SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon আন্তর্জাতিক সময়

আপডেট- ১১-০৯-২০১৮ ২০:৩৯:২২

ছেলে ডাক্তার, 'অবহেলায়' মায়ের মৃত্যু!

-bankura

ছেলেকে ডাক্তার বানিয়েছেন। তবুও মায়ের মৃত্যু হলো অনাদরেই। বাঁকুড়ার কাটজুড়িডাঙ্গা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। দীর্ঘ ২০ বছর ধরে স্বামীর ভিটেতে একাই থাকতেন ৭২ বছর বয়সী  গীতা দেবী। মঙ্গলবার (১১ সেপ্টেম্বর) সকালে বৃদ্ধার লাশ উদ্ধার করা হয়। মায়ের মৃত্যুতে ছেলে বাড়িতে আসলে তোপের মুখে পড়েন এলাকাবাসীর।  


এলাকাবাসী জানায়, ছেলে চিকিত্‍সক । কিন্তু সে ঘরে ঠাঁই হয়নি মায়ের । বাধ্য হয়ে বাঁকুড়া শহরের কাটজুড়িডাঙ্গা এলাকায় একাই থাকতেন গীতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গত তিনদিন ধরেই তাকে দেখতে পাননি স্থানীয়রা। সোমবার বিকেলে বাড়ি থেকে দুর্গন্ধ বের হতে শুরু করে। মঙ্গলবার সকালে বাড়ি খুলে দেখা যায় বৃদ্ধার লাশ।  খবর পেয়ে চিকিৎসক সন্তান স্ত্রীকে নিয়ে বাড়িতে এলে তাঁকে ঘিরে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন এলাকার মানুষ।

ছেলের দাবি, মায়ের দেখভাল তারা ঠিকঠাকই করতেন। স্থানীয় কাউন্সিলর অবশ্য, মৃত্যু নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন।

ছেলে তপন বন্দ্যোপাধ্যায় পেশায় রেলের চিকিৎসক। নিজের পরিবার নিয়ে তিনি আদ্রায় রেলের কোয়ার্টারে থাকতেন। এলাকাবাসীর অভিযোগ, ছেলের সেই কোয়ার্টারে বৃদ্ধা মা গীতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্থান হয়নি। বাধ্য হয়ে গত ২০ বছরেরও বেশি সময় ধরে প্রয়াত স্বামীর তৈরি করে দেওয়া বাঁকুড়া শহরের কাটজুড়িডাঙ্গা এলাকার একটি বাড়িতে একাই থাকতেন ওই বৃদ্ধা

 এদিকে মৃত্যু ঘিরে তৈরি হয়েছে রহস্য। দুর্ঘটনা, আত্মহত্যা নাকি খুন, খতিয়ে দেখছে পুলিশ।