SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ১৪-০৬-২০১৮ ০৮:০৫:৪২

আঞ্চলিক মহাসড়কে পুলিশের টহল, কমেছে ডাকাতের উৎপাত

night-secu

ঈদে ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তায় সড়ক-মহাসড়কে ডাকাতি ঠেকাতে তৎপর পুলিশ। ঢাকা-রংপুর মহাসড়ক ও গাইবান্ধা-পলাশবাড়ি আঞ্চলিক মহাসড়কে রাতভর পুলিশের টহল জোরদার করা হয়েছে। চালকরা বলছেন, পুলিশের কঠোর নিরাপত্তা বলয়ের কারণে এবার যাত্রীদের নিরাপদে গন্তব্যে পৌঁছাতে পারছেন তারা।

ঈদ-পূজার মতো পার্বণগুলোকে কেন্দ্র করে গেলো বছরগুলোতে মহাসড়কে গাছ ফেলে যাত্রীদের সর্বস্ব লুটে নেয় ডাকাতরা।

কিন্তু এবারের চিত্র সম্পূর্ণ ভিন্ন। ডাকাতদের অত্যাচার-নির্যাতন থেকে চালক ও যাত্রীদের রক্ষায় সড়ক মহাসড়কে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা বলয় তৈরি করেছে পুলিশ। পুলিশের এমন পদক্ষেপে স্বস্তি প্রকাশ করেছেন চালকরা।

সুপার ভাইজার ও চালকরা জানান, এবারে ডাকাত-ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেনি।'

পুলিশ বলছে, এবার ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের গাইবান্ধা অংশে ডাকাতি প্রবণ এলাকা চিহ্নিত করে রাতভর বিশেষ টহলের ব্যবস্থা করায় কোন অপ্রীতিকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হচ্ছেনা তাদের।

ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহমুদুল হাসান বলেন, '১৩ কিলোমিটারের মত আঞ্চলিক সড়ক আছে, সেখানে আমাদের দুটো গাড়ি সারাক্ষণ থাকে।'

তবে জানমাল নিয়ে তেমন বিপত্তিতে না পড়লেও যাত্রী ছাউনি না থাকায় গভীর রাতে বাস থেকে নেমে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয় বলে অভিযোগ যাত্রীদের। আর পরিবহন সংশ্লিষ্টরা বলছেন,কর্তৃপক্ষকে একাধিকবার তাগিদ দিয়েও লাভ হয়নি।

ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের গোবিন্দগঞ্জের কাটাখালী, বালুয়া, সাদুল্লাপুরের বত্রিশ মাইল, ধাপেরহাট এবং পলাশবাড়ী-গাইবান্ধা আঞ্চলিক মহাসড়কের মহদিপুর, ঢোলভাঙ্গা, সাকোয়া ব্রীজ, মাঠের হাট ও বুড়ির ঘর নামক স্থান ডাকাতি প্রবণ এলাকা হিসেবে চিহ্নিত।