SomoyNews.TV

শিক্ষা সময়

আপডেট- ২৫-০৫-২০১৮ ০৩:৩০:৫০

উচ্চ শিক্ষায় বিদেশ যাওয়ার হার বাড়ছে

edu-abroad-jpg-ed

দেশে সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যা বাড়লেও শিক্ষার্থীদের উচ্চ শিক্ষা নিতে বিদেশ যাওয়ার হারও প্রতি বছর বাড়ছে। ইউনেস্কোর সবশেষ পরিসংখ্যান অনুসারে যা গত বছরের তুলনায় দ্বিগুণ এবং দুই বছরের ব্যবধানে প্রায় তিনগুণ বেড়েছে। এজন্য দেশে মানসম্মত শিক্ষা ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অভাবকে দায়ী করে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিদেশে শিক্ষার নামে মেধার পাশাপাশি বৈধ ও অবৈধ পথে বিরাট অংকের অর্থও দেশের বাইরে চলে যাচ্ছে। শিক্ষার মান বাড়ানোসহ প্রয়োজনীয় অন্যান্য পদক্ষেপের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের বিদেশমুখীতা কমানোর পরামর্শ দেন তারা। আর শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ জানালেন, উচ্চশিক্ষাসহ দেশের সার্বিক শিক্ষার মান উন্নয়নে নানা উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

বর্তমানে দেশে ৪৫ টি সরকারি ও ১০১ টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থাকলেও উচ্চ শিক্ষা নিতে বিদেশ যাওয়ার প্রবণতা ক্রমেই বাড়ছে। জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি বিষয়ক সংস্থা-ইউনেস্কোর সবশেষ পরিসংখ্যান অনুসারে উচ্চশিক্ষায় শিক্ষার্থীদের বিদেশমুখীতা গত বছরের তুলনায় দ্বিগুণ এবং দুই বছরের ব্যবধানে প্রায় তিনগুণ বেড়েছে।

২০১৪ সালে ২৪ হাজার, ২০১৫ তে ৩৩ হাজার শিক্ষার্থী বিদেশে গেলেও ২০১৬ -তে এ সংখ্যা বেড়ে হয় ৬০ হাজারের বেশি। দেশের শিক্ষা ব্যবস্থার প্রতি আস্থাহীনতার পাশাপাশি বিদেশে মানসম্মত লেখাপড়াসহ নানা সুযোগ সুবিধার কারণেই পড়ালেখার জন্যে দেশের বাইরে যাবার এই প্রবণতা।

একজন শিক্ষার্থী ফারিয়া বারেক বিন্দু বলেন, 'চায়নাতে যে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়গুলো আছে সেগুলো দেশের চেয়ে অনেক ভালো।'

প্রতারণা এড়িয়ে বিদেশে উচ্চশিক্ষার সার্বিক প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার পাশাপাশি, নানা সুযোগ সুবিধা পেতে শিক্ষার্থীদের সচেতন থাকার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।

সানজেন ইন্টারন্যাশনাল ব্যবস্থাপনা পরিচালক মনিরুল হক বলেন, 'বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হবার পর একটা চিঠি আসবে। তাতেই সব লেখা থাকবে। সেটায় শিক্ষার্থীদের ভালো করে দেখতে বলি আমি।'

দেশেই মানসম্মত শিক্ষা ও চাকুরীর সুযোগ সৃষ্টি করা গেলে শিক্ষার্থীদের বিদেশমুখীতা কমানো সম্ভব বলে মনে করেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নান।

তিনি বলেন, 'শিক্ষার্থীদের বাইরে পড়াশোনা যাওয়ার কারণে বিরাট একটা টাকার অংক বাইরে চলে যাচ্ছে। এটা চাইলে বন্ধ করতে পারবো না। তবে কমিয়ে আনতে পারবো।'

তবে, দেশেই মানসম্মত শিক্ষার সুযোগ রয়েছে জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বিত্তবান আর বিদেশে স্থায়ীভাবে বসবাসরত বাংলাদেশিদের স্বজনদের মধ্যেই বিদেশে পড়ালেখার প্রবণতা বেশি।

উচ্চ শিক্ষায় আন্তর্জাতিক মান বজায় রাখতে ভবিষ্যতে আরও পদক্ষেপ নেয়ার কথা জানান শিক্ষামন্ত্রী।