sandy-sch-ed

পড়াশোনার ইচ্ছে থাকলেও তার উপায় নেই রাজশাহীর চরাঞ্চলের শিক্ষার্থীদের। চরে পর্যাপ্ত মাধ্যমিক স্কুল না থাকায় প্রাথমিক শিক্ষা শেষেই থমকে যাচ্ছে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া। শিক্ষা সুযোগ বঞ্চিত হয়ে বাল্য বিবাহসহ নানা সামাজিক বিচ্যুতি ও সীমান্ত অপরাধের সাথে জড়িয়ে পড়ছে তারা।

শিক্ষাবিদরা বলছেন, সীমান্তবর্তী এলাকায় বিজিবির সাথে সমন্বয়ে মাধ্যমিক স্কুল হলে চরে উন্মোচিত হতে পারে শিক্ষার নতুন দিগন্ত। এ বিষয়ে উচ্চ পর্যায়ে আলোচনার আশ্বাস দিয়েছেন জনপ্রতিনিধির।

স্কুলে শিক্ষক না আসায় ঘরের কাজে ব্যস্ত রেখেছেন সন্তানকে। একই কারণে পড়ার সময় স্কুল মাঠে খেলাধুলায় ব্যস্ত বালিকারা। রাজশাহীর চরখানপুকুর, তারা নগর, মাঝাড়দিয়াড়সহ জেলার ৯টি চরের একই অবস্থা। এসব চরে ৩টি জীর্ণ জুনিয়র হাইস্কুল থাকলেও শিক্ষকের অনুপস্থিতিতে সপ্তাহের অধিকাংশ দিনই থাকে তালাবদ্ধ।

চরের ১৬টি প্রাথমিক স্কুলে হাজারের বেশি শিক্ষার্থী পড়ার সুযোগ পেলেও পিএসসি শেষে মাধ্যমিক স্কুল সংকটে শিক্ষা বঞ্চিত থেকে যাচ্ছে তারা। পাশাপাশি সন্তানকে শহরে রেখে পড়ানোর সামর্থ্য না থাকায় উচ্চ শিক্ষায় সরকারি সুবিধা বঞ্চিত হচ্ছে চরের কিশোর কিশোরীরা। বাড়ছে মেয়েদের বাল্যবিবাহ আর সীমান্তে অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে ছেলেরা।

চরবাসীরা বলেন, ' আমরা গরীব মানুষ কতদিন মেয়েকে ঘরে রাখবো। বাল্য বিবাহ আইন হয়েছে। মেয়ে বিয়ে দিয়ে দেবো।'

শিক্ষকরা বলেন, 'এখানে আমরা কষ্ট করে চাকরি করে। এছাড়া আসার পরেই ট্রান্সফার হয়ে চলে যায় শিক্ষকরা।'  

শিক্ষাবিদরা বলছেন, দুর্গম চরাঞ্চলে বিজিবির সাথে যুক্ত প্রয়াসে একটি মাধ্যমিক স্কুল হলে চরের শিক্ষায় নতুন দিগন্ত উন্মোচনের পাশাপাশি নিশ্চিত হবে মেয়েদের মাধ্যমিক শিক্ষাও।  
 
শিক্ষাবিদ শাহ্ আজম সান্তনু বলেন, 'সরকার বিজিবি সঙ্গে যুক্ত হয়ে একটা যৌথ প্রয়াস যদি দেয়া যায়। তাহলে সফলতা আসতে পারে।'
 
শিক্ষাবিদ মো: আবুল হাসানাত বলেন, 'লেখাপড়ার মাধ্যমে তারা সামাজিক অনগ্রসরতা সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করতে পারবে। এবং চরাঞ্চলেও শিক্ষার আলোর পথ উন্মোচিত হবে।'

এ ব্যাপারে উচ্চ পর্যায়ে যোগাযোগ করে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিলেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি।

পবা-৩ আসনের সংসদ সদস্য  মো: আয়েন উদ্দিন বলেন, 'বিজিবি যেমন দায়িত্ব পালন করছে তার পাশাপাশি চরাঞ্চলে শিক্ষার প্রসারে কাজ করার জন্যে মহাপরিচালকের সঙ্গে আমি কথা বলবো।'

উপজেলা শিক্ষা অফিসগুলোর দেয়া তথ্য মতে, চরে মাধ্যমিক শিক্ষা নিশ্চিত করতে ১৭-১৮ অর্থবছরে ৯টি চরে শিক্ষকদের সুবিধায় তিনটি আবাসন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে।

en.Somoynews.tv