SomoyNews.TV

Somoynews.TV icon মহানগর সময়

আপডেট- ১৯-০২-২০১৮ ০৩:৫৩:৪৭

বিদেশি চ্যানেলের প্রভাবে ভিনদেশী ভাষায় আসক্ত হচ্ছে শিশুরা

vasa-final-jpgedt

স্যাটেলাইটের যুগে বিদেশী চ্যানেলের কার্টুন আর সিরিয়াল দেখে মায়ের ভাষা ঠিকমতো শেখার আগেই ভিনদেশী ভাষা শিখছে আমাদের শিশুরা। ভিনদেশী সংস্কৃতির উপর ভিত্তি করে বানানো সেই সব কার্টুন দেখে বিদেশী সংস্কৃতির প্রতি হচ্ছে তারা। পর্যবেক্ষকরা বলছেন, গ্রামের শিশুদের অপেক্ষা শহরের শিশুদের মধ্যে ভয়বাহ রকম ভাবে বাড়ছে বিদেশী ভাষার প্রীতি। এমন অবস্থা চলতে থাকলে মাতৃভাষা যেমন সংকটে পড়বে তেমনি হুমকির মুখে পড়বে চিরায়ত বাংলা সংস্কৃতি।

মিফতাহুল জান্নাত মাহির। বয়স মাত্র চার। গতমাসে শুরু তার স্কুলে যাওয়া। বয়স যখন দুই- আড়াই তখন থেকেই আসক্ত হিন্দি কার্টুন আর ভিনদেশি সিরিয়ালে। সারাদিন এ চ্যানেল ও চ্যানেল ঘুরে অন্তত ডজন খানেক ভিনদেশি কার্টুন দেখা হয় তার।

তখনও মাহিরের মুখে আধো আধো বাংলা বুলি। গুটি কয়েক বাংলা শব্দের সাথে পরিচয় হতে না হতেই দিব্যি হিন্দিতে কথা বলা শুরু করে মাহির।

মাহিরের বাবা বলেন, ওর যখন আধো আধো কথা বলা শুরু তখন থেকেই ওর হিন্দি বলা।'

মাহিরের মা বলেন, 'ছোট থেকেই বলতাম বাংলা বলতে। বলতো না। যদিও এখন অনেকটাই পরিবর্তন হয়েছে।'

একই রকম অবস্থা আইয়ান হক রামিম ও রাইদা নওয়ার মাইশা দুই ভাই বোনেরও। একজনের স্কুলে যাওয়া শুরই হয়নি, অন্যজন সবেমাত্র কেজি-টুতে। চাকুরে বাবা-মার এই শিশুদের সময় কাটে ভিনদেশী কার্টুন দেখে। কখনও টিভি কখনওবা মোবাইল ইউটিউবের কার্টুন দুনিয়াও মুখস্থ তাদের।

এখানেই শেষ নয়, প্রিয় কার্টুন চরিত্রকে নিজেদের মাঝে ধারণ করে তারা।

অভিভাবক বলেন, সে কার্টুন চরিত্রে চলে যায়।

বিশিষ্টজনরা বলছেন, গ্রামের তুলনায় শহরের শিশুদের মাঝে ভিনদেশী ভাষা ও সংস্কৃতির আগ্রাসন ভয়াবহ রকম ভাবে বাড়ছে।

বিশিষ্টজন একজন বলেন, 'আমি আতঙ্কের সহিতই বলবো আমাদের শিশুরা পুরোপুরিভাবে অপ জিনিসের মধ্যে বড় হয়ে আমাদের অস্বীকার করবে।'

শিক্ষাবিদ ফজলুল হক বলেন, 'বাংলা ভাষা বিকাশশীল থাকবে না। বিকৃতিশীল হয়ে যাবে।'

এর প্রভাব থেকে শিশুদের রক্ষা করতে ক্ষতিকর ভিনদেশী চ্যানেল বন্ধসহ দেশীয় গণমাধ্যমে মান সম্মত শিশুতোষ অনুষ্ঠান নির্মাণের পরামর্শ দিচ্ছেন তারা।