SomoyNews.TV

স্বাস্থ্য

আপডেট- ০৮-১১-২০১৯ ০৩:৫২:৫৭

এখনও দেড় শতাধিক ডেঙ্গু রোগী প্রতিদিন হাতপাতালে ভর্তি হচ্ছেন

nov-dengue-copy

ধারণা করা হচ্ছিল অক্টোবরেই কমে যাবে ডেঙ্গুর প্রকোপ। কিন্তু এখনও প্রতিদিন গড়ে দেড় শতাধিক রোগী ভর্তি হচ্ছেন দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে। হাসপাতাল সূত্র বলছে, চলতি মাসের প্রথম ছয় দিনেই ডেঙ্গুতে মারা গেছে ছয়জন। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এডিস দমনে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান কিংবা ব্যক্তি পর্যায়ে ঢিলেঢালাভাবের কারণেই পুরোপরি নিয়ন্ত্রণে আসেনি ডেঙ্গু। কর্তৃপক্ষের দাবি, ঘাটতি নেই নজরদারিতে। 

নভেম্বরে অনেকটাই কমে আসে ডেঙ্গুর প্রকোপ। গত ১৯ বছরের পরিসংখ্যান বলে সে কথাই। গেল তিন বছরে নভেম্বরে রোগীর সংখ্যা কেবল একবারই হাজার ছাড়িয়েছে। অথচ চলতি বছর প্রথম ছয়দিনেই এ সংখ্যা প্রায় হাজার। বিভিন্ন হাসপাতাল থেকে প্রাপ্ত তথ্য বলছে, মৃতের সংখ্যা তিনজন। এডিস দমনে অভিযানে শিথিলতা আসাই কারণ বলে মনে করছেন চিকিৎসকরা।

সেক্ষেত্রে বছরব্যাপী পরিকল্পনাগুলো কাগজে কলমে না রেখে সঠিক বাস্তবায়ন প্রয়োজন বলে মনে করেন তারা।

শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক উত্তম কুমার বড়ুয়া বলেন, আমাদের সিটি কর্পোরেশনগুলো অনেকটা আগের তুলনায় কর্মকাণ্ড কমিয়েছে এবং জনসচেতনতাও কমেছে এ জন্য ডেঙ্গু দীর্ঘমেয়াদি হয়েছে। 

এ বছর কেবল সরকারি হিসাবেই ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা প্রায় এক লাখ। প্রাথমিক ধাক্কা সামলে উঠলেও এখনও প্রতি ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের সংখ্যা দেড়শোর বেশি। সেক্ষেত্রে গাফিলতি দেখছে না কর্তৃপক্ষ।

জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক বেনজির আহমদ বলেন, এডিস মসা নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যভিত্তিক যে কার্যক্রম তা যদি সঠিকভাবে পালন করা হয় তাহলে ডেঙ্গু হবে না।

এ পর্যন্ত ১৭৯টি ডেথ রিভিউ শেষে ১১২টি মৃত্যু ডেঙ্গুজনিত বলে নিশ্চিত করেছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।