SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon বাংলার সময়

আপডেট- ১১-০৯-২০১৮ ১৮:৪১:১৫

নেপালি ছাত্রীকে যৌন নিপীড়ন, বাংলাদেশি শিক্ষক গ্রেফতার

teacher

সিরাজগঞ্জের বেসরকারি মেডিকেল কলেজের নেপালি এক ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে কলেজের প্রভাষক ডা. তুহিন রহমানকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করে পুলিশ। এ ঘটনায় অভিযুক্ত প্রভাষককে কলেজ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

 

পুলিশ জানায়, নর্থবেঙ্গল মেডিকেল কলেজের চতুর্থ বর্ষের এক নেপালী ছাত্রীর সঙ্গে লেখাপড়ার সুবাদে একই কলেজের ফরেনসিক বিভাগের প্রভাষক ডা. তুহিন রহমানের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এক পর্যায়ে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ওই ছাত্রীর সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে তোলে ডা. তুহিন। সম্প্রতি ওই ছাত্রী বিয়ের কথা বললে ডা. তুহিন বিয়ে করতে অস্বীকার করে। এ ঘটনায় ১০ সেপ্টেম্বর, সোমবার তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে। পরে রাতে থানায় এসে অভিযোগ করে ওই ছাত্রী। রাতে শহরের ধানবান্ধি মহল্লার নিজ বাড়ি থেকে পুলিশ অভিযুক্তকে আটক করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করে। এবং আদালত সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করেন।

সিরাজগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) রফিকুল ইসলাম বলেন, লিখিত অভিযোগের পরই ডা. তুহিনকে আটক করা হয়। প্রাথমিকভাবে বিষয়টি প্রমাণিত হওয়ায় মেয়েটির অভিযোগ মামলা হিসেবে গ্রহণ ডা. তুহিনকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে অভিযোগ পাওয়ার পর অভিযুক্ত প্রভাষক কে কলেজ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। ঘটনাটি তদন্তের জন্য কলেজ কতৃপক্ষ তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।  

সিরাজগঞ্জ নর্থবেঙ্গল মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. এস এম আকরাম হোসেন বলেন, ছাত্রী অভিযোগ ভিত্তিতে ডা. রেজাকে প্রধান করে একটি তদন্ত গঠন করেছি। তদন্তের মাধ্যমে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ড. তুহিনকে কলেজ থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।