SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon বাংলার সময়

আপডেট- ১১-০৮-২০১৮ ১১:৩২:২৯

চোখের সামনে পদ্মা গিলে খাচ্ছে ঘরবাড়ি

shariat-today

শরীয়তপুরে বেড়েই চলছে পদ্মানদীর ভাঙন। নতুন করে দু’টি উপজেলার অর্ধশতাধিক ঘর-বাড়ি বিলীন হয়ে গেছে। ভাঙন আতঙ্কে রয়েছেন দুই শতাধিক পরিবার। টেকসই বাঁধ নির্মাণ ও ত্রাণ সহায়তার দাবি জানিয়েছেন তারা। ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা করে সহায়তার আশ্বাস দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

চোখের সামনে নিমিষেই শেষ হয়ে যাচ্ছে সাজানো বাড়ি। তাকিয়ে দেখা ছাড়া কিছুই করার নেই নদী তীরবর্তী মানুষের। সহায় সম্বল হারিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন তারা।

শরীয়তপুরে ক্রমেই আগ্রাসী হয়ে উঠছে পদ্মা নদীর ভাঙন। নতুন করে নড়িয়া ও জাজিরা উপজেলার প্রায় ১৫ টি গ্রামের ৫২ টি বসতঘর নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। ভাঙন আতঙ্কে দিন কাটছে দু'শতাধিক পরিবারের। বাধ্য হয়ে ঘরবাড়ি ভেঙে নিরাপদ আশ্রয়ে ছুটছেন তারা।

নদী ভাঙন রোধে জরুরি ভিত্তিতে বাঁধ নির্মাণের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা।

 নড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সাইদুর রহমান বলেন, ‘এতদিনে বিল পাস হওয়া সত্ত্বেও আমাদের এখানে বেড়ি বাঁধ নির্মাণ হচ্ছে না।’  

তবে, সরকারি বরাদ্দ পেলে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সানজিদা ইয়াসমিন বলেন, যারা গৃহহীন হয়েছে তাদের জন্য শুকনো খাবার বিতরণের ব্যবস্থা করছি। এছাড়া তাদের বাড়ি বানানোর জিনিসপত্র আনার জন্য আবেদন জানাবো।’

চলতি বছরের জুন থেকে শুরু হওয়া পদ্মার ভাঙনে দু'টি উপজেলার ৩ হাজার ১শ’ পরিবার ভূমিহীন হয়েছে।