SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon আন্তর্জাতিক সময়

আপডেট- ১৫-০৪-২০১৯ ১৬:২৭:১১

মোদির হেলিকপ্টার থেকে নামানো 'কালো ট্রাঙ্ক' নিয়ে রহস্য

modi

স্বাধীনতার ইতিহাস নিয়ে বিরোধী দল কংগ্রেস রাজনীতি করছে বলে অভিযোগ করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ক্ষমতায় থাকাকালীন কংগ্রেস সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ওপর জোর দেয়নি বলেও মন্তব্য করেন তিনি। পাল্টা অভিযোগে কংগ্রেস সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বলেছেন, সংবিধান ধ্বংস করতে মরিয়া ক্ষমতাসীন দল বিজেপি। এরমধ্যেই, প্রধানমন্ত্রী মোদিকে বহনকারী হেলিকপ্টার থেকে কালো ট্রাঙ্ক নামানোর বিষয়ে তদন্ত করতে নির্বাচন কমিশনের প্রতি দাবি জানিয়েছে কংগ্রেস।

রোববার জম্মু কাশ্মীরের কাঠুয়ায় বিশাল নির্বাচনী জনসভায় যোগ দেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। নানা অভিযোগে তুলোধুনো করেন কংগ্রেসসহ অন্যান্য বিরোধী দলকে। বলেন, ক্ষমতায় থাকার সময় কংগ্রেস কখনোই সামরিক বাহিনীকে বিশ্বাস করতে পারেনি। তাই সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ব্যবহার না করে, নিজেদের আয় বাড়াতে সেনাবাহিনীকে ব্যবহার করেছে কংগ্রেস। কাশ্মীরকে কোন অবস্থাতেই আলাদা করতে দেওয়া হবে না বলেও জানান তিনি।


একই দিন আসামের শিলচরে বিশাল রোড শো'তে অংশ নেন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। পরে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে দেওয়া বক্তব্যে তিনি বিজেপির নির্বাচনী ইশতেহার নিয়ে কটাক্ষ করেন। বলেন, ভারতের সংবিধান ধ্বংস করতে মরিয়া ক্ষমতাসীন দল বিজেপি। নিজ আসনের সাধারণ মানুষই প্রধানমন্ত্রী মোদির ওপর ক্ষিপ্ত বলেও দাবি করেন কংগ্রেসের শীর্ষ এই নেত্রী।

এদিকে শনিবার কর্নাটকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্রী মোদিকে বহনকারী হেলিকপ্টার থেকে রহস্যজনভাবে কালো ট্রাঙ্ক নামিয়ে একটি বেসরকারী গাড়িতে উঠানোর বিষয়ে কড়া প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে কংগ্রেস। অবিলম্বে ওই ঘটনার তদন্ত করতে নির্বাচন কমিশনের প্রতি দাবি জানিয়েছে কর্নাটকের কংগ্রেস সভাপতি দীনেশ গুন্ডু রাও।

লোকসভা নির্বাচনী জনসভাগুলো এখন পরিণত হয়েছে বাকযুদ্ধ ক্ষেত্রে। ভোটারদের মন জয় করতে, উত্তপ্ত বাক্যবানে প্রতিক্ষকে ঘায়েল করতে মরিয়া রাজনৈতিক দলগুলোর শীর্ষ নেতারা। তবে সাধারণ ভারতীয়রা পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে কাকে বেছে নেবেন, তার জন্য অপেক্ষা করতে হবে আগামী ২৩শে মে পর্যন্ত।