SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ২৬-০৬-২০১৯ ০৮:৫৮:১৩

এ কেমন নিষ্ঠুরতা!

kissor-assult

কিশোরগঞ্জে চুরির অভিযোগে এক যুবককে চোখ ও হাত বেধে নির্যাতন করা হয়েছে। পূর্ব শত্রুতার জেরে এ ঘটনা বলে জানিয়েছেন স্বজনরা। এ ঘটনায় ব্যবস্থা না নিয়ে বরং অন্য এক মামলায় নাম দেখিয়ে নির্যাতিত ঐ যুবককে জেলে পাঠানো হয়েছে। নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে, ঘটনার ৯ দিন পর থানায় মামলা করা হয়। জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছে পুলিশ।

এলাকাবাসী জানান, গত ১৫ জুন কিশোরগঞ্জের জগদল গ্রামের অহিদুল ইসলামকে ফোন করে বাড়িতে ডেকে নেয়, পাশ্ববর্তী লাকুহাটি গ্রামের পল্টু মিয়া। ওই এলাকার মানিক মিয়ার দোকানে চুরির অভিযোগ তুলে, অহিদুলকে চোখ ও হাত বেধে লাঠি দিয়ে বেধরক পেটায় পল্টু ও তার সহযোগিরা।

স্থানীয় একজন বলেন, 'পূর্ব শত্রুতার কারণে চোরের অপবাদে গামছা দিয়ে চোখ বেঁধে নির্যাতন করা হয়।'

আরেকজন বলেন, লোহার পাইপ দিয়ে তাকে বেদম পিটানো হয়।

রাতভর নির্যাতনের পর অহিদুলকে পুলিশে দেয়া স্থানীয়রা। এরপর পুলিশ তাকে অন্য একটি মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে জেলহাজতে পাঠায় বলে অভিযোগ স্বজনদের।

ভুক্তভোগী অহিদুলের মা বলেন,'চোরের মামলায় থানায় দিয়ে, অন্য মামলায় জেলে পাঠানো হয়েছে। আমি এই অন্যয়ের বিচার চাই।'

এদিকে, নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে, ঘটনার ৯ দিন পর অহিদের বাবা বাদী হয়ে ২৫ জনের বিরুদ্ধে হোসেনপুর থানায় একটি মামলা করেন। এদিকে, ২৪ জুন দোকান মালিক অহিদের বিরুদ্ধে চুরির পাল্টা মামলা করেছে বলে জানায় পুলিশ।

কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর থানা পুলিশের পরিদর্শক মোহাম্মদ নূর ইসলাম বলেন, 'পূর্ব একটি মামলা যেখানে প্রায় ২ থেকে ৩ হাজার মানুষকে আসামি করা হয়েছে, সেই মামলায় আমরা তাকে জেলহাজতে পাঠাই। তবে উক্ত চুরির মামলায় তাকে আবার গ্রেফতার দেখিয়েছি। এদিকে অহিদুলের বাবার তথ্য মতে ২৫ জনকে আসামি করে আমরা একটা মামলা নেই। তবে এই আসামিদের ধরতে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।'  

অহিদুল ইসলাম বর্তমানে জেলা কারা হাসাপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। এরআগে গত ৬ জুন দড়িজাহাঙ্গিরপুর এলাকায় চুরির অপবাদ দিয়ে, মোশারফ হোসেন নামে এক প্রতিবন্ধী কিশোরকে হাত-পা বেধে নির্যাতন করা হয়।