SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ১২-০৯-২০১৮ ২০:০১:০২

ওএমএসের চাল পাচারের ঘটনায় ২৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা

food-stol

ওএমএসের চাল, আটা ও গম পাচারের সঙ্গে ১০ জনের একটি সিন্ডিকেট জড়িত বলে জানিয়েছে খাদ্য অধিদপ্তর। দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা অনিয়ম, জবাবদিহিতার অভাব ও দুর্নীতির কারনে এই ঘটনা ঘটে বলে ধারণা সংশ্লিষ্টদের। এ ঘটনায় গতরাতে ২৩ জনকে আসামি করে মামলা করে র‌্যাব। তারা পুরো প্রক্রিয়ার অনিয়মের অধিকতর তদন্ত প্রয়োজন জানিয়ে, দুদকের কাছে প্রতিবেদন দিয়েছে। এ ঘটনার তথ্য উপাত্ত সংগ্রহে মাঠে নেমেছে দুদক।

 


তেজগাঁও সরকারি গুদামের ওএমএসের ২১৫ টন খাদ্যশষ্য খোলাবাজারে পাচারের ঘটনা নিয়মিত জবাবদিহিতার অভাব ও দীর্ঘদিনের অনিয়মেরই অংশ বলে মনে করা হচ্ছে। তারই প্রেক্ষাপটে গত শানিবার রাতে র‌্যাবের অভিযানে গুদাম থেকে পাচার হওয়া ১০০ টন ও এম এসের চাল জব্দ করে র‌্যাবের ভ্রাম্যমান আদালত। পরে মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেটে অভিযান চালিয়ে আরো ১১৫ টন চাল আটা গম জব্দ করা হয়।

বরাবরের মতো এসব খাদ্য গুদাম থেকে ছাড় করার কোন হিসাব পাওয়া যায় না। এ অনিয়মের পেছনে একাধিক মহলের গাফেলতি, জবাবদিহীতার অভাব ও স্বার্থান্বেসী ব্যাক্তি জড়িত থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ফলে বিষয়টি অধিকতর তদন্তে বুধবার সকালে দুদকে অভিযানের প্রতিবেদন জমা দেন র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম।

তিনি বলেন, ‘তাদের বিষয়ে গতকাল তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় একটি নিয়মিত মামলা দায়ের করা হয়েছে। আমরা তার পাশাপাশি দুদককে অনুরোধ করেছি এর সঙ্গে কারা কারা জড়িত, এবং তাদের জ্ঞাত আয় বহির্ভূত কোনো সম্পত্তি রয়েছে কিনা বা কতদিন যাবৎ এটি করছে- এ বিষয়গুলো অধিকতর তদন্ত করার জন্য।’   

এদিকে র‌্যাবের রিপোর্ট দুদকের তদন্তে সহায়ক হবে জানিয়ে, বিষয়টি অধিকতর তদন্তে এরই মধ্য কাজ শুরু করেছে বলে জানান দুদক সচিব ড. মো. শামসুল আরেফিন।

তিনি বলেন, ‘এরইমধ্যে তথ্যগুলো আমাদের কাছে এসেছে। তথ্যগুলো পেয়ে গেলেই আমরা আমাদের কার্যক্রম শুরু করতে পারবো। কর্তৃপক্ষের যারা এটা দেখভালের দায়িত্বপ্রাপ্ত ছিলেন, তারা করেছেন কিনা- সেখানে যদি দুর্নীতির বিষয়টি থাকে, সেক্ষেত্রে এটি দুদকের আওতায় আসবে।’  

এদিকে বুধবার দুপুরে এই সিন্ডিকেটের ১০ জনের জড়িতা থাকার বিষয়ে জানান খাদ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আরিফুর রহমান অপু। গঠিত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের প্রেক্ষীতে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানানো হয়।

তিনি বলেন, ‘এখানে আসলে সিন্ডিকেট কাজ করেছে। এখানে যে একপক্ষ এটা করেছে- এমনটা নয়। এখানে অনেকগুলো পক্ষ আছে। এটা নিয়ে মামলা হয়েছে। ওখানে যারা জড়িত ছিল, ওদেরকে আমরা সরিয়ে নিয়েছি। সংশ্লিষ্ট যারা আছে, তাদেরকে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আমাদের এখানে সরবরাহ ও বণ্টনের পরিচালককে প্রধান করে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এরা সাত দিনের মধ্যে আমাদের রিপোর্ট দেবে।’  

এর আগে রাতে ১০ জন ব্যবসায়ী ও ২ জন ডিলার সহ ২৩ জনকে আসামি করে তেজগাঁও থানায় মামলা করে র‌্যাব।