tripura-trans-ed

বাংলাদেশের ট্রানজিট সুবিধা ব্যবহার করে ভারতের উত্তর পূর্ব অঞ্চলের অর্থনৈতিক প্রবেশদ্বার বা গেটওয়ে হতে চায় ত্রিপুরা। সেক্ষেত্রে আগরতলার সাথে বাংলাদেশের যোগাযোগ ব্যবস্থাসহ কানেকটিভিটির যতো উন্নয়ন ঘটবে ততোই ব্যবসার প্রসার হবে বলে মনে করেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী। অন্যদিকে পণ্যবাহী গাড়ী সরাসরি ত্রিপুরা পর্যন্ত নিয়ে যাওয়ার সুযোগ চান বাংলাদেশী ব্যবসায়ীরা।

ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের রাজধানী আগরতলা থেকে কলকাতার দূরত্ব ১৭শ কিলোমিটার। আর চট্টগ্রামের দূরত্ব মাত্র ১শ ৪০ কিলোমিটার। ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে নেই কোন নৌ-বন্দর। ভারতের মূল ভূখণ্ডের সাথেও যোগাযোগ ব্যবস্থা অনেক বেশি দুর্বল। সে ক্ষেত্রে চট্টগ্রাম বন্দরকে ব্যবহার করে অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে যেতে চায় ত্রিপুরা। সে সাথে বাংলাদেশের ট্রানজিট সুবিধা ব্যবহার করে ভারতের উত্তর পূর্ব অঞ্চলের  অর্থনৈতিক প্রবেশদ্বার হতে চায় আগরতলা

ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার বলেন, 'চট্টগ্রাম বন্দর থেকে শুরু করে ঢাকা সহ গোটা বাংলাদেশের সঙ্গে আমাদের যোগাযোগের ব্যবস্থা দারুণ উন্নতির শিখরে যাবে। যেটা বাংলাদেশের বর্তমান সরকারও চান। এই ত্রিপুরায় হবে আমাদের উত্তর পূর্বাঞ্চলের সিংহদুয়ার।'

ত্রিপুরা চেম্বার অব কমার্সের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০১৬  সালে বাংলাদেশ ত্রিপুরায় ৩শ ৮৩ কোটি টাকার পণ্য রপ্তানি করে। ত্রিপুরা বাংলাদেশে রপ্তানি করেছে ১ কোটি টাকারও কম। এ কারণে বাংলাদেশের সাথে নৌ, রেল, সড়কপথের মাধ্যমে যত দ্রুত কানেকটিভিটি বাড়বে ততো আমদানি-রপ্তানি বাড়বে বলে মনে করেন ত্রিপুরার ব্যবসায়ী ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা।

ত্রিপুরা চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি এম এল দেবনাথ বলেন, 'উৎপাদন বেশি হলে আমরা যেমন বাংলাদেশকে দিতে পারি। বাংলাদেশ থেকেও তা এই অঞ্চলে রপ্তানি করা যেতে পারে। এতে করে উভয় দেশের অর্থনীতির পক্ষে ভালো হবে।'

আগরতলা প্রেসক্লাবের সভাপতি সত্যব্রত চক্রবর্তী বলেন, 'কানেকটিভিটি হলে সুযোগ বাড়বে। তখন এরিয়া অনুযায়ী ব্যবসা বাড়বে। এর ফলে অন্যান্য জায়গা থেকে পণ্য আসতে পারবে।'

বাংলাদেশের এ ব্যবসায়ী মনে করেন, এক্ষেত্রে বাংলাদেশ থেকে পণ্যবাহী গাড়ী যদি সরাসরি ত্রিপুরায় যেতে পারে তাহলে খরচ অনেক কম পড়বে, লাভবান হবে সবাই।

তিনি বলেন, 'আমরা যদি সরাসরি খুচরা পর্যায়ে গাড়ি গুলো পৌছাতে তাহলে খরচ অনেক কমে যাবে।'

১৯৯৫ সাল থেকে ছোট পরিসরে ভারতের ত্রিপুরার সাথে বাংলাদেশের আমদানি রপ্তানি বাণিজ্য শুরু হয়।

en.Somoynews.tv