SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ২৬-০৪-২০১৮ ০৩:০১:৩৬

রেল লাইন দখল করে অস্থায়ী বাজার, বাড়ছে দুর্ঘটনা

rail

রেল লাইন দখল করে একের পর এক গড়ে উঠছে অস্থায়ী সব বাজার। এসব বাজারে অবাধ চলাফেরা আর ক্রেতা-বিক্রেতার সমাগমের ফলে হর হামেশায় দুর্ঘটনা। লাইনের উপর অবাধ চলাফেরার কারণে প্রতি বছর মারা যাচ্ছে অন্তত ৪০০ মানুষ । অবৈধ এসব বাজার উচ্ছেদে মাঝে মধ্যে অভিযান পরিচালনা হলেও পরিস্থিতির বদল হচ্ছে না। পর্যবেক্ষকরা বলছেন, ঈদের আগে রেল লাইনের উপর গড়ে ওঠা এসব বাজার উচ্ছেদ করা না হলে বাড়তে পারে দুর্ঘটনা। কার্যকরী উদ্যোগ নেয়ার আশ্বাস রেলমন্ত্রীর।

 

রাজধানীর কারওয়ান বাজার। ক্রেতা আর বিক্রেতার হাক ডাকে মুখর এই মাছের বাজার, রেল লাইনের উপর। লাইনের উপরই সাজানো সারি সারি মাছের হাড়ি। ক্রেতা-বিক্রেতা সবাই দাঁড়িয়ে লাইনের উপর। চার লেনের এই রেল পথের দু'ধারই মুখর থাকে প্রতিদিন। ট্রেন আসলেই শুরু হয় দৌড় ঝাঁপ, এদিক সেদিক ছুটাছুটি। ফলে মাঝে-মধ্যেই ঘটছে প্রাণহানির মতো ঘটনা।

একই রকম চিত্র জুরাইনেও। সরু রেল লাইনের দু পাশেই গড়ে উঠেছে সবজী বাজার। লাইনের উপরই বসেছে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দোকান। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত জমজমাট থাকে এই বাজার। রেলওয়ে পুলিশ বলছে, কমলাপুর থানা এলাকায় এমন বাজার আছে প্রায় অর্ধশত যার মধ্যে ঝুঁকিপূর্ণ অন্তত পনেরটি।

তারা বলছে, বাজারকে কেন্দ্র করে লাইনের উপর অবাধ যাতায়াত, আতঙ্কিত অবস্থায় পার হতে গিয়ে ও লাইনের উপর উন্মুক্ত চলাচলের কারণে গত পাঁচ বছরে মারা গেছে প্রায় দুই হাজার মানুষ।

পর্যবেক্ষকরা বলছেন, ঈদকে কেন্দ্র করে আরও জমজমাট হয়ে ওঠে এসব বাজার। ফলে বেড়ে যায় দুর্ঘটনার আশংকা, তাই রেল পথে ঈদ যাত্রা নির্বিঘ্ন করতে অবৈধ এসব বাজার উচ্ছেদে এখন থেকেই কার্যক্রম শুরুর পরামর্শ তাদের।

বুয়েটের দুর্ঘটনা কেন্দ্রের সহকারী অধ্যাপক কাজী সাইফুন নেওয়াজ বলেন, ঈদের সময় সাধারণত বাজার বৃদ্ধি পায়। এই বাজারগুলো রেল লাইনের কাছে হলে দুর্ঘটনার পরিমাণ বেড়ে যায়। এখন থেকেই আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোকে সতর্ক হতে হবে এবং বাজারগুলোকে সরাতে হবে। 

এসব বাজারের সাথে প্রভাবশালী ব্যক্তিরা জড়িত বলে স্থায়ী উচ্ছেদ সম্ভব হচ্ছেনা বলে জানান রেলমন্ত্রী। তবে কার্যকর উদ্যোগ নেয়ার আশ্বাস তার।

রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক বলেন, অনেকেই নিজ দায়িত্বে রেল লাইনের পাশে অস্থায়ী বাজার বসায়। এটা আইনে নেই এবং ঠিক নয়। যারা আইন মানে না তাদের আমরা উচ্ছেদ করছি, করে যাব।