SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ২৯-০৪-২০১৮ ০৬:২৬:৫৩

মহাসড়কে ‍মৃত্যুর মিছিল, ৩ মাসে গেছে ৯০০ প্রাণ

vlcsnap-2018-04-29-06h14m07

কিছুতেই নিয়ন্ত্রণে আসছে না মহাসড়কে দুর্ঘটনা। এক্সিডেন্ট রিচার্স ইনস্টিটিউট এর তথ্য মতে চলতি বছরের প্রথম তিনমাসে মহাসড়কে দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন প্রায় ৯০০ জন। দুর্ঘটনা রোধে সচেতনতার পাশাপাশি হাইওয়ে পুলিশের নজরদারি বাড়ানোর পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের। তবে হাইওয়ে পুলিশ বলছে, অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে রয়েছে পরিস্থিতি।


খবরের কাগজ বা টেলিভিশনের স্ক্রলে তাকালেই চোখ পড়ে দুর্ঘটনার খবর। প্রতিনিয়তই দেশের সড়ক-মহাসড়কের কোথাও না কোথাও ঘটছে দুর্ঘটনা। এক্সিডেন্ট রিচার্স ইনস্টিটিউটের গবেষণায় দেখা যায়, চলতি বছরের প্রথম তিন মাসে দেশের মহাসড়কে দুর্ঘটনা ঘটেছে ৬৭৪টি। এতে প্রাণ হারিয়েছেন ৮৯১ জন, আহত হয়েছে ১ হাজার ৭১০ জন।

আর ২০১৭ সালে ২ হাজার ৬৫টি দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন ৩ হাজার ৩৯৩ জন। এতে আহত হয়েছে প্রায় ৭ হাজার। সেই হিসেবে এ বছর দুর্ঘটনা বেড়েছে ২ শতাংশ। মৃত্যুর হার বেড়েছে ৬ শতাংশ।

সংস্থাটির মতে মূলত চালকের অদক্ষতা, অসচেতনতা আর যথাযথ মনিটরিং-এর অভাবেই নিয়মিত ঘটছে দুর্ঘটনা।

এক্সিডেন্ট রিচার্স ইনস্টিটিউটের সহকারি অধ্যাপক মো. সাইফুল নেওয়াজ বলেন, কোনো চালক পরীক্ষা ছাড়া যেন লাইসেন্স না পায় সে বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখতে হবে। একইসঙ্গে টেকনোলজি স্পিড ক্যামেরা বসাতে হবে।

পরিস্থিতির উত্তরণে হাইওয়ে পুলিশের দক্ষতা বাড়ানোর তাগিদ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

যোগাযোগ বিশেষজ্ঞ সালেহ উদ্দিন বলেন, প্রত্যেকটি দেশে হাইওয়ের জন্য স্পেশাল পুলিশ অফিসার থাকে। তাদের ট্রেনিং প্রাপ্ত হতে হবে, সেই সঙ্গে প্রযুক্তি দিয়ে তাদের সজ্জিত করতে হবে, যাতে করে অনেক দূর থেকে তারা হাইওয়ে কন্ট্রোল করতে পারেন।

তবে বেশ কিছু পদক্ষেপে দুর্ঘটনার হার অনেকটাই কমিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে বলে দাবি করে হাইওয়ে পুলিশের ডিআইজি আতিকুল ইসলাম বলেন, দুর্ঘটনার কারণ বিশ্লেষণ করে সেগুলোর যাতে পুনরাবৃত্তি না হয় সেদিকে আমরা নজর বাড়িয়েছি। এই দুর্ঘটনার হার শূণ্যে নামিয়ে আনতে কাজ করে যাচ্ছি আমরা।

এক্ষেত্রে সচেতনার প্রতিও গুরত্ব দিচ্ছেন তিনি।