SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ১১-০৯-২০১৮ ১২:৫০:৩৫

খুলনায় নিখোঁজের ১৫ দিন পর স্কুল শিক্ষকের লাশ উদ্ধার

khul-resq-up1

খুলনায় নিখোঁজের ১৫ দিন পর এক স্কুল শিক্ষকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সকালে নগরীর বয়রা এলাকার একটি ডোবা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে তাকে হত্যা করা হতে পারে বলে ধারনা করছে পুলিশ। হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের গ্রেফতার করে শাস্তির দাবি জানিয়েছেন স্বজন ও এলাকাবাসী।

 

নিখোঁজের পরও বাবা মায়ের অপেক্ষা ছিলো জীবিত ফিরে আসবে সন্তান। কিন্তু জীবিত সন্তান নয় এলো তার মৃত্যুর সংবাদ। এমন আকস্মিক মৃত্যুতে স্তব্ধ গোটা পরিবার। স্বামীকে হারিয়ে শোকে পাথর অন্তঃসত্বা স্ত্রী।

স্বজনরা জানান, গত ২৮শে আগস্ট বাসা থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হন খুলনা নগরীর মুজগুন্নী এলাকার স্কুল শিক্ষক তাসফিন হোসেন তন্ময়। এ ঘটনায় ৮ সেপ্টেম্বর বাবা কাজী ফেরদৌস হাসান বাদী হয়ে প্রতিবেশী মুরাদসহ অজ্ঞাত বেশকজন আসামির বিরুদ্ধে খালিশপুর থানায় একটি মামলা করেন। পরে মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে সোমবার সাইফুল নামে এক যুবককে আটক করে পুলিশ। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে তন্ময়ের লাশ উদ্ধার করা হয়।

তন্ময়ের বাবা বলেন, ‘হত্যাকারী যেই হোক, তাকে বিচারের আওতায় আনতে হবে।’

তন্ময়ের মা বলেন, ‘আমি ওদেরকে বলেছি, আমার ছেলের মোবাইল অফ হয়েছে, ওখানে কিছু আছে। আমি অনেক বলেছি তোরা এখানকার মাটি তন্ন তন্ন করে খোঁজ, আমার ছেলেকে এখানে পুঁতে রাখেনি তো! সেই জায়গাতেই তো পেল।’  

হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের গ্রেফতার করে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছে পুলিশ।

খালিশপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সরদার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘সাসপেক্ট আসামী, যার নাম সাইফুল ইসলাম গাজী- তাকে আমরা গ্রেফতার করি। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে সে স্বীকার করে হত্যাকাণ্ডের কথা। তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী আজ ভোর সাতটার সময় আনসারউদ্দীন সড়কের মাথায় মোস্তফা কামালের একটা ডোবা আছে, সেখান থেকে মৃতদেহ উদ্ধার করি।’    

নিহত কাজী তাসফিন হোসেন তন্ময় খুলনা মহানগরীর আইডিয়াল স্কুলের কম্পিউটার বিভাগের শিক্ষক ছিলেন।