SomoyNews.TV

বিশ্বকাপের সময়

আপডেট- ০৯-০৪-২০১৮ ২৩:০৭:২৬

বিশ্বকাপের ভেন্যু পরিচিতি: কালিনিনগ্রাদ স্টেডিয়াম

kali4

রাশিয়ায় তৈরি হচ্ছে দ্বিতীয় অ্যালিয়েঞ্জ অ্যারেনা। জার্মানির এই বিখ্যাত স্টেডিয়ামের আদলে প্রায় ২৫৭ মিলিয়ন ইউরো খরচায় স্টেডিয়ামটি নির্মিত হচ্ছে। যার নাম কালিনিনগ্রাদ স্টেডিয়াম। ফিফা বিশ্বকাপের মোট ৪টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে এখানে। অত্যাধুনিক নিরাপত্তা বেষ্টিত এই ভেন্যুর বিস্তারিত থাকছে এবারের প্রতিবেদনে।

 

বাকি এখনো মাস দু'য়েক। কিন্তু, বিশ্বজুড়ে আলোচনা তুঙ্গে। ফিফা বিশ্বকাপের প্রভাবটাই যে এমন। গোটা দুনিয়ার সমর্থকদের আচ্ছন্ন করে রাখে।

অনেকটা জার্মান ক্লাব বায়ার্ন মিউনিখের হোম ভেন্যু অ্যালিয়েঞ্জ অ্যারেনার অনুকরণেই নির্মিত হচ্ছে রাশিয়ার কালিনিনগ্রাদ স্টেডিয়াম। ১১ বিলিয়ন রুবল ব্যয়ে নির্মিত এই ভেন্যুর মূল অবকাঠামোর কাজ শুরু হয় ২০১৫ সালে। বিশ্বকাপের সময় ৩৫ হাজারের বেশি আসন সংখ্যা থাকলেও, আসর শেষ হলে তা কমিয়ে ২৫ হাজারে নিয়ে আসা হবে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের সবচেয়ে নিকটবর্তী এই ভেন্যুটি পোল্যান্ডের সীমানা থেকেও মাত্র ৪৫ কিলোমিটার দূরে।

আসন্ন বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বের ৪টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে কালিনিনগ্রাদে। গ্রুপ জি'তে ইংল্যান্ড ও বেলজিয়ামের মধ্যকার হাইভোল্টেজ ম্যাচটি আছে আকর্ষণের কেন্দ্রে।

গ্রুপ পর্বের আরো ৩টি ম্যাচ হবে এখানে। এছাড়া, রাশিয়ান ফুটবল ন্যাশনাল লিগের খেলাও অনুষ্ঠিত হবে এই ভেন্যুতে।

স্ক্যান্ডিনেভিয়ান অঞ্চলের কাছাকাছি বাল্টিক সাগরের তীরে ওকতিয়াব্রিস্কি দ্বীপ। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর যেটি সোভিয়েত ইউনিয়নের দখলে আসে। অ্যারেনা বালতিকা তথা কালিনিনগ্রাদ রাশিয়ার ঐতিহাসিক এই দ্বীপেরই স্টেডিয়াম। রণাঙ্গনের সেই বারুদ এখন নেই। কিন্তু, যুদ্ধের যে ইতিহাস বুকে ধারণ করে আছে ওকতিয়াব্রিস্কি, সেখানে গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ ফুটবল বিশ্বকাপের যুদ্ধটাও জমে উঠুক, সেটাই প্রত্যাশা দর্শকদের।