SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon আন্তর্জাতিক সময়

আপডেট- ২০-০৬-২০১৯ ১৭:০৫:২১

খাশোগি হত্যাকাণ্ড: জাতিসংঘের প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান সৌদি আরবের

jamal-20june-jpg-2

সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে সৌদি আরবের জড়িত থাকার বিষয়ে জাতিসংঘের প্রতিবেদনকে ভিত্তিহীন এবং অসঙ্গতিপূর্ণ আখ্যা দিয়ে তা তীব্রভাবে প্রত্যাখ্যান করেছে রিয়াদ। বুধবার (১৯ জুন) এক টুইটে সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল জুবায়ের অভিযোগ করেন, কেবল সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনের ওপর ভিত্তি করেই সৌদিকে দায়ী করছে জাতিসংঘ। এদিকে সাংবাদিক খাশোগিকে হত্যার জন্য সৌদি আরবকে চড়া মূল্য দিতে হবে বলে হুঁশিয়ার করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইপ এরদোয়ান।

সৌদি আরবের অনুসন্ধানী সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে মঙ্গলবার একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে জাতিসংঘ। সংস্থার এক মানবাধিকার বিশেষজ্ঞের স্বাধীন ওই তদন্ত প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, আলোচিত খাশোগি হত্যার সঙ্গে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান এবং দেশটির শীর্ষ পর্যায়ের বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা জড়িত থাকার যথেষ্ট তথ্য-প্রমাণ রয়েছে। খাশোগি হত্যার সঙ্গে সৌদি যুবরাজের জড়িত থাকার সম্ভাব্যতার কারণে, তার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি না করার কোন কারণ নেই বলেও প্রতিবেদনে জানানো হয়।

জাতিসংঘের প্রতিবেদন প্রকাশের পরই তা পুরোপুরি প্রত্যাখ্যান করেছে সৌদি আরব। তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল জুবায়ের এক টুইটে, জাতিসংঘের প্রতিবেদনকে অসঙ্গতিপূর্ণ এবং অনুমানির্ভর হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন। ওই প্রতিবেদনে নতুন কোন তথ্য নেই উল্লেখ করে তিনি দাবি করেন, গণমাধ্যমের প্রতিবেদনের ওপর ভিত্তি করেই খাশোগি হত্যার সঙ্গে সৌদি যুবরাজকে জড়ানো হয়েছে।

রিয়াদ প্রত্যাখ্যান করলেও খাশোগিকে হত্যার জন্য সৌদি আরবকে চড়া মূল্য দিতে হবে বলে হুঁশিয়ার করেছে তুরস্ক। বুধবার ইস্তাম্বুলে এক অনুষ্ঠানে দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইপ এরদোয়ান দাবি করেন, সৌদি আরবের উচ্চ পর্যায়ের নির্দেশেই সাংবাদিক খাশোগিকে হত্যা করা হয়।

তুরস্ক প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইপ এরদোয়ান বলেন, জাতিসংঘের প্রতিবেদনে এটা খুবই স্পষ্ট যে, জামাল খাশোগিকে কাদের নির্দেশে হত্যা করা হয়েছিল। এর জন্য এককভাবে কেবল সৌদি আরবই দায়ী। অন্যদিকে এই হত্যার জন্য রিয়াদ আঙ্কারাবিরোধী যেসব বক্তব্য দিয়েছিলো, তা-ও ভুল প্রমাণ হয়েছে।

এদিকে বিশ্লেষকরা বলছেন, সাংবাদিক খাশোগি ইস্যুতে জাতিসংঘের প্রতিবেদন সৌদি আরবের জন্য একটি কলঙ্কজনক অধ্যায়। বর্তমান পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের জন্য সৌদি আরবকে যথাযথ পদক্ষেপ নিতে হবে বলেও মত তাদের।

তুর্কি-আরব মিডিয়া অ্যাসোসিয়েশন প্রধান তুরান কিসলাকচি বলেন, খাশোগি হত্যার সঙ্গে সৌদি যুবরাজ সালমানের জড়িত থাকার বিষয়ে আগে থেকেই সন্দেহ করা হচ্ছিল। বিষয়টি এখন একরকম প্রমাণই হলো। আমি মনে করি সৌদি বাদশার বিষয়টির দিকে নজর দিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া।

গেল বছরের দোসরা অক্টোবর তুরস্কের সৌদি কনস্যুলেটে রিয়াদের কট্টর সমালোচক সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যা করা হয়। শুরু থেকেই ওই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের জড়িত থাকার অভিযোগ তোলা হয়। যদিও তা বরাবরই প্রত্যাখ্যান করে আসছে রিয়াদ।