মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
খেলার সময় ডেস্ক
আপডেট
১৩-০২-২০১৮, ০৫:৩৫

কেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সঙ্গে আর কাজ করতে চান না সুজন?

কেন বাংলাদেশ ক্রিকেটের সঙ্গে আর কাজ করতে চান না সুজন?
দেশের ক্রিকেটাঙ্গনে পরিচিত নাম খালেদ মাহমুদ সুজন। জাতীয় দলের সাবেক এ অধিনায়ক বর্তমানে দলের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর। প্রধান কোচ না থাকায় দায়িত্বটা একরকম তার কাঁধেই। হাথুরু চলে যাওয়ার পর বেশ উৎসাহের সঙ্গে বাংলাদেশ দলে কোচ হওয়ার স্বপ্নের কথা বলেছিলেন সুজন।

ত্রিদেশীয় সিরিজের আগে প্রধান কোচ খুঁজে না পাওয়ায় টেকনিক্যাল ডিরেক্টরের মোড়কে সুজনকেই দেয়া হয় দলের দায়িত্ব। তবে ত্রিদেশীয় সিরিজ এবং শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে প্রত্যাশিত ফল বয়ে আনতে পারেনি বাংলাদেশ। এমন পরিস্থিতিতে হঠাৎ বিস্ফোরক রূপ ধারণ করলেন সুজন।

ক্রিকেট নিয়ে যে পর্যায়ে কাঁদা ছোড়াছুড়ি হচ্ছে তাতে করে আর বাংলাদেশ জাতীয় দলের কোচের দায়িত্বে থাকার ইচ্ছা নেই তার।

যে মাঠে এলিট ক্রিকেটে ইংল্যান্ড অস্ট্রেলিয়ার মতো দৈত্য বধ করেছে টাইগাররা। সেই মাঠে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মুদ্রার উল্টো পিঠে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স। তাই টিম ম্যানেজম্যান্টের দক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন উঠে ক্রিকেট আকাশে। সমালোচনার চাপ এক রকম ক্ষোভে পরিণত হয়েছে প্রধান কোচের ভূমিকায় থাকা খালেদ মাহমুদ সুজনের। তাই ভবিষ্যতে আর জাতীয় দলের দায়িত্ব না নেয়ার ঘোষণা দিলেন।

[আরও পড়ুন: স্ট্যাম্প মাইকে ধরা পড়লো ধোনির টোটকা (ভিডিও)]

সোমবার মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে টি-টোয়েন্টি দলের অনুশীলনের ফাঁকে সুজনের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিলো পরের সিরিজেও তার দায়িত্বে থাকার সম্ভাবনা আছে কিনা।


জবাবে নিজের অনাগ্রহের কথা তো জানালেনই, উগরে দিলেন ক্ষোভও।

'নিদিহাস কাপে বোর্ড ঠিক করবে। কারণ বোর্ডই আমাকে এই দায়িত্ব দিয়েছে। কাজ করব না, এই কথা আমি কখনোই বলতে চাই না। কিন্তু দেখা যাচ্ছে, বাঙালি কেউ কাজ করলেই সবচেয়ে বড় সমস্যা। দল হেরে যাওয়ার পরও যে আমি এই দেশে আছি, এটাই বড় কথা। চান্ডিকা যখন প্রথম এলো, আরও বড় বড় কোচ এসেছে, তখনও শুরুতে ফল খারাপ হয়েছে। কিন্তু (তাদের সঙ্গে) এ রকম হয়নি।'

'খারাপ ফলের দায় আমি নিতেই পারি। আমাদের পরিকল্পনায় ভুল থাকতে পারে, আরও কিছু থাকতে পারে। কিন্তু আরও অনেক ঘটনা তো আসে (গণমাধ্যমে)। আমার ওপরও অনেক দায় আসে। এটা আমি বোর্ডকে বলব। ব্যক্তিগতভাবে আমি একটুও আগ্রহী নই (পরবর্তী সিরিজেও চালিয়ে যেতে)। বাংলাদেশ ক্রিকেটের সঙ্গে আমার কাজ করতে ইচ্ছেই করছে না। নোংরা লাগছে জায়গাটা, সত্যি কথা বলতে। আমি সবসময় বাংলাদেশ ক্রিকেটের উন্নয়নের জন্য কাজ করেছি। এতে আমার কোনো স্বার্থ নেই। ক্রিকেট বোর্ডে থাকাটাও আমার কোনো স্বার্থের ব্যাপার না, কিছুই না। আমি আর আগ্রহী নই থাকতে।'

[আরও পড়ুন: অন্তত টি-২০ দলে জায়গা ধরে রাখতে চান সৌম্য]

নোংরা জায়গা বলতে কি বুঝিয়েছেন, জনতে চাইলে গণমাধ্যমকে একহাত নেন সুজন।

'অন্য কিছু না। বলার কিছু নেই। আপনারাও জানেন, আমরাও জানি। নোংরা বলতে গেলে যে, মিডিয়ায় যেভাবে বলা হয়। আমাদের ক্রিকেটের একটা বড় অন্তরায় মিডিয়াও। আমরা এত ‘ফিশি’ হয়ে যাচ্ছি আস্তে আস্তে। মিডিয়ার কারণে আমাদের ক্রিকেট আটকে আছে কিনা, সেটাও একটা প্রশ্ন এখন আমার কাছে।'

'মিডিয়ায় এত বেশি আলোচনা হচ্ছে, আমার এটা মনে হচ্ছে, এত বছর ধরে ক্রিকেটে আছি, এত গসিপিং, এত কিছু… ঠিক আছে, এসব হবেই, ভালো-খারাপ আসবেই। সবকিছুই আসবে। কিন্তু কিছু কিছু জিনিস নেতিবাচক হয়ে যাচ্ছে আমাদের ক্রিকেটের জন্য।'

'আমার পিছে যদি কেউ লেগে থাকে আমি ভালো করলেও কোনদিনও ভালো হবে না। আমি সুজন এতকিছু করছি কোনো দিন শুনি নাই ভালো কিছু করছি। খারাপই করছি। সোশাল মিডিয়ার বলেন, মিডিয়া বলেন। আমি এও শুনেছি রাস্তায় গেলে আমাকে মারও খেতে হতে পারে। ক্রিকেট খেলার জন্য রাস্তায় গিয়ে মার খেতে হয় এটা খুবই অকওয়ার্ড একটা ব্যাপার।'

‘আমি হয়তো বা বাংলাদেশর জন্য ভালো কিছু করছি না। যদি ভালো কিছু না করি তাহলে এখানে থাকা দরকার কি? আমি তো এখানে কোনো স্বার্থের জন্য আসিনি। আমার তো এখানে কোনো কিছু দরকার নেই। আমি যা আছি আমার জীবনে খুব ভালো আছি। খুবই হ্যাপি। আমি যে চাকরি করি, যতটুকু পাই, যেভাবে চলি, কোয়াইট হ্যাপি।’

[আরও পড়ুন: হেড কোচ ছাড়াই শ্রীলঙ্কা যাবে বাংলাদেশ]

মিরপুর টেস্টে মোসাদ্দেকের বাদ পড়া জন্ম দিয়েছিলো অনেক প্রশ্নের। টেস্টের সময় ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে ছিলো আবাহনীর ম্যাচ। মোসাদ্দেক খেলেন আবাহনীতে। এই ক্লাবেরও কোচ খালেদ মাহমুদ। মোসাদ্দেককে আবাহনীর ম্যাচে পেতেই টেস্ট একাদশে রাখা হয়নি এমন অভিযোগও তুলেছিলেন কেউ কেউ।

এই সমালোচনা নিয়েই গণমাধ্যমের ওপর সবচেয়ে বেশি ক্ষোভ সুজনের।

'আমার সিদ্ধান্ত নয়। আমি তো গড নই। আমি একটা খালেদ মাহমুদ সুজন। সামান্য একজন মানুষ। আমার সামর্থ্যও অনেক কম। আমি এখানে দাঁড়িয়ে কাজ করছি, মানুষ সেটা স্বীকার করুক বা না করুক। আমার মেধা খারাপ হতে পারে, টেকনিক্যালি খারাপ হতে পারি। হয়ত জানি না অনেক কিছু। কিন্তু অন্য বিষয়ে যখন কথা হয়, তখন আমাকে তা অনেক কষ্ট দেয়।'

'যখন বলা হয় আমি আবাহনীর প্রধান কোচ, মোসাদ্দেককে খেলাইনি আবাহনীতে খেলানোর জন্য। যখন জাতীয় স্বার্থের কথা বলে কেউ এই ধরনের কথা বলে, তখন সত্যিই কষ্ট পাই। কারণ, আমি মনে করি না বাংলাদেশ দলের চেয়ে বেশি আবাহনী বা অন্য কিছু আমাকে ছুঁতে  পারে। পারবেও না, ছুঁতে পারেও নাই। এসব কথা যখন বলা হয়, তখন সত্যিই খারাপ লাগে। মনে হয় যে এত বছর ক্রিকেটে থেকে কী লাভ হলো! মোসাদ্দেক ও আবাহনী যদি বাংলাদেশ দলের ম্যাচ হারার কারণ হয়ে যায়, তখন তা আসলেই কঠিন।'

[আরও পড়ুন: 'সাকিবের সঙ্গে কথা বলেই টি-২০ দলে রাখা হয়েছিলো']

কথা বলার এক পর্যায়ে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন। তিনি বলেন, 'আমারও ক্রিকেট জ্ঞান আছে। আমিও ক্রিকেট খেলেছি অনেক বছর। ৮৩ সালে ক্রিকেট খেলা শুরু করেছিলাম। আজকে মনে হয় ২০১৮। অনেক বছর হয়ে গেছে। চুলও পেকে গেছে। কে পারে, কে পারে না। কি দরকার, কখন কাকে দরকার সেটা আমরাও বুঝি আসলে।'

সুজনের মতে, ঢাকা টেস্টে ব্যাটসম্যানদের আন্তরিকতার ঘাটতি ছিলো অনেক। ক্রিকেটারদের সামর্থ্য নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি।

'প্রথম কথা হলো- ব্যাপারটি কোচিং নিয়ে নয়, মানসিকতা নিয়ে। কোচিং বাংলাদেশ দলে যা হতো, এবার তার চেয়ে ভালো হয়েছে। কিন্তু কোচরা তো মাঠে খেলবে না। মাঠে খেলবে ক্রিকেটাররা। এই ছেলেরাই আমাদের ম্যাচ জিতিয়েছে, এই ছেলেরাই এবার ম্যাচ হারিয়েছে।'

তিনি বলেন, 'অস্ট্রেলিয়ার ফাস্ট বোলিং আরও ভালো ছিল, ভালো স্পিনার ছিল। ইংল্যান্ডেরও স্পিনার খারাপ ছিল না। তখন আমরা টার্নিং উইকেটে ভালো করেছি। এই সিরিজে চট্টগ্রামে নিষ্প্রাণ উইকেট ছিল, আমরা কত ভালো করেছি? ওই ম্যাচ হারতেও পারতাম। সাকিব মানের বোলার তো আমাদের ছিল না।'

[আরও পড়ুন: ব্যালন ডি'অরে যে চার ফুটবলারকে নিজের প্রতিদ্বন্দ্বী ভাবছেন মেসি]

খালেদ মাহমুদের মতে, জয়ের সুযোগ আমাদের ছিলো তবে মাঠে একের পর এক সুযোগ হাতছাড়া করার কারণেই হারতে হয়েছে।

'শ্রীলঙ্কার সঙ্গে জিতলে আমরা এভাবেই জিততে পারতাম। আমরা সুযোগ সৃষ্টি করেছিলাম। প্রথম ইনিংসে যখন ৬ উইকেটে ১১০ ছিল ওদের রান, তখন দিলরুয়ান পেরেরার ক্যাচ পড়ল, তখন হয়ত ওদেরকে ১৪০ রানে অলআউট করতে পারতাম। তার পর যদি মুমিনুল রান আউট না হতো, আমরা ওভাবে ব্যাট না করে যদি ২২০ রানও করতাম, তাহলে ওই ৮০ রানের লিডই আমাদের ম্যাচ জেতাতো। সেটা হয়নি।'

এ সময় সুজন দলের ক্রিকেটারদের সামর্থ্য নিয়েও প্রশ্ন তোলেন।

'এমন কি আছে, শ্রীলঙ্কার সাথে আমরা খেলতে পারবো না? ব্যাটিং লাইনআপ যদি দেখেন, কুশল মেন্ডিস, ধনঞ্জয়, এরা কে কয়টা টেস্ট ম্যাচ খেলেছে? আমাদের স্পিনার নেই। বলতে পারেন আমাদের সাকিব নেই। আমাদের রাজ্জাক ৫০০ উইকেট পাওয়া ফার্স্ট ক্লাস বোলার। কিভাবে বলবো অভিজ্ঞতা নেই? তাইজুলকে যদি দেখেন। আকিলা ফার্স্ট টেস্ট ম্যাচ খেলে ৫ উইকেট নিলো। তাইজুল তো আরও বেশি খেলছে। মিরাজ ইংল্যান্ডের সাথে ১৯ উইকেট নিয়েছে। আমরা কিভাবে বলবো আমাদের অভিজ্ঞতা নেই। আমরা কেউ এই জিনিসগুলো চিন্তা করি না। শ্রীলঙ্কা কী গড? ওদের প্লেয়াররা কী গড? ওরা কি স্টিভ স্মিথ? বা এরকম কিছু যে ২শ’ টেস্ট ম্যাচ খেলা প্লেয়ার। কেন এগুলো চিন্তা করি না আমাদের প্লেয়াররাই ভুল খেলেছে।'

ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে হারের পর ব্যাপক আলোচনা হয় মিরপুরের উইকেট নিয়ে। সমালোচনা হয় কিউরেটর গামিনি ডি সিলভাকে নিয়েও। তখন ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা বলেছিলেন, নিজেদের চাওয়া মতো উইকেট পায়নি দল। এই প্রসঙ্গটাও টেনে আনে খালেদ মাহমুদ সুজন।

'ওয়ানডেতেও উইকেট নিয়ে কথা উঠেছে। ২২০ করতে (ফাইনালে) মনে হয় না উইকেট লাগে। আমরা পারিনি। টেস্টে অনেকে বলছে ঘূর্ণি উইকেটে খেলেছি কেন। ভুলে গেছি, টার্নিং উইকেটে আমরা বিশ্বমানের স্পিনার লায়নের বিপক্ষে খেলেছি।'

'প্রথম ইনিংসে দেখেন, শুরুতে লাকমল উইকেট তুলে নিয়েছে, কোনো স্পিনার নেয়নি। কোন বলে কিভাবে আউট হয়েছে, ওদের টেলএন্ডারদের ব্যাটিং, মিরাজের ব্যাটিংয়ের ময়নাতদন্ত করলে অনেক কিছু বের হবে। সেটা বের করতেও চাই না। উইকেটকে দোষ দেওয়ার কিছু নেই। সবচেয়ে বড় কথা, আমরা ভালো খেলতে পারিনি।'

উইকেটের সমালোচনার বিষয়ে সুজন আরও বলেন, 'ক্যাচ ছাড়াটা উইকেটের দোষ না। মুমিনুলের রান আউট উইকেটের দোষ না। অন্যরা যেভাবে আউট হয়েছে...যদি উইকেটকে দোষ দিতে হয়, আমাদের যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন ওঠ। আমরা আমাদের কাজটা করতে পারিনি। আমরা ভালো খেলিনি। জুজুর ভয়, উইকেট নিয়ে ভয় বা নেতিবাচক চিন্তা, যেটাই হোক আমাদের মধ্যে কাজ করেছে। উইকেট একটা অজুহাত মাত্র।'

উইকেটের প্রশ্নে  কিউরেটর গামিনি ডি সিলভার পক্ষেই ব্যাট ধরেন সুজন।

'গামিনিকে নিয়ে অনেক কথা হয়। ও তো চাকরি করে। ওকে বলা হয়েছে বোর্ড থেকে, ও সেভাবেই উইকেট বানিয়েছে। ওর দোষ কি? ওর চাকরি খাওয়া দরকার হয়ে গেছে। কেন আমরা ওর চাকরির পেছনে লাগলাম? উনি কি এত বছর বাংলাদেশের জন্য ভাল কাজ করেনি? চান্দিকা যেভাবে উইকেট চেয়েছে, সেভাবে বানিয়ে দেননি?'

'এই উইকেট আমরা চেয়েছি, গামিনি ইচ্ছে করে বানিয়ে দেয় নাই। সেই কথাগুলাই আমার কাছে খারাপ লাগে। আমার কথা হলো ওর ব্যাপারটাও দেখতে হবে। ও একটা বিদেশি মানুষ বলে ওর ওপর চাপিয়ে দিয়ে বললাম ওকে শুলে চড়াও, ওকে মেরে ফেলো, এটা ঠিক না। আমরা কয়টা কিউরেটর তৈরি করতে পেরেছি?'

উইকেটকে দায় না দিয়ে খালেদ মাহমুদ বললেন, প্রয়োজন আত্মজিজ্ঞাসার। এসময় তিনি রোশাস সিলভার উদাহরণ টেনে আনেন।

সুজন বলেন, 'রোশেন সিলভা তৃতীয় টেস্ট ম্যাচ খেলেছে। সে এত ভাল খেলল কিভাবে? ওর কাছে উইকেটটা কঠিন না? সে লড়াই করেছে। সেই লড়াই তো আমি দেখিনি আমাদের। আমি তো দেখিনি অনেকক্ষণ লড়াই করে দারুণ ডেলিভারিতে আউট হয়েছে কেউ। এমন তো হয় নাই। আমরা হেরেছি, একটাই কারণ; আমরা ভালো ক্রিকেট খেলিনি।'




DMCA.com Protection Status

এই বিভাগের সকল সংবাদ
ময়মনসিংহে প্রেমিকের সাথে অভিমান করে প্রেমিকার বিষপানে আত্মহত্যা জাহাজের নিচে চাপা পড়ে ১ শ্রমিক নিহত, নিখোঁজ ১ কলকাতায় শুরু হয়েছে আন্তর্জাতিক বাঙালি সম্মেলন ইনটেলের বোর্ড চেয়ারম্যান হলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ওমর ইশরাক মালয়েশিয়া মাতাতে যাচ্ছেন মনির খান,পপি-সালমাসহ এক ঝাঁক তারকা ভারতের মাটিতে প্রথম ট্রফি জয় বাড়ানো হচ্ছে ক্রিকেটারদের ম্যাচ ফি ঢাবির টিএফপি'র অষ্টম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন ব্রক্ষ্মপুত্রে জাহাজের নিচে চাপা পড়ে ২ শ্রমিক নিখোঁজ, উদ্ধার অভিযান অব্যাহত গণহত্যার দায় মিয়ানমারকে স্বীকার করতেই হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে একই প্রশ্নপত্রে ভর্তি পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত মোবাইলের সূত্র ধরে অপহৃত কলেজছাত্রী উদ্ধার আ. লীগ নেতা ছেলের হাত থেকে বাঁচতে থানায় বাবা এবার হজ ৩০ জুলাই ইভিএমে পুরো ফলাফল পরিবর্তন সম্ভব: ফখরুল ‘এই নির্বাচন খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলনের অংশ’ ‘শিল্প-কারখানায় গ্যাস সরবরাহ অগ্রাধিকার পাবে’ কিশোরীকে ধর্ষণের প্রতিবাদ করেই মরতে হলো নাছিরকে চিকিৎসকদের ফি নির্ধারণ করে দেবে সরকার : স্বাস্থ্যমন্ত্রী খালেদা জিয়ার সঙ্গে শুক্রবার দেখা করবেন স্বজনরা স্বীকৃতিকে প্রাথমিক বিজয় বলছে রোহিঙ্গারা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে যৌননির্যাতন, মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতা আটক মিয়ানমারের বিরুদ্ধে যে চার আদেশ আন্তর্জাতিক আদালতের ‘ইভিএমকে আমরা স্বাগত জানাই’ তাবিথও আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন: রির্টানিং কর্মকর্তা আইসিজের রায়ে রোহিঙ্গাদের বিজয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ‘যৌন-প্রজনন স্বাস্থ্য নিয়ে লজ্জা নয়’ বঙ্গবন্ধু জাদুঘর ঘুরে দেখলেন ব্রাজিলের সাবেক গোলরক্ষক সিজার গাছের গুঁড়ি ফেলে লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সে ডাকাতি শ্রেণিকক্ষে হৃদরোগে মৃত্যু, ছাত্রীর পরিবারকে অনুদান এ বছর বাংলা একাডেমি পুরস্কার পাচ্ছেন যারা সংগ্রামের মিডিয়া তালিকাভুক্তি বাতিল ‘কৃষক ধানের ন্যায্য দাম পাচ্ছেন, তাই চালের দাম বেড়েছে’ উত্তরাঞ্চলে বেড়েছে শীতের তীব্রতা ‘দুর্নীতি না কমালে দেশ উন্নত হবে না’ যশোরে গরুচোর সন্দেহে গণপিটুনিতে নিহত ১ ভোটের দিন ঘনিয়ে আসায় প্রচারণায় ব্যস্ত মেয়র প্রার্থীরা মোংলায় ব্যতিক্রমী নিরাপদ পানি সরবরাহ চুরির অপবাদে নির্যাতিত সেই রাফিকুল চোখে কম দেখছে চবিতে ছাত্রলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে ঝাড়ু মিছিল অপহরণের দুই দিন পর কলেজছাত্রের মরদেহ উদ্ধার, ঘাতক গ্রেফতার কক্সবাজারে উচ্চমাত্রায় ইউরেনিয়ামের সন্ধান! রোহিঙ্গাদের সুরক্ষায় মিয়ানমারকে সুনির্দিষ্ট পদক্ষেপ নেয়ার আদেশ এমআরপি পাসপোর্ট নবায়নে সৌদি প্রবাসীদের যে নির্দেশনা দিল দূতাবাস মেয়ের সম্মানে ধর্ষণের কথা অস্বীকার, বাবার তিন বছরের জেল রমিজের চোখে বাংলাদেশের ‘বিপজ্জনক’ ৩ ক্রিকেটার আবারও বিক্ষোভে উত্তাল লেবানন বছরের প্রথম ২৩ দিনেই বিএসএফের গুলিতে নিহত ১৫ বাংলাদেশি অস্ট্রেলিয়ায় নতুন করে ছড়িয়ে পড়ছে দাবানল কাশ্মির সমস্যায় জাতিসংঘকে মধ্যস্থতার আহ্বান ইমরানের হুঁশিয়ারি দিলেন মমতা সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা তাবিথের প্রার্থিতা বাতিল চেয়ে ইসিতে আবেদন ১৭তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ মাছ ধরা নিয়ে সংঘর্ষে আহত ২০ নিরাপত্তার বিষয়ে যা বললেন মাহমুদুল্লাহ ৭ দিনব্যাপী দুলাভাই মেলা টাঙ্গাইলে মেয়রের বাধায় স্থবির উচ্ছেদ অভিযান ঠাকুরগাঁওয়ে ১৪৪ ধারা ভোটের তারিখ পেছনোর দাবি অযৌক্তিক: কাদের রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ মিয়ানমার রোহিঙ্গা গণহত্যার প্রমাণ মিলেছে: আইসিজে রোহিঙ্গা গণহত্যার বিচার চলবে: আইসিজে এইডস আক্রান্ত তরুণীকে গণধর্ষণ, পুলিশ হেফাজতে আতঙ্কিত আসামিরা পক্ষপাতদুষ্ট আচরণ করছে নির্বাচন কমিশন: ফখরুল রোহিঙ্গা গণহত্যার দায় এড়াতে পারে না মিয়ানমার: আইসিজে অধিকার আদায়ের দাবিতে মাথায় কাফন বেঁধে বিক্ষোভ পিঠার প্রশংসায় পঞ্চমুখ উপমন্ত্রী রোহিঙ্গা নির্যাতনে গাম্বিয়ার করা মামলার রায় পড়া চলছে গ্রিজম্যানের জোড়া গোলে বার্সার জয় দিনাজপুরে নৈশপ্রহরীকে কুপিয়ে হত্যা সজল কি পারবে মমর মুখে কথা ফোটাতে? বঙ্গবন্ধু প্রতিকৃতিতে সিজারের ফুলেল শ্রদ্ধা হিন্দি সিনেমা দেখে নাটকীয়ভাবে ডা. সারওয়ারের বাড়িতে ডাকাতি হজযাত্রীদের ভাড়া ১২ হাজার টাকা বাড়ানো অযৌক্তিক ‘বিজয় অর্জন করা জাতি কারো কাছে হাত পাতে না’ কান-এ যাচ্ছে জাহেদীর 'দি সাউন্ড' শুক্রবার টুঙ্গিপাড়া যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী কুয়েতে প্রবাসী ডাক্তারের অকালমৃত্যু টি-২০’তে বাংলাদেশ ভালো দল: মিসবাহ বিমানে টাইগারদের জন্য অন্যরকম আয়োজন আবারো বিএসএফের গুলিতে নিহত ৪ বাংলাদেশি মুশফিকের প্রতি মালিকের যে আহ্বান বিশ্বের সবচেয়ে নির্যাতিত-রাষ্ট্রবিহীন সংখ্যালঘু জাতির নাম 'রোহিঙ্গা' জমি পুনঃউদ্ধারের দাবিতে নৌ শ্রমিকদের বিক্ষোভ বিচার না হওয়া পর্যন্ত অবস্থান থেকে সরবো না: মুকিম অস্ট্রেলিয়ান ওপেন: তৃতীয় রাউন্ডে ফেদেরার-জোকোভিচ ৯৩ টাকায় বাড়ি, লুফে নিন এখনই! ঢাবি ভিসি’র সাথে সাক্ষাৎ করলেন ইশরাক দুর্নীতি কমেছে বাংলাদেশে, অবস্থান ১৪তম: টিআইবি আত্মহত্যার আগে স্ট্যাটাসে যা লিখেছিলেন সেই পুলিশ আজকের মুদ্রা বিনিময় হার 'এখান থেকে বের হও' ইসরাইলি পুলিশকে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টের ধমক (ভিডিও) ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে নিজের পিস্তলেই পুলিশের আত্মহত্যা চোর সন্দেহে পুলিশ কনস্টেবলকে গণপিটুনি রাজধানীতে প্রকাশ্যে শিক্ষিকার রিকশা থামিয়ে ছিনতাই, ভিডিও ভাইরাল 'ধীরে ধীরে বোয়িংয়ের ভাবমূর্তি ফেরানো হবে' বসলো আরো একটি স্প্যান, পদ্মা সেতুর ৩৩০০ মিটার দৃশ্যমান ড্রেসিংরুমের লকারে সাপ দেখে আঁতকে উঠলেন নেইমার (ভিডিও) বিভিন্ন দেশে স্বর্ণ ও রুপার দরদাম
আরও সংবাদ...
ম্যাজিস্ট্রেট সরোয়ার আলমকে শোকজ আসছে আরো শক্তিশালী শৈত্যপ্রবাহ দীর্ঘতম রাত আজ ইরানের পক্ষে যুক্তরাষ্ট্রকে কড়া হুঁশিয়ারি রাশিয়ার এবার দুবাইয়ে হামলা করবে ইরান! ৭২ ঘণ্টার মধ্যে কুয়েত ছাড়ছে মার্কিন সেনাবাহিনী আমার বয়স ৩৭ বছর: জয়া আহসান ইয়াবা সেবনে স্বর্ণার মৃত্যু, ধর্ষণের আলামতও সংগ্রহ বাড়ি ফেরার পথে স্কুলছাত্রীকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ অতিরিক্ত ডিম খাওয়া ধূমপানের চেয়েও ক্ষতিকর! প্রধানমন্ত্রীর ফুফার নামও রাজাকারের তালিকায় বাবা তাহসানকে চিনতে ভুল করল না আইরা মার্কিন ঘাঁটিতে ইরানের হামলায় ১১ দেশের প্রতিক্রিয়া ১৩ কোম্পানির ১৫ পণ্য নিষিদ্ধ, উৎপাদন-মজুদও বন্ধ আকাশে গায়েব হয়ে গেলা বিপিএলের ড্রোন! ছাগলে খেয়েছে ডেসটিনির ৩৫ লাখ গাছ! ফেসবুক তৈরি করাটাই ছিল ‘ভয়ংকর ভুল’: জাকারবার্গ ব্যাপক হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে ইরান, যুদ্ধের দামামা শীতে বিয়ের ৭ সুবিধা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ধর্ষণের শিকার ইরান সীমান্তবর্তী আফগান প্রদেশে যুক্তরাষ্ট্রের হামলা, নিহত ৬০ নষ্ট মোবাইল সেট জমা দিলেই পাবেন টাকা! সোলাইমানিকে হত্যার ঘটনার ভিডিও প্রকাশ যেসব ফোনে বন্ধ হচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপ পেনড্রাইভ থেকে সরাসরি প্রকাশ করায় তালিকায় ভুল: মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ারিং পড়েও খামারি আতিকুল, মাসে আয় ১০ লাখ টাকা মায়ের সামনেই তরুণীর ওড়না ধরে টানলেন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সভাপতি ভিপি নুরের উপর হামলা অস্ট্রেলিয়ায় ১০ হাজারেরও বেশি উট গুলি করে মারার সিদ্ধান্ত গ্রেফতার ব্যক্তিই ‘ধর্ষক’, শনাক্ত সেই ঢাবি শিক্ষার্থীর অপহরণের পর পিস্তল ঠেকিয়ে যুবককে বিয়ে করলেন তরুণী শিক্ষার্থী ধর্ষণের সিসিটিভি ফুটেজ পাওয়া গেছে : ডিসি গুলশান জোন স্নাইপার দিয়ে ট্রাম্পকে হত্যার চেষ্টা, ভিডিও প্রকাশ তালিকাটি রাজাকারের নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ২৬ ডিসেম্বর বিরল সূর্যগ্রহণ দেখবে বিশ্ববাসী মহাকাশে পাওয়া গেলো এলিয়েনের লাইভ ভিডিও নুর আহত নাকি নিহত ডাজেন্ট ম্যাটার: রাব্বানী (ভিডিও) মার্কিন ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা কোনো কাজেই আসেনি এক নজরে আওয়ামী লীগের নবগঠিত কেন্দ্রীয় কমিটি ইতালি ছাড়ছে দৈনিক ৫০০ প্রবাসী, রয়েছে বাংলাদেশিরাও নুসরাত ফারিয়ার ভিডিও ভাইরাল স্বামী-স্ত্রীর পরকীয়া ধরা পড়ল কক্সবাজারে (ভিডিও) ইতালিতে অবৈধ অভিবাসীদের বৈধ হবার সুযোগ শীঘ্রই যেকোনো পরিস্থিতিতে ইরানের পাশে আছে তুরস্ক: এরদোয়ান ঢামেকে নেওয়া হয়েছে ভিপি নুরসহ ২২ শিক্ষার্থীকে মিসাইল হামলায় ৮০ মার্কিন সেনা হত্যার দাবি ইরানের কক্সবাজারে রোহিঙ্গাদের গুলিতে র‌্যাবের ২ সদস্য গুলিবিদ্ধ ইরানের পক্ষে-বিপক্ষে যেসব দেশ শিক্ষার্থীকে আটকে রেখে গণর্ধষণ: ছাত্রলীগের সহ-সভাপতিসহ গ্রেফতার ৩ ইরা‌নি হামলা নি‌য়ে সংবাদ স‌ম্মেল‌নে ট্রা‌ম্পের গলা কাঁপ‌ছি‌লো!
আরও সংবাদ...


Contact Address

Nasir Trade Centre, Level-9,
89, Bir Uttam CR Dutta Road, Dhaka 1205, Bangladesh
Email: somoydigitalsomoynews.tv

Find us on

  Live TVEnglish DMCA.com Protection Status
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
উপরে