SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon বাংলার সময়

আপডেট- ১১-০৯-২০১৮ ১৭:৫১:৪২

নতুন দিগন্তের সূচনা করবে আখাউড়া-আগরতলা রেললাইন নির্মাণ প্রকল্প

akaura-rail

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আখাউড়া-আগরতলা ডুয়েলগেজ রেললাইন নির্মাণ প্রকল্পের ভূমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া প্রায় শেষ পর্যায়ে। সোমবার বিকেলে বাংলাদেশ ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী এ প্রকল্পের উদ্বোধন করেন। প্রকল্প সংশ্লিষ্টদের আশা, এতে দু'দেশের যাত্রী পরিবহনের পাশাপাশি পণ্য পরিবহনেও উন্মোচিত হবে নতুন দিগন্ত।

সোমবার বিকেলে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যকার বিভিন্ন প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আখাউড়া-আগরতলা ডুয়েলগেজ রেললাইন নির্মাণ প্রকল্পের উদ্বোধন করেন দুদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদি। সেভেন সিস্টার হিসেবে পরিচিত উত্তর পূর্ব ভারতের সাথে এতদিন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ার সড়ক যোগাযোগ থাকলেও নতুন করে যোগ হতে যাচ্ছে রেল যোগাযোগ। যা দু'দেশের যাত্রী পরিবহনের পাশাপাশি পণ্য পরিবহনেও উন্মোচন হবে নতুন দিগন্ত। এতে খুশি আখাউড়াবাসী।

স্থানীয়রা বলেন, 'আমরা আখাউড়াবাসী স্বাগত জানায়। দুই দেশের সম্পর্ক অনেক ভাল হবে এতে। ব্যবসায়ীরা অনেক খুশি। এতে দুই দেশের সম্পর্ক উন্নয়নের মাধ্যমে আমরা অর্থনৈতিক ভাবে সফলতা পাবো।'

প্রকল্পটি বাস্তবায়নে এরইমধ্যে জমি অধিগ্রহণের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। অল্প কিছু দিনের মধ্যেই এ প্রকল্পের দৃশ্যমান অগ্রগতি দেখা যাবে বলে আশা করছেন প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা। রেলপথ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. মজিবুর রহমান বলেন, 'এই কানেকটিভিটির ফলে আমাদের এক দেশ থেকে আরেক দেশে যাতায়াতের সুবিধা বাড়বে। এছাড়া অন্তর্দেশীয় সম্পর্ক আরো বৃদ্ধি পাবে।'

আখাউড়া-আগরতলা ডুয়েলগেজ প্রকল্পের পরিচালক মো. শহীদুল ইসলাম বলেন, 'জমির সীমানা নির্ধারণের কাজ শেষ হয়েছে। কাজ পুরোদমে চলছে। পাশাপাশি ভৌত কাজগুলো আমরা শুরু করতে যাচ্ছি।'

এ প্রকল্পকে ঘিরে দু'দেশের বাণিজ্য সম্প্রসারণ ও পর্যটন খাত নিয়ে নানা পরিকল্পনার কথা জানান ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক বলেন,' দুই দেশের মধ্যে ব্যবসা বাণিজ্য পর্যটন যেনো বৃদ্ধি পায় তার জন্যে এই সব কিছু করা হচ্ছে'

প্রায় ১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের এ রেললাইন প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৪শ ৪৭ কোটি টাকা। এর মধ্যে ৪২০ কোটি টাকাই দেবে ভারত।