষ করলে একইভাবে জমি তৈরি করতে হয়। প্রথমে জমির পানি নিকাশ করে শুকাতে হয়। প্রতি শতকে ১ কেজি হারে চুন প্রয়োগ করতে হবে। প্রয়োজনে হালকা সেচ দেয়া যেতে পারে। প্রতি শতকে ৫ কেজি হারে জৈব সার প্রয়োগ করতে হবে। ধাপে ধাপে পানি সরবরাহ করা। প্ল্যাঙ্কটন উৎপাদনের জন্য নিয়মিত সার প্রয়োগ করতে হবে।



জমি তৈরি ধানের জন্য : জমিতে প্রয়োজনমতো পানি দিয়ে ৩-৪টি চাষ ও মই দিয়ে মাটি থকথকে কাদাময় করতে হবে। জমি মই দিয়ে সমতল করতে হবে। ময়লা আবর্জনা আগাছা পরিষ্কার করতে হবে।


সার প্রয়োগ : সারের পরিমাণ ধানের জাতের ওপর নির্ভরশীল। উফশী জাতে যে পরিমাণ সার দিতে হয় গলদা চাষের জন্য এর চেয়ে ১৫% বেশি সার দিলে ভালো হয়।
 

সারণি : প্রতি হেক্টরে সারের পরিমাণ (কেজি)

সারের নাম  অনুমোদিত মাত্রা     ১৫% বাড়তি        মোট পরিমাণ       প্রয়োগ সময়

ইউরিয়া         ২০০                 ৩০                  ২৩০             তিন কিস্তিতে

টিএসপি        ১২০                  ১৮                  ১৩৮              শেষ চাষ

এমওপি         ৮০                   ১২                   ৯২               শেষ চাষ

জিপসাম        ৬০                    ৯                    ৬৯               শেষ চাষ


 ইউরিয়া ছাড়া অন্য সব সার সম্পূর্ণ জমি তৈরির শেষ চাষের সময় মাটিতে মিশিয়ে দিতে হয়। ইউরিয়া সমান তিনভাগ করে ধান রোপণের ১৫, ৩০ ও ৫৫ দিন পর ছিটিয়ে দিতে হবে। উপরি-প্রয়োগের সময় চিংড়িগুলো গর্ত ও নালায় নিয়ে যাওয়া প্রয়োজন।


ধানের জাত নির্বাচন : বোরো মৌসুমের জন্যÑ বিআর-১, বিআর-২, বিআর-৩, বিআর-৭, বিআর-৮, বিআর-৯, বিআর-১২, বিআর-১৪, বিআর-১৮, ব্রিধান-৩৫, ব্রিধান-৪৭ ও ব্রিধান-৫৫। আমন মৌসুমের জন্যÑ বিআর-৩, বিআর-৪, বিআর-১০, বিআর-১১, বিআর-২২, বিআর-২৩, ব্রিধান৪০, ব্রিধান৪১, ব্রিধান৪৪ ও ব্রিধান৫৬।
 

চারা রোপণ : কমপক্ষে এক মাস বয়সের চারা লাগানো দরকার। ধানের লাইন থেকে লাইনের দূরত্ব প্রায় ২৫ সেন্টিমিটার এবং লাইনে গোছার দূরত্ব প্রায় ১৫ সেন্টিমিটার হয়ে থাকে। এরূপ ২/৩টি করে চারা-মুক্ত গোছাগুলো রোপণ করা যেতে পারে; তবে আরও ভালো হয় জোড়ায় জোড়ায় সারিগুলো স্থাপন করলে। জোড়ার ভেতরে সারি দুটির দূরত্ব কমিয়ে বা ১৫ সেন্টিমিটার করে, এক জোড়া থেকে অপর জোড়ার দূরত্ব বাড়িয়ে ৩৫ সেন্টিমিটার করা যায়। এতে মাছ ও চিংড়ির চলাফেরা সুবিধা হবে এবং পানিতে প্রচুর সূর্যালোক পড়বে। এভাবে মাছ ও চিংড়ির খাদ্য দ্রুত বৃদ্ধি পেয়ে তার দৈহিক বৃদ্ধি দ্রুততর হবে।


পানি সরবরাহ : নদী-নালা, খাল-বিল, হাওর-বাঁওড় থেকে ছেঁকে পানি সরবরাহ করলে ভালো হয়। প্রথম অবস্থায় ৫-৬ সেন্টিমিটার পানি সরবরাহ করতে হয়। পরে ধান বৃদ্ধির অবস্থা অনুসারে পানি সরবরাহ করতে হয়। চারা রোপণের ১০-১৫ দিন পর ১০-১৫ সেন্টিমিটার পানি সরবরাহ করে মাছ ও চিংড়ির পোনা ছাড়তে হবে।


পোনা মজুদ : মাছ ও চিংড়ির পোনা ধানক্ষেতে ছাড়ার জন্য যেসব বিষয়ের প্রতি গুরুত্ব দিতে হবে-
পোনা ছাড়া ও মজুদের হার : ধানক্ষেতে শুধু চিংড়ির চাষ করতে হেক্টর-প্রতি ১০-১৫ হাজার পোনা ছাড়া যেতে পারে। প্রতি শতকে ৫০-৬০টি পোনা ছাড়তে হয়। পোনা কমপক্ষে ৫ সেন্টিমিটার লম্বা হওয়া উচিত। মাছ চাষের ক্ষেত্রে প্রতি শতকে রাজপুটি, নাইলোটিকা ও মিররকাপ ১০-১৫টি পোনা ছাড়তে হয়।


পোনা ছাড়ার নিয়ম : ক্ষেতে ধান রোপণের ২০-২৫ দিন পর চিংড়ির পোনা ছাড়া হয়। জমিতে ধানের চারা লেগে গিয়ে বেশ কিছুটা বেড়েছে এমন পর্যায়ই পোনা ছাড়া উপযুক্ত। কারণ খালি বা খোলা জমিতে পোনা না ছাড়াই ভালো। জমিতে পোনা ছাড়ার সবচেয়ে ভালো সময় সকাল ও বিকাল বেলা। যে পাত্রে পোনা আনা হয় তা ক্ষেতের পানিতে কিছুক্ষণ ডুবিয়ে রাখার পর যখন ক্ষেতের ও পাত্রের পানির তাপমাত্রা সমান হয় তখন পাত্রটি কাত করে আস্তে আস্তে পোনা ছাড়তে হবে। তাহলে পোনাগুলো তাপে কোনো আকস্মিক পরিবর্তনের শিকার হবে না।


পরিচর্যা : ধানক্ষেতে মাছ ও চিংড়ি চাষে কোনো বাড়তি খাবার না দিয়েও মাছ ও চিংড়ি উৎপাদন হতে পারে। মাছ ও চিংড়ি ধানক্ষেতের শ্যাওলা, পোকামাকড়, কিড়া ও পচনশীল দ্রব্যাদি খেয়ে থাকে। তবে কিছু খাবার প্রয়োগ করলে উৎপাদন বৃদ্ধি পায়। এর জন্য শুরুতে চালের কুঁড়া ও গোবর ১ঃ৩ অনুপাত মিশিয়ে বল আকারে হেক্টর-প্রতি ১০ কেজি পরিমাণে প্রতি ৭ দিন পরপর গর্তে দিতে হবে। মাছ ও চিংড়ি ছাড়ার মাস খানেক পর থেকে, মোট মাছ ও চিংড়ির ওজন অনুমান করে ওজনের ৩-৫% হারে খৈল ও ভুসি বা কুঁড়া ১ঃ১ অনুপাতে মিশিয়ে একদিন পরপর গর্তে প্রয়োগ করতে হবে। এ উদ্দেশ্যে খৈল একরাত পানিতে ভিজিয়ে রেখে গমের ভুসি বা চালের কুঁড়ার সাথে মিশিয়ে বল আকারে বিকালে কয়েকটি নির্দিষ্ট স্থানে রাখতে হবে।


ধানের পরিচর্যা : ধানক্ষেতের বিভিন্ন পরিচর্যা, যেমন- আগাছা দমন, ইউরিয়া উপরি-প্রয়োগ, পর্যায়ক্রমে জমি শুকানো ও ভিজানো কাজগুলো প্রচলিত পদ্ধতিতে করা যায়। সারের উপরি-প্রয়োগের সময় যেন পরিখা বা গর্তে পানি থাকে, কিন্তু জমিতে বেশি পানি না থাকে এটা খেয়াল রাখতে হবে।


ধানের পোকা ও রোগ দমনের জন্যে কীটনাশক প্রয়োগ না করে জৈবিক দমন, বালাই-সহনশীল জাতের চাষ, আধুনিক চাষ পদ্ধতি ও যান্ত্রিক পদ্ধতি প্রয়োগ করতে হবে। পোকা দ্বারা আক্রান্ত হলে হাতজাল, আলোর ফাঁদ, সেক্স ফেরোমেন ফাঁদ, কঞ্চি পুঁতে পাখি বসতে দেয়া, ডিমের গাদা নষ্ট করা যান্ত্রিক পদ্ধতি প্রয়োগ করা যেতে যায়।


মাছ ও চিংড়ি ধরা : ধান পাকা শুরু হলে ক্ষেতের পানি ধীরে ধীরে কমাতে হবে। এতে মাছ ও চিংড়িগুলো পরিখা বা গর্তে গিয়ে আশ্রয় নেবে। তখন প্রথমে ধান কেটে পরে চিংড়ি ধরতে হবে। কোনো কারণে ধান পাকার আগেই পানি শুকাতে শুরু করলে, ধান কাটার আগেও মাছ ও চিংড়ি ধরা যায়। আবার সুযোগ থাকলে এবং মাছ ও চিংড়ি বিক্রির আকারে না পৌঁছলে অর্থাৎ প্রতিটি যথাক্রমে ১০০ ও ৩৫ গ্রাম ওজনের না হলে ধান কাটার পরও মাছ ও চিংড়ি ক্ষেতে রেখে বড় করে নেয়া যেতে পারে। সে ক্ষেত্রে আবার পানি দিতে হবে।


মাছ ও চিংড়ির ফলন : বোরো ধান ক্ষেতে মাছ ও চিংড়ি চাষ করলে, বাড়তি খাবার ছাড়াই এর উৎপাদন হেক্টর-প্রতি প্রায় ২৮০ কেজি চিংড়ি হয়। খাবার দিলে উৎপাদন প্রায় ৪০০ কেজি পর্যন্ত হয়। আমন ধান ক্ষেতে বাড়তি খাবার ছাড়া চিংড়ি হেক্টর-প্রতি ১০০-১৫০ কেজি হয়। খাবার দিলে উৎপাদন ২০০-৩০০ কেজি হতে পারে। মাছ হেক্টর-প্রতি ২৫০-৩০০ কেজি হয়।
 

ধানের পর মাছ ও গলদা চিংড়ি চাষ : জমি থেকে বোরো  আমন ধান কাটার পর জমিতে পানি থাকলে অথবা পানি সরবরাহ করে মাছ ও চিংড়ি চাষ করা যায়। যেসব জমি ধান কাটার পর ১-২ মাস পতিত থাকার সম্ভাবনা থাকে সেসব জমিতে মাছ ও চিংড়ি চাষ করা যায়। ধানের পর মাছ ও চিংড়ি চাষের পদ্ধতি কিছু কিছু অংশ ধানের সাথে মাছ ও চিংড়ি চাষের মতো। সম্পূর্ণ কাজ কর্মগুলোকে তিনটি প্রধান অংশে বিভক্ত করা যায়। এগুলো হচ্ছে-
 

গর্ত ও নালা তৈরি : মাছ ও চিংড়ি উৎপাদনকালে এসব জমিতে প্রচুর পানি থাকে, আবার মাছ ও চিংড়ির সাথে ধান থাকে না সেজন্য এ জমিতে পরিখা বা গর্ত খননের প্রয়োজন নেই তবে মাছ ও চিংড়ি ধরার সুবিধার জন্য জমির নিচু স্থানে গর্ত খুঁড়ে রাখলে ভালো হয়।
 

সার প্রয়োগ : ধানের জন্য অনুমোদিত সার ধান চাষেই ব্যবহার করতে হবে। মাছ ও চিংড়ি চাষের জন্য অতিরিক্ত ১৫% হারে সার চিংড়ি চাষে প্রয়োগ করতে হবে।
সাবধানতা
 

ধানক্ষেতের পানি যেন শুকিয়ে না যায়, কিংবা এত কমে না যায় যে পানি বেশ গরম হয়ে উঠে। উভয় অবস্থায়ই চিংড়ি মারা যেতে পারে। ২. অতি বৃষ্টি অথবা অন্য কোনো কারণে যেন পানি জমে আইল উপচে না যায়। পানি উপচে পড়লে পানির সাথে চিংড়ি বের হয়ে যাবে। ৩. পানি নির্গমন পথে যেন তারের জাল বা বাঁশের বানা দৃঢ়ভাবে আটকে থাকে। অন্যথায় মাছ ও চিংড়ি পানির সাথে চলে যেতে পারে। ৪. ক্ষেতের পানি কমে গেলে সাপ, বড় ব্যাঙ, ইঁদুর ও শিয়াল ইত্যাদি প্রাণী মাছ ও চিংড়ি খেয়ে ফেলার আশংকা থাকে।


সূত্র: বাংলাদেশ সরকার কৃষি তথ্য সার্ভিস




DMCA.com Protection Status

সময় সংবাদের লেখক হতে পারেন আপনিও। আপনার আশপাশে ঘটে যাওয়া যেকোনো ঘটনা, ভ্রমণ অভিজ্ঞতা, ক্যাম্পাসের খবর, তথ্যপ্রযুক্তি, বিনোদন, শিল্প-সংস্কৃতি ইত্যাদি বিষয়ে লেখা পাঠান: somoytvweb@gmail.com ই-মেইলে।
এই বিভাগের সকল সংবাদ
চুরির অভিযোগে পায়ুপথে পেট্রোল ঢেলে মারধর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি গ্রামীণফোনকে সোমবারের মধ্যে ১ হাজার কোটি টাকা দিতেই হবে ভুয়া পরিচয় দেয়ায় যুক্তরাজ্যের আদালতে বাংলাদেশি নাগরিক পণ্যের মান নিশ্চিত করলেই অর্থনীতির বড় চালিকাশক্তি হবে ই-কমার্স বাধ্য হয়ে তুরাগ দখলমুক্ত অভিযান বন্ধ করল বিআইডব্লিউটিএ বাংলা ভাষাকে মর্যাদা দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর ১৩ মামলার আসামি ‘সন্ত্রাসী হাব্বান’ গুলিতে নিহত মাথায় চলছে টিউমারের অপারেশন, রোগী বাজাচ্ছেন বেহালা! (ভিডিও) প্রেমিকাকে হাত খরচের জন্য মাসে ৮৭ লাখ টাকা দেন রোনালদো আজকের মুদ্রা বিনিময় হার কাট-কপি-পেস্টের জনক আর নেই বিশ্ববাজারে আজকের স্বর্ণ-রুপার দরদাম মধ্যপ্রাচ্যেও আঘাত হানলো করোনা, ইরানে ২ জনের মৃত্যু সোমালিয়ায় সামরিক ঘাঁটিতে আত্মঘাতী হামলায় নিহত ১২ একুশে পদকপ্রাপ্তদের পুরস্কার দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী এক মাসের মধ্যেই মিলবে করোনার প্রতিষেধক ভারতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১৯ যে কারণে বন্ধ হচ্ছে না মানবপাচার ভাত খাওয়ানোর কথা বলে মাদ্রাসাছাত্রকে বলাৎকার ডাকাতি করতে এসে র‌্যাপ গায়ক পপ স্মোককে গুলি করে হত্যা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে থামছে না যৌন নিপীড়ন ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী হারাতে বসেছে নিজস্ব ভাষা চুড়িহাট্টার মতো আর কত দুর্ঘটনায় টনক নড়বে প্রশাসনের? জার্মানির সিসাবারে বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত ৮ চট্টগ্রামে ভোট হবে ইভিএমে, কারচুপির আশঙ্কা বিএনপির দিনাজপুরে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২ পঞ্চগড়ে দুই দিনব্যাপী জাতীয় নাট্যোৎসব শুরু সার উত্তোলন করবেন না ৩ জেলার ডিলাররা কমল হাসানের ছবির শুটিং সেটে ভয়াবহ দুর্ঘটনা, নিহত ৩ পঞ্চগড়ে দেশীয় অস্ত্রসহ আটক ৩ ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষে প্রাইভেটকারে আগুন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর সামনেই গাড়িতে উবার চালকের অনৈতিক কাজ মেডিকেলে না পড়েও ২০ বছর ধরে ডাক্তার তিনি! শরীফ হত্যা মামলায় সাক্ষ্য দিলেন বিচারক-ওসি গাইবান্ধা-৩ আসনে মনোনয়ন জমা দিলেন যারা ২৯ ফেব্রুয়ারি রিসেপশনে যা পরবেন সৃজিত-মিথিলা করোনা আতঙ্কে প্লাস্টিক মুড়িয়ে বিমান ভ্রমণ সাপের বিষে সারবে ক্যান্সার, দাবি বিজ্ঞানীদের চাঁদাবাজির মামলায় ছাত্রলীগ নেতা কারাগারে প্রেমে সাফল্য বৃশ্চিকের, বিয়ে শুভ মীনের করোনার তাণ্ডবে মৃতের সংখ্যা ২১শ’ ছাড়াল বিকেএসপিতে খেলোয়াড়দের ভর্তি করা হয় যেভাবে বিনিয়োগে জাপানিদের প্রথম পছন্দ বাংলাদেশ নোয়াখালী প্রবাসী সমিতির উদ্যোগে সৌদিতে পিঠা উৎসব কাতার বিএনপির সংবাদ সম্মেলন ইউরোপ সফরে অলিম্পিকের মাসকট মাঠে নামছে ঢাকার বড় দুই ক্লাব বেশি বেশি খেললেই আমরা পরিপক্ক হয়ে যাবো: রাহী ফিটনেস পরীক্ষার আগেই কিভাবে দলে ডাক পেলেন মাশরাফী? মাশরাফীকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায় দিতে চায় বিসিবি হেঁটে হেঁটেই 'হাঁটা দিবস' পালিত উপদলীয় কোন্দল নিয়ে মুখ খুলেছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী এইচএসসি পাস চিকিৎসকের ভিজিট ৬শ’ টাকা! ভারতের নাগরিকত্ব আইন নিয়ে জাতিসংঘ মহাসচিবের প্রতিক্রিয়া সমন্বিত পরীক্ষার নম্বরের ভিত্তিতে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি, থাকছে স্বতন্ত্র শর্তও এভাবে কতদিন খেলে যাবেন, জানালেন কোহলি উড়কি থেকে সুমন রহমানের ‘নির্বাচিত কবিতা’ চসিকে আ. লীগের কাউন্সিলর প্রার্থীদের তালিকা চারদফা দাবিতে কর্মবিরতিতে যাচ্ছেন স্বাস্থ্য-সহকারীরা সন্তানকে আদালতের কাঠগড়ায় দাঁড় করাবেন না? সিনেমায় স্বাধীন নির্মাতাদের আরো যত্নশীল হওয়ার আহ্বান এপ্রিলেই সিলেট-ম্যানচেস্টার সরাসরি ফ্লাইট: বিমান প্রতিমন্ত্রী ১০০ কোটি টাকা নিয়ে সাধল গ্রামীণফোন চীনে অবস্থানরত বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের নিয়ে দূতাবাসের ভিডিও সেই ছাত্রলীগ নেতার জামিন নামঞ্জুর শহীদ দিবসে জঙ্গি হামলার কোনো আশঙ্কা নেই: শফিকুল ইসলাম একুশে ফেব্রুয়ারির প্রস্তুতি শেষ, নিরাপত্তা থাকছে ৪ স্তরের আদালতকর্মীর মোটরসাইকেল চুরি করে ধরা পড়ল পুলিশ সিরিয়ায় বিপদের ঘনঘটা, প্রস্তুত এরদোয়ান বাহিনী মেয়েকে বিয়ে না করায় প্রভাষকের বিরুদ্ধে মামলা অধ্যক্ষের! প্রতিবন্ধী শিশুকে ধর্ষণের ৫ মাস পর যুবক গ্রেফতার খেলার মাঠে না যাওয়ায় জাবি শিক্ষার্থীকে ছাত্রলীগ কর্মীর মারধর অ্যাডভার্বের ৩য় গান ‘কে তোমাকে বাসবে ভালো’ মেলবোর্নে মাঝ আকাশে দুই বিমানের সংঘর্ষ পুলিশের বিরুদ্ধে মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে ২৩ লাখ টাকা আদায়ের অভিযোগ! বাজারে কচুরিপানার কেজি ৮০ টাকা, ভিডিও ভাইরাল বিশ্বকাপে অবশ্যই সাকিব অধিনায়ক, তবে... ডাকঘর সঞ্চয় স্কিমে সুদের হার কমাতে পুনর্বিবেচনা করবে সরকার শিশুকে নির্মম নির্যাতনের অভিযোগে মা আটক মুজিবর্ষ উপলক্ষে হবিগঞ্জে পিঠা উৎসব বিএনপি ভালো হয়ে যাবে: কামরুল ইসলাম নষ্ট হয়ে যাচ্ছে তরুণরা, ফেসবুক বন্ধের আহ্বান রওশন এরশাদের রাঙ্গামাটিতে অমর একুশে বইমেলা শুরু শেরপুরে ভাষা সংরক্ষণ, পাঠ্যপুস্তক প্রণয়নের দাবি চট্টগ্রাম শহরকে পরিকল্পিত নগরী হিসেবে গড়ে তোলা হবে: রেজাউল করিম দিনাজপুরে ২ মেধাবী শিক্ষার্থীর বাড়ি বানানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে কুষ্টিয়ায় চলছে বইমেলা পড়ে ছিল ৪ বন্ধুর মাথার খুলি ভাঙাড়ির গাড়িতে ২০ কেজি গাঁজা, আটক ২ যে ৩ জনের ব্যাটিংয়ে বদলে যায় ক্রিকেট খেলা সিরাজগঞ্জে সাংবাদিকদের ওপর হামলা ধরলার ভাঙনরোধে এলাকাবাসীর মানববন্ধন ছাত্রীকে অপহরণের দায়ে ববি’র ইস্যু ক্লার্ক বরখাস্ত মোংলায় আটক ১২ চোরাকারবারি কারাগারে দুদক কর্মকর্তা সেজে চাঁদাবাজি, ৩ প্রতারক গ্রেফতার বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের মুখোমুখি বাংলাদেশ ট্রাম্পের মূর্তিতে প্রতিদিন পূজা ভারতে! বরগুনায় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর মুত্যৃদণ্ড ‘শেখ হাসিনার ভিশনকে শিল্পে সংযুক্ত করে এগিয়ে নেবো’
আরও সংবাদ...
ট্রেনের দরজায় উঁকি দিয়ে খুঁটিতে ধাক্কা, মরে ঝুলে রইলেন যুবক গণধর্ষণের পর লাইভে ধর্ষকেরা, ফ্রেন্ডস কাল জেলে যেতে পারি শিশুকে ধর্ষণ, ধর্ষককে প্রকাশ্যে পুড়িয়ে মারল গ্রামবাসী! (ভিডিও) বাঙালী মেয়েকে বিয়ে করলেন মার্কিন তরুণী ফেসবুক তৈরি করাটাই ছিল ‘ভয়ংকর ভুল’: জাকারবার্গ এক স্বাক্ষরে বহিষ্কার, আরেক স্বাক্ষরে সোহাগের ঘরে এশা এশা-সোহাগের বিয়ে আজ আড়ংয়ের ট্রায়াল রুমে তরুণীর গোপন ভিডিও ধারণ তীব্র গতিতে বের হচ্ছে গ্যাস, আতঙ্কে কসবাবাসী (ভিডিও) কক্সবাজারে উচ্চমাত্রায় ইউরেনিয়ামের সন্ধান! ঘুম থেকে তুলে নিয়ে হাত-পা বেঁধে শিশুকে নির্মম নির্যাতন প্রথম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে ৪র্থ শ্রেণির ছাত্র গ্রেফতার বিয়ে করে পপির দায়িত্ব নিতে চান হিরো আলম! এইডস আক্রান্ত তরুণীকে গণধর্ষণ, পুলিশ হেফাজতে আতঙ্কিত আসামিরা শিক্ষার্থীকে আটকে রেখে গণর্ধষণ: ছাত্রলীগের সহ-সভাপতিসহ গ্রেফতার ৩ সিলেটে ওয়াজ নিষিদ্ধে যা বললেন আজহারী নতুন আতঙ্ক ‘কঙ্গো জ্বর’, রক্তবমি করেই মরলেন ৭ জন সিলেটে আজহারীর ওয়াজ নিষিদ্ধ কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার প্রধান কারিগর নিহত! কাদেরকে প্রধানমন্ত্রীর শাসন আমাদের কোনও ধর্ম নেই, থাকাও উচিৎ নয়: শাহরুখ খান সিটি নির্বাচন: সবশেষ খবর ধ্বংসের মুখে চীনের অর্থনীতি এমন না যে আমরা সব ভোট মেরে দিয়েছি: আতিক স্বামীকে ঘুম পাড়িয়ে পুরুষাঙ্গ কাটলেন স্ত্রী শ্রাবন্তীর গোপন ভিডিও ফাঁস করলেন স্বামী (ভিডিও) করোনা ভাইরাস চীনের তৈরি গোপন জীবাণু অস্ত্র! মাদ্রাসার বাথরুমে সুপারের 'ধর্ষণে' অন্তঃসত্ত্বা ছাত্রী করোনা ছড়িয়েছে ১২ দেশে, ৬ কোটি মানুষের মৃত্যুর শঙ্কা! ৩০০ ভুলসহ হিব্রু ভাষায় কুরআনের অনুবাদ ছাপল সৌদি আরব! সাকিবের স্ত্রীর প্রিয় খাবার রান্না করে পাঠালেন প্রধানমন্ত্রী বিয়ে করলেন ছাত্রলীগের সাবেক সেক্রেটারি জাকির এখনও তীব্র গতিতে বের হচ্ছে গ্যাস, ধসে পড়ছে গাছপালা (ভিডিও) বাজারে আর মিলবে না গ্রামীণফোনের সিম! রমনীর গুণে নয়, সংসারে সুখ আসে পুরুষের রোজগারে সকালে নিরাপত্তা চেয়ে জিডি, বিকেলেই যুবককে হত্যা খতনার ভয়ে বাড়ির ছাদে শিশু, ডাক্তার করলেন ছবি পোস্ট বরফে পিছলে পাকিস্তানে চলে গেলেন ভারতীয় সেনা! বিয়ের আগেই কনের মাকে নিয়ে পালালেন বরের বাবা মঞ্চ ভেঙে পড়ে গেলেন আল্লামা শফী চট্টগ্রামে করোনা ভাইরাস সন্দেহে দুই শিক্ষার্থী হাসপাতালে দক্ষিণের ১২৫ কেন্দ্রের ফল প্রকাশ জিয়াউর রহমানকে নিয়ে ভিপি নুরের স্ট্যাটাস খালেদার মুক্তি সমাবেশে দুদুর ‘গালি’ (ভিডিও) সমুদ্রে দেখা মিলল সেই মাছের, ফের সুনামি আতঙ্ক আজহারীর সব মাহফিল স্থগিত বাংলাদেশে এসেছিলেন জঙ্গিদের সহায়তায় গ্রেফতার ভারতীয় পুলিশকর্তা প্রবাসীর কাছে স্ত্রীর আপত্তিকর ভিডিও: অতঃপর খুন হলেন সেলিম হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ল স্টেডিয়ামের ছাদ, নিহত ১ (ভিডিও) ‘মনস্তাত্বিক চাপে’ নবনির্বাচিত দুই মেয়র
আরও সংবাদ...


Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TVEnglish DMCA.com Protection Status
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
উপরে