SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ২২-০৯-২০১৯ ১৭:২৩:৪১

মিন্নির মাথায় পিস্তল ধরে নির্যাতন করেছে পুলিশ, দাবি বাবার

minni22

বরগুনার বহুল আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় বাদী থেকে আসামি হওয়া আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি সুপ্রিম কোর্ট বারে তার আইনজীবীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। রোববার (২২ সেপ্টেম্বর) সুপ্রিম কোর্ট বারে আইনজীবী জেড আই খান পান্নার চেম্বারে বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোরকে সঙ্গে নিয়ে সাক্ষাৎ করেন। এসময় মিন্নি আইনজীবীর পা ছুঁয়ে সালাম করেন।

মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর বলেন, রিমান্ডের নামে মিন্নিকে যে নির্যাতন করা হয়েছে তার ভয়াবহতা নিয়ে সে ভুগছে। তার হাঁটুতে ব্যথা, জয়েন্টে জয়েন্টে ব্যথা। এ কারণে তাকে ডাক্তার দেখাতে নিয়ে এসেছি।

তিনি বলেন, পুলিশ ওর মাথায় পিস্তল ধরেছে। নির্যাতন করেছে। ভয়ভীতি দেখিয়েছে। এরপর থেকেই ও বিষণ্ণতায় ভুগছে। ওর একান্ত চিকিৎসা প্রয়োজন, এ জন্যই ঢাকায় আসা।

রোববার সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবীদের সঙ্গে দেখা করার পর সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন মিন্নির বাবা। কতদিন ঢাকায় থাকবেন, জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা বলা যাচ্ছে না। চিকিৎসা যতদিন লাগবে ততদিন।

মোজাম্মেল হোসেন বলেন, প্রভাবশালী একটি কুচক্রী মহলের কাছ থেকে মিন্নি রেহাই পেল না। যে কারণে সে সাক্ষী থেকে আসামি। এখনও ভয়ভীতি আছে। অনেক সময় আকার-ইঙ্গিতে বুঝতে পারছি আমাকে ভয়ভীতি দেখানোর চেষ্টা করতে চায়। সবসময় আমাদের ফলো করে। আমি এক ধরনের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

এ সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আইনজীবী জেড আই খান পান্না বলেন, ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শের বিষয় আছে। আইনজীবীর সঙ্গে পরামর্শের বিষয় আছে। চার্জশিটের কথাতো আগাগোড়াই বলেছি এটা একটা মনগড়া উপন্যাস। মূলত মূল আসামিদের এ মামলা থেকে অব্যাহতি দেয়ার জন্য এ ধরনের কারবার করা হয়েছে। নাথিং নিউ। জজ মিয়া এবং জাহালমের আরেকটা সংস্করণ।