SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon বাংলার সময়

আপডেট- ১২-০৯-২০১৮ ১৭:৫৬:২৬

লালমনিরহাটের ৮ হাজার মানুষ পানিবন্দি

lalmoni-flood-1

তিস্তা নদীর পানি বেড়ে লালমনিরহাটের ৩ উপজেলার অন্তত ১৫টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এতে পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন ৮ হাজার মানুষ। হঠাৎ পানি ঢুকে পড়ায় ভাঙন আতঙ্কে দিন পার করছেন নদীপাড়ের মানুষ। বন্যা দুর্গত এলাকায় জরুরি সাহায্য দেয়ার কথা জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক।


মঙ্গলবার হঠাৎ করে তিস্তা নদীতে পানি বেড়ে যাওয়ায় লালমনিরহাট সদর, আদিতমারী ও হাতীবান্ধা উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় পানি ঢুকে পড়েছে। বন্যায় পানিবন্দি হয়ে পড়ে অন্তত ৮ হাজার মানুষ। ঘরবাড়ি, রাস্তাঘাট ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে জমে গেছে হাটুপানি। বন্যা কবলিত হয়ে অনেকে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছেন। ইতোমধ্যে একটি বালুর বাধেঁর প্রায় ৫০ ফিট বিলীন হয়েছে নদীগর্ভে। এতে ভাঙন আতঙ্কে দিন পার করছেন নিম্নাঞ্চলের মানুষ।

স্থানীয়রা বলেন, 'ঘড়-বাড়ি ও ফসল সব ভেসে গেছে। রাস্তাঘাটও ভেঙ্গে গেছে। গবাদিপশু, পরিবার পরিজন নিয়ে আমরা খুবই অসুবিধায় পড়েছি।'

পানিবন্দি হয়ে অর্ধাহারে-অনাহারে দিন কাটানো এসব মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসতে আহ্বান জানিয়েছেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মো. মোছাদ্দেক আলী। তিনি বলেন, 'ইএনও বলেছেন, দ্রুত একটি তালিকা তৈরি করুন। তালিকা অনুযায়ী ত্রাণ দেওয়া হবে।'

অবশ্য বন্যা কবলিতদের সাহায্যে জরুরীভিত্তিতে সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শফিউল আরিফ। তিনি বলেন, 'আমরা ক্ষয় ক্ষতির তালিকা এখনও পায় নি। আমরা আশা করছি, তালিকা পেলেই আমরা ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ত্রাণ প্রেরণ করবো।'