SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ২১-০৪-২০১৮ ০৫:৪৯:৪৭

অবহেলায় নষ্ট হয়ে গেলো বিআরটিসির কোটি টাকার গাড়ি

ctg-brtc

অযত্নে অবহেলায় পড়ে থেকে চট্টগ্রামে নষ্ট হয়ে গেছে কোটি কোটি টাকার বিআরটিসির গাড়ি। দরপত্র আহবান করলেও নানা জটিলতায় এসব গাড়ি বিক্রি হয়নি। মেরামত কারখানায় দীর্ঘদিন ধরে পড়ে জরাজীর্ণ হতে হতে একতলা ও দোতলা ৩০টির বেশি গাড়ি শেষ পর্যন্ত স্ক্যাপে পরিণত হয়েছে।

চট্টগ্রাম নগরীর বালুচড়ায় বিআরটিসির মেরামত কারখানায় সারিসারি ভাবে পড়ে আছে কোটি কোটি টাকার গাড়ি। কোনটার যন্ত্রাংশ আবার কোনটার নষ্ট হয়ে গেছে চাকা। রোদ, বৃষ্টি, ঝড়ে খোলা আকাশের নিচে পড়ে থেকে বাসগুলো ক্রমান্বয়ে স্ক্যাপে পরিণত হলেও দেখার কেউ নেই।

বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মো. মোজাফ্ফর হক চৌধুরী বলেন, বিআরটিসি সার্ভিসটি মানুষের আশা, আকাঙ্ক্ষা পূরণের জায়গায় বার-বার ব্যর্থ হয়েছে।

বিভিন্ন প্রকল্পের আওতায় চীন, কোরিয়া ও ভারত থেকে আনা হয়েছে বিভিন্ন মডেলের বাস। কিছু বাস মেরামতের অভাবে আবার কিছু নষ্ট হয়ে গেছে মেয়াদ শেষ হওয়ায়। সময় মতো সার্ভিস ও  সঠিক তদারকির না থাকায়  সরকারি সম্পদের এমন বেহাল অবস্থা বলে জানান এই বিশেষজ্ঞ।

চুয়েটের যান্ত্রিক প্রকৌশল বিভাগের বিভাগীয় প্রধান  প্রফেসর ড. জামাল উদ্দিন আহমদ বলেন, এই খানে যারা দায়িত্ব রয়েছেন। তারা সঠিকভাবে এই গুলোর যন্ত্রগুলো দেখাশুনার না করার কারণে বাসগুলো নষ্ট হয়ে গেছে।

বিআরটিসি বহরে যুক্ত হওয়া গাড়িগুলোর মেয়াদ থাকে ৮ থেকে ১০ বছর।  ডিপোতে  এখনো রয়েছে ১৯৯৭ সালে কেনা বাসও। যেগুলো মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে ১০ বছর আগেই। সদর দপ্তরের নির্দেশনা ছাড়া বিক্রির জন্য দরপত্র আহবান করা সম্ভব নয় বলে জানান এই কর্মকর্তা।

চট্টগ্রাম বিআরটিসির ডিপো ম্যানেজার অপারেশন মোস্তাফিজুর রহমান ভূঁইয়া বলেন, সদর দপ্তরের নির্দেশনা পেলে আমরা সবকিছু্ তৈরি করে হেড অফিসে পাঠিয়ে দিই। সেখান থেকে নির্দেশনা আসলে দরপত্র আহ্বান করা যাবে।

বিআরটিসি চট্টগ্রাম বিভাগীয় ডিপোর ৭৬টি গাড়ির মধ্যে সচল আছে ৪৬টি। ৩০টি গাড়ি নষ্ট হয়ে পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে আছে।