SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon আন্তর্জাতিক সময়

আপডেট- ২৪-০৫-২০১৯ ১৬:২৬:০৪

মোদি বন্দনা চলছে সংবাদমাধ্যমে

modi

ভারতের ১৭তম লোকসভা নির্বাচনে বিপুল ব্যবধানে জয়ের পরদিন দেশটির সংবাদ মাধ্যমগুলোতে চলছে মোদি বন্দনা। বিজেপির নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন আর কংগ্রেসের ভরাডুবির কারণ খুঁজে বের করতে হিসেব-নিকেশে ব্যস্ত রাজনৈতিক বিশ্লেষকরাও। দ্বিতীয় মেয়াদে নরেন্দ্র মোদির সরকার বিশ্ব দরবারে দেশকে অন্যান্য উচ্চতায় নিয়ে যাবেন বলে প্রত্যাশা সাধারণ ভারতীয়দের।

এদিকে, প্রধানমন্ত্রীসহ নতুন মন্ত্রিসভার শপথ গ্রহণের দিনক্ষণ ঠিক করতে সন্ধ্যায় মন্ত্রিসভার সদস্যদের নিয়ে বৈঠকে বসতে যাচ্ছেন মোদি।

ভারতীয়দের জন্য শুক্রবার সকালটি ছিল একটু আলাদা। কেননা, ইতিহাস রচনা করে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনের মধ্য দিয়ে আগের দিনই টানা দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আসা নিশ্চিত করেছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট। আর তাই স্বভাবতই সকালের পত্রিকাগুলোও ভাসছে মোদি বন্দনায়।

শুধু তাই নয়, বিজেপির এবারের সাফল্যকে ভারতের ইতিহাসের সর্বকালের সেরা সাফল্য হিসেবেও অভিহিত করছেন কেউ কেউ। অনেকেই আবার মনে করছেন, দ্বিতীয় মেয়াদে মোদির সরকার বিশ্ব দরবার ভারতকে নিয়ে যাবেন অনন্য উচ্চতায়।

মোদির নেতৃত্বে আগামী দিনগুলোতে ভারত অবশ্যই আরও অনেক দূর এগিয়ে যাবে। কেননা তিনি গত পাঁচ বছরে যা করছেন এর আগে কোন প্রধানমন্ত্রীই তা করতে পারেননি। তিনি ভারত সম্পর্কে আন্তর্জাতিক বিশ্বের ধারণা পাল্টে দিয়েছেন।

সাধারণ মানুষ জানান, আমাদের স্বপ্ন আজ সত্যি হয়েছে। পত্রিকার শিরোনামগুলোও তারই বহিঃপ্রকাশ। বিজেপির বিপুল ব্যবধানে জয়ের মধ্য দিয়ে জাতির আশা আকাঙ্খা পূরণ হয়েছে।

তবে, বিশ্লেষকরা মনে করছেন, নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলেও বিজেপি'র উচিত নতুন মেয়াদে দায়িত্ব নিয়ে নির্বাচনী অঙ্গীকার পূরণে গুরুত্বারোপ করা।


বিশ্লেষকরা জানান, বিজেপি তাদের নির্বাচনী ইশতেহারে যেসব অঙ্গীকার করেছে তা বাস্তবায়নে এখন থেকেই পদক্ষেপ নিতে হবে। সুনির্দিষ্ট কর্মপরিকল্পনা তৈরি করে তা জনগণের সামনে তুলে ধরতে হবে বিজেপি সরকারকে।

অন্যদিকে, পরাজয়ের কারণে খুঁজে বের করে সামনের দিনগুলোতে কংগ্রেসকে জনগণের আরও কাছে গিয়ে রাজনীতি করার পরামর্শ এই বিশ্লেষকের।

কংগ্রেসকে অবশ্যই নির্বাচনে ভরাডুবির কারণ খুঁজে বের করতে হবে। তাদেরকে ড্রইং রুম রাজনীতি এবং সংগঠন ভিত্তিক রাজনীতি থেকে বের হয়ে এসে জনগণের কাছে যেতে হবে। তাদের সঙ্গে কথা বলতে হবে তারা কি চায় তা বুঝতে হবে। কংগ্রেস যদি সত্যিই তা অনুধাবন করে জনগণের স্বার্থে কাজ করতে পারে তবে ঠিকই তারা আবারও একদিন ক্ষমতায় আসবে।

এদিকে, চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণার পর প্রধানমন্ত্রী তথা মন্ত্রিসভার শপথের দিনক্ষণ ঠিক করতে সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের নিয়ে বৈঠকে বসতে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ মোদি। তবে, বিজেপি একাই একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করায় জোট সরকারের কাঠামো কেমন হবে- তা নিয়ে এরইমধ্যে শুরু হয়ে গেছে জল্পনা কল্পনা।