SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon খেলার সময়

আপডেট- ১৪-০৬-২০১৮ ০১:২৮:৪৩

শেষ মুহূর্তের অনুশীলনে ফুটবলাররা

portu-fra

প্রথম ম্যাচে মাঠে নামার আগে শিষ্যদের নিয়ে শেষ মুহূর্তের অনুশীলন করেছেন কোচরা। এদিকে, স্পেন দলের কোচ চলে যাওয়া নিয়ে সংবাদমাধ্যমের সামনে কথা বলেছেন পর্তুগিজ মিডফিল্ডার সিলভা। অন্যদিকে, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ নিয়ে কথা বলেছেন ফরাসী কোচ দিদিয়ের দেশম। এ সময় অলিভার জিরু’র ইনজুরি নিয়েও মন্তব্য করেন তিনি।

 

পর্তুগাল, ইউরোপের ব্রাজিল বলেই বেশি পরিচিত ফুটবল বিশ্বে। রুই কস্তা, লুইস ফিগো ও ডেকোদের নিয়ে সোনালী প্রজন্ম পার করলেও বিশ্ব ফুটবলে কখনোই পরাক্রমশালী দলের কাতারে ছিলোনা তারা। তবে সময় কেটে গেছে অনেক। ফার্নান্দো সান্তোসের হাতে পড়ে মাঝারী মানের এই দলটাই এখন ছড়ি ঘোরাচ্ছে বিশ্ব ফুটবলে।

২০১৬ তে ইউরো জয়ের পর থেকেই যেন পালটে গেছে তাদের সব কিছু। পেপে, সিলভা, কারিজমারা এখন স্বপ্ন দেখছে বিশ্ব জয়ের। আর এ স্বপ্ন যাত্রায় তাদের মূল সারথী পর্তুগীজ সুপারস্টার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তার পায়ের জাদুকরী ছোঁয়ায় ক্লাব ফুটবলের ইতিহাসে যা যা সম্ভব তার সবই জিতে নিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। এবার হয়তো পালা সেলেকাওদের।

প্রথম ম্যাচ ২০১০ বিশ্বকাপ জয়ী স্পেনের সঙ্গে। বৈশ্বিক টুর্নামেন্টে এর আগের ২ দেখায় লা ফিউরিয়া রোজাদের সঙ্গে হারতে হয়েছে সান্তোষ শিষ্যদের। তবে এবারের পরিস্থিতি কিছুটা ভিন্ন। বিশ্বকাপের দু'দিন আগেই কোচ হারা হয়েছে ইনিয়েস্তারা। সুযোগটা কাজে লাগাতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ সেলেকাওরা।

এদিকে শেষ দিকে এসে ইনজুরি থাবা বসিয়েছে ৯৮'র বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের শিবিরে। যদিও অলিভার জিরু'কে নিয়ে একেবারেই চিন্তিত নন দিদিয়ের দেশম। খেলোয়াড়ের পর, এবার কোচ হিসেবে বিশ্ব শিরোপা জয়ের ব্যাপারে কোন ছাড় দিতেই নারাজ এ ফরাসী।

তিনি বলেন, ফ্রান্সজিরু একটু অসুস্থ। তবে আমাদের প্রথম ম্যাচের আগে এখনো অনেক সময় বাকি আছে। আশা করি সব ঠিক হয়ে যাবে। আগামী ৪৮ ঘণ্টা আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

ব্লুজদের বিশ্বকাপ মিশন শুরু হবে সকারুদের সঙ্গে ম্যাচ দিয়ে। সে ম্যাচের জন্য ইতোমধ্যে দলকে গুছিয়ে এনেছেন দেশম। এমনকি কোন ফরমেশনে খেলবেন তাও নাকি চূড়ান্ত করে ফেলেছেন তিনি।

তিনি বলেন, আমি জানি অস্ট্রেলিয়ানরা ৩ জন ডিফেন্ডার নিয়ে খেলে থাকে। এ ম্যাচেও হয়তো তারা এভাবেই খেলবে। আমিও তাদের আটকানোর উপায় বের করে রেখেছি। আমার স্ট্রাইকাররা প্রস্তুত আছে।

এদিকে, বিশ্বকাপে অংশ নিতে এখনো একে একে রাশিয়ায় আসছে বিভিন্ন দেশের খেলোয়াড়রা।