SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon আন্তর্জাতিক সময়

আপডেট- ২১-০৪-২০১৯ ১৬:৩৫:১৯

লিবিয়ায় রকেট হামলা

libya

লিবিয়ায় চলমান সংঘাতের মধ্যেই শনিবার নতুন করে রাজধানী ত্রিপোলির কয়েকটি এলাকায় রকেট হামলার ঘটনা ঘটে। সন্ত্রাসীরা এই হামলা চালিয়েছে বলে সশস্ত্র হাফতার বাহিনী দাবি করলেও দেশটির সরকারি বাহিনীর দাবি, হাফতার গোষ্ঠীই হামলাটি চালায়। এরই মধ্যে, সন্ত্রাসীদের যেকোন হামলা কঠোর হাতে দমনে নিজ সেনাদের নির্দেশ দিয়েছেন জাতিসংঘ সমর্থিত সরকারের প্রধানমন্ত্রী ফায়েজ আল সারাজ। এদিকে, রকেট হামলার খবর পেয়েই বন্ধ করে দেয়া হয় ত্রিপোলির একমাত্র সচল মিতিগা বিমানবন্দরের সব কার্যক্রম।

ভারি অস্ত্রের মুহুর্মুহু গর্জন। সন্ত্রাস বিরোধী অভিযানের নামে লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলির নিয়ন্ত্রণ নিতে শনিবারও হামলা চালায় দেশটির সশস্ত্র হাফতার বাহিনী। সর্বশেষ এ আক্রমণে জনশূন্য হয়ে পড়ে শহরের আল খেল্লা এলাকাও।

এক বিবৃতিতে খলিফা হাফতার নেতৃত্বাধীন লিবিয়ান ন্যাশনাল আর্মি এলএনএ'র মুখপাত্র জানান, সন্ত্রাস নির্মূলে শহরের আল ওয়াতিয়া ও ঘারয়ান এলাকাতেও অভিযান চালানো হয়। এসময় অপরপক্ষ রকেট হামলা চালিয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।

এলএনএ'র মুখপাত্র বলেন, আজকের অভিযান অন্য যেকোন দিনের চেয়ে বেশি কার্যকর ছিল। কয়েকটি এলাকা পুরোপুরি সন্ত্রাসীমুক্ত হয়েছে। সন্ত্রাসীরা একাধিক রকেট হামলা চালিয়েছে। আমাদের সেনারা সফলতার সাথে তা মোকাবিলা করেছে।

তবে খলিফা হাফতার সমর্থিত গোষ্ঠীই রকেট হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ লিবিয়ার জাতিসংঘ সমর্থিত সরকারি বাহিনী।

এরই মধ্যে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হাফতারকে সমর্থন জানানোর খবর প্রকাশ হওয়ার পরই সশস্ত্র গোষ্ঠীর হামলা আরও জোরালো হয়েছে উল্লেখ করে কঠোর হাতে যেকোনো হামলা প্রতিহত করতে নিজ সেনাদের নির্দেশ দেন জাতিসংঘ সমর্থিত সরকারের প্রধানমন্ত্রী ফায়েজ আল সারাজ। শনিবার এক বিবৃতিতে এ নির্দেশ দেন সারাজ। তিনি দাবি করেন, হাফতার বাহিনীর যেসব সদস্য এই হামলায় অংশ নিচ্ছে, তাদের বেশিরভাগই অপ্রাপ্তবয়স্ক।

রাজধানীতে ভয়াবহ এ রকেট হামলার পর দেশটির একমাত্র সচল মিতিগা বিমানবন্দর বন্ধ করে দেয়া হয়। রোববার ওয়েবসাইটের এক বিজ্ঞপ্তিতে পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত সব কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

এদিকে, বেসামরিক নাগরিকদের রক্তপাত বন্ধে অবিলম্বে যুদ্ধরত দুই পক্ষকে আলোচনার মাধ্যমে যুদ্ধবিরতি ঘোষণার আহ্বান জানান তিউনিশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী। জেনারেল খলিফা হাফতারের সঙ্গে এক ফোনালাপে তিনি এ আহ্বান জানান।

ত্রিপোলির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সংঘাত বন্ধে বিশ্বনেতারা বারবার আলোচনার আহ্বান জানালেও যুদ্ধরত দুই পক্ষের কেউই তা আমলে নেয়নি। বেসামরিক নাগরিকের জীবন ঝুঁকিতে ফেলে হামলা চালানোয় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় হাফতা গোষ্ঠীর তীব্র নিন্দা জানালেও মার্কিন প্রেসিডেন্টের সমর্থন এ সংঘাতকে আরও উস্কে দিয়েছে বলেই মত বিশ্লেষকদের।